Jump to content

Search the Community

Showing results for tags 'forex'.

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


Categories

  • ইন্ডিকেটর
  • এক্সপার্ট এডভাইসর
    • বিডিপিপস EA ল্যাব
  • স্ক্রিপ্ট
  • ট্রেডিং স্ট্রাটেজী
  • ট্রেডিং প্লাটফর্ম
  • ফরেক্স ই-বুক
    • বাংলা ই-বুক
  • চার্ট টেমপ্লেট

Forex Bangladesh - বিডিপিপস

  • বিডিপিপস
    • ফরেক্স স্টাডি
    • ফরেক্স নিউজ
    • সাধারণ ট্রেডিং আলোচনা
    • প্রশ্ন এবং উত্তর
    • ফরেক্স ব্রোকার ও পেমেন্ট মাধ্যম
    • ইন্ডিকেটর, রোবট ও মেটাট্রেডার
    • ট্রেডিং আইডিয়া
    • ট্রেডিং স্ট্রাটেজি
    • ফোরাম সাপোর্ট
    • অপ্রাসঙ্গিক
    • ফরেক্স হিউমার
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার
  • ফরেক্স ব্রোকার
  • বিডিপিপস ফোরাম সাপোর্ট

BDPIPS - Forex Bangladesh

  • সাধারণ ফরেক্স আলোচনা
  • ফরেক্স নিউজ

Calendars

  • XM বাংলা ওয়েবিনার

Find results in...

Find results that contain...


Date Created

  • Start

    End


Last Updated

  • Start

    End


Filter by number of...

Joined

  • Start

    End


Group


AIM


MSN


Website URL


ICQ


Yahoo


Jabber


Skype


লোকেশন


Interests


ব্রোকার


মোবাইল নং

  1. The popularity of the international forex market has made it the largest financial market in the world. According to a 2019 BIS report, the daily volume of forex traded amounts to $6.6 trillion. Around 3.5% of the total turnover was retail in 2013 as per a report by BIS. The internet has facilitated retail forex trading such that anyone from anywhere can engage in the trade. However, this seamless access to the market guaranteed by the internet has created a rat-race for traders among forex brokers. Today, scam forex brokers use every form of gimmick to hoodwink ignorant individuals into trading and investing in the forex market in the guise of an easy path to wealth. The African continent has seen massive growth in the number of retail online forex brokers in recent times. Currently, there are an estimated 1.3 million active forex traders on the continent and the number is growing rapidly by the day. This is coming at a time when there are no regulations for retail forex trading among many countries on the continent. Currently, only Kenya, South Africa, and Mauritius have regulations guiding online retail forex trading. Tanzania like many of its continental counterparts does not have. The absence of regulation is one of the many risks and challenges faced by retail forex traders in Tanzania. Forex traders and those intending to participate in the international forex market should first understand how the forex market work. Forex is the exchange of one currency for another for different purposes. Most retail forex traders participate in the forex market with the aim of profiting off the price difference in currency pair at the end of the trade. In reality, forex trading is not as forex brokers and their marketers make it to be. It is much more difficult and complex. This article will discuss three truths about forex trading. 1. People Lose Money In Retail Forex Trading Many individuals, especially newbie forex traders, believe they can make a fortune off forex trading. This belief stems from the aggressive marketing gimmick of online retail forex brokers. While it is possible to earn money and even make a living from forex trading, especially from day trading the odds are stacked against you. When you trade a currency pair let's say USD/EUR, you are betting on the USD to rise against the EUR. However, someone in another part of the world is betting on the EUR to rise against the USD. Your success depends on the failure of that person. According to financial analysts, around 65 to 89 percent of forex traders encounter losses in their trade. The stats for CFDs is even higher with an average of 74% losing out on trades. 2. Forex Trading Requires In-Depth Training And Education The international forex market is the most liquid financial market in the world. Price movements in this market happen at a pace only highly skilled and professional traders can handle. One cannot master the complexities of the market within a short period of time. In recent times, some brokers with sugar-coated tongues offer short training aimed at providing traders with instant proficiency in trading in the forex market. This is not true. To master the art of forex trading, you must give yourself knowledge and practice over a considerable period of time The knowledge and understanding of the technical intrigues of the market are not one a neophyte can master on a weekend or a short course. It can take years to fully grasp the nitty-gritty of the market and become a professional. Even at that, the volatile nature of the market makes it immune to any form of professional handling. Also, forex trading has a motley of technical registers peculiar to it. Terms like leverage, pip, spread, forex pair, margin, bid/ask price, etc., must be properly mastered if one is to avoid the mistake of losing his investment. However, many forex brokers now provide demo accounts and other forms of investor education that aim to train and educate new forex traders 3. There Are Scams In Forex Trading Like every other venture, there are scams in forex trading. These scams range from nefarious, unregulated brokers, to those who make forex seem like a get-rich-quick scheme, hackers, etc. As per findings by broker research firm Safe Forex Brokers, there are so many scam brokers that target the general public in East Africa to their HYIPs in the name of forex trading. if you are a Tanzania-based trader involved in forex trading, you must ensure your broker is regulated by top-tier regulators such as UK's Financial Conduct Authority, Cyprus's CySEC, Australia's ASIC, etc. A broker who has a license with one of these regulators can be considered safer than a broker that is not regulated or is offshore regulated. This is an important step because online retail forex trading in Tanzania is not regulated. It is not illegal per se. That is your trade and invest at your own risk without local government protection. Trading with a broker that is not regulated or regulated by some less rigid regulators is highly risky as they can run away with your investment. Also, you should avoid those who make forex trading seem like a Ponzi scheme where you invest and get a guaranteed return. Some go as far as deceiving novice traders that they can provide some robots that can facilitate trade and deliver consistent profit. This is absolutely wrong and you should be careful. As per Forexscopes, Trading with an unknown unregulated broker can open you up to hackers who might steal your important private data such as credit card numbers, background information, etc., and use such to steal from you or scam you. Conclusion Forex trading is not all gloom and doom. You can earn a good income from the market if you practice & follow strict risk management. However, you should be careful, well-trained, and educated about the fundamental and technical analysis of the forex market. You should also have a defined and tested trading strategy. Learn as much as you can about risk management. Also, do not enter the forex market with funds you cannot afford to lose. Forex trading as said earlier is not a Ponzi scheme where you invest and get paid back without risks. As said earlier, the chances of you making a profit are very low since most of the retail traders lose. Also, remember that if you are making a profit means that another person is losing. If your broker is a market maker, then if you are making a profit then your broker is losing. So, a bad broker is incentivized to make you lose. You can earn income through forex trading but remember that the chances are very low. You must know how you apply the truths about forex trading. Source: The citizen
  2. মানি ম্যানেজমেন্ট হল এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে ফরেক্স ট্রেডাররা তাদের অ্যাকাউন্ট ম্যানেজ করে থাকে। ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য মানি ম্যানেজমেন্ট খুবই জরুরী। একটি ভাল মানি ম্যানেজমেন্ট আপনার অ্যাকাউন্টকে ব্যাঙ্কর*্যাপ্টসি থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। একটি ভাল মানি ম্যানেজমেন্ট ফলো করলে আপনার ক্যাপিটাল হারানোর সম্ভাবনা খুব কম। ভাল মানি ম্যানেজমেন্টের কিছু নিয়ম রয়েছেঃ ১. অ্যাকাউন্টের ছোট পার্সেনটেজ নিয়ে রিস্ক নিনঃ অ্যাকাউন্টের ছোট পার্সেনটেজ রিস্ক নেয়া কেন গুরুত্বপূর্ণ? এর কারন হচ্ছে আপনাকে আপনার অ্যাকাউন্ট টিকিয়ে রাখতে হবে। প্রথমে আপনার অ্যাকাউন্ট টিকিয়ে রাখতে হবে, তারপর প্রফিটের কথা ভাবতে হবে। ভালো ট্রেডার তারাই যারা তাদের অ্যাকাউন্ট টিকিয়ে রাখতে পারে এবং এ ব্যাপারে সচেতন। যদি আপনি কম রিস্ক নিয়ে ট্রেড করেন তবে কোন ট্রেডে আপনার লস অনেক বেশী হলেও চাইলে আপনি আপনার ট্রেডটিকে হোল্ড করতে পারবেন। ট্রেডে আপনার অ্যাকাউন্টের মোট পার্সেনটেজের কম এবং বেশী রিস্ক নিয়ে ট্রেডের একটি উদাহরন নিচে দেখা যাক। দেখুন টানা ১০টি ট্রেডে লস আপনার অ্যাকাউন্টের কতটুকু ক্ষতি করতে পারে। বিঃ দ্রঃ নতুন বছর শুরু হোক লাইটফিনান্স এবং iphone13 Pro MAX এর সাথে (বিস্তারিত লাইটফিনান্স এ) ২. হারান ক্যাপিটাল পুনরুদ্ধার করা কঠিনঃ কেউ যদি তার অ্যাকাউন্টের কিছু অংশ হারায়, তাহলে তা পুনরুদ্ধার করা কতটা কঠিন? আপনি যদি আপনার অ্যাকাউন্টের ৫০% হারান, তাহলে আপনাকে লস রিকভার করতে আপনার নতুন ব্যালেন্সের ১০০% লাভ করতে হবে। আর যদি ৭৫% হারান, তবে নতুন ব্যালেন্সের ৩০০% প্রফিট করতে হবে শুধুমাত্র পূর্বের লস রিকভার করার জন্য। তাই আপনি যদি একবার বিরাট লস করে তারপর সেই লস রিকভার নিয়ে ব্যস্ত থাকেন, তবে প্রফিট করবে কে? এখানেই চ্যালেঞ্জ। চেষ্টা করে দেখুন ডেমো অ্যাকাউন্টে ৩০০% অথবা আপনার রিয়েল অ্যাকাউন্টে অন্তত ১০০% প্রফিট করতে পারেন কিনা। এটা অতটা সহজ হবেনা। মানি ম্যানেজমেন্ট এই জন্যেই গুরুত্বপূর্ণ। ৩. ট্রেড করার আগে রিস্কঃরিওয়ার্ড রেশিও হিসাব করুনঃ যখন একটি ট্রেডে লস করার সম্ভবনা প্রফিট করার থেকে বেশী, তখন ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন। সবসময় ট্রেড করতে হবে এমন কোন কথা নেই। উদাহরনসরূপঃ ১. ৪০ পিপস লস vs ৩০ পিপস প্রফিট ২. ২০ পিপস লস vs ২০ পিপস প্রফিট ২টি উদাহরনই বাজে রিস্ক ম্যানেজমেন্টের উদাহরন। একটি ট্রেড ওপেন করার আগে এটা নিশ্চিত করুন যে রিস্ক:রিওয়ার্ড রেশিও অন্তত ১:২ (১:৩ রেশিও বা এর থেকে বেশী ভাল)। এর মানে হচ্ছে আপনার এমন একটি ট্রেডই ওপেন করা উচিত যেটাতে আপনার লস করার সম্ভবনা থেকে লাভের সম্ভবনা ততগুন হবে। যেমনঃ আপনি ৩০ পিপস লস করার পরিপেক্ষিতে ১০০ পিপস লাভ করতে পারবেন এমন ট্রেডে এন্ট্রি করাই বুদ্ধিমানের কাজ। আপনি যদি মানি ম্যানেজমেন্টের এই রুলসটি সঠিকভাবে মেনে চলেন, তবে তা পরবর্তীতে আপনাকে সাফল্য পেতে এবং স্ট্যাবল প্রফিট পেতে সাহায্য করবে। রিস্ক:রিওয়ার্ড রেশিওর নিচের চার্টটি দেখুন। এখানে ১:৩ রিস্ক:রিওয়ার্ড রেশিও নিয়ে ১০টি ট্রেড করা হয়েছে। একজন যখন কোন ট্রেডে লস করে, তখন সে $১০০ ডলার হারিয়েছে। কিন্তু তার প্রতিটি প্রফিটেবল ট্রেডে সে $৩০০ ডলার প্রফিট করেছে। সুতরাং, দেখা যাচ্ছে কোন ট্রেডার যদি ১:৩ রিস্ক:রিওয়ার্ড রেশিও নিয়ে যদি ৫০% ট্রেডেও সফল হয়, তবুও সে ভাল পরিমান লাভ করতে পারে।
  3. Crude Oil বা ক্রুড তেল বলতে যে অপরিশোধিত তেলকে বোঝায়, তা আমরা জানি। “তেল নিয়ে তেলসামাতি” পড়ে থাকলে আপনি এটাও জানেন যে বিশ্বে বিভিন্ন ধরনের অপরিশোধিত তেল রয়েছে এবং এগুলোর মধ্যে Brent Crude, WTI Crude এবং Opec Basket Crude সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয়। এখন আপনি প্রশ্ন করতে পারেন যে, এই তেলগুলো কি জিনিস সেটা জেনে আমার কি লাভ? সত্যি বলতে তেমন কোন লাভ নেই, তাই এ নিয়ে বিস্তারিত কোন আলোচনায় যাবো না। কিন্তু, তেলের যে বিভিন্ন ধরন আছে, আর কোনটা কি, তা জানার দরকার আছে। না জানলে কি ঝামেলায় পড়বেন, তা নিচের উদাহরন দেখলেই বুঝতে পারবেনঃ বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় অপরিশোধিত তেল হচ্ছে Brent Crude (মোট ব্যবহৃত অপরিশোধিত তেলের দুই তৃতীয়াংশই হচ্ছে Brent Crude বা ব্রেন্ট ক্রূড)। আর XM এ Brent Crude Oil এর নাম হচ্ছে Brent, মানে mt4/mt5 এ Brent খুজে বের করলেই হবে। কিন্তু, আপনি যদি না জানেন যে Brent বলতে আসলে এক ধরনের অপরিশোধিত জ্বালানি তেলকে বোঝায়, তাহলে আপনি যেটা খুজে পাবেন, সেটা হচ্ছে Oil. XM এ শুধু OIL ট্রেডিং কোডটি দিয়ে West Texas Intermediate বা WTI ক্রুড তেলকে বোঝায়। OILMn নামে আরেকটি ট্রেডিং কোড আছে যেটি WTI ক্রুড এরই মিনি লটকে নির্দেশ করে, যেটিতে প্রতি পিপসের ভ্যালু মাত্র ১০ সেন্ট। তারমানে, Brent কি তা না জানলে আপনি সবচেয়ে জনপ্রিয় তেলটি ট্রেডের সুযোগ থেকেই বঞ্চিত হবেন। মোটামুটি সব ব্রোকারেই Brent Crude তেল শুধু Brent নামেই পরিচিত। তাই, নাম না জানলে বিপদ। আবার, Brent, OIL এবং OILMn, এই তিনটি দিয়ে যে যথাক্রমে Brent Crude, WTI Crude এবং WTI Crude এর মিনি লটকে বোঝাচ্ছে, সেটাও বুঝতে পারবেন না। আমি নতুনদের সবসময় পরামর্শ দিব OILMn ট্রেড করতে, কেননা এটাতে প্রতি পিপসের ভ্যালু সর্বনিম্ন ১০ সেন্ট, অন্যগুলোতে ১ ডলার করে। তেলের ক্ষেত্রে XM এ ১ লট বলতে ১০০ ব্যারেল তেল বোঝায় (১ ব্যারেল মানে ১৫০ লিটার)। আগেই বলেছি যে কোন তেল কি, সেটা জেনে আপনার তেমন কোন লাভ নেই, আপনার শুধু জানা দরকার কোন তেলগুলো বিশ্ববাজারে সবচেয়ে বেশী ট্রেড করা হয় এবং ব্রোকারগুলোতে সেগুলোর নাম কি। সেটা আপনি ইতিমধ্যেই জেনে আছেন। তারপরেও প্রধান তেলগুলো সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করছিঃ প্রধান অপরিশোধিত তেলগুলো আমার সবার প্রথমে মাথায় এটা প্রশ্ন জেগেছিল যে, অপরিশোধিত তেলের আবার আলাদা আলাদা ধরন কেন? নারিকেল তেল, সয়াবিন তেলের মতই কি এগুলো আলাদা আলাদা ধরনের জ্বালানী তেল নির্দেশ করে? এগুলো সবগুলোই কি একই কাজে ব্যবহৃত হয়, নাকি নারিকেল তেল, সয়াবিন তেলের মত আলাদা আলাদাভাবে ব্যবহৃত হয়? বিশ্বে ১৬০ ধরনের তেল ট্রেড করা হয়, আমরা এগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশী যে তেলগুলো ট্রেড করা হয়, মানে Brent, WTI এবং Opec Basket, সেগুলোর মধ্যে তুলনা করব। জ্বালানী তেলের গুনগতমান কিভাবে নির্ধারন করা হয়? জালানী তেলের ক্ষেত্রে গুনগতমান নির্ধারন করা হয়, এতে কতটুকু সালফার আছে এবং এটি কতটুকু ভারি তা দিয়ে। কোন তেলে সালফারের পরিমান শতকরা যত কম থাকবে, সেটিকে তত বেশী sweet বলা হবে। এখানে, sweet দিয়ে শুধুমাত্র সালফারের পরিমান কত কম, সেটাই নির্দেশ করছে, মিষ্টিজাতীয় কিছু না। আরেকটি বিবেচ্য বিষয় হচ্ছে API Gravity, যেটা ওজন নির্দেশ করে। কোন তেলের API Gravity যত বেশী, সেটা ওজনে তত হালকা, একইভাবে API Gravity যত কম, ওজনে তত ভারী। যদি কোন তেলের API Gravity ১০ এর বেশী হয়, তাহলে সেটা পানিতে ডুবে যাবে, নাহলে পানির উপর ভেসে থাকবে। যেই তেলের API Gravity যত বেশী হবে, মানে যত হালকা হবে আর সালফারের শতকরা পরিমান যত কম হবে, মানে তেলটি যত sweet হবে, তার গুনগতমান তত বেশী হবে, বেশী পরিমানে উন্নতমানের গ্যাসোলিন উৎপন্ন করা যাবে। তাহলে, এবার দেখা যাক, ব্রেন্ট, WTI আর ওপেক বাস্কেট, কোনটার গুনগত মান সবচেয়ে ভালো। WTI বা West Texas Intermediate তিন ধরনের তেলের মধ্যে সবচেয়ে ভালো তেল হচ্ছে এবং খুবই উন্নতমানের তেল হচ্ছে WTI বা West Texas Intermediate. এতে সালফার আছে শতকরা মাত্র ০.২৪ ভাগ আর API Gravity হচ্ছে ৩৯.৬ ডিগ্রি। নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে যে, এটি যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত হয়। খুবই হালকা এবং সালফারের পরিমান খুব কম বলে, এটি গ্যাসোলিন উৎপাদনের জন্য সর্বোত্তম। WTI তেলের ব্যবহার সবচেয়ে বেশী হয় আমেরিকা বা যুক্তরাষ্ট্রে। Brent Crude Oil এর পরেই আসবে Brent Crude Oil. এতে সালফারের পরিমান শতকরা ০.৩৭ ভাগ আর API Gravity হচ্ছে ৩৮.৩ ডিগ্রি। WTI এর মত এত ভালো না হলেও, এই তেলও হালকা এবং এতে সালফারের পরিমান খুব বেশী না। মূলত ডিজেল, গ্যাসোলিন পরিশোধনের জন্যেই Brent Crude Oil বেশী ব্যবহৃত হয়। মূলত উত্তর সাগরের চারটি ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে এই তেল আহরন করা হয়। Brent তেলের ব্যবহার সবচেয়ে বেশী হয় ইউরোপে এবং আফ্রিকাতে। Opec Basket সবশেষে আসবে ওপেক বাস্কেট। ওপেক নাম শুনেই বুঝতে পারছেন যে এই তেল কোথা থেকে আহরন করা হয়। ঠিক, মূলত ওপেকভুক্ত দেশগুলো থেকে, যেমনঃ সৌদি আরব, আলজেরিয়া, ভেনিজুয়েলা ইত্যাদি। এগুলোতে সালফারের পরিমান খুবই বেশী, আবার তুলনামুলকভাবে ভারী। তাই, WTI বা ব্রেন্টের সাথে তুলনা করলে ওপেক বাস্কেট তেল বেশ নিম্নমানের। কিন্তু, সুবিধা হল ওপেক দেশগুলোতে প্রচুর তেল মজুদ আছে এবং তারা চাইলেই যেভাবে উৎপাদন বাড়াতে পারে, সেইভাবে অন্য তেলগুলোর উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব না। তাই, বিশ্ববাজারে ওপেক বাস্কেট এর গুরুতবপূর্ন ভুমিকা আছে। কোন তেলের দাম সবচেয়ে বেশী? আরেকটা ব্যাপার হচ্ছে দাম। ওপেক বাস্কেট তেলের দাম প্রধান তেলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সস্তা। Brent তেলের দাম সাধারনত ওপেক বাস্কেট থেকে ব্যারেলপ্রতি ৪ ডলার বেশী হয়। WTI এর দাম তো আরও বেশী। ওপেক বাস্কেট থেকে WTI ব্যারেলপ্রতি ৫-৭ ডলার বেশী দামে বিক্রি হয়, মানে Brent তেল থেকে WTI তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ১-৩ ডলার বেশী।
  4. আজকের আলোচনার বিষয় CAD JPY এই পেয়াটি ৮১.০১৬ থেকে ৮০.৩৫৭ এই দুই প্রাইজের মধ্যে কারেকশন করবে । এখন যারা সাপোট রেজিষ্টেন্স এ ট্রেড করেন তাদের জন্য ভাল সুযোগ । ৮১.০১৬ থেকে ‍যদি কোন স্টং সেল ক্যান্ডেল পাই তাহলে সেল ক্যান্ডেল শেষে একটি সেল ট্রেড হবে , এস এল হবে ৮১.০১৬ থেকে ২ পিপস উপরে আর টিপি হবে ডাবল । আর যদি ৮০.৩৫৭ থেকে কোন স্টং বাই ক্যান্ডেল পাই তাহলে বাই ক্যান্ডেল শেষে বাই ট্রেড হবে , এস এল হবে ৮০.৩৫৭ থেকে ২ পিপস নিচে , টিপি হবে তার ডাবল । যারা ট্রেন্ডে ট্রেড করেন তার এই পেয়ারটিতে অপেক্ষা করুন নতুন ট্রেন্ড আসার জন্য । আর যারা বুঝতে পারেন নাই তার কমেন্ট করুন । ধন্যবাদ জিরো স্প্রেড এবং সোয়াপ ফ্রি একাউন্ট খুলুন এখান থেকে CLICK HERE
  5. ফরেক্স এনালাইসিস আজকের পেয়ার NZD USD । বর্তমানে মাকেট ০.৬৯৭৬৭ থেকে ০.৬৯০৪৬ এই প্রাইজের মধ্যে কারেকশন করবে । মাকেট ০.৬৯৭৬৭ এই প্রাইজে যদি কোন স্টং সেল ক্যান্ডেল পাই তহলে ওই সেল ক্যান্ডেল শেষ হলে এইটি সেল ট্রেড হবে । এস এল হবে ০.৬৯৭৬৭ এর একটু উপরে , আর যদি ০.৬৯০৪৬ এই প্রাইজ থেকে কোন স্টং বাই ক্যান্ডেল পাই তাহলে ওই বাই ক্যান্ডেল শেষে একটি বাই ট্রেড হবে এস এল হবে ০.৬৯০৪৬ এই প্রাইজ থেকে ২ পিপস নিচে । সব সময় টিপি হতে এস এল এর দ্বিগুন । জিরো স্প্রেড এবং সোয়াপ ফ্রি একাউন্ট খুলুন এখান থেকে CLICK HERE
  6. আজকের আলোচনা EURUSD । EURUSD মাকেট ১.২০০২৮ থেকে ১.১৯১৪২ এই প্রাইজের মধ্যে কারেকশন করবে । এখন এই পেয়ারটিতে যারা সাপোট রেজিষ্টেন্স এ ট্রেড করেন তদের জন্য চমৎকার একটি সুযোগ । ১.২০০২৮ থেকে যদি স্টং সেল ক্যান্ডেল পাই তাহলে ওই ক্যান্ডেল শেষে সেল হবে , এস এল হবে এন্টি পয়েন্ট থেকে ১.২০০২৮ এর ২ পিপস উপরে আর টিপি হবে এস এল থেকে ২ গুন । যদি ১.১৯১৪২ এই প্রাইজে কোন স্টং বাই ক্যান্ডেল পাই তাহলে ওই বাই ক্যান্ডেল শেষে বাই ট্রেড হবে , এস এল হবে এন্টি পয়েন্ট থেকে ১.১৯১৪২ এই প্রাইজের ২ পিপস নিচে , আর টিপি হবে এস এল এর ২ গুন । আর যদি ১,১৯১৪২ এই প্রাইজ কে ব্রেক করে মাকেট নিচে চলে যায় তাহলে লং সেল ট্রেড হবে । ধন্যবাদ । জিরো স্প্রেড এবং সোয়াপ ফ্রি একাউন্ট খুলুন এখান থেকে CLICK HERE
  7. Users have been warned against a new malware designed to steal crypto from browser extension wallets such as MetaMask and Coinbase Wallet. Security was never the strong suit of browser-based crypto wallets to store Bitcoin (BTC), Ether (ETH), and other cryptocurrencies. However, new malware makes the safety of online wallets even more complicated by directly targeting crypto wallets. P.S: Trade with a trusted Forex broker (LiteFinance)! That works as browser extensions such as MetaMask, Binance Chain Wallet, or Coinbase Wallet. Named Mars Stealer by its developers, the new malware is a powerful upgrade on the information-stealing Oski trojan of 2019, according to security researcher 3xp0rt. It targets more than 40 browser-based crypto wallets, along with popular two-factor authentication (2FA) extensions. Metaverse, Nifty Wallet, Coinbase Wallet, MEW CX, Ronin Wallet, Binance Chain Wallet, and TronLink are listed as some of the targeted wallets. The security expert notes that the malware can target extensions on Chromium-based browsers except Opera. Sadly, it means some of the most common browsers such as Google Chrome, Microsoft Edge and Brave made it to the list. Also, while they are safe from extension-specific attacks, Firefox and Opera are also vulnerable to credential-hijacking. Mars Stealer can be spread through various channels such as file-hosting websites, torrent clients, and any other shady downloaders. After infecting a system, the first thing the malware does is check the device language. If it matches the language ID of Kazakhstan, Uzbekistan, Azerbaijan, Belarus, or Russia, the software leaves the system without any malicious action. For the rest of the world, the malware targets a file that holds sensitive information such as crypto wallets’ address info and private keys. It then leaves the system by deleting any presence once the theft is complete. Hackers are currently selling Mars Stealer for $140 on dark web forums. Meaning the barrier to access the trojan is relatively low for malicious actors. Users who hold their crypto assets on browser-based wallets. Or use browser extensions like Authy to utilize 2FA are warned to be cautious against clicking dubious links or downloads.
  8. Wave Personality part 2 Figure 2-15 downswing. Nearly everyone was proclaiming a new bull market. Services were extremely bullish, and the upside volume was running higher than at the peak in 1929. — The 1961-1962 rise was wave (b) in an (a)-(b)-(c) expanded flat correction. At the top in early 1962, stocks were selling at unheard of price/earnings multiples that had not been seen up to that time and have not been seen since. Cumulative breadth had already peaked along with the top of the third wave in 1959. — The rise from 1966 to 1968 was wave Ⓑ in a corrective pattern of Cycle degree. Emotionalism had gripped the public and "cheapies" were skyrocketing in the speculative fever, unlike the orderly and usually fundamentally justifiable participation of the secondaries within first and third waves. The Dow Industrials struggled unconvincingly upward throughout the advance and finally refused to confirm the phenomenal new highs in the secondary indexes. توصيات الذهب — In 1977, the Dow Jones Transportation Average climbed to new highs in a B wave, miserably unconfirmed by the Industrials. Airlines and truckers were sluggish. Only the coal-carrying rails were participating as part of the energy play. Thus, breadth within the index was conspicuously lacking, confirming again that good breadth is generally a property of impulse waves, not corrections. — For a discussion of the B wave in the gold market, see Chapter 6, page 180. توصيات الذهب As a general observation, B waves of Intermediate degree and lower usually show a diminution of volume, while B waves of Primary degree and greater can display volume heavier than that which accompanied the preceding bull market, usually indicating wide public participation. gold signals 8) C waves — Declining C waves are usually devastating in their destruction. They are third waves and have most of the properties of third waves. It is during these declines that there is virtually no place to hide except cash. The illusions held throughout waves A and B tend to evaporate and fear takes over. C waves are persistent and broad. 1930-1932 was a C wave. 1962 was a C wave. 1969-1970 and 1973-1974 can be classified as C waves. Advancing C waves within upward corrections in larger bear markets are just as dynamic and can be mistaken for the start of a new upswing, especially since they unfold in five waves. The October 1973 rally (see Figure 1-37), for instance, was a C wave in an inverted expanded flat correction. توصيات الفوركس 9) D waves — D waves in all but expanding triangles are often accompanied by increased volume. This is true probably because D waves in non-expanding triangles are hybrids, part corrective, yet having some characteristics of first waves since they follow C waves and are not fully retraced. D waves, being advances within corrective waves, are as phony as B waves. The rise from 1970 to 1973 was wave Ⓓ within the large wave IV of Cycle degree. The "one-decision" complacency that characterized the attitude of the average institutional fund manager at the time is well documented. The area of participation again was narrow, this time the "nifty fifty" growth and glamour issues. Breadth, as well as the Transportation Average, topped early, in 1972, and refused to confirm the extremely high multiples bestowed upon the favorite fifty. Washington was inflating at full steam to sustain the illusory prosperity during the entire advance in preparation for the presidential election. As with the preceding wave Ⓑ, "phony" was an apt description. توصيات العملات 10) E waves — E waves in triangles appear to most market observers to be the dramatic kickoff of a new downtrend after a top has been built. They almost always are accompanied by strongly supportive news. That, in conjunction with the tendency of E waves to stage a false breakdown through the triangle boundary line, intensifies the bearish conviction of market participants at precisely the time that they should be preparing for a substantial move in the opposite direction. Thus, E waves, being ending waves, are attended by a psychology as emotional as that of fifth waves. gold signals Because the tendencies discussed here are not inevitable, they are stated not as rules, but as guidelines. Their lack of inevitability nevertheless detracts little from their utility. For example, take a look at Figure 2-16, an hourly chart of the most recent market action, the first four Minor waves in the DJIA rally off the March 1, 1978 low. The waves are textbook Elliott from beginning to end, from the length of waves to the volume pattern (not shown) to the trend channels to the guideline of equality to the retracement by the "a" wave following the extension to the expected low for the fourth wave to the perfect internal counts to alternation to the Fibonacci time sequences to the Fibonacci ratio relationships embodied within. Its only atypical aspect is the large size of wave 4. It might be worth noting that 914 would be a reasonable target in that it would mark a .618 retracement of the 1976-1978 decline. gold signals There are exceptions to guidelines, but without those, market analysis would be a science of exactitude, not one of probability. Nevertheless, with a thorough knowledge of the guidelines of wave structure, you can be quite confident of your wave count. In effect, you can use the market action to confirm the wave count as well as use the wave count to predict market action. توصيات الفوركس Notice also that Elliott wave guidelines cover most aspects of traditional technical analysis, such as market momentum and investor sentiment. The result is that traditional technical analysis now has a greatly increased value in that it serves to aid the identification of the market’s position in the Elliott wave structure. To that end, using such tools is by all means encouraged. https://www.gold-pattern.com/
  9. Market conditions dictate trading activity on any given day. As a reference, the average small to medium trader might trade as often as 10 times a day. Most importantly, because most Forex Brokers don't charge commission, traders can take positions as often as necessary without worrying about excessive transaction costs. As a newbie, you can think of excessive trading or authority - so how many trades should be done daily? How to win those trades? The answer is both simple and complicated. The simple answer is to trade your proven strategy just as you would like to trade. However, if you are surprised at over or overriding, then you can’t be in a position to be a procedure that has proven to be profitable. First, develop yourself, or look for a strategy to aligns with how active you want to be. Price action guide will be your best option to develop yourself. Strategy Dictates Frequency A well-outlined strategy puts you exactly when to enter, and in any situation, as well as where to go for any profit or loss. As the day traders take their strategies to take their trading volume and frequency will change every day. You should work as a filter for how often your strategy is to trade. Maximum Daily Trades Your strategy determines how often you trade, when overtrading may occur when you take more trades than dictates your strategy. This is often a result of monotony or lack of discipline. As these trades come out of the tested strategy, they are less likely to perform well, reduce profits and increase the cost of unnecessary commissions. If you want to trade all day, develop the adaptation of the conditions of different market positions, as you will face changing circumstances every day, when things are more volatile, less volatile, tremendous, low, and higher volume resources and time.
  10. Forex (বৈদেশিক মুদ্রার বাজার) মুদ্রা বিনিময়ের একটি তরুণ এবং বিকাশমান মার্কেট, যার দৈনিক টার্নওভার বিশ্বের সকল ফিনান্সিয়াল মার্কেটকে ছাড়িয়ে যায়। ব্যাংক ফর ইন্টারন্যাশনাল সেটেলমেন্টস এর মতে, আমেরিকান স্টক এক্সচেঞ্জের দৈনিক টার্নওভার, যা মাত্র 300 বিলিয়ন মার্কিন ডলার, এর তুলনায় দৈনিক টার্নওভার 2010 সালে 4 ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার লেভেলে পৌঁছেছে। Forex মার্কেটে পরিচালিত সকল অপারেশনকে কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত করা যেতে পারেঃ Speculative, Hedging, Trading এবং Regulating. Forex এর ইতিহাসঃ কিভাবে বৃহত্তম ওয়ার্ল্ডয়াইড ফিনান্সিয়াল মার্কেট প্রদর্শিত হয়েছিল? কারেন্সি এক্সচেঞ্জ মার্কেটটি ১৯৭১ সালে স্বর্ণের মান বাতিলকরণের সময়কাল থেকে এর ইতিহাস শুরু করেছিল। আমেরিকার ৩৭তম রাষ্ট্রপতি রিচার্ড নিকসন ছিলেন এই মার্কেটের দীক্ষক। স্বর্ণের মান বাতিল হওয়ার কারণে, স্থিতিশীল মুদ্রার হারের সিস্টেমটি বিধস্ত হয়ে গিয়েছিল। ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে স্মিথসোনিয়ান চুক্তির ফলস্বরূপ, মূদ্রার ওঠানামার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল ৪.৫% (মার্কিন ডলারের বিপরীতে) এর মধ্যে (অন্যান্য মুদ্রা জোড়ার জন্য ৯% এর মধ্যে)। কেবলমাত্র 8 জানুয়ারী ১৯৭৬ সালে জামাইকার কিংস্টনে একটি নতুন মুদ্রা ব্যবস্থার নীতি সম্পর্কিত সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছিল । আইএমএফ-এর সমস্ত অংশগ্রহণকারী-সদস্যগণ স্বর্ণের সরকারী মূল্য নির্ধারণ করতে এবং মুদ্রার হার পরিবর্তনের সীমাবদ্ধতা প্রত্যাখান করেছিলেন। এই সিদ্ধান্তের সাথে মুদ্রা মার্কেটের বিকাশ শুরু হয়। Forex মার্কেটে পরিচালিত সকল অপারেশনকে কয়েকটি গ্রুপে বিভক্ত করা যেতে পারেঃ Speculative, Hedging, Trading এবং Regulating. স্টকের বিপরীতে Forex হলো একটি ওভার-দ্য কাউন্টার (OTC) মার্কেট, যার ট্রেডিংয়ের জন্য নির্দিষ্ট কোনো স্থান এবং কাজের সময় নেই । এর কারণ হলো যে সমস্ত লেনদেনের মূল ভলিউম বিশ্বের বড় বড় ব্যাংকগুলির মধ্যে হয়ে থাকে। সকল ব্যাংক বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত হওয়ায়, ২৪ ঘন্টা (ব্যাংক ছুটির দিন বাদে) অপারেশন পরিচালিত হয়। Forex এ অংশগ্রহণকারী – কে মার্কেট নিয়ন্ত্রণ করে? Forex মার্কেটের প্রধান অংশগ্রহণকারীরা হলো বিশ্বের ব্যাংকসমূহ (বাণিজ্যিক এবং কেন্দ্রীয়)। বড় কর্পোরেশনগুলি যারা বিদেশী অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপে, বিনিয়োগে জড়িত এবং হেজ ফান্ড, ব্রোকারেজ ফার্ম, ডিলিং সেন্টার এবং ব্যক্তিরাও এই প্রক্রিয়াতে অংশ নেয়। Note: Check out the New Year Promo Event of LiteFinance! বাণিজ্যিক ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলি ট্রেডিংয়ের মূল ভলিউম বহন করে। তারা ব্যক্তি এবং আইনী সত্তাদের কাছ থেকে আমানত গ্রহণ এবং তাদের লক্ষ্য অনুসারে মালিকদের কাছে পরবর্তী অর্থ ফেরতের পরিচালনার সাথে জড়িত। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলির মূল লক্ষ্য হচ্ছে তাদের দেশের সরকারী এবং বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলিতে আর্থিক পরিষেবা প্রদান করা। তাদের প্রধান কাজগুলি হলোঃ অর্থ সরবরাহ এবং এক্সচেঞ্জ রেট নিয়ন্ত্রণ; জাতীয় মুদ্রার নোট প্রকাশের নিয়ন্ত্রণ; বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলি থেকে আমানত গ্রহণ এবং ঋণদান, পাশাপাশি তাদের কার্যকলাপের নিয়ন্ত্রণ; দেশের ঋণ পরিচালনা; দেশের স্বর্ণ মুদ্রার মজুদ রক্ষণাবেক্ষণ; অন্যান্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলির সাথে মিথস্ক্রিয়া। আপনি এই নিবন্ধ থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং তাদের কার্যাদি সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে পারেন। Forex দিনের পর দিন আরও বেশি লোককে আকর্ষণ করে কারণ অনেক লোক রেট ওঠানামা থেকে উপকৃত হতে চান। বড় কর্পোরেশন বড় কর্পোরেশনগুলি বিদেশী অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপে নিযুক্ত, তারা বিদেশী মুদ্রায় জাতীয় মুদ্রা বিনিময় করতে ও স্বল্প-মেয়াদী আমানত পরিচালনা করতে এবং তাদের ভবিষ্যতের চুক্তিগুলি হেজেড করতে Forex ব্যবহার করে। এই সংস্থাগুলি বাণিজ্যিক ব্যাংকের পরিষেবাগুলি ব্যবহার করে, কারণ কারেন্সি এক্সচেঞ্জ মার্কেটের সাথে তাদের সরাসরি কোনো অভিগমন নেই। বিনিয়োগ এবং হেজ ফান্ড বিদেশী সম্পদ বহনকারী সংস্থাগুলি বিনিয়োগকারীদের তহবিলগুলিকেও বিভিন্ন নিরাপত্তার মধ্যে রাখে। Forex কোম্পানিগুলি (দালাল ও বেচাকেনা কেন্দ্রগুলো) এজেন্টরা ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের একসাথে লেনদেন রূপান্তর করার জন্য নিয়ে আসেন। তারা কোনও ট্রেডিংয়ের জন্য একটি স্প্রেড যুক্ত করে বা কমিশন ফি নিয়ে তাদের কাজের জন্য অর্থ গ্রহণ করে। ব্যক্তিগত এরা হলো যারা মুদ্রা বিনিময়ের বাণিজ্যিক ক্রিয়াকলাপে জড়িত নয়, উদাহরণস্বরূপ; অর্থ স্থানান্তর, বিদেশে সফরকালে মুদ্রা বিনিময় ইত্যাদি। এই ব্যক্তিরা শুধুমাত্র ১৯৮৬ সালে অনুমানমূলক উদ্দেশ্যে Forex ব্যবহারের সুযোগ পেয়েছিল। তারা Forex সংস্থাগুলির মাধ্যমে অনুমানমূলক অপারেশন পরিচালনা করতে পারে। Forex দিনের পর দিন আরও বেশি লোককে আকর্ষণ করে কারণ অনেক লোক রেট ওঠানামা থেকে উপকৃত হতে চান। তবে, আপনি কাজ শুরু করার আগে, আপনাকে অবশ্যই প্রাথমিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে যা আপনাকে এই কাজে সহায়তা করবে।
  11. ফরেক্স মার্কেটে যদি আপনি দীর্ঘদিন ধরে ট্রেড করে থাকেন, তবে সম্ভবত আপনার সবচেয়ে লাভের এবং লসের ট্রেডটি পাউন্ডের কোন পেয়ারের। হ্যাঁ, পাউন্ড হল সবচেয়ে ভোলাটাইল কারেন্সিগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি। ঐতিহাসিক ভাবেও পাউড কারেন্সিটি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ অবস্থান দখল করে আছে। ফরেক্স ট্রেড করতে হলে শুধু প্রাইস কোনদিকে বাড়ছে বা কমছে তা জানাই শুধু গুরুত্বপূর্ণ নয়, সাথে সাথে আপনি যে দুটি কারেন্সি বা মুদ্রা নিয়ে ট্রেড করছেন, সেগুলো সম্পর্কে জানাও বেশ জরুরী। গত আর্টিকেলে আলোচনা করা হয়েছে ডলার আদ্যোপান্ত নিয়ে। আজকের লেখায় আমরা জানবো পাউন্ড কি, পাউন্ড সম্পর্কে বিস্তারিত এবং কি কি বিষয় পাউন্ডকে প্রভাবিত করে। পাউন্ড কি? পৃথিবীতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি মুদ্রা হচ্ছে ব্রিটিশ পাউন্ড। ব্রিটিশ পাউন্ডকে “পাউন্ড স্টারলিং” ও বলা হয়। পাউন্ড বিশ্বের চতূর্থ সর্বোচ্চ ট্রেড হওয়া মুদ্রা এবং তৃতীয় বৃহত্তম রিজার্ভ কারেন্সি। এর পূর্ণরুপ Great Britain Pound বা সংক্ষেপে GBP নামে পরিচিত। পাউন্ড সংশ্লিষ্ট কারেন্সি পেয়ারগুলোকে আমরা GBP/XXX অথবা XXX/GBP এভাবে দেখতে পাই। আসুন, পাউন্ড সম্পর্কে আরো জানি অর্থনীতির ইতিহাসে পাউন্ডের গুরুত্ব রয়েছে অনেক। একটা সময় ছিলো যখন পাউন্ডই ছিলো বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী মুদ্রা। কিন্তু বর্তমান মার্কেটের আন্তর্জাতিক ট্রেড এবং অ্যাকাউন্ট বিবেচনায় পাউন্ডের সেই অবস্থান দখল করেছে মার্কিন ডলার। দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধ এবং ব্রিটিশ সম্রাজ্য ভেঙ্গে পড়ার ফলশ্রুতিতে ১৯৪০ সালে পাউন্ড তার শ্রেষ্ঠত্ব হারায়। এরপর ধাপে ধাপে পাউন্ড বিভিন্ন সময় অর্থনৈতিক দুরাবস্থায় পড়ে। হেজ ফান্ড এবং কারেন্সি এক্সচেঞ্জের ইতিহাসেও পাউন্ড গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করে রেখেছে। ১৯৯০ সালে বৃটেন ইউরোপিয়ান এক্সচেঞ্জ রেট মেকানিজমে যোগ দেয় এই প্রত্যাশায় যে এটি এক্সচেঞ্জ রেটের সমস্ত অনিশ্চয়তা দূর করতে সক্ষম হবে এবং একটি মাত্র কারেন্সি ব্যবহারের পথ সুগম করবে। দুর্ভাগ্যবশত এই পদ্ধতির মাধ্যমে আশানুরূপ সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায়নি এবং পাউন্ড বিভিন্ন দিক থেকে চাপের মুখে পড়ে। এ সময়ে বিখ্যাত কারেন্সি বিশেষজ্ঞ জর্জ সরোস বলেন যে পাউন্ডের এই রেট টিকবে না এবং অনেকেই তখন বিপুলভাবে পাউন্ড শর্ট করেন। এবং পাউন্ডও ইতিমধ্যে এই সিস্টেম থেকে বেরিয়ে আসে যা Black Wednesday নামে পরিচিত। জর্জ সরোস একাই ১ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমান লাভ করেন সেই ঘটনার কারণে। সম্প্রতি ব্রেক্সিটের কারনেও পাউন্ড বিপুলভাবে বিপর্যস্ত হয়েছে। ফরেক্স মার্কেটের সকল গুরুত্বপূর্ণ কারেন্সির পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে তাদের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তেমনি পাউন্ড মূলত নিয়ন্ত্রিত হয় ইংল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক - ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের মাধ্যমে। মুদ্রাস্ফীতির হার নিয়ন্ত্রন সব কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর কাছেই খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, এবং ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডও সর্বদা চেষ্টা করে যাচ্ছে মুদ্রাস্ফীতির হার ২% এ বজায় রাখতে। যে বিষয়গুলো পাউন্ডকে প্রভাবিত করে যেই সাধারন অর্থনৈতিক বিষয়গুলো ডলারকে প্রভাবিত করে, সেগুলোর বেশিরভাগই অন্যান্য কারেন্সিগুলোকেও প্রভাবিত করে। পাউন্ডও এর ব্যাতিক্রম নয়। ট্রেডিংয়ের জন্য ট্রেডাররা পাউন্ডের অর্থনৈতিক ডাটা বা রিপোর্টগুলকে খুব গুরুত্বের সাথে নেয়। সুদের হার বা ইন্টারেস্ট রেটের পরিবর্তন, জিডিপি, রিটেইল সেলস, ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রডাকশন, মুদ্রাস্ফিতি এবং ট্রেড ব্যালেন্স রিপোর্টগুলো এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বের সাথে বিবেচিত হয়। এছাড়া Employment রিপোর্টগুলো যেমন কি পরিমান নতুন চাকরী হচ্ছে, বেকারত্বের হার ইত্যাদি রিপোর্টগুলোও মার্কেটে প্রভাব ফেলে। এছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গুরুত্বপূর্ণ মিটিং এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির বক্তব্য মার্কেটে তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব ফেলতে পারে। পাউন্ড ট্রেডিং করার সময় এ সকল বিষয় বিবেচনায় রাখতে হবে। রিজার্ভ কারেন্সির দিক থেকে পাউন্ডের অবস্থান বিশ্বে তৃতীয়। বর্তমানেও বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী কারেন্সি হিসেবে পাউন্ড মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে। জনসংখ্যা এবং আকারের দিক থেকে খুব বড় না হলেও ব্রিটেন বিশ্বের প্রধান অর্থনীতিগুলোর একটি এবং বিশ্ব নেতৃত্বের দিক থেকেও অন্যতম। ভোলাটাইল কারেন্সি হিসেবে পরিচিত হলেও ডলারের শক্তিশালী বিকল্প হিসেবে পাউন্ডের অবস্থান নিঃসন্দেহে সুদৃঢ়। পরবর্তীতে আমরা আলোচনা করবো কোন ৫ ধরনের নিউজ পাউন্ডকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে।
  12. As Salamu Alaykum. Hope you all are doing well. I've prepared some video tutorials based on my little experience. I am still a novice trader and still learning. Hope it will be useful for you. N.B. If you don't like it please ignore it and let me know how can I improve the quality of my videos/content. The following are the links:
  13. Learn how to become a Broker (partner) in Forex & Crypto Market without any cost? Now, being a Broker in Forex & Crypto Trading market is easier than you think, Become a Broker with Bitfreezy as they are expanding their network of Broker (partners) in Brokerage. THIS IS A FREE BROKERAGE SOLUTION AT NO COST FOR THE PARTNERS. Being a partner with an existing brokerage company as a Broker (partner) can help you succeed with maximization of profitable business together, as success of the sharing economy starts with collaboration. The entire model of Bitfreezy is based on equal success for all, This company has an aim to build a network of Brokers (partners) to give ease to everyone in becoming of a Broker in Forex Trading Market. BITFREEZY IS OFFERING BROKERAGE FOR ALL TO EXPAND THEIR EARNING. We recommend using their platform to start working with Bitfreezy as a Broker (partner). You’ll receive support and guidance from a trained and certified agent. Become a Broker with Bitfreezy Join Now:- Visit: https://www.bitfreezy.com/become-a-broker/
  14. Elliott Wave Principle and Volume Elliott used volume as a tool for verifying wave counts and in projecting extensions. He recognized that in a bull market, volume has a natural tendency to expand and contract with the speed of price change. Late in a corrective phase, a decline in volume often indicates a decline in selling pressure. A low point in volume often coincides with a turning point in the market. In a normal fifth wave below Primary degree, volume tends to be less than in the third wave. If volume in an advancing fifth wave of less than Primary degree is equal to or greater than that in the third wave, an extension of the fifth is in force. While this outcome is often to be expected anyway if the first and third waves are about equal in length, it is an excellent warning of those rare times when both a third and a fifth wave are extended gold signals At Primary degree and greater, volume tends to be higher in an advancing fifth wave merely because of the natural long term growth in the number of participants in bull markets. Elliott noted, in fact, that volume at the terminal point of a bull market above Primary degree tends to run at an all-time high. Finally, as discussed earlier, volume often spikes briefly at the throw-over point of a parallel trend channel line or the resistance line of a diagonal. (Upon occasion, such a point can occur simultaneously, as when a diagonal fifth wave terminates right at the upper parallel of the channel containing the price action of one larger degree.) توصيات الفوركس In addition to these few valuable observations, we have expanded upon the importance of volume in various sections of this book. To the extent that volume guides wave counting or expectations, it is most significant. Elliott once said that volume independently follows the patterns of the Wave Principle, a claim for which the authors find no convincing evidence. Figure 2-13 The "Right Look" gold signals The overall appearance of a wave must conform to the appropriate illustration. Although any five-wave sequence can be forced into a three-wave count by labeling the first three subdivisions as a single wave A, as shown in Figure 2-13, it is incorrect to do so. Elliott analysis would lose its anchor if such contortions were allowed. If wave four terminates well above the top of wave one, a five-wave sequence must be classified as an impulse. Since wave A in this hypothetical case is composed of three waves, wave B would be expected to drop to about the start of wave A, as in a flat correction, which it clearly does not. While the internal count of a wave is a guide to its classification, the right overall shape is, in turn, often a guide to its correct internal count. توصيات الذهب The "right look" of a wave is dictated by all the considerations we have outlined so far in the first two chapters. In our experience, we have found it extremely dangerous to allow our emotional involvement with the market to let us accept a wave count that reflects disproportionate wave relationships or a misshapen pattern merely on the basis that the Wave Principle’s patterns are somewhat elastic. توصيات الذهب Elliott cautioned that "the right look" may not be evident at all degrees of trend simultaneously. The solution is to focus on the degrees that are clearest. If the hourly chart is confusing, step back and look at the daily or weekly chart. Conversely, if 77 the weekly chart offers too many possibilities, concentrate on the shorter term movements until the bigger picture clarifies. Generally speaking, you need short term charts to analyze subdivisions in fast moving markets and long term charts for slowly moving markets. توصيات العملات https://www.gold-pattern.com/
  15. Wave Personality part 2 Figure 2-15 downswing. Nearly everyone was proclaiming a new bull market. Services were extremely bullish, and the upside volume was running higher than at the peak in 1929. — The 1961-1962 rise was wave (b) in an (a)-(b)-(c) expanded flat correction. At the top in early 1962, stocks were selling at unheard of price/earnings multiples that had not been seen up to that time and have not been seen since. Cumulative breadth had already peaked along with the top of the third wave in 1959. — The rise from 1966 to 1968 was wave Ⓑ in a corrective pattern of Cycle degree. Emotionalism had gripped the public and "cheapies" were skyrocketing in the speculative fever, unlike the orderly and usually fundamentally justifiable participation of the secondaries within first and third waves. The Dow Industrials struggled unconvincingly upward throughout the advance and finally refused to confirm the phenomenal new highs in the secondary indexes. توصيات الذهب — In 1977, the Dow Jones Transportation Average climbed to new highs in a B wave, miserably unconfirmed by the Industrials. Airlines and truckers were sluggish. Only the coal-carrying rails were participating as part of the energy play. Thus, breadth within the index was conspicuously lacking, confirming again that good breadth is generally a property of impulse waves, not corrections. — For a discussion of the B wave in the gold market, see Chapter 6, page 180. توصيات الذهب As a general observation, B waves of Intermediate degree and lower usually show a diminution of volume, while B waves of Primary degree and greater can display volume heavier than that which accompanied the preceding bull market, usually indicating wide public participation. gold signals 8) C waves — Declining C waves are usually devastating in their destruction. They are third waves and have most of the properties of third waves. It is during these declines that there is virtually no place to hide except cash. The illusions held throughout waves A and B tend to evaporate and fear takes over. C waves are persistent and broad. 1930-1932 was a C wave. 1962 was a C wave. 1969-1970 and 1973-1974 can be classified as C waves. Advancing C waves within upward corrections in larger bear markets are just as dynamic and can be mistaken for the start of a new upswing, especially since they unfold in five waves. The October 1973 rally (see Figure 1-37), for instance, was a C wave in an inverted expanded flat correction. توصيات الفوركس 9) D waves — D waves in all but expanding triangles are often accompanied by increased volume. This is true probably because D waves in non-expanding triangles are hybrids, part corrective, yet having some characteristics of first waves since they follow C waves and are not fully retraced. D waves, being advances within corrective waves, are as phony as B waves. The rise from 1970 to 1973 was wave Ⓓ within the large wave IV of Cycle degree. The "one-decision" complacency that characterized the attitude of the average institutional fund manager at the time is well documented. The area of participation again was narrow, this time the "nifty fifty" growth and glamour issues. Breadth, as well as the Transportation Average, topped early, in 1972, and refused to confirm the extremely high multiples bestowed upon the favorite fifty. Washington was inflating at full steam to sustain the illusory prosperity during the entire advance in preparation for the presidential election. As with the preceding wave Ⓑ, "phony" was an apt description. توصيات العملات 10) E waves — E waves in triangles appear to most market observers to be the dramatic kickoff of a new downtrend after a top has been built. They almost always are accompanied by strongly supportive news. That, in conjunction with the tendency of E waves to stage a false breakdown through the triangle boundary line, intensifies the bearish conviction of market participants at precisely the time that they should be preparing for a substantial move in the opposite direction. Thus, E waves, being ending waves, are attended by a psychology as emotional as that of fifth waves. gold signals Because the tendencies discussed here are not inevitable, they are stated not as rules, but as guidelines. Their lack of inevitability nevertheless detracts little from their utility. For example, take a look at Figure 2-16, an hourly chart of the most recent market action, the first four Minor waves in the DJIA rally off the March 1, 1978 low. The waves are textbook Elliott from beginning to end, from the length of waves to the volume pattern (not shown) to the trend channels to the guideline of equality to the retracement by the "a" wave following the extension to the expected low for the fourth wave to the perfect internal counts to alternation to the Fibonacci time sequences to the Fibonacci ratio relationships embodied within. Its only atypical aspect is the large size of wave 4. It might be worth noting that 914 would be a reasonable target in that it would mark a .618 retracement of the 1976-1978 decline. gold signals There are exceptions to guidelines, but without those, market analysis would be a science of exactitude, not one of probability. Nevertheless, with a thorough knowledge of the guidelines of wave structure, you can be quite confident of your wave count. In effect, you can use the market action to confirm the wave count as well as use the wave count to predict market action. توصيات الفوركس Notice also that Elliott wave guidelines cover most aspects of traditional technical analysis, such as market momentum and investor sentiment. The result is that traditional technical analysis now has a greatly increased value in that it serves to aid the identification of the market’s position in the Elliott wave structure. To that end, using such tools is by all means encouraged. https://www.gold-pattern.com/
  16. Lite Finance বেশ কিছুদিন পর পর এই এরকম অফার এবং ক্যাম্পেইন দিয়ে থাকে। তবে এবার এর ক্যাম্পেইন বেশ আকর্ষণীয় মনে হয়েছে আমার। মাত্র ৩ ক্লিক এ জিতে নিন iPhone 13 Pro Max, MacBook Pro এবং iPad Pro বিস্তারিত LiteFinance এ।
  17. আপনার ব্র্যান্ড-নিউ Yamaha FZ V3 বাইকে একটি রাইড অথবা অফারের যেকোন একটি সেরা আইটেমে নিজের করে নিতে চান? এই 15 জুন - 15 জুলাই 2020 তারিখ পর্যন্ত চলা XM প্রমোশনে অংশগ্রহন করে বিজয়ীদের একজন হওয়ার সুযোগ নিন। বাংলাদেশে বসবাসরত আমাদের নতুন এবং পুরাতন সকল ক্লায়েন্টদের জন্য প্রযোজ্য, একটি উত্তেজনাপূর্ণ গ্রীষ্মের প্রমোশনে 10 টি দুর্দান্ত প্রাইজ আপনার জন্য অপেক্ষা করছে। লাকি ড্র রেফেলে অংশগ্রহন করতে, আপনাকে অ্যাকাউন্টে $100 (অথবা মুদ্রার সমতুল্য) পরিমান ফান্ড অ্যাকাউন্টে ডিপোজিট করে, ফরেক্স, গোল্ড অথবা সিলভারে 15 জুন - 15 জুলাই 2020 তারিখের মধ্যে 1 স্ট্যান্ডার্ড রাউন্ড টার্ন লট (অথবা 100 মাইক্রো রাউন্ড টার্ন লট) ট্রেড করতে হবে। https://www.xm.com/bn/motorbike-promo-bangladesh-june-2020
  18. আজকের ফরেক্স সিগন্যাল । GBPUSD গত সাপ্তাহে এই পেয়ারটি ১.৩৭০৩৮ এই প্রাইজ হাই করে ১.৩৫২৬৮ এই প্রইজে মধ্যে কারেকশন করে । আজ সোমবার মাকেট ১.৩৫২৬৮ এই প্রইজ কে ব্রেক করে ডাউন ট্রেন্ড এর নিদেশ দিচ্ছে । তাই আমারা এই পেয়ার টিতে একটি সেল ট্রেড নিতে পারি । এন্টি সেল এন্টি প্রাইজ ১.৩৫০০৪ এস এল : ১.৩৬৭৪৮ টি পি : ১.৩০৯৬৫ আশা করছি এই ট্রেড থেকে ভাল একটি লাভ হবে ।
  19. একথা নতুন করে বলার কিছু নাই যে, ফরেক্স মার্কেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় লিকুইডিটি মার্কেট। যেখানে ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন ডলার লেনদেন হয় প্রতিদিন। এই মার্কেটে আমার আপনার মত যারা ট্রেড করি তারা শুরুতেই একটা কথা শুনে আসি যে, এই মার্কেটে ৯৫% লুজার!! কিন্ত কেন এতো বড় অংশ লুজার তা কি কেউ জানি?? => আজ এই লেখায় আপনি অনেক নতুন বিষয় জানতে চলেছেন, তা হয়তো আপনি আগে ভাবেননি কখনো। অথবা ভেবেছেন, কিন্ত সিরিয়াস হিসেবে নেন নি কখনো অথবা জেনেও থাকতে পারেন, কিন্ত ততোটা গুরুত্ব দেননি। আজ থেকে সেসব গুরুত্ব দিতে শিখবেন আশা করছি। হাতে সময় আছে তো? একটু সময় নিয়ে লেখাটা পড়ুন। বোঝার চেষ্ঠা করুন। দরকার হলে আরেকবার পড়ুন। নয়তো বুকমার্কে সেইভ করে রাখুন, আপনার ফেসবুক ওয়ালেও শেয়ার করে রাখুন যাতে সবাই জানতে পারে ফরেক্স মার্কেটের এই নিগুঢ় রহস্যের ব্যাপারে। সবার প্রথমে আপনাকে জানতে হবে এই ফরেক্স মার্কেটে ব্যবসা করে দুই শ্রেনীর ব্যবসায়ী। এক রাঘব বোয়ালেরা, আর দুই চুনোপুঁটিরা। এখানে রাঘব বোয়াল কারা? এখানে রাঘব বোয়াল হিসেবে কাজ করে বিশ্বের বড় বড় ব্যাংক, বড় বড় ফিন্যান্সিয়াল করপোরেশানগুলো। তবে তারা কিন্ত বাংলাদেশের শেয়ার মার্কেটের মত এই মার্কেটকে ম্যানিপুলেট করার কোন ক্ষমতাই রাখে না। মার্কেট মার্কেটের মতোই চলে। এবার আসি চুনোপুঁটিদের কথায়। এই চুনোপুঁটিই হচ্ছে আমার আপনার মত ট্রেডারেরা। বলা হয় এই মার্কেটে ৯৫% লুজার। এই লুজার কারা? ঐ সব রাঘব বোয়ালেরা? কখনোই না! তারা কিন্ত এই ৯৫% লুজারের মাঝে পড়েনা। কেন? কারন তারা এখানেই তাদের অর্থ যথাযথ ব্যবহার করে। বিভিন্ন ব্রোকারেরা তাদের কাছ থেকে কমিশনের ভিত্তিতে স্বত্ব কিনে নিয়ে আমাদের মত ট্রেডারদের ট্রেড করার সুযোগ করে দেয়। আর লুজারদের তালিকায় আমাদের মত ট্রেডারেরা থাকে। এই যে আপনি ৯৫% লুজারের কথা শুনছেন, তারা কিন্ত আমার আপনার মতোই ট্রেডারেরা। নয়তো সেই সব রাঘব বোয়ালেরা লস করলে ফরেক্স মার্কেটে লিকুইডিটি সংকট দেখা দিত। এই ট্রিলিয়ন ডলারের লেনদেনও কমে আসত যদি এখানে সেই রাঘব বোয়ালদেরও ৯৫% লুজার হতো। কিন্ত বাস্তবে সেই মার্কেট আরও বড় হচ্ছে। এতেই বোঝা যাচ্ছে বাস্তবতা। এই বিশাল মার্কেটে বড় বড় বিজনেসম্যানদের সঙে আপনিও যখন নিজেকে শামিল করছেন, তখন আপনার চিন্তাধারাও তাদের চিন্তাধারার সাথে মেলাতে হবে। যদি তা না করতে পারেন, তবেই আপনি লুজার হবেন নিশ্চিত। আর লুজারদের পার্সেন্টেজ দেখে বোঝাই যায় যে শতকরা ৯৫ জন ট্রেডারেরাই নিজেদের সেই সব বিজনেসম্যানদের চিন্তাধারার সাথে নিজেদের মেলাতে পারেনি। ফলাফল এমন বিশাল লুজারের সংখ্যাবৃদ্ধি। এবার আসি বড় বড় ব্যাবসায়ীদের সাথে আমাদের মত ট্রেডারদের স্ট্র্যাটেজিক্যাল পার্থক্যের বিষয়েঃ আপনি সাড়ে পাঁচ’ফুট বা ছ’ফুট উচ্চতার মানুষ। আপনি হাটার সময় এক ধাপেই প্রায় দুই ফুট পার হয়ে যেতে পারেন। এই দু ফুট রাস্তায় হালকা কাদা পানি, খানা খন্দ যাই থাকুক না কেন। আপনার কিন্ত সেসব না দেখলেও চলে। কিন্ত এই পথ যদি একটা পিপড়া অতিক্রম করতে চায়? তাহলে কি হবে? তাকে প্রতি ইঞ্চি ইঞ্চি হিসেব করে এগতে হবে, নয়তো কাদায় আটকে যেতে পারে, খানাখন্দের ভিতর পানি থাকলে সেখানেও প্রান সংশয় দেখা যেতে পারে। তাই তাকে হিসেব করে করে এগোতে হয়। চারদিকে দেখেশুনে নিয়ে এগোতে হয়। ঠিকঠাক ভাবে এগোতে পারলে সেই পথ পারি দিয়ে পারে। অথবা কোন ভুল করলে প্রানটাও হারাতে পারে। এই উদাহরনের সাথে ফরেক্স এর কি সম্পর্ক?? জ্বি, সম্পর্ক আছে। এটাই আসল সম্পর্ক। যারা যারা রাঘব বোয়াল, তারা মিলিয়ন মিলিয়ন ডলারের ব্যালান্স নিয়ে একবারে মাসের পর মাস ট্রেড ওপেন করে বসে থাকে, টাইমফ্রেমের দিক দিয়ে তারা এক লাফে দুই-আড়াই ফুট যাবার মত এগিয়ে থাকে, এই সময়ের মাঝে আমাদের মত ছোট ছোট ট্রেডারদের কেউ এক মিনিট, কেউ ৫ মিনিট, কেউ ৩০ মিনিট, কেউ ১ ঘন্টা, কেউ ৪ ঘন্টা আবার কেউ এক দিনের টাইমফ্রেম নিয়ে সেই পিপড়ার মত হিসেব করে করে সামনে এগোতে চায়। ফলাফল আমাদের মত ট্রেডারদের রিস্ক কয়েক হাজার গুন বৃদ্ধি পায়। এই ঝুঁকিপুর্ণ পথ পার হতে হতেই বেশিরভাগ ট্রেডার ঝড়ে পড়ে অনায়াসে। কারন তারা হয় ঝুঁকি সম্পর্কে তেমন সচেতন থাকেন না। নয়তো তারা ঝুঁকিটাকে ঠিকমত ম্যানেজ করতে শেখেন না। ফলাফল একের পর এক একাউন্ট ডাম্প হয়ে যাওয়া।আর লুজারদের পার্সেন্টেজ বাড়তে থাকা। এতোক্ষন তো আলোচনা করা হল কেন এতো লুজার হয়। এবার আসেন আমরা একটু জেনে নেই কিভাবে এই ঝুকিপুর্ন পথ নিরাপদে পর হতে পারবেন। আমি পয়েন্ট আকারে বিষয়গুলো ব্যাখ্যা করি। তাতে হয়তো বুঝতে সুবিধা হবে। ১) সেহেতু ফরেক্স এর পথ সমতল নয়, উঁচুনিচু আর খানা-খন্দে ভরা, সেহেতু আপনাকে সর্বপ্রথম এই পথ পাড়ি দেবার মত একটা স্ট্র্যাটেজী ঠিক করতে হবে। ২) স্ট্র্যাটেজীটা যেমনই হোক না কেন, আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে নুন্যতম প্রফিট রেশিও যেন রিস্ক রেশিওর থেকে তিনগুন হয়। অর্থ্যাত আপনার স্টপ লস ১০ পিপ্স হলে যেন টেক প্রফিট ৩০ পিপ্স হয় কমপক্ষে। ৩) এমন স্ট্র্যাটেজীর সুফল আপনি এভাবে পাবেন যে, আপনার একটা ট্রেড প্রফিটে গেলে সেই প্রফিট আপনার পরবর্তী তিনটা ট্রেড লসে গেলেও আপনার মুল ব্যালান্স অক্ষুন্ন থাকবে। ৪) যে স্ট্র্যাটেজীই ব্যবহার করেন না কেন, সবসময় ট্রেন্ডের পক্ষে ট্রেড নেবেন। সাগরে ঢেউ বেশি হলে মাঝি নৌকার পাল কিন্ত যেদিকে বাতাস বইতে থাকে ঠিক সেদিকে তুলে ধরে, কারন বাতাসের উল্টোদিকে যেতে চাইলে প্রানটা হারাতে হতে পারে। ফরেক্স মার্কেটে ট্রেন্ডটাও ঠিক তেমনি। আপনি ট্রেন্ডের পক্ষে থাকলে নিজেকে বেশ নিরাপদে রাখতে পারবেন। কিন্ত ট্রিলিয়ন ডলারের সমুদ্রে নিজের কয়েকশত বা কয়েকহাজার ডলারের মুলধন নিয়ে ট্রেন্ডের বিপক্ষে যাবার সাহস করলে ফলাফল কি হতে পারে তা নিশ্চয় আপনি নিজেই আঁচ করতে পারছেন। ৫) কখনোই বিশ্বাস করবেন না যদি কেউ বলে যে, সে এই মার্কেটে কেউ ৮০% বা ৯০% টানা প্রফিট করে চলছে। তার মানে আপনিও তেমনটি করতে পারবেন। সুতরাং আপনি তার কথা শুনেই ছুটে চললেন তার কাছে, তার তালীম নেবার আশায়, কিন্ত ফলাফল দেখলেন নেগেটিভ। অর্থ্যাত আপনি আবারও লস করেছেন। বিখ্যাত এক ট্রেডারের এক বানী জেনে রাখুনঃ “In this business if you’re good, you’re right six times out of ten. You’re never going to be right nine times out of ten.” -Peter Lynch ৬) মনে রাখবেন ১০ টা ট্রেডের ৮-৯ টা ট্রেডে আপনি ১০ পিপ্স করে প্রফিট নিলেন এভারেজে, কিন্ত বাকি ১-২ টা ট্রেডেই আপনি লস করেছেন ৫০-১০০ পিপ্স করে টোটাল ১০০-২০০ পিপ্স। এখানে আপনার ট্রেডগুলোর প্রফিট রেশিও ৮০%-৯০% হলেও আল্টিমেটলি কিন্ত আপনি বেশ ভালোই লসের স্বীকার হয়ে চলেছেন। এখন কি বুঝতে পারছেন সমস্যাটা কোথায় ?? ৭) আমি ১:৩ রেশিওতে ট্রেড করতে বলেছি, তার কারন আপনি যদি ৫০% উইনও করেন , তবুও আপনি ভাল রকমের প্রফিটে থাকবেন। ১০টা ট্রেডের ৫টা ১০ পিপ্স করে লস করলেন, তার মানে ৫০ পিপ্স লস হলো, আর বাকি ৫টা তিনগুন করে প্রফিট করলেন।তার মানে ১৫০ পিপ্স প্রফিট হলো। লাভ লস মিলে কিন্ত আরও ১০০ পিপ্স প্রফিট করলেন আপনি। এখানেই প্রকৃতপক্ষে লাভ লসের হিসেব লুকিয়ে থাকে। ৮) নিজের ব্যালান্স নিয়ে সবসময় যত্নবান হবেন। কখনোও নেগেটিভ হলে হাল ছেড়ে দেবেন না। ঠান্ডা মাথায় ভেবে এর কারন বের করুন। ইমোশনালি কোন ট্রেড চালু করবেন না। ফরেক্স মার্কেট কারও ইমোশনকে পাত্তা দেয় না। জেনে রাখুন এই সফল ট্রেডার কি বলেছেনঃ “Don’t focus on making money; focus on protecting what you have.” – Paul Tudor Jones ৯) এরপর কারেন্সী পেয়ার বাছাই করতে সচেতন হোন। মনে রাখবেন আলাদা দেশ, আলাদা কারেন্সি মুভমেন্ট। সুতরাং একই ব্যবসা পদ্ধতি দিয়ে আলাদা দেশের কারেন্সি মুভমেন্টকে নিজের কন্ট্রোলে নিয়ে আসা অনেক কষ্টের। কারন মাছের ব্যবসা পদ্ধতি দিয়ে আপনি আলুর ব্যবসা করতে গেলে লস খাবেনই। সুতরাং পারতপক্ষে একটি কারেন্সী পেয়ার বাছাই করুন যা আপনার স্ট্র্যাটেজীর সাথে মানানসই হয়। নয়তো কোন একটা কারেন্সী বাছাই করুন, এরপর সেই কারেন্সীর যতগুলো পেয়ার আছে, সেগুলোতে ট্রেড করুন। ১০) যতগুলো পেয়ারই বাছাই করেন না কেন। এখানে মানি ম্যানেজমেন্ট আপনাকে ফলো করতেই হবে। এই বিষয়টা অনেকেই জানে না। আজ পরিস্কার হয়ে জেনে নিন। মানি ম্যানেজমেন্ট হচ্ছে, আপনার মুলধনকে নিরাপদ রাখা। ধরুন আপনার ব্যালান্স ১০০ ডলার। আপনি ৫% রিস্ক নিবেন। তাহলে কি করবেন? এখানে, আপনি যতগুলো ট্রেডই নেন না কেন, আপনার সকল স্টপ লসের হিসেব মিলিয়ে যেন ৫ ডলারের বেশি না লস হয়। কারন একবার সবগুলো লস হয়ে গেলেও আপনি আরও ১৯ বার একই ভাবে ট্রেড করার সুযোগ পাবেন। আগের লস রিকভারি করে আবারও প্রফিটে নিয়ে আসার সুযোগ পাবেন। এ বিষয়ে আরেকজন সফল ট্রেডারের বানী শুনুনঃ “Frankly, I don’t see markets; I see risks, rewards, and money.” – Larry Hite ১১) বাংলা একটা প্রবাদ আছে, “ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না” এটা এখানে প্রযোজ্য হবে। সুতরাং ট্রেড ওপেন করার আগে ট্রেন্ড, আপনার স্ট্র্যাটেজী, সব দিক বিবেচনা করে পারফেক্ত হলে তবেই ট্রেড ওপেন করুন। টেক প্রফিট লেভেল, স্টপ লস লেভেল সেট করুন। এরপর বার বার চার্ট দেখতে যাবেন না। তাতে অস্থিরতা বাড়ে শুধু। আর অস্থির মনই আপনাকে ভুল ডিরেকশান দিয়ে ভুল কিছু সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করে। সুতরাং ট্রেড ওপেন করুন এবং তার কথা ভুলে যান। পরের এন্ট্রি খোঁজ করুন। সমসময় মনে রাখবেন এই সফল ট্রেডারের কথাঃ The goal of a successful trader is to make the best trades. Money is secondary.” – Alexander Elder সবশেষে বলতে পারি যে, ট্রেড বাই ট্রেড হিসেব না করে মাসে কয়টা ট্রেড নিলেন, তার টোটাল হিসেব করুন। কত পিপ্স প্রফিট পেলেন, কত পিপ্স লস করলেন তার হিসেব বের করুন। একই ভাবে ব্যাকটেস্ট করুন। মাসে কেমন প্রফিট এর সুযোগ ছিল সেসব মাসে তা বের করুন। একটা পরিস্কার ধারনা পাবেন। এভাবে টানা ২-৩ মাস করে যান, এতে অভ্যস্ত হয়ে যাবেন একসময়। আর একবার অভ্যস্ত হয়ে গেলে আপনি নিজেকে সেই ৫% প্রফিটেবল ট্রেডারদের মাঝে দেখতে পাবেন আমি নিশ্চিত। পরিশেষে, সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেন আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আমাকে সুস্থ রাখেন। আর ফরেক্স মার্কেটের কল্যানে আরও বেশি বেশি মানুষের মেহনত করতে পারি। অনেকেই ভালভাবে ফরেক্স জানতে ও শিখতে আগ্রহ দেখিয়েছেন, অনেকে আবার ট্রেডিং সিগনাল ফলো করার আগ্রহের কথাও জানিয়েছেন, তারা আমাকে মেসেজ দিতে পারেন অথবা আমার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে ইনবক্সে একটা মেসেজ দিয়ে রাখবেন। আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দেবার চেষ্ঠা করা হবে ইনশাল্লাহ। অত্যন্ত স্বল্প ফী’র মাধ্যমে যে কেউ এখানে সিগনাল পেতে পারেন নিজেদের ফরেক্স শেখার পাশাপাশি বাড়তি কিছু প্রফিট পাবার আশায়। আমার ফেসবুক পেইজ লিংকঃ https://www.facebook.com/bmfxanalystbd/ আমার স্কাইপ আইডীঃ live:bmfxanalyst পরিশেষেঃ ব্যবসা নিজে ভালভাবে শিখে নিয়ে নিজের বুদ্ধি ব্যবহার করে করাই সবচেয়ে ভাল। এতে ব্যবসায় আন্তরিকতা বজায় থাকে। আর আন্তরিকতার উপর নির্ভর করে সৃষ্টিকর্তা ব্যবসায় বরকত দিয়ে থাকেন। কারন আল্লাহ তায়ালা ব্যবসাকে হালাল করেছেন। আর মহানবী (স) বলেছেন, “তোমরা ব্যবসা করো, ব্যবসায়ে ১০ ভাগের ৯ ভাগ রিজিকের ব্যবস্থা আছে।” সৃষ্টিকর্তা আমাদের কবুল করুন। আমীন।
  20. #USDJPY D1 চার্টে আমরা দেখতে পাচ্ছি Head & Shoulder প্যাটার্ন তৈরী করেছে, এমনকি উপর থেকে আসা একটা ডাউনট্রেন্ড লেভেল ব্রেক করেও ফেলেছে। আবার নিচের দিক থেকে আপট্রেন্ড কন্টিনিউ করেই চলেছে। এখন এন্ত্রি কনফার্মেশনের অপেক্ষা শুধু। আপনার নিজের ট্রেডিং স্ট্রাটেজীতে যদি এমন পজিশনে কোন এন্ট্রি কনফার্মেশন পেয়ে যান, তবে সুন্দর একটা এন্ট্রি পেয়ে যাবেন, এমন আশা করছি। পরিশেষে, ইরান ও রাশান নেতাদের বৈঠক ইস্যুতে আমেরিকাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে রাশিয়া কাস্পিয়ান সাগরে ইরানের সাথে বানিজ্য কন্টিনিউ রাখার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কি সিদ্ধান্ত নেবেন ট্রাম্প সরকার, এমন সকল ইউএস এর বানিজ্যিক সংক্রান্ত ইস্যুর দিকে নজর রাখা উচিত ফান্ডামেন্টালি। কারন ট্রাম্প প্রশাসনের একটি সিদ্ধান্ত ইউএসডি কারেন্সির মুভমেন্ট যে কোন দিকে ঘটাতে পারে। তাই, সেদিকেও একটি চোখ দিয়ে রাখা উচিত। সবার জন্য শুভকামনা রইল। Trade with real ECN Broker:
  21. Hi, My name is Anu I am officially representative of Xtreamforex XtreamForex is a forex broker, Member of Grandinvesting Group Incorporated in MIS Registration number 84516 IBC 2016 Company number: 84516 If you have any question regarding this broker about the services and promotion feel free to ask me here. i will be happy to assist you. Regards Anu
  22. ট্রেডিং স্ট্রাটেজি এমন হওয়া উচিত যেন তা কোন কোন চার্টকে বর্ণনা করতে সক্ষম হয়। স্ট্রাটেজিতে থাকতে পারে অনেক ধরনের টুলস। আর কোন চার্টকে যদি কোন ট্রেডিং স্ট্রাটেজি বর্ণনা করতে না পারে তাহলে কিছু আপডেট আনা উচিত অথবা Exceptional হিসেবে ধরে নেয়া উচিত। যদি স্ট্রাটেজি Explain করতে পারে কোন প্রাইসের Movement তাহলে সেটাই হবে প্রকিত ট্রেডিং স্ট্রাটেজি। উদাহরন হিসেবে বলতে পারি ১৯৩০ সালের USA Great Depression ( লং-টাইম বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দা). তখনকার একটাও Economist বর্ণনা করতে পারেনি Great Depression কে তাদের Economic Theory দিয়ে। ঠিক তখনি #John_Maynard_Keynes দীর্ঘ সময় স্টাডি করে একটা থিওরি (IS LM Model)আবিস্কার করেন নতুন কিছু টুলস ব্যবহার করে আর তার থিওরি সক্ষম হয়েছিল Great Depression বর্ণনা করতে এবং তার জন্য তিনি অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছিলেন। শুধু তাই না, IS LM Model এর জন্য তাকে বলা হয় Father of Macro Economics আমাদেরও উচিত একটা নিজস্ব ট্রেডিং স্ট্রাটেজি থাকা যেটাকে আমারা স্টাডির মাধ্যমে তৈরি/ ডেভেলপ করতে পারব। সাথে কিছু Exceptional ও থাকবে। আর তার মাধ্যমেই হতে পারব আমরা সফল। এমনও হতে পারে আমরা নিজের তৈরি করা ট্রেডিং স্ট্রাটেজি বিখ্যাত হয়ে গিয়েছে এবং বিশ্ব বাংলাদেশকে চিনবে আপনার বা আমার ট্রেডিং স্ট্রাটেজি দিয়ে ঠিক যেমনটা হয়েছে #ওয়াররেন_বাফেট এর বেলায়, তার stock valuation method তাকে সাফল্যের দিকে নিয়ে গিয়েছে এবং মানুষ ফলো করে এখনও। স্বপ্ন দেখুন এবং স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য নিয়মিত কাজ করুন। ভেঙে পরে হাল ছেড়ে দিলে চলবে না। মনে রাখতে হবে ব্যর্থ না হলে সফলতা মুখ দেখা যায়না। ব্যর্থতার কারন খুজে বের করে আস্তে আস্তে সামনে এগিয়ে গেলেই সফলতা আসবেই আসবে ২ দিন আগে আর পরে Note: This is my personal opinion about what i have learned from my life lesson and any one may disagree with my opinion
  23. আজ আমরা AUDNZD কারেন্সী পেয়ার নিয়ে কথা বলব। ডেইলী চার্টে দেখতে পাচ্ছি যে, পরিস্কার আপট্রেন্ডের পথে রয়েছে মার্কেট। একই সাথে চার ঘন্টার চার্টে দেখতে পাছি, ডাউন ট্রেন্ড ক্রস করে উপরে যাবার ট্রাই করছে। সুতরাং উপরে যাবার সম্ভাবনা অনেক বেশি। এবার আপনার নিজের এনালাইসিস কি বলছে? একই বলছে তো? একই বলে থাকলে দেরী কেন? সেট আপ নিয়ে নিন। আপনার শুভকামনা। চার্ট টি দেখুনঃ
  24. সবচেয়ে ভালো ফরেক্স রোবট কোন টি দাম কতো?

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...