Jump to content

ফোরাম ফিড

This stream auto-updates

  1. Yesterday
  2. Date : 22nd July 2021. Market Update – July 22 – USD cools as risk aversion slides. Trading Leveraged Products is risky Market News Today – USD dipped from 3-mth highs, USDIndex down (from 93.18 to 92.80) as Equities bounce back, recovering all of Monday’s fall on the back of strong Earnings (+0.8% & VIX back to 20.00). Yields recovered to 1.28% (20yr auction filled at 1.89%). Virus concerns continue to weigh. OIL Inventories +2.4m vs -4.6m expected, USOil futures touched $70.00, Gold back under $1800. Overnight – JPY closed until Monday, shares in Asia struggled to follow US higher, AUD trade & Confidence data mixed. (50% of popn. remain in lockdown). European Open – DAX and FTSE 100 futures are up 0.3% and 0.2% respectively, U.S. futures are also slightly higher, so the positive momentum that dominated yesterday’s session remains in place, albeit with a slightly more cautious tone to start the day. In FX markets EURUSD is little changed at 1.1793, Cable at 1.3719. Earnings reports helped to underpin stock market sentiment on Wednesday and company news will remain in focus today, but for the Eurozone the main item on the agenda is the ECB policy meeting. ECB Preview – The central bank is expected to keep overall settings unchanged, but Lagarde has hinted that the forward guidance will be tweaked following the change in the inflation target and markets are hoping for a commitment to ongoing support beyond the immediate crisis phase. So the meeting is now of more significance and LIVE…. Today – The ECB policy announcement, US Weekly Claims & EZ consumer confidence and Earnings from Abbot Labs, Blackstone, AT&T, Intel, Snap & Twitter. Biggest FX Mover @ (06:30 GMT) AUDCAD (+0.35%). Bounced from 13-mth low at 0.9216 yesterday to 0.9267 highs earlier. Breached 21EMA earlier, faster MAs aligned higher, RSI 53 and rising, MACD signal line & histogram rising but significantly below 0 line. H1 ATR 0.0010, Daily ATR 0.0061. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Stuart Cowell Head Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  3. LTC and EOS – Higher high expected before the completion of this rise LTC/USD The price of Litecoin has been on the rise from Tuesday’s low of $104 and made an increase of 13.86% as it came up to $118.8 today. Since then we have seen some sideways movement but the price is in an upward trajectory overall. Looking at the hourly chart, you can see that this increase is counted as the starting impulse from the new count which is why now a higher high would be expected. The sideways movement we’ve seen is in that case the 4th wave and is likely going to end as a flat correction, establishing support above the 0.786 Fib level. If this is true, then the price is now set to continue moving to the upside for a higher high which would be the end of this first impulsive move after which a retracement would be expected of the same degree. But the price would then be expected to continue moving upward for at least one more wave if this is an ABC to the upside. If this is the 1st sub-wave of the higher degree impulsive move then we are to see even higher levels of the price of Litecoin in the upcoming period, potentially above the $150. Read Full on FXOpen Company Blog...
  4. Last week
  5. EUR/USD Remains At Risk, USD/JPY Eyes More Upsides EUR/USD started a major decline and it traded below 1.1800. USD/JPY is attempting an upside break above the 110.00 resistance zone. Important Takeaways for EUR/USD and USD/JPY The Euro is facing an increase in selling pressure below the 1.1800 level. There is a major bearish trend line forming with resistance near 1.1800 on the hourly chart of EUR/USD. USD/JPY started a fresh increase after it found support near the 109.10 zone. There is a key bearish trend line forming with resistance near 110.00 on the hourly chart. EUR/USD Technical Analysis After a close below 1.1850, the Euro started a major decline against the US Dollar. The EUR/USD pair gained bearish momentum and it broke the 1.1820 support zone. The pair settled below the 1.1800 level and the 50 hourly simple moving average. It traded as low as 1.1755 on FXOpen and the pair is still showing a lot of bearish signs. Recently, there was a minor upside correction above 1.1770. The pair surpassed the 23.6% Fib retracement level of the recent decline from the 1.1825 high to 1.1755 low. It is now facing resistance near the 1.1780 level. The first key resistance is 1.1790 zone and the 50 hourly simple moving average. It is close to the 50% Fib retracement level of the recent decline from the 1.1825 high to 1.1755 low. There is also a major bearish trend line forming with resistance near 1.1800 on the hourly chart of EUR/USD. A close above 1.1780 and 1.1800 could open the doors for a steady increase. If not, the pair might continue to move down below 1.1765. An intermediate support is near the 1.1755 level. The next major support is near the 1.1750 level, below which the pair could drop towards the 1.1700 support in the near term. Read Full on FXOpen Company Blog...
  6. Date : 20th July 2021. Risk sensitive assets plummet on recovery fears! Risk off trades continued to dominate the Asian part of the session, but there are signs of stabilisation. Stocks declined as fears that the rapid spread of the Delta variant will delay re-openings and force extended lockdowns in countries with lower vaccination rates continue to fuel risk aversion. Investors will be keeping a very close eye on virus developments, but speculation that market developments will delay central bank tapering plans should put a floor under markets that have corrected from very high levels. Today, in the Asia session and on European open: Bond markets continued to play catch up with the sharp rally in Treasuries yesterday. Australia’s 10-year rate is down -6.2 bp , New Zealand’s has corrected -7.8 bp and China’s 10-year bond is -1.5 bp richer. Japan’s CPI rate nudged higher in June, with core lifting to 0.2%. Data are not expected to change the course of the BoJ. Developer Evergrande slumped after local authorities halted some of its sales. US futures are down and in cash markets the 10-year Treasury rate has lifted 1.1 bp to 1.200%. – Currently the USA100 has rebounded with 0.4% gains. September 10-year Bund future is little changed. – GER30 and UK100 futures are up 0.3% and 0.2% respectively. German PPI inflation lifted to 8.5% y/y in June – remains mainly driven by developments in commodity prices. RBA minutes: Strengthen rather than taper QE as stock markets continue to sell off. In Australia, nearly half the country’s 25 million people are living under lockdowns to quell an outbreak of the Delta variant. US yield curve continues to steepen. JPMorgan’s HuiP: “reflects reduced inflation expectations if reopening is delayed and potential downside risk to the economy, but that value and cyclical sectors should continue to outperform over the next 6-12 months given the ongoing recovery globally.” Today’s data calendar in Europe and the US remains pretty quiet, with US housing starts, while neither German PPI nor Eurozone current account numbers are likely to change the outlook much. FX markets: In FX markets the USD remained supported by safe haven bids and EURUSD dipped to 1.1773, while GBPUSD is at 1.3647 crossing the 200-day SMA. Safe-harbour currencies like the JPY and USD traded near multi-month highs against the riskier AUD, NZD and GBP. USDJPY is little changed at 109.35-109.60. USOIL prices stabilised at 66.50. Key mover: USOIL – Oil prices stabilised on Tuesday after slumping around 7%. The aggressive selloff of USOIL was fueled by worries about future demand and after an OPEC+ agreement to increase supply. The contract for August, which expires later on today, was up 15% at $66.57 a barrel. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  7. BTC and XRP – Once again moving to the downside BTC/USD The price of Bitcoin has been falling downwards and made a decrease of 9.14% from Sunday’s high of $32,289 to its lowest point today at $29,336. It has broken the significant horizontal support zone and is currently interacting with the descending support level from the channel in which it was since the ending days of May. On the hourly chart, you can see that this is another downfall back to its lows of the 26th of June and is eyeing out the one on the 22nd. This downward trajectory is the continuation of the descending triangle from the start of July which was broken on the downside today. This area is still considered as support so we might see a bounce for another minor recovery but the picture still looks bearish with the price most likely headed further down in the upcoming period. If this last descending support breaks the price will move further down and with no significant support close it could continue moving to the $18,000 zone where the next one is. This would be expected in either way but potentially these low levels would be viewed as a good buying opportunity for some, which can lead to a minor recovery first. Read Full on FXOpen Company Blog...
  8. Rising US Inflation Supports the Bullish Case for Gold Last week, two events dominated the price action in financial markets – the US inflation and Fed Chair Powell’s semiannual testimony. Both brought a new perspective to market participants, but summer trading conditions eventually prevailed. Namely, despite the rising inflation environment and the market-moving statements from the Fed Chair, the market did not move much. It is typical for the market to consolidate during the summer months, and so July and August are known as months with declining volatility. Rising Inflation – Bullish for Gold and Equities The US inflation data for the month of June showed inflation surging. It reached 5.4% YoY, much higher than expectations. In fact, inflation in the United States did not reach such levels for at least three decades. Traders should remember that last year, in August, the Fed shifted its price stability mandate. It moved from targeting 2% to averaging 2% inflation. Therefore, higher inflation above 2% is not quite a concern for the Fed because we do not know what it is the period used for averaging. In other words, if the Fed considers the last 12 months or more, then inflation is likely to be below the 2% AIT (Average Inflation Targeting) target. Because of that, the semiannual testimony that the Fed Chair held last week was critical for understanding how the Fed views inflation. Fed Powell admitted that the central bank is surprised by how hot inflation is running, but he reiterated the fact that the Fed views it as transitory. We will find out further down the road if that is true or not. In the meantime, with inflation at 5.4% and the US 10-Year Treasury yield at 1.3%, we talk about a negative 4.1% real yields. Therefore, investors are forced to look for alternatives. One is gold. Commodities have typically served against higher inflation and this time should be no different. The price of gold, therefore, traded with a bid tone last week, rising from below $1,800 at the time inflation data was released, to over $1,830 before giving back some gains. Another is the stock market. The US equities have outperformed their peers and keep trading close to their highs. The earnings season started strong, with financial services corporations posting strong earnings for the second quarter. If the trend continues, funds will keep pouring into the stock market. All in all, rising inflation bodes well for gold and equities. The next thing to monitor is the tapering of the asset purchases from the Fed. It may be announced as soon as the Jackson Hole Symposium in August, if inflation keeps rising. FXOpen Blog
  9. USDJPY পেয়ারের সাপ্তাহিক চার্টের তাকালে দেখা যাচ্ছে, গত সপ্তাহে পেয়ারটি ১১০.১০ প্রাইসে ওপেন হয়ে ১১০.০৬ প্রাইসে ক্লোজ হয়েছে। সপ্তাহজুড়ে পেয়ারের মুভমেন্ট ব্যাপক থাকলেও শেষের দিকে সীমিত হয়ে পড়েছিল। পেয়ারটি তৃতীয় সপ্তাহের মতো ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। ব্যাংক অব জাপান এবং ফেডারেল রিজার্ভ তাদের মিটিংয়ে কোন পরিবর্তন করেনি। জাপানের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইন্টারেস্ট রেট ০.১০%-এ অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। দেশটির প্রস্তাবিত প্রবৃদ্ধি ২০২১ সালে ৪% থেকে কমিয়ে ১.৮% এনেছে। এদিকে ফেডারেল রিজার্ভও একই ধাচে হাটছে প্রবৃদ্ধি ৭% থেকে কমিয়ে ৬.৫% নিয়ে এসেছে। ব্যাংক অব জাপানের প্রেসিডেন্ট কুরোদা বলেছেন, মহামারী প্রভাব হ্রাস পাওয়া এবং টিকা দেয়ার প্রক্রিয়া এগিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে জাপানি অর্থনীতি ধীরে ধীরে পুনরুদ্ধারিত হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মুদ্রাস্ফীতি লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অনেক বেশি হওয়ায় পাওয়েল মুদ্রানীতিতে পরিবর্তন করার জন্য তাৎক্ষণিক কোন পথ স্বীকার করেননি। তিনি বলেছেন, ফেড সক্রিয়ভাবে অর্থনীতির অগ্রগতি বিচেবনা করছে। এছাড়াও মার্কিন প্রডিউসার এবং কনজিউমার প্রাইস প্রত্যশার উপরে এসেছে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে এ সপ্তাহে জাপানের জাতীয় কোর সিপিআই পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। USDJPY টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস ২০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী পেয়ারটি সেলিং প্রেসারে রয়েছে। ৫০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী পেয়ার চলমান প্রক্রিয়াকে সাপোর্ট দিচ্ছে। ২০০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী পেয়ার ১০৮.০০ সাপোর্ট অতিক্রম করতে পারে। ভলিউম ডাটা পেয়ারের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট গতি দিচ্ছে না। XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  10. চতুর্থ সপ্তাহের মতো USDCAD পেয়ার আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। গত সপ্তাহে পেয়ার ১.২৬০০ প্রাইস অতিক্রম করে চলতি সপ্তাহেও ১.২৬০০ প্রাইসের উপরে অবস্থান করছে। ব্যাংক অব কানাডা এবং ফেডারেল রিজার্ভের মধ্যে পার্থক্য স্পষ্ট, যা পেয়ারকে বুলিশ অবস্থানের নির্দেশ করছে। এ সপ্তাহে কানাডা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পেয়ারকে প্রভাবিত করার মতো তেমন কোন ইভেন্ট নেই। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, চলতি সপ্তাহেও পেয়ারটি আপট্রেন্ড অব্যাহত রাখতে পারে। মার্কেট ঝুকি এবং তেলের প্রাইস পেয়ারের মুভমেন্টে কাজ করতে পারে। গত সপ্তাহে ব্যাংক অব কানাডা ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছে। কানাডা ব্যাংক বন্ড ক্রয় কর্মসূচী ৩ বিলিয়ন থেকে কমিয়ে প্রতি সপ্তাহে ২ বিলিয়নে নিয়ে এসেছে। মুদ্রাস্ফীতি লক্ষ্যমাত্রা টার্গেটের নিচে থাকায় প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা কমিয়ে আনা হয়েছে। কানাডার ধীর গতি ইকোনমিক রিকভার মুদ্রাস্ফীরিত প্রেসার কমিয়েছে এবং ২০২২ সালে জিডিপি ৪.৬% থেকে কমিয়ে ৩.৭% নির্ধারন করা হয়েছে। এদিকে ফেড চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েলের নেতিবাচক মন্তব্য মার্কিন ডলারের ঊর্ধ্বমূখীতে মাঝে মধ্যে বাধা সৃষ্টি করছে। জুন মাসের রিপোর্টে প্রকাশিত দেশটির কোর মুদ্রাস্ফীতি ৩০ বছরের সর্বোচ্চে উঠেছে। জুনে মার্কিন রিটেইল সেলস শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। পাওয়েল তার আলোচনার এক পর্যায়ে বলেন, ফেড সক্রিয়ভাবে অর্থনৈতিক অগ্রগতি বিচেনা করছে এবং সে অনুযায়ী কাজ করছে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে চলতি সপ্তাহে শুক্রবার প্রকাশিত কানাডিয়ান রিটেইল সেলস এবং কোর রিটেইল সেলস পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  11. গত সপ্তাহের শুরর দিকে নিউজিল্যান্ড ডলারের প্রাইস বাড়লেও শেষের দিকে মার্কিন ডলারের প্রাইস বেড়েছিল। এর ফলে পেয়ারটি প্রায় ডজি ক্যান্ডেলের মতো ছিল। যদিও কিছুটা আপট্রেন্ডে রয়েছে। সপ্তাহের শেষের দিন পেয়ারটি ০.৭০৪৫ থেকে কমে ০.৭০০০ এর কাছাকাছি ক্লোজ হয়েছিল। নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় প্রান্তিকের মুদ্রাস্ফীতি রিপোর্ট গত সপ্তাহে ভাল আসার ফলে মার্কিন ডলার নিউজিল্যান্ড ডলারের উপর তেমনভাবে চেপে বসতে পারেনি। দ্বিতীয় প্রান্তিকে ‍মুদ্রাস্ফীতি ৩.৩% বৃদ্ধি পেয়েছে। গত সপ্তাহের শুরুর দিকে রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউজিল্যান্ডের হাকিশ আলোচনা নিউজিল্যান্ড ডলারকে শক্তিশালী করেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ব্যাংক আগস্টের মিটিংয়ে ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধি করতে পারে। পরবর্তী সপ্তাহগুলোতে বিনিয়োগকারীরা উদ্বিগ্ন থাকবে করোনাভাইরাসের অত্যন্ত সংক্রামক ডেল্টা বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের লাইনচ্যুত হতে পারে এ ধরনের দুশ্চিন্তা নিয়ে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে চলতি সপ্তাহে মার্কিন ডলার ও নিউজিল্যান্ড ডলারকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করার মতো তেমন কোন ইভেন্ট না থাকলেও GDT Price Index ও Credit Card Spending পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। NZDUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস চলতি সপ্তাহে পেয়ারের প্রাইস কমে ০.৬৯৯৮ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। চার ঘন্টার চার্টে RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। পেয়ারটি ০.৭১৫৫ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমে সক্ষম হলে পুনরায় আপট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। অপরদিকে পেয়ার ০.৬০৬৫ সাপোর্ট অতিক্রমে সক্ষম হলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  12. Date : 19th July 2021. Sharp selloffs on European Open. Wall Street losses persisted through the Friday session, with the major indices all ending lower. Stocks got a brief boost from the stronger US retail sales data, though the dive in consumer sentiment, including upped inflation concerns, took the wind out of the rally’s sails. Today, in the Asia session and on European open: The 10-year Treasury yield was down and bonds were also supported, with Australia’s 10-year down -4.4 bp at 1.233%, as stocks were hit by growth concerns. The September 10-year Bund future is up 42 ticks at 175.29, outperforming versus Treasury futures. GER30 and FTSE 100 futures are down -0.6% and -0.8% respectively. Reuters – Japan kept the overall assessment of its economy unchanged for a second straight month in July, retaining the view that conditions remain severe due to the impact of the coronavirus pandemic. Tech stocks struggled. – China’s crackdown on Tech giants Alibaba, Baidu, JD.com and Pinduoduo extending low amid new anti-monopoly and data security rules in China. Reports of issues with Japan’s supply chain have been noted, with suppliers in countries such as Malaysia, Thailand and Vietnam falling behind on production due to Covid shutdowns. Zoom Video Communications Inc ZM.O, the videoconferencing service that became a household name globally during the pandemic, plans to parlay some of the resulting rise in its share price into a $14.7 billion acquisition to secure growth. Oil prices declined on oversupply worries – OPEC and its allies agreed to ease output restrictions and supply cuts, including Russia which agreed new production allocations and a gradual phasing out of supply cuts, that will increase supply by around 400K barrels. Focus will remain on the Covid spread around the region with the Delta variant continuing to cause worries. FX markets: In FX markets the Yen was supported by safe haven demand, and USDJPY dropped back to 109.84, although the Dollar climbed against most other currencies. EURUSD is little changed at 1.1803, while Cable dropped to 1.3746. AUD hit its lowest level in 2021, at 0.7372. USOIL stayed at the $70.60-$71.60 barrier. Gold edged higher, lifted by a retreat in US Treasury yields and concerns that a surge in coronavirus cases could dampen global economic recovery, though an uptick in the Dollar limited the safe-haven metal’s appeal. Today – The calendar is pretty empty to start the week, hence growth concerns are dominating and developments will add to expectations that the ECB will strengthen the dovish tone of the forward guidance at Thursday’s council meeting. Biggest mover @ (8:30 GMT) CADJPY (-0.66%). The Yen was supported by safe haven demand, while CAD dips on USOIL weakness. An aggressive selloff of CADJPY broke all Support levels for the day with next Support at 86 and 200-day SMA at 85.78. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  13. তুরস্কের ভোক্তা আস্থা জুলাই মাসে দুর্বল হয়ে পড়েছে! আজ সোমবার তুর্কি পরিসংখ্যান ইনস্টিটিউটের জরিপের ফলাফল দেখিয়েছে যে, জুলাই মাসে তুরস্কের ভোক্তা আস্থা দুর্বল হয়ে গেছে। জুলাই মাসে ভোক্তাদের আত্মবিশ্বাস সূচকটি জুনের ৮১.৭ থেকে কমে ৭৯.৫ এ দাঁড়িয়েছে। জরিপটি তুরস্কের পরিসংখ্যান ইনস্টিটিউট এবং তুরস্ক প্রজাতন্ত্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সহযোগিতায় পরিচালিত হয়েছিল। পরিবারের বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতির মূল্যায়ন জুনে ৬১.০ থেকে ৫৭.৯ এ নেমেছে। জুলাই মাসে পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতির প্রত্যাশা আগের মাসে ৮২.৯ থেকে কমে ৭৯.৮ এ দাঁড়িয়েছে। সাধারণ অর্থনৈতিক পরিস্থিতি প্রত্যাশা সূচকটি জুলাইয়ের আগের মাসে ৮৬.০ থেকে কমে ৮৬.০ এ দাঁড়িয়েছে। আগামী ১২ মাস ধরে টেকসই পণ্য সূচকগুলিতে অর্থ ব্যয়ের মূল্যায়ন জুনের ৯৬.৯ থেকে বেড়ে ৯৭.০ এ দাঁড়িয়েছে। বিস্তারিত ইকোনমিক নিউজগুলো পেতে ভিজিট করুন: https://cutt.ly/VzkYaXW *মার্কেট এর নিউজ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  14. EUR/USD এর টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস (১৯শে জুলাই, ২০২১) ইন্সটা ফরেক্স টিমের বিশেষজ্ঞ লাউরিয়ে বেইলি (Laurie Bailey) EUR/USD মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জুনে রিটেইলস সেলস সম্পর্কিত শুক্রবারের প্রতিবেদন প্রত্যাশা ছাড়িয়ে গেছে: মোট আয়তনের পরিমাণ -০.৪% এর পূর্বাভাসের তুলনায় ০.৬% বৃদ্ধি পেয়েছে, মূল সূচকটি ১.৩% (পূর্বাভাস ০.৪%) যুক্ত করেছে। ডলার সূচকটি ০.১৪% দ্বারা শক্তিশালী হয়েছে, তবে ইউরো মাত্র ৭ পয়েন্ট কমেছে। তবে মেজাজ হ্রাস পেতে থাকে, প্রযুক্তিগত সূচকগুলি এটিকে সমর্থন করছে। ডেইল চার্টে, মার্লিন ওসিলেটর সিগন্যাল লাইন আস্তে আস্তে নিজস্ব স্থানীয় উত্থাপিত চ্যানেলের নীচের সীমানায় চলে যাচ্ছে। এ থেকে প্রান্তে ডাউন হয়ে ইউরোর দরপতনকে ত্বরান্বিত করবে। 1.1705 এ প্রথম লক্ষ্যটি মার্চ নিম্ন। ৪ঘন্টার চার্টে দাম এবং ওসিলেটর ত্রিভুজ তৈরি করেছে। দামের সিঙ্ক্রোনাস আউটপুট এবং নীচে ত্রিভুজগুলি থেকে অসিলেটরও ডাউন মুভমেন্ট এর জন্য গতি সেট করতে পারে। শুক্রবারের সিগন্যাল লেভেলটি 1.1792 এর নীচে। #মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। ফরেক্স বিশ্লেষন দেখুন: https://cutt.ly/LfRWnM6
  15. সপ্তাহের শেষের দিন USDCHF পেয়ারের প্রাইস সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছিল। এর ফলে পেয়ার গত সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে উঠেছিল। পেয়ারটি ০.৯২০০ প্রাইস অতিক্রমে সক্ষম হয়েছিল এবং আজকের সেশনের শুরুর দিকে পেয়ারের প্রাইস কমলেও পরবর্তীতে বৃদ্ধি পেয়ে ০.৯২০০ প্রাইসের উপরে অবস্থান করছে। এর ফলে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে সুইস ফ্রাঙ্কের বিপরীতে মার্কিন ডলারের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও কারেন্সি কয়েক সপ্তাহ ন্যারো রেঞ্জে মুভমেন্ট করছে। যা USDCHF পেয়ারকে আরও উপরে তুলতে সক্ষম হবে কিনা সে সম্পর্কে ভাবিয়ে তুলছে। তবে মার্কিন ট্রেজারি বন্ডের ঊর্ধ্বমূখীর পাশাপাশি আশা করা যায় ফেড প্রত্যাশার চেয়ে শীঘ্রই আর্থিক নীতি আরও কঠোর করতে পারে, যা মার্কিন ডলারকে সহায়তা করতে পারে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে চলতি সপ্তাহে সুইজারল্যান্ড কারেন্সিকে প্রভাবিত করার মতো তেমন কোন ইভেন্ট নেই। তবে মার্কিন হোম সেলস, মেনুফেকচারিং ও সার্ভিস পিএমআই ডাটা পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। USDCHF টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস USDCHF পেয়ারের ডাউনসাইড বৃদ্ধি পেলে ৫৫ দিনের EMA অনুযায়ী ০.৯১৯৫ প্রাইসে আসতে পারে। তবে পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড ক্রমাগত বৃদ্ধি পেতে থাকলে ০.৮৯২৫ প্রাইসে যেতে পারে। অপরদিকে পেয়ারের আপট্রেন্ড শক্তিশালী হওয়ার জন্য ০.৯২৭৩ প্রাইস ব্রেক করা প্রয়োজন পরবর্তী রেজিস্ট্যান্সগুলো হতে পারে ০.৯৪৭১। USDCHF চার ঘন্টার চার্ট XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  16. মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েলের ডোবিশ মন্তব্য এবং বৈশ্বিক ইকোনমিক রিকভারের ধীরগতি চতুর্থ সপ্তাহের মতো গোল্ডকে আপট্রেন্ডে রেখেছে। ডেল্টা ভাইরাসের দ্বারা অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের ধীরগতির উদ্বেগের মধ্যেও সপ্তাহের শেষের দিকে ডলারের বিপরীতে গোল্ডের প্রাইস দুর্বল হয়েছিল। নতুন করোনাভাইরাস স্ট্রেন সংক্রমণের ক্ষেত্র আরও প্রকট হয়ে উঠেছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড-১৯ বক্ররেখা বেশ কয়েক মাস অবনতির পরে পুনরায় বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। ডেল্টা সংক্রামক রূপটি বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ায় কিছু দেশ বিধিনিষেধকে আরও শক্তিশালী করতে শুরু করেছে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে গোল্ডকে প্রভাবিত করার মতো এ সপ্তাহে তেমন কোন ইভেন্ট নেই। তবে মার্কিন বেকারত্ব রিপোর্ট এবং ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেস কনফারেন্স গোল্ড মুভমেন্টে কিছুটা প্রভাব ফেলতে পারে। GOLD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস গোল্ড বর্তমানে ১৮১৬ প্রাইসের নিচে অবস্থান করছে। আমরা ডেইলি চার্টে লক্ষ করে দেখতে পারছি, গোল্ড বিয়ারিশ ইনগালফিং বার তৈরি করেছে। যা ১৮০৫ প্রাইসে নিয়ে যেতে পারে, ২০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১৭৯০। চলতি সপ্তাহে পেয়ারের ঝুকি বৃদ্ধি পেতে থাকলে ১৭৫৭ সাপোর্ট লেভেলে যেতে পারে। অপরদিকে গোল্ড ১৮১৬ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমের পরবর্তীতে ১৮৪৪ এবং ১৮৬০ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। GOLD ডেইলি চার্ট XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  17. ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের হাকিশ মন্তব্য দ্বারা সমর্থন থাকা সত্ত্বেও গত সপ্তাহে GBPUSD পেয়ারের প্রাইস কমেছিল। আগস্টের MPC মিটিং মার্কেটে মুভমেন্ট বাড়িয়ে তুলতে পারে কারণ বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থার সাথে আরও ভালভাবে সামঞ্জস্য করার জন্য ব্যাংক অব ইংল্যান্ড তার আর্থিক নীতি পরিবর্তন করতে পারে। যুক্তরাজ্যে, প্রতিদিনের করোনাভাইরাস সংক্রামণ, হাসপাতালে ভর্তিকরণ এবং মৃত্যুর ফলে স্বাস্থ্য খাতের উপর আগের চিন্তাভাবনার চেয়ে বেশি প্রভাব পড়তে পারে। স্বাস্থ্য খাতের উপর চাপ বৃদ্ধি পেতে থাকলে প্রধানমন্ত্রী একটি ইউ-টার্ন করতে পারে, অন্যদিকে ভ্যাকসিন পুস যথেষ্ট হলে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে পারে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে মুদ্রাস্ফীতি অবিশ্বাস্যভাবে বাড়ছে। মুদ্রাস্ফীতি ৫.৪ শতাংশ এবং কোর মুদ্রাস্ফীতি ৪.৫% বৃদ্ধি পেয়েছে। যা প্রত্যাশার উপরে এসেছে। গত সপ্তাহে ফেডের বৈঠকে জেরেমি পাওয়েল বলেছিলেন যে মুদ্রাস্ফীতি কয়েক মাস উর্ধ্বমূখী, এটি অস্থায়ী এবং হ্রাস পাবে। এছাড়াও বলেছেন, অর্থনীতি এখনও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি থেকে এক ধাপ পিছিয়ে, ফেডের বন্ড ক্রয় হ্রাস পেতে পারে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে ব্রিটিশ ইকোনমিক ক্যালেন্ডারের দিকে তাকালে দেখতে পাচ্ছি, আজ বিকালের দিকে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের সদস্য হাসকেলের আলোচনা রয়েছে। জুন মাসের পিএমআই রিপোর্ট রয়েছে। বৃহস্পতিবার মার্কিন বেকারত্ব রিপোর্ট পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। GBPUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস গত সপ্তাহে পেয়ারের প্রাইস কমে ১.৩৭৬০ প্রাইসের উপরে ছিল। চলতি সপ্তাহের পেয়ারের সাপোর্ট হতে পারে ১.৩৬৬৮। তবে পেয়ারটি ১.৪০০০ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমে সক্ষম হলে ১.৪২৪০ থেকে ১.৪২৮০ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। GBPUSD ডেইলি চার্ট XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  18. গত সপ্তাহে EURUSD পেয়ারের প্রাইস কমেছিল। ইউরোজোন থেকে প্রাপ্ত সামষ্টিক অর্থনৈতিক প্রতিবেদন EURUSD পেয়ারকে প্রভাবিত করেছিল। ইউরোপিয়ান পরিসংখ্যান সংস্থা ইউরোস্ট্যাট থেকে চূড়ান্ত তথ্য অনুযায়ী, জুনে ইউরোজোন CPI ০.৩% বৃদ্ধি পেয়েছে। বাৎসরিক CPI ২% থেকে কমে ১.৯% এসেছে। রিপোর্টগুলো প্রত্যাশার সাথে মিলেছে। কোর CPI মাসিক ব্যবধানে ০.৩% এবং বাৎসরিক ব্যবধানে ০.৯% এসেছে। জেরেমি পাওয়েলের ডোভিশ মন্তব্য সত্ত্বেও গত সপ্তাহে মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়েছিল এবং ডলার শুক্রবার ইউরোর বিপরীতে শক্তিশালী অবস্থানে ছিল। গত সপ্তাহে EURUSD পেয়ারকে সবথেকে বেশি প্রভাবিত করেছিল মার্কিন রিটেইল সেলস। মার্কিন রিটেইল সেলস মাসিক ব্যবধানে ০.৬% বেড়েছে। যদিও প্রত্যাশা করা হয়েছিল ০.৪% কমতে পারে। দেশটিতে গাড়ি বিক্রি ১.৩% বেড়েছে। যেখানে প্রত্যাশা করা হয়েছিল মাত্র ০.৪% বৃদ্ধি পেতে পারে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে চলতি সপ্তাহে EURUSD পেয়ারের শক্তিশালী মুভমেন্টের ক্ষেত্রে দুটি ইভেন্ট রয়েছে। ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেস কনফারেন্স এবং মনেটারী পলিসি এস্টেটমেন্ট পেয়ারের মুভমেন্ট সৃষ্টি করতে পারে। অপরদিকে মার্কিন বেকারত্ব রিপোর্ট পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। EURUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস EURUSD পেয়ার ১.১৮ প্রাইসকে কেন্দ্র করে মুভমেন্ট করছে। বর্তমানে পেয়ারটি নিউট্রেরাল জোনে রয়েছে। তবে পেয়ারের বু্লিশ ট্রেন্ড সংকুচিত হয়ে ডাউনট্রেন্ড প্রসারিত হচ্ছে। যা ইউরোপিয়ান কারেন্সির দুর্বলতাকে নির্দেশ করছে। চলতি সপ্তাহে পেয়ারের চ্যালেঞ্জ হবে বছরের সর্বনিন্ম প্রাইস ১.১৭-তে যাওয়া। পেয়ারটি ১.১৭ অতিক্রমে সক্ষম হলে ১.১৫ প্রাইসের দিকে যেতে পারে। EURUSD ডেইলি চার্ট XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  19. GBP/USD and EUR/GBP: British Pound Remains At Risk GBP/USD started a steady decline below the 1.3900 zone. EUR/GBP is rising and it might continue to rise if it breaks the 0.8600 resistance zone. Important Takeaways for GBP/USD and EUR/GBP The British Pound failed to recover above the key 1.3900 resistance zone. There is a major bearish trend line forming with resistance near 1.3855 on the hourly chart of GBP/USD. EUR/GBP started a fresh increase after it found a strong support near the 0.8500 zone. There was a break above a major bearish trend line with resistance near 0.8550 on the hourly chart. GBP/USD Technical Analysis The British Pound made many attempts to clear the 1.3900 and 1.3910 resistance levels against the US Dollar. The GBP/USD pair started a major decline and it settled below the 1.3850 pivot level. The pair even broke the 1.3800 support level and it settled below the 50 hourly simple moving average. The recent low was formed near 1.3746 and the pair is now showing a lot of bearish signs. An immediate resistance on the upside is near the 1.3775 level. The 23.6% Fib retracement level of the downward move from the 1.3861 swing high to 1.3746 low. The first major resistance is now forming near the 1.3800 zone. The 50% Fib retracement level of the downward move from the 1.3861 swing high to 1.3746 low is also near the 1.3800 zone. The next major resistance near the 1.3820 level and the 50 hourly simple moving average. There is also a major bearish trend line forming with resistance near 1.3855 on the hourly chart of GBP/USD. To move into a positive zone, the pair must clear the bearish trend line and then 1.3900. An immediate support on the downside is near the 1.3745 level. A downside break below the 1.3745 level might call for a fresh decline towards the 1.3700 level. Any more losses could lead the pair towards the 1.3650 level in the near term. Read Full on FXOpen Company Blog...
  20. Date : 16th July 2021. Market Update – July 16 – Stocks stalled. Curve-flattening trades pressed longer dated Treasury rates lower again Thursday after Fed Chair Powell did not change his tune regarding the view on inflation; that it should be temporary, & that an accommodative stance is still necessary. The curve collapsed to 108 bps, having retreated from 116 bps early in the week. It was the narrowest since February . Elsewhere BoJ did the expected & kept policy settings unchanged for now, but cut back its growth forecast for this year. JPN225 share average dipped below the psychologically key 28,000 mark as tech shares tracked declines on Wall Street overnight, while a continued surge in coronavirus infections dented investor sentiment. Weakness in chip-related shares also helped bring down USA500 & USA100. European stock markets struggled yesterday, Gilts sold off & Bunds pared gains as BoE’s Saunders added to comments from Deputy Governor Ramsden suggesting asset purchases may have to end earlier than previously expected. At the same time, the Delta variant & concern over the fallout from recent devastating floods in Germany could also weigh on the GER30 today. Mixed earnings, uncertainties over inflation & Covid, along with current richly priced valuations prompted some profit taking. FX markets: EURUSD dropped to 1.1806, while GBPUSD eased to 1.3810. NZD up 0.6% at $0.7020 after consumer prices rose far faster than expected, bringing forward markets’ rate hike expectations to August. USOIL stayed under pressure drifting below $71.00 barrier. Gold on the other hand hit a 1-month high of $1,834.3, supported by a dovish Fed. Today – Eurozone May trade & June CPI. US releases include Retail Sales & Michigan Index. Biggest FX Mover @ (07:00 GMT) NZDJPY (+0.88%). NZD remains the biggest mover amongst majors in the Asia session, & so far, however the rally seems to have run out of steam as fast MAs flattened along with RSI at 55. MACD’s signal line remains negative while Stochastics gives mixed signals at OB area. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  21. Earlier
  22. তৃতীয় দিনের মতো EURJPY পেয়ার ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছিল। তবে আজকের সেশনে পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, পেয়ারটি ১২৯.৫০ প্রাইসের নিচে আসলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। পেয়ারটি ১২৯.৫০ অতিক্রমে সক্ষম হলে ১২৮.৫৪ প্রাইসে যেতে পারে। ২০০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী ১২৮.৩০ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। EURJPY ডেইলি চার্ট XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  23. GBPJPY নিম্মগামী ট্রেন্ডলাইন রেসিস্টেন্সের নিচে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে! পতন আসন্ন! GBPJPY নিম্মগামী ট্রেন্ডলাইন রেসিস্টেন্সের নীচে ধরে রেখেছে। 152.268 এর প্রথম রেসিস্টেন্সের নীচে একটি পতন গ্রাফিকাল সুইং লো সাপোর্ট এবং 151.616 এর প্রথম সাপোর্টের দিকে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। স্টোচাস্টিকও ট্রেন্ডলাইন রেসিস্টেন্সের নীচে ধরে রেখেছে যেখানে অতীতে প্রাইস আবারও পুলব্যাক করেছিল। ট্রেডিং পরামর্শ এন্ট্রি: 152.268 এন্ট্রি এর কারণ: গ্রাফিকাল সুইং হাই রেসিস্টেন্স, নিম্মগামী ট্রেন্ডলাইন রেসিস্টেন্সের টেক প্রফিট: 151.616 টেক প্রফিটের কারণ: 76.4% ফিবোনাচি এক্সটেনশন, গ্রাফিকাল সুইং লো সাপোর্ট স্টপ লস: 152.653 স্টপ লসের কারণ: গ্রাফিকাল সুইং রেসিস্টেন্স *এখানে পোস্ট করা মার্কেট বিশ্লেষণ আপনার সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রদান করা হয়, ট্রেড করার নির্দেশনা প্রদানের জন্য প্রদান করা হয় না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট
  24. ডলারকে প্রভাবিত করার মতো আজকের ইভেন্টগুলোর মধ্যে অন্যতম মার্কিন রিটেইল সেলস ও মিশিগান কনজিউমার সেন্টিমেন্ট। জুন মাসের মার্কিন রিটেইল সেলস সন্ধ্যা ০৬:৩০ মিনিটের দিকে রিলিজ হবে। মে মাসে সেলস -১.৩% কমলেও প্রত্যাশা করা হচ্ছে জুনে -০.৪% কমতে পারে। মার্কিন কনজিউমার সেন্টিমেন্ট রিপোর্ট রাত ০৮:৩০ মিনিটে রিলিজ হতে পারে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, জুলাই মাসে কনজিউমার সেন্টিমেন্ট ৮৫.৫ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৮৬.৫ পয়েন্ট আসতে পারে। যা ডলারের ক্ষেত্রে পজিটিভ হতে পারে। XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  25. ইউরোজোনের মুদ্রাস্ফীতির হার প্রকাশের পর পরিবর্তন ইউরোর আংশিক পরিবর্তন আজ শুক্রবার ET সময় ভোর 5.00 am ইউরোস্ট্যাট ইউরোজোনের চূড়ান্ত ভোক্তা মূল্য এবং বিদেশী বাণিজ্যের পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে। এই ডাটা প্রকাশের পরে, ইউরো তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী মুদ্রাগুলোর বিপরীতে আংশিক পরিবর্তিত হয়েছে। ET সময় ভোর 5:05 am -তে ইউরো মূল্য ইয়েনের বিপরীতে 130.05 ছিল, ডলারের এর বিপরীতে 1.1816, ফ্রাঙ্কের বিপরীতে 1.0863 এবং পাউন্ডের বিপরীতে ছিল 0.8528 । আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  26. আজ শুক্রবার ইউরোপিয়ান সেশনের শুরুর দিকে মার্কিন ডলার ফ্ল্যাট অবস্থানে দেখা যাচ্ছ। যদিও গতকাল ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়েছিল। বিশ্বব্যাপী করোনা সংক্রামণ ছড়িয়ে পড়ার কারণে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে ডলার অতিরিক্ত সুবিধা পাচ্ছে। চলতি সপ্তাহে ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে ৯২.৬২ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। মূলত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ইউরোপে কোভিড-১৯ এর উত্থানে বিনিয়োগকারীদের উদ্বিগ্নতা বাড়িয়ে দিচ্ছে। যা ডলারের প্রাইস বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন, সিডনি লকডাউনের আওতায় এসেছে। এর ফলে দেশের ৪০% জনসংখ্যা বিধিনিষেধের আওতায় ভুগছে। ইন্দোনেশিয়া এখন সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে যাচ্ছে। দক্ষিণ কোরিয়া যদিও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বেশ সাফল্য অর্জন করেছেন। বর্তমানে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে উদ্বিগ্নতা তৈরি হচ্ছে। জাপান টোকিওর আশেপাশে জুরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে, এর মাসে আসন্ন অলিম্পিক দর্শক ছাড়াই অনুষ্ঠিত হবে। XM ব্রোকারে জুলাই মাসে ডিপোজিটে ৫০% বোনাস
  1. Load more activity

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...