Jump to content
Sign in to follow this  
DH Delowar Hossain

যেসব কারনে শুধু মাত্র মেজর পেয়ারেই ট্রেড করা উচিত।

Recommended Posts

যেসব কারনে শুধু মাত্র মেজর পেয়ারেই ট্রেড করা উচিত

 

আনেক দিন ধরেই এই টপিক এ লেখার কথা মনে আসছিল, তাই আজ লেখেই ফেললাম। দেখেন ভাই আমাদের বেশির ভাগ ট্রেডার এর ই একটা আভ্যাস থাকে আর তা হল আনেক গুলা পেয়ার নিয়ে এনালাইসিস করা, আর বেশি বেশি এন্ট্রি নিয়ে বেশি বেশি প্রফিট আর ইচ্ছা। কিন্তু কথা হল এটা যে এধরনের ট্রেডিং করাটা ঠিক না। যেসব কারেনে ঠিক না সেগুলা হলঃ

  1. বেশি পেয়ারে ট্রেড করেলে আপনার লস বেশি হবে
  2. প্রফিট করবেন আনেক কিন্তু প্রফিট ধরে রাখতে পারবেন না
  3. সময় নষ্ট হবে আনেক কিন্তু প্রফিট এর মূখ দেখবেন না
  4. দেখাগেল এক পেয়ারে চাইছে যে EUR  দুর্বল হোক, আবার আরেক পেয়ারে চাইছে যে EUR স্ট্রং হোক

এখন আসেন ডীটেইলস বলা যাক। ওকে আমি আপনাদের আগে কিছু ঊদাহরন দেই তাহলে বুঝতে পারবেন জনিসটা। মনে করেন আজ h4 EURUSD  তে আপনি দেখলেন যে একটা কেন্ডেলে ২০ পিপস ডাউন হয়েসে। আর ঐ একই সময় GBPUSD তে ৪০ পিপস ডাউন হয়েসে, এখন আপনি জানেন কি এই দুইটা পেয়ার এর প্রভাব কোন পেয়ার এ পরবে। এই মুভমেন্ট এর প্রভাব পরবে গিয়ে EURGBP এর পেয়ারে। আপ ঠিক সেই একই সময়ে EURGBP পেয়ারে দেখবেন কিছু পিপস বা ১০-১৫ পিপস EURGBP  তে আপ হবে। কারন কি জানেন। কারন হল ঐ সময় মার্কেটে usd এর কাছে eur পরেছে ২০ পিপস এরমানে eurusd পেয়ারে usd ডিমান্ড মুডে আসে আর eur সাপ্লাই মুডে আসে। আপর দিকে gbpusd পেয়ারে ডাউন হয়েসে ৪০ পিপ্স এর মানে হল usd ছিল সেখানে ডিমান্ড মুডে আর gbp ছিল সাপ্লাই মুডে।

এখন আমারা দেখতে পাচ্ছি যে usd এর কাছে eur ছিল ২০ পিপস দুর্বল আর gbp এর কাছে ছিল ৪০ পিপস দুর্বল। এখন আপনারাই বলুন ঐ সময় কে সবচেয়ে বেশি স্ট্রং চিল আর কে সব চে দুর্বল ছিল। তাহলে এখানে বুঝতেই পারছে যে eurgbp পেয়ারে কি হতে পারে। না বুঝলে আমি একটা গল্পের মাধ্যমে বুঝাই আপনাকে।

মনে করেন এক জায়গায় এক বিরাট যুধের ঘশোনা করা হল। মোট তিন দল যোগদান করবেন সেখানে। দল তিনটির নাম হলঃ 1. USD 2. EUR 3. GBP

ওকে যুদ্ধ শুরু হয়ার আগে eur and gbp এই দুই দল মলে এক দল হয়ে গেল। মানে তারা নিজেদের মধ্যে বনদ্ধুত করে নিল। তাহলে এখন যুদ্ধে নামলো দুই দল। মানে usd এক দল আর eur and gbp মিলে এক দল এবং তাদের দলের নাম দিল EG.

 তো এক সময় যুদ্ধ শুরুর হল, যুদ্ধে দেখা গেল যে চার ঘন্টার মধ্যে usd এর সেনা দের কাছে eur এর যেই সেনা ছিল তাদের সেনা মারা গেল ২০ জন। আর সেই চার ঘন্টার মধ্যেই gbp এর সেনা মারা গেল ৪০ জন। এর মানে আমারা বুঝলাম যে usd এর সেনা আনেক স্ট্রং। আর gbp  এর থেকে eur এর সেনাদের বেশি সামর্থ ছিল। কারন চার ঘন্টা মধ্যে eur এর সেনা মারা গেসে ২০ জন আর gbp এর সেনা মারা গেসে ৪০ জন, তাহলে এই যুদ্ধটা যদি eur and gbp এর মধ্যে লাগানো হত তাহলে সহজেই বলা যায় যে eur জিতে যেত আর gbp হেরে জেত।

ফরেক্স মার্কেটেও ঠিক তেমনি ঘটে।

এখন আপনি ই বুঝেন যে যদি ৪ ঘন্টায় eurusd ১০০ পিপস ডাউন হয় আর ঐ একই সময় যদি gbpusd ৫০ পিপস ডাউন হয় বা সেখানেই ঘুরা ফিরা করে তাহলে সেটার প্রভাব আবশ্যই eurgbp তে পরবে। এখন eurgbp যেই ট্রেন্ডেই থাকুক না কেন তাকে ব্রেক করতে হবে। আর এটাই সাধারন। একারনেই মেজর পেয়ার ছাড়া আর কোন পেয়ারে ট্রেড করা ঠিক না। কারন মেজর পেয়ার এর মুভমেন্ট এর প্রেসারে চলে নোন মেজর পেয়ার।

এখন আনেকে বলতে পারেন যে ভাই মেজর পেয়ার আবার কোন গুল।

EURUSD

GBPUSD

AUDUSD

NZDUSD

USDCAD

USDJPY

USDCHF

GOLD

OIL

এখন আসেন একে বারে লাইভ মার্কেট থেকে আপনাদের দেখাই।

 

http://prntscr.com/6c67k6

http://prntscr.com/6c68ev

http://prntscr.com/6c68w8

 

এখন এর মানে আমারা কি বুঝলাম। যখন মার্কেট, eurusd  তে ১০৭ পিপস উঠে সিল আর ঠিক একই সময় মার্কেট gbpusd তে উঠেসিল ১৬০ পিপস। তাহলে এখানে usd এর কাছে eur আসে ১০৭ পিপস স্ট্রং, আর gbpu  আসে usd  এর কাসে 160 পিপস দুর্বল। তাহলে মার্কেটে আবশ্যই eur থেকে gbp এর ভেলু বেশি। তাহলে আবশ্যই eurgbp তে মার্কেট ডাউন হবে। এখন আপনি দেখেন সেখানে erugbp তে ডাউন হয়ে সিলো কিন্তু।

তখন eurgbp তে যত স্ট্রং লেভেলই থাকুক না কেন সেটা ব্রেক করতে সে বাধ্য। আর যদি সেটা ব্রেক না করে তাহলে আবার সেটার ইম্পেক্ট পরবে গিয়ে eruusd and gbpusd তে।

এভেবে আপনি আরো দেখতে পারেন যেমন,

audusd , nzdusd = audnzd.

Eurusd, gbpusd= erugbp

Eurusd,usdjpy= eurjpy

Usdcad, eurusd= eurcad

Usdjpy, gbpusd= gbpjpy

এরকম সব সময় তিনটি পেয়ার একসাথে দেখবে। তাহলে আনেক মজা পাবে। আবার সাথে রাখতে পারেন ডেইলি পিভট কে। তাহলে তো সুধু মজাই মজা।

 

এখন আসি কিছু কিছু পেয়ার আসে যেগুলাতে ট্রেড করা একেবারেই ঠিকন। কারন সেই দেশ গুলার মধ্যে আনেক গভির বিষয় রয়েছে। যেমনঃ

Eurgbp:  এই পেয়ারে ট্রেড না করার করান হল, দেখন eur and gpb দুইটা পেয়ারই eur zone এ চলে। মানে gbp ও একটা ইউরোপিয়ান কান্ট্রি, এখন কথা হল সাধারন ভাবে eur যদি স্ট্রং হয়তো gbp ও তার সাথে স্ট্রং হবে। আর যদি eur দুর্বল হয় তো gbp  ও তার সাথে সাথে দুর্বল হয়ে পরবে। এই কারনে এই পেয়ারে ট্রেড না করাই ভাল।

Eurchf: এখন আসে eur and chf এ এখানেও সেই একই কাহিনি। মানে সুইজারলেন্ডও সেই ইউরোপিয়ান কান্ট্রি, সো এখানে সেই একই কাহিনি। eur যদি স্ট্রং হয়তো chf ও তার সাথে স্ট্রং হবে। যদি eur দুর্বল হয় তো chf ও তার সাথে সাথে দুর্বল হয়ে পরবে। এই কারনে এই পেয়ারে ট্রেড না করাই ভাল।

 Audnzd:  আর আই aud and nzd এর আবস্থা ও ঠিক একই রকম। এরা একে আপরের উপর নিরভরসিল। যদি aud কোন কারনে দুর্বল হয় তো nzd ও তার সাথে সাথে দুর্বল হবে। এটাই আমার সব সময় দেখে এসেছি। তাই এই পেয়ারেও ট্রেড করা ঠিক না।

Share this post


Link to post
Share on other sites

Join the conversation

You can post now and register later. If you have an account, sign in now to post with your account.

Guest
Reply to this topic...

×   Pasted as rich text.   Paste as plain text instead

  Only 75 emoji are allowed.

×   Your link has been automatically embedded.   Display as a link instead

×   Your previous content has been restored.   Clear editor

×   You cannot paste images directly. Upload or insert images from URL.

Loading...
Sign in to follow this  

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...