Jump to content

BDPIPS - Forex Bangladesh

MATIC কয়েন ২০% ক্র্যাশ হতে পারে

গত ১০দিন MATIC একটি নির্দিষ্ট স্তরে মুভমেন্ট করছে। এর ফলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে, কয়েনটি বিয়ারিশ মুভমেন্টে যেতে পারে যেহেতু ক্রিপ্টো মার্কেট বিয়ারিশ অবস্থানে মুভমেন্ট করছে। বিশেষ করে কয়েনটি বর্তমান সাপোর্ট লেভেল অতিক্রমে করে নিচে নামতে সক্ষম হতে পারে। MATIC ৩ মাসেরও বেশি সময় ধরে ০.৭২ থেকে ১.০৫৫ ডলারের মধ্যে মুভমেন্ট করছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, কয়েনটি খুব শীঘ্রই রেঞ্জটি ব্রেকে সক্ষম হবে এবং বিয়ারিশ অবস্থান শক্তিশালী হবে। MATIC কয়েনের ক্ষেত্রে ০.৫৯ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। কয়েনটি

USDC মার্কেটক্যাপ ৮৩ দিনে ৬.৭ বিলিয়ন ডলার কমেছে

জুনের মাঝামাঝি সময়ে স্টেবলকয়েন অ্যাসেট টিথার (USDT) ও USDC দুই মাসের মার্কেট ক্যাপ থেকে ১২ বিলিয়নের বেশি ডলার কমেছে। একই সময়ে USD (USDC) কয়েনের মার্কেট ক্যাপ বেড়েছে ৯%। গত ৮৩ দিনের হিসেবে অনুযায়ী, USDC কয়েনের মার্কেট ক্যাপ ৭ জুলাইয়ের পরবর্তীতে ৬.৭ বিলিয়ন ডলার কমেছে। আটিকেল লেখার সময় ৭ জুলাই USDC এর মার্কেট ক্যাপ প্রায় ৫৫.৫২ বিলিয়ন থাকলেও বর্তমানে কমে ৪৮.৮২ বিলিয়নে এসেছে। USDC কয়েনের মার্কেট ক্যাপ কমার পেছনে ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ ওজিরেক্স ও বাইনান্সের ভূমিকা কাজ করেছে। Binan

পাউন্ডের প্রাইস কমায় ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের উদ্যোগ

ব্যাংক অব ইংল্যান্ড বুধবার প্রকাশ করেছে ব্যাংক অস্থায়ীভাবে দীর্ঘ মেয়াদে বন্ড বাই শুরু করবে। গত দুদিন আগে পাউন্ড ডলারের বিপরীতে সর্বকালের নিন্ম পর্যায়ে চলে আসে। আজ বৃহস্পতিবার মার্কিন ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ড কিছুটা রিকভার করে ১.০৭৭-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ব্রিটেনে সরকারি বন্ডের ফলন সাম্প্রতি সময়ে বেড়ই চলেছে। মার্কিন ট্রেজারি বন্ডের মতো একই অস্থিরতায় ভুগছে দেশটি। ব্রিটেনে ১৯৫৭ সালের পর বন্ড সবথেকে বেশি বেড়েছে। বুধবার এক বিবৃতিতে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলে, ব্যাংক পরিস্থিতি খুব কাছ

৫০-EMA গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট  হতে পারে USDJPY

বুধবার USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমলেও আজ বৃহস্পতিবার বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১৪৪.৭১-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। বুধবার পেয়ারের প্রাইস কমে সর্বনিন্ম ১৪৩.৯০-তে গিয়েছিলো। এক ঘন্টার চার্ট অনুযায়ী, পেয়ারটি ১৪৪.৪০-১৪৪.৯০ অতিক্রমে সক্ষম হলে আপ-ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৫০ পিরিয়ড এক্সোনশিয়াল মুভিং অ্যাভারেজ (EMA) অনুযায়ী ১১৩.৮০ প্রাইসে একটি সাপোর্ট লক্ষ্য করা যাচ্ছে। চার্টে লক্ষ্য করে দেখা যাচ্ছে, বেশ কয়েকবার USDJPY ৫০-EMA লেভেল স্পর্শ করলেও পরবর্তীতে পুনরায় প্রাইস বৃদ্

ব্রিটিশ GDP প্রভাবিত করতে পারে GBPUSD

আজ বৃহস্পতিবার ইউরোপিয়ান সেশনের পূর্বে GBPUSD পেয়ারের প্রাইস কমে ১.০৭৭০-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। আর্থিক মার্কেটের স্থিতিশীলতা আনতে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মাধ্যমে বন্ড ক্রয়ের আশ্চর্যজনক পদক্ষেপ ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস কমাতে সহায়তা করছে। ব্রিটিশ পাউন্ডের মুভমেন্টের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় প্রান্তিকের জিডিপি রিপোর্ট গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, দ্বিতীয় প্রান্তিকে জিডিপি -০.১% এ অপরিবর্তনীয় থাকতে পারে। বাৎসরিক ব্যবধানে ২.৯%-এ অপরিবর্তনীয় থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আজকের সেশ

মার্কিন GDP রিপোর্টের পূর্বে EURUSD-এর প্রাইস কমছে

বুধবার EURUSD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধির পরবর্তীতে আজ বৃহস্পতিবার কমে ০.৯৬৮৭ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইউরোর প্রাইস কমে ২০ বছরের সর্বনিন্মে গেলেও বুধবার গত ছয় মাসের মধ্যে প্রথমবারের মতো উল্লেখযোগ্য দৈনিক বৃদ্ধি অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও ইউরোর প্রাইস কমার পেছনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর রাজস্ব পরিকল্পনা দেশটির ইকোনমিক কর্মক্ষমতা পুনরুদ্ধার করার জন্য ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের অবস্থানকে দায়ী করা হচ্ছে। ইউরো ও ব্রিটিশ পাউন্ড বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিচ্ছে, যা ইউরোর প্রাইস কমা

চতুর্থ প্রান্তিকে বিটকয়েনের বিয়ার মার্কেট শেষ হবে

বিটকয়েনর প্রাইস ২০ হাজার ডলারের নিচে আসায় নতুন করে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উদ্বেগ শুরু হয়েছে। ২৮ সেপ্টেম্বর বিটকয়েনের প্রাইস কমে নতুন সাপ্তাহিক সর্বনিন্ম প্রাইস ছুঁয়েছে। গতকাল কয়েনের প্রাইস কমে সর্বনিন্ম ১৮.৪৬১ ডলারে নেমে এসেছিলো। যা আগের দিনের তুলনায় ২ হাজার ডলার কমেছিলো। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, চতুর্থ প্রান্তিকে বিটকয়েনের পুনরুদ্ধার আশা করা হলেও বর্তমানে তা সম্ভব হচ্ছে না। চতুর্থ প্রান্তিকে বিটকয়েনের বুলিশ আশা করা হলেও বাস্তবিকপক্ষে কমতে শুরু করেছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, বিটকয়েনের প্

খুব শীঘ্রই EURJPY পেয়ারের প্রাইস কমে ১৩৭.৩৬-তে যেতে পারে

চলতি সপ্তাহে বেশ কয়েকদিন EURJPY পেয়ারের প্রাইস কমছে। বর্তমানে ইউরোপিয়ান সেশনে পেয়ারটি ১৩৮.৩০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, বর্তমানে পেয়ারের প্রাইস কমে ১৩৭.৩৬-তে যেতে পারে। ২৬ সেপ্টেম্বর পেয়ারের প্রাইস কমে সর্বনিন্ম ১৩৭.৩৬-তে গিয়েছিলো। যা সেপ্টেম্বরের সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল। ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে এক্ষেত্রে ২০০ দিনের SMA অনুযায়ী ১৩৭.৭১ সাপোর্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। EURJPY ডেইলি চার্ট

ক্রিপ্টোকারেন্সি লুনার প্রতিষ্ঠানের ৩,৩১৩ বিটকয়েন ফ্রিজ করার চেষ্টা চলছে

টেরাফর্ম ল্যাবসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা কওন ডো-হিউং এর ৩,৩১৩ টি বিটকয়েন দক্ষিণ কোরিয়ার ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জ কুকয়েন ও ওকেক্স ফ্রিজ করার চেষ্টা করছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় কওনের গ্রেপ্তার পরোয়ানা জারি হওয়ার পরেই কারেন্সিগুলো ট্রেডিং প্ল্যাটফার্মে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল জেলার অফিসের একজন কর্মকর্তা ব্লুমবার্গকে নিশ্চিত করেছে ৩,৩১৩টি বিটকয়েন হিমায়িত করার জন্য দুটি ক্রিপ্টোকারে এক্সচেঞ্জকে অনুরোধ পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতারী পরোয়ানা যোগ হওয়ার পরে লুনা প্রতিষ্ঠানের মালিককে পাওয়া

বুলিশ চ্যানেলের মাঝামাঝি USDCHF

মঙ্গলবার USDCHF পেয়ারের প্রাইস কমলেও আজ বুধবার পূর্বের দিনের তুলনায় বেশি বৃদ্ধি পেয়ে পেয়ারটি পাঁচ সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে পেয়ারটি ৩.৫ মাসের সর্বোচ্চ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। পেয়ারটি ০.৩০% বৃদ্ধি পেয়ে ০.৯৯৫০-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকের সর্বোচ্চ প্রাইস ০.৯৮৬০-৭০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। বর্তমানে পেয়ারটি বুলিশ চ্যানেলের মধ্যে অবস্থান করছে। এক্ষেত্রে প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। আপট্রেন্ড অব্যাহত থেকে পেয়ার ০.৯৯৬

Tweezer Bottom তৈরি করেছে NZDUSD

NZDUSD পেয়ারটি দুই বছরের সর্বনিন্ম প্রাইসে Tweezer Bottom তৈরি করেছে। টোকিও সেশনে ০.৫৫৮০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। সাধারণ ট্যুইজার বটমের গঠন একটি বিপরীত প্যাটার্ন হিসেবে বিবেচিত হয়। এক্ষেত্রে মার্কেটে অংশগ্রহণকারী ট্রেডাররা শর্টস পুলব্যাগের সুযোগ নিতে পারে। ১২ মে পেয়ারটি ০.৬২১৭ প্রাইস থেকে নিন্মমূখী আসতে শুরু করে এক্ষেত্রে ০.৬২১৭ প্রধান ব্যারিকেড হিসেবে কাজ করতে পারে। সুতরাং ০.৬২১৭ অতিক্রমে পেয়ারটির আপট্রেন্ড ব্যাপক শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অপরদিকে ১০-পিরিয়ড এক্সপোনেনশিয়াল মুভ

চীনা ইউয়ানের বিপরীতে মার্কিন ডলারের প্রাইস বেড়ে ১৪ বছরের সর্বোচ্চে

আজ বুধবার এশিয়ান সেশনে চীনা ইউয়ানের বিপরীতে মার্কিন ডলারের প্রাইস বেড়ে ১৪ বছরের সর্বোচ্চ ৭.২২৮২-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। পিপলস ব্যাংক অব চায়না (PBOC)-এর সাম্প্রতি পদক্ষেপে ড্রাগন অর্থনীতির দেশ চীনকে ঘিরে বিশ্বব্যাপী ভয় কাজ করছে। যা চীনা ইউয়ানের প্রাইস কমার ক্ষেত্রে কাজ করছে। রয়টার্সের মতে চীনা সিকিউরিটিজ জার্নালের রিপোর্ট অনুযায়ী, চীনা ব্যাংক মার্কেটে সুদের হার স্থিতিশীল রাখতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে পারে। মঙ্গলবার প্রকাশিত বিশ্বব্যাংকের রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্ব ব্যাংক চীনের অর্থনৈতিক প

ডলারের দুর্বলতায় গোল্ডের প্রাইস বেড়ে দিনের সর্বোচ্চে

ডলারের দুর্বলতায় গোল্ডের প্রাইস বেড়ে দিনের সর্বোচ্চ ১,৬৪২-তে উঠলেও বর্তমানে কমে ১,৬৩০-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। গতকাল গোল্ডের প্রাইস ২০২০ সালের এগ্রিলের সর্বনিন্ম প্রাইস ১,৬২০ নেমে ছিলো। মার্কিন ডলার ২০ বছরের সর্বোচ্চে উঠলেও আজকের সেশনে কমে ১১৩.৬৮-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। এছাড়াও এ সপ্তাহে ব্যাংক অফ জাপান ও পিপলস ব্যাংক অফ চায়নার সাম্প্রতি ইভেন্ট রয়েছে। যা গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধির পেছনে প্রভাব ফেলছে। সাপ্তাহিক চার্টে ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী ১,৬৫২ রেজিস্ট্যান্স হতে প

পুনরায় বৃদ্ধি পাচ্ছে পাউন্ডের প্রাইস

সোমবার ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস রেকর্ড পরিমানে কমলেও আজ মঙ্গলবার পুনরায় বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। মার্কেটের বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে মনে হচ্ছে, মার্কিন ডলারের প্রাইস বেশ কয়েক সেশনে বৃদ্ধি পেলেও বর্তমানে কিছুটা বিরতি নিচ্ছে, এমন সুযোগে পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতকাল সোমবার GBPUSD পেয়ারের প্রাইস কমে সর্বকালের সর্বনিন্ম ১.০৩২৭-তে নামলেও আজ মঙ্গলবার ০.৯% বৃদ্ধি পেয়ে ১.০৭৮৩-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের গর্ভনর অ্যান্ড্রু বেইলির বক্তব্য পাউন্ডের প্রাইস রিকভাবে সহায়তা কর

ইউরোর পরে ডলারের সমতায় ব্রিটিশ পাউন্ড

গ্রেট ব্রিটিশ পাউন্ড স্টার্লিং মার্কিন ডলারের বিপরীতে সর্বনিন্ম প্রাইসে নেমে এসেছে। আজ সপ্তাহের প্রথমদিন পাউন্ডের প্রাইস কমে ১.০৪ ডলারে নেমে এসেছে। পাউন্ড তার মানের ৫% হারিয়েছে। ইউনাইটেড কিংডমের সার্বভৌম কারেন্সি ব্রিটিশ পাউন্ড বিশ্বের প্রাচীনতম মুদ্রাটি আজও ব্যবহৃত হচ্ছে। ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ড GBP= ১.০৪-তে অবস্থান করছে। যদিও বর্তমানে পাউন্ড কয়েক সেন্ট পুনরুদ্ধার করে ১.০৭-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ২০০৭ সালের পরবর্তীতে পাউন্ড মার্কিন ডলারের বিপরীতে সবথেকে বড় পতনের মধ্যে

১ মিলিয়ন অস্টেলিয়ান নাগরিক আগামী ১২ মাসে ক্রিপ্টোতে প্রবেশ করবে

ক্রিপ্টোএক্সচেঞ্জ Swyftx-এর তথ্য অনুযায়ী, আনুমানিক এক মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক পরবর্তী ১২ মাসে প্রথমবারের মতো ক্রিপ্টোকারেন্সিতে প্রবেশ করবে। যা দেশের মোট ক্রিপ্টো মালিকানা ৫ মিলিয়নের উপরে নিয়ে আসবে। গবেষণা সংস্থা YouGov-এর দ্বারা পরিচালিত অস্ট্রেলিয়ান ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ Swyftx-এর দ্বিতীয় বার্ষিক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিপ্টো সার্ভ থেকে ফলাফলটি ঘোষণা করা হলো। জুলাইয়ের শুরুতে ১৮ বছরের বেশি বয়সী ২,৬০৯ অস্ট্রেলিয়ানকে ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়। সমীক্ষার মধ্যে ৫৪৮ জন ক্রিপ্টোকার

ক্রিপ্টো সার্ভিস শুরু হচ্ছে এস্তোনিয়ায়

এস্তোনিয়ান ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (FIU) ঘোষণা করেছে, দেশটি ক্রিপ্টো সার্ভিস প্রদানের জন্য স্ট্রিগা টেকনোলজি OÜ-কে লাইসেন্স দিয়েছে। ফাইনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট হল অর্থ মন্ত্রণালয়ের এখতিয়ারের অধীনে একটি স্বাধীন সরকারি সংস্থা যার উদ্দেশ্য মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ এবং এস্তোনিয়ায় সন্ত্রাসী অর্থায়ন প্রতিরোধ করা। নতুন লাইসেন্সপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানটি Lastbit Inc-এর সম্পূর্ণ মালিকানাধীন একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এটি মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানির অধীভুক্ত। এস্তোনিয়ান FIU উল্লেখ করেছে: স্ট

বৃদ্ধি পাচ্ছে রাশিয়ান রুবেলের প্রাইস

এ সপ্তাহে মার্কিন ডলার নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে, এর ফলে বিশ্বব্যাপী প্রচুর স্থানীয় কারেন্সি ডলারের বিপরীতে ক্রমাগত দুবর্ল হচ্ছে। ইউরো মার্কিন ডলারের বিপরীতে ২০ বছরের সর্বনিন্ম প্রাইসে হিট করেছে। বর্তমানে EURUSD পেয়ার ০.৯৬৭৫-এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ডলারের বিপরীতে ইউরো গত ৩০ দিনে ২.৮২% কমেছে। এছাড়া গত ৩০ দিনে ডলারের বিপরীতে ইয়েন ৪.৭২%, পাউন্ড ৮.১৭% ও কানাডিয়ান ডলার ৪.৭৮% কমেছে। চীনা ইউয়ান দুই বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো মর্কিন ডলারের বিপরীতে ৭:১ এক্সচেঞ্জ রেট অতিক্রম করেছে। রাশিয়া ইউ

২ বছরের সর্বনিন্ম প্রাইসে নিউজিল্যান্ড ডলার

নিউজিল্যান্ড ডলার জুলাই মাসে বৃদ্ধি পেলেও আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে ক্রমাগত কমছে। যদিও পূর্বের কয়েক মাস NZDUSD ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। আজ সোমবার নিউজিল্যান্ডে ছুটির কারণে উল্লেখযোগ্য তেমন কোন ইভেন্ট না থাকলেও মার্কিন ডলারের শক্তিশালী অবস্থান NZDUSD পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী করছে। মার্কিন ডলার গত ২৪ ঘন্টায় ০.৭৫% বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে ১১৩.৭৫ প্রাইসের কাছাছি মুভমেন্ট করছে। যদিও গত ৫ ঘন্টা আগে ডলারের প্রাইস বেড়ে ২০ বছরের সর্বোচ্চ ১১৪.৪১-তে উঠেছিলো। S&P 500 ইনডেক্স অনুযায়ী, ১০ বছরের মার্কিন

২ দশকের নিন্ম প্রাইসে EURUSD

EURUSD ২০০২ সালের জুনের পরবর্তীতে সর্বনিন্ম প্রাইসে নেমে এসেছে এবং সম্প্রতি সোমবার এশিয়ান সেশনে ০.৯৬৩০ প্রাইসে মুভমেন্ট করছে। পেয়ারের ক্ষেত্রে ০.৯৮৩০ গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স দেখা হচ্ছে। ১৪ দিনের RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী, পেয়ার ওভারসোল্ডে মুভমেন্ট করছে। EURUSD-এর রিকভারের ক্ষেত্রে ০.৯৮৩০ ক্লু হিসেবে কাজ করতে পারে। পেয়ারটির বুলিশের জন্য মার্চ থেকে তৈরি হওয়া বিয়ারিশ চ্যানেলের উপরের লাইন অতিক্রম হওয়া প্রয়োজন এক্ষেত্রে ১.০০১৫ গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা হচ্ছে। EURUSD মাসের সর্বোচ্

EURUSD সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট (২৬-৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২)

তৃতীয় সপ্তাহ EURUSD পেয়ারের প্রাইস কমে আজ ট্রেডিং সপ্তাহের প্রথমদিন সোমবার পেয়ারটি ০.৯৬৩৫ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। আগস্ট মাসে মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধির কারণে মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট ৭৫ বিপিএস বৃদ্ধি করে ৩.২৪% করেছে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও রাশিয়ার মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা EURUSD পেয়ারের প্রাইসে প্রভাব ফেলছে। মস্কো যখন ইউক্রেনের উপর আক্রমণের হার কমিয়েছিলো এবং ইউক্রেন বেশ কয়েকটি অঞ্চলের কিছু অংশ নিজেরদের দখলে আনে তখন ইউরোর বিপরীতে মার্কিন ডলারের দুর্বলতা লক্ষ্

মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইউরোর প্রাইস কমে ০.৯৭৩

২৩ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ শুক্রবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের কারেন্সি ইউরো মার্কিন ডলারের বিপরীতে লড়াই করে ০.৯৭ প্রাইসে ট্রেড করছে। ইউরো গত ২৪ ঘন্টার মধ্যে ডলারের বিপরীতে ১% এর বেশি কমেছে এবং এটি ২০ বছরের সর্বনিন্ম প্রাইসে মুভমেন্ট করছে। আর্টিকেল লেখার সময়, ডলারের ঊর্ধ্বগতিতে অনেক বিনিয়োগকারী বিশ্বাস করেছে একমাত্র নিরাপদ আশ্রয় স্থল মার্কিন ডলার। যা ডলারের চাহিদাকে বেশ কয়েকগুনে বৃদ্ধি করছে। এছাড়াও ডলারের প্রাইস বৃদ্ধির পেছনে রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা কাজ করছে। নতুন করে রাশিয়ার উত্তেজনা ডলারের প্

২০২০ সালের মে মাসের নিন্ম প্রাইসে AUDUSD

আজ শুক্রবার ইউরোপিয়ান সেশনে AUDUSD পেয়ার ২০২০ সালের মে মাসের পরবর্তীতে সর্বনিন্ম ০.৬৫৬৫ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। সপ্তাহের শেষের দিন মার্কিন ডলারের প্রাইস বেড়ে ২০ বছরের সর্বোচ্চে মুভমেন্ট করছে। যা AUDUSD পেয়ারকে নিন্মমুখী চাপ প্রয়োগ করছে। মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ রেট বৃদ্ধি করেছে এবং মুদ্রাস্ফীতির চাপ অব্যাহত থাকলেও ইন্টারেস্ট রেট আরও বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে AUDUSD-এর বিয়ারিশ অবস্থান শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে, ২ বছরের মার্কিন সরকারি বন্ডের


বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×
×
  • Create New...