Jump to content

ক্রিপ্টো সম্পর্কে বাইডেনের নির্বাহী আদেশে যে বিষয়গুলো থাকছে


হোয়াইট হাউসের একটি ঘোষণা অনুযায়ী, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গতকাল ক্রিপ্টোতে একটি দীর্ঘ প্রতীক্ষিত নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। বাইডেন ফেব্রুয়ারির শেষে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করবেন বলে আশা করা হয়েছিল, রাশিয়া ঐ সপ্তাহে ইউক্রেনে আক্রমণ শুরু করেছিল।

হোয়াই হাউসের নির্বাহী আদেশে বলা হয়েছে, উল্লেখ্য যুক্তরাষ্ট্রকে এই দ্রুত বর্ধনশীল স্থানে প্রযুক্তিগত নেতৃত্ব বজায় রাখতে হবে। ঝুঁকি মোকাবেলা এবং ডিজিটাল সম্পদ ও তাদের প্রযুক্তির সম্ভাব্য সুবিধাগুলোকে কাজে লাগানোর জন্য সর্বপ্রথম সম্পূর্ণ-সরকারি পদ্ধতি।

নির্বাহী আদেশে ডিজিটাল সম্পদ অগ্রাধিকারের জন্য বিভিন্ন সরকারি বিভাগ এবং সংস্থাগুলোকে নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে নীতি নির্ধারনের নির্দেশ দেয়। প্রথম অগ্রাধিকার দেয়া হবে, ইউএস ভোক্তা, বিনিয়োগকারী এবং ব্যবসার সুরক্ষা’’ যা নির্বাহী আদেশে ট্রেজারি বিভাগ এবং অন্যান্য সংস্থাগুলোকে ‘‘নীতির সুপারিশগুলো মূল্যায়ন ও বিকাশের জন্য’’ নির্দেশ করে।

Untitled-1.jpg

দ্বিতীয় অগ্রাধিকার হল ‘‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বব্যাপী আর্থিক স্থিতিশীলতা রক্ষা করা।’’ তৃতীয় অগ্রাদিকার হল ‘‘ডিজিটাল সম্পদের অবৈধ ব্যবহারের দ্বারা সৃষ্ট অবৈধ অর্থ ও জাতীয় নিরাপত্তা ঝুঁকি প্রশমিত করা।’’ নির্বাহী আদেশে এই ঝুঁকিগুলো কমানোর জন্য সমস্ত প্রাসঙ্গিক মার্কিন সরকারী সংস্থাগুলোতে সমন্বিত পদক্ষেপের ফোকাস করে।

এই এজেন্সিগুলোকে মিত্র এবং অংশীদারদের সাথে কাজ করার নির্দেশ দেয় যাতে আন্তর্জাতিক কাঠামো, সক্ষমতা এবং অংশীদারিত্বগুলো প্রতিক্রিয়াশীল হয়।

নির্বাহী আদেশে চতুর্থ যে বিষয়টির অগ্রাধিকার দেয় হয়, ‘‘বিশ্বব্যাপী আর্থিক ব্যবস্থাপনায় মার্কিন নেতৃত্বকে শক্তিশালী করার জন্য প্রযুক্তি এবং অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতায় মার্কিন নেতৃত্বের প্রচার করা’’ একটি উপযুক্ত কাঠামো প্রতিষ্ঠার জন্য বাণিজ্য বিভাগকে নির্দেশ দেয়।

এছাড়াও যুক্ত করা হয়, ‘‘প্রযুক্তিগত অগ্রগতি সমর্থন করা এবং ডিজিটাল সম্পদের দায়িত্বশীল বিকাশ ও ব্যবহার নিশ্চিত করা’’ এবং মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডিজিটাল কারেন্সি অন্বেষণ করা।’’

নির্বাহী আদেশের প্রেক্ষিতে ট্রেজারি বিভাগ এবং সেক্রেটারি ইয়েলেনের ভূমিকা

বাইডেনের নির্বাহী আদেশে বর্ণিত অগ্রাধিকারের মধ্যে একটি হল ‘‘নিরাপদ এবং সাশ্রয়ী মূল্যের আর্থিক পরিষেবাগুলোতে ন্যায়সঙ্গত অ্যাক্সেসের প্রচার করা। ’’ এর জন্য ট্রেজারি সচিব, প্রাসঙ্কিক সংস্থার সাথে কাজ করে অর্থ, পেমেন্ট সিস্টেমের ভবিষ্যত সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন তৈরি করবেন। প্রতিবেদনটি ১৮০ দিনের মধ্যে বাইডেনের কাছে জামা দিতে বলা হয়েছে।

বাইডেনের নির্বাহী আদেশের পদক্ষেপ ডিজিটাল কারেন্সিগুলোর প্রাইস বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের ডিজিটাল কারেন্সি নিয়ে আলোচনা মার্কেটে ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে।

ফরেক্স এবং কিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং শিখতে বিডিপিপসের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্কাইব করুন

 Share

0 Comments


Recommended Comments

There are no comments to display.

Guest
Add a comment...

×   Pasted as rich text.   Paste as plain text instead

  Only 75 emoji are allowed.

×   Your link has been automatically embedded.   Display as a link instead

×   Your previous content has been restored.   Clear editor

×   You cannot paste images directly. Upload or insert images from URL.

Loading...

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×
×
  • Create New...