Jump to content

ফরেক্স নিউজ

  • entries
    1,222
  • comments
    17
  • views
    10,429

Contributors to this blog

  • মার্কেট আপডেট 1222

About this blog

ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত সব নিউজ, অ্যানালাইসিস এবং মার্কেট আপডেট পাবেন এখানেই।

Entries in this blog

রাশিয়ার সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিটকয়েন মুদ্রা হিসেবে বিবেচনা করতে সম্মত

মঙ্গলবারের ঘোষণা অনুযায়ী, রাশিয়ার সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক কীভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করতে হয় সে বিষয়ে একটি চুক্তিতে পৌঁছেছে।দেশটির সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক এখন একটি খসড়া আইনের উপর কাজ করছে যা ১৮ ফেব্রুয়ারী চালু করা ডিজিটাল আর্থিক সম্পদের পরিবর্তে ক্রিপ্টোকে ‘‘মুদ্রার অ্যানালগ’’ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করবে।  ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলো শুধুমাত্র আইনি শিল্পে কাজ করবে যদি তাদের সম্পূর্ণ শনাক্তকরণ থাকে, ব্যাংকিং সিস্টেম বা লাইসেনপ্রাপ্ত মধ্যস্থতাকারীদের মাধ্যমে। কমার্স্যান্ট উল্লেখ করেছেন র

ব্রেক্সিট ও রাজনৈতিক উত্তেজনায় GBPUSD

ব্রেক্সিট ও ব্রিটিশ রাজনৈতিক উত্তেজনা সত্ত্বেও GBPUSD পেয়ারের ফোকাস মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ এবং ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের নীতিনির্ধারকদের আলোচনার দিকে। ১০০-SMA অনুযায়ী গতকাল GBPUSD পেয়ার ১.৩৬০০ প্রাইসের দিকে গেলেও পরবর্তীতে ওপেন প্রাইসের কাছাকাছি ক্লোজ হয়েছিল। মার্কিন ডলারের প্রাইস কমে সপ্তাহের সর্বনিন্ম ৯৫.৫০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ডেইলি চার্টে দেখা যাচ্ছে, গত দুদিন পেয়ারের মুভমেন্ট সীমিত থাকলেও আজকের সেশনে বেড়ে সর্বোচ্চ ১.৩৫৭১ প্রাইসে উঠেছিল। বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩৫৬৬

ট্রেডিং চ্যাম্পিয়ন প্রতিযোগিতায় নগদ ১০ হাজার ডলার পুরস্কার

আপনি কি আপনার সেরা ট্রেডের বিনিময় নগদ পুরস্কার জিতে নেওয়ার মাধ্যমে মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করতে চান? XM ব্রোকারের বিশেষ ট্রেডিং চ্যাম্পিয়ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশের ট্রেডারদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে যেখানে থাকছে ১০ হাজার ডলার মূল্যের ২৫টি নগদ পুরস্কার। সামগ্রিক বিজয়ীর প্রথম পুরস্কার হল ১ হাজার ৫০০ ডলার। ৩টি বিভাগে প্রতিযোগিতা করতে এখনই নিবন্ধন করুন: সর্বাধিক নেট পিপস, পরম মূল্যে সর্বাধিক লাভ এবং সামগ্রিক বিজয়ী। সর্বাধিক লাভজনক ট্রেডে আপনার ব্যাংকিং এবং অন্যান্য দুটি র‌্যাংকিংকে এক

মার্কিন API স্টক হ্রাস পাওয়ায় তেলের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে

গত দুদিন তেলের প্রাইস কমলেও আজ এশিয়ান সেশনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডাটা অনুাযায়ী মার্কিন অশোধিত এবং জ্বালানী মজুদের অপ্রত্যাশিত হ্রাস দেখা যাচ্ছে, যা ইরান থেকে সরবরাহের সম্ভাব্য বৃদ্ধির উদ্বেগকে অফসেট করেছে। ব্রেন্ট ক্রড তেল ৪১ সেন্ট বৃদ্ধি পেয়ে প্রতি ব্যারেল ৯১.১৯ ডলারে অবস্থান করছে। মার্কিন ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট ক্রুড ৩৮ সেন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ৮৯.৭৪ ডলারে অবস্থান করছে। সিএমসি মার্কেটস-এর বিশ্লেষক টিনা টং বলেন, আন্ডারসাপ্লাই মুল ফ্যাক্টর যা তেলের প্রাইস বাড়িয়ে দিচ্ছে। মঙ্গলবার আমেরিকান পেট

যে বিষয়গুলো ৩ সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে এনেছে GBPJPY

আজ বুধবার এশিয়ান সেশনে GBPJPY পেয়ারের প্রাইস বেড়ে ৩ সপ্তাহের সর্বোচ্চ ১৫৬.৯০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। বৃহস্পতিবারের মার্কিন মুদ্রাস্ফীতি ডাটার পাশাপাশি যুক্তরাজ্যের রাজনীতিক উত্তেজনা ক্রোস কারেন্সি পেয়ারকে প্রভাবিত করতে পারে। ১০ বছরের মার্কিন ট্রেজারি ফলন বেড়ে ১.৯৪৫% এসেছে।  যা ২০১৯ সালের জুলাইয়ের পরবর্তীতে বেড়ে সর্বোচ্চ এসেছে। নীতিনির্ধারকরা আরও উল্লেখ করেছেন, ফেড ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধির বিষয়ে অত্যাধিক আক্রমনাত্মক হতে নাও পারে। এছাড়াও, ইউক্রেন রাশিয়ার আগ্রাসন এবং মার্কিন-চীন বাণিজ্য সংঘ

গোল্ড সাপোর্ট-রেজিস্ট্যান্স- Confluence Detector

দ্বিতীয় সপ্তাহ গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। চলতি সপ্তাহের প্রথমদিন গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও আজ বিয়ারিশে দেখা যাচ্ছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৩৮.২% এবং চার ঘন্টার চার্টে ১০০-SMA অনুযায়ী ১৮১৮ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। ইতিমধ্যে গোল্ড গত সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ১৮১৫ অতিক্রমে সক্ষম হয়েছে। সাপ্তাহিক চার্টে ফিবোনাসি ২৩.৬% অনুযায়ী ১৮২১ রেজিস্ট্যান্স হতে পারে। গোল্ড ১৮২৪ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমের পরবর্তীতে মাসিক চার্টে ফিবোনাসি ৬১.৮% অনুযায়ী ১৮২৬ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। পেয়ারের পর

সপ্তাহের শুরুতে গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও আজকের সেশনে কমতে শুরু করেছে

গত সপ্তাহে গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও চলতি সপ্তাহের প্রথমদিন বিয়ারিশে দেখা যাচ্ছে। বর্তমানে গোল্ড ১৮১৬ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। এদিকে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী গোল্ডের প্রাইস কমার সম্ভাবনা থাকলেও RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী বৃদ্ধি পেতে পারে। যেহেতু আজকের  সেশনে গোল্ডের প্রাইস কমেছে। এক্ষেত্রে ২০০-DMA অনুযায়ী ১৮০৬ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ১৮০০ সাপোর্ট হতে পারে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৬১.৮ ও ৭৮.৬% অনুযায়ী গোল্ড ১৭৮০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ১৭৫৩ সাপোর্টে যেতে পারে। গোল্ডের পরবর্তী স

সুইস ফ্রাঙ্কের বিপরীতে মার্কিন ডলার চতুর্থদিন শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে

USDCHF চতুর্থদিনের মতো আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখে সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ০.৯২৬১ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। আজ মঙ্গলবার ইউরোপিয়ান সেশনের শুরুর দিকে পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে, তবে পেয়ারটি আপট্রেন্ড অব্যাহত রাখতে সক্ষম হলে সেক্ষেত্রে সপ্তাহের প্রথমদিন বুলিশ অবস্থানে থাকতে সক্ষম হবে। USDCHF পেয়ার ০.৯২৭৭ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমের পরবর্তীতে ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী জানুয়ারির সর্বোচ্চ প্রাইস ০.৯২৯০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। অপরদিকে ২০০-HMA অনুযায়ী ০.৯২৫০ সাপোর্ট হতে পারে।

সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে USDJPY

ট্রেডিং সপ্তাহের প্রথমদিন গতকাল USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমলেও আজকের সেশনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ মঙ্গলবার ইউরোপিয়ান সেশনে পেয়ারটি সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ১১৫.৫০ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। ডেইলি চার্টে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ার মধ্যমা লাইনের উপরে অবস্থান করছে। এক্ষেত্রে প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। অপরদিকে পেয়ারের প্রাইস পুনরায় কমতে শুরু হলে সেক্ষেত্রে ১০ ও ৫০ DMA সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। পেয়ার সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ১১৫.৫০ অতিক্রমে সক্ষম হলে ১১৫.৭০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পা

বুলিশ ফ্ল্যাগ ১৫৭.০০ প্রাইসে নিয়ে যেতে পারে GBPJPY

চার ঘন্টার চার্টে দেখা যাচ্ছে, GBPJPY পেয়ার বুলিশ ফ্ল্যাগ তৈরি করেছে। এক্ষেত্রে পেয়ারের রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা যাচ্ছে ১৫৭.০০। আজ মঙ্গলবার এশিয়ান সেশনে পেয়ারটি ১৫৬.০০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা যাচ্ছে, ১৫৬.৫০। আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে ১৬২.০০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। অপরদিকে ২০২১ সালের অক্টোবরের নিন্ম প্রাইস ১৫৮.২০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ২০২২ সালের জানুয়ারির নি

GBPUSD পেয়ারের বর্তমান বুলিশ চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা হচ্ছে ২০০-SMA

তৃতীয়দিন GBPUSD পেয়ার বিয়ারিশ অবস্থান ধরে রেখেছে। গতকাল পেয়ারটি ডজি ক্যান্ডেল তৈরি করলেও আজকের সেশনে বিয়ারিশ অবস্থানে রয়েছে। পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা হচ্ছে ২০০- SMA অনুযায়ী ১.৩৫০০। এশিয়ান সেশনে পেয়ারটি ১.৩৫২০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে ১.৩৫০০ সাপোর্ট হতে পারে। ডেইলি চার্টে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী বিয়ারিশ অবস্থান শক্তিশালী রয়েছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী ডিসেম্বরের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.৩৬১৫ রেজিস্ট্যান্স হতে পারে।  পেয়ার

চলতি সপ্তাহে দ্বিতীয় দিন EURUSD পেয়ারের প্রাইস কমছে

গত সপ্তাহে EURUSD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও চলতি সপ্তাহে দ্বিতীয় দিন কমতে শুরু করেছে। আজ মঙ্গলবার এশিয়ান সেশনে পেয়ারটি ১.১৪৪০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ডেইলি চার্টে RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। EURUSD পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট হিসেবে কাজ করছে ১০০-DMA অনুযায়ী ১.১৪০০। পেয়ারের আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে ১.১৪৮০ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১.১৫২৫ প্রাইসে যেতে পারে। অপরদিকে পেয়ার ১.১৪২০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ৫০-DMA অনুযায়ী ১.১৩২৫ সাপোর্টে যেতে পারে। ডাউনট্রেন্

কিপ্টোকারেন্সি Ethereum এর প্রাইস বেড়ে ৩.১k ডলারের কাছাকাছি অবস্থান করছে

কিপ্টো মার্কেট ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। ষষ্ঠ দিনের মতো Ethereum এর প্রাইস বেড়ে ৩ হাজার ১ শত ডলারের কাছাকাছি অবস্থান করছে। গত দু’মাস (ETH) এর প্রাইস কমলেও চলতি মাসে বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। ধারণা করা হচ্ছে, Ethereum এর প্রাইস আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। কয়েক মাসের মধ্যে (ETH) ৪ হাজার ৪০০ ডলারে যেতে পারে। কিপ্টোকারেন্সি ব্যবসায়ীরা আশাবাদী (ETH) এর প্রাইস বেড়ে সর্বকালের সর্বোচ্চ প্রাইস ৪৮৭০ ডলারে যেতে পারে।  যদিও এটা অবাস্তব মনে হচ্ছে, তবে অস্বাভাবিক নয়। বর্তমানে (ETH) এর ক্ষেত্রে

যেসকল সাপোর্ট-রেজিস্ট্যান্সে বাধা পেতে পারে গোল্ড

গত সপ্তাহে গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়েছিল এবং চলতি সপ্তাহের প্রথমদিনও গোল্ড আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে।  বর্তমানে গোল্ড ২০০-SMA অনুযায়ী ১৮১৩ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বরের সর্বোচ্চ প্রাইস ১৮২৪ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১৮৩০ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। চার ঘন্টার চার্টে ফিবোনাসি ৭৮.৬% অনুযায়ী ১৭৬১ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ডিসেম্বরের নিন্ম প্রাইস ১৭৫৩ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে।

১.২৭৫০ অতিক্রমের পথে USDCAD

আজকের সেশনে USDCAD পেয়ারের ক্ষেত্রে বিয়ারিশ অবস্থান লক্ষ করা যাচ্ছে। আজ সোমবার লন্ডন সেশনে পেয়ার ১.২৭৩৩ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। চার ঘন্টার চার্টে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করছে ১.২৭৫০। আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে জানুয়ারির সর্বোচ্চ প্রাইস ১.২৮১৫ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১.৩০০০ প্রাইসে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অপরদিকে ২০০-SMA অনুযায়ী পেয়ার ১.২৬৭০ ব্রেকে সক্ষম হলে ১১ জানুয়ারির নিন্ম প্রাইস ১.২৫৬০-তে যেতে

সপ্তাহের প্রথমদিন নিউজিল্যান্ড ডলারের বিপরীতে মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে

গত সপ্তাহের শেষের দিন NZDUSD পেয়ারের প্রাইস কমলেও চলতি সপ্তাহের শুরুতে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ সোমবার ইউরোপিয়ান সেশনে NZDUSD পেয়ার ০.৬৬২০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে ০.৬৬০০। ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে পেয়ার ০.৬৫৭০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ০.৬৫৩০ সাপোর্টে যেতে পারে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৬১.৮% অনুযায়ী সাপোর্ট হতে পারে ০.৬৪৫৫। অপরদিকে ১০০-EMA অনুযায়ী রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে ০.৬৬৭০। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৫০

২০০ HMA অতিক্রমের পথে AUDUSD

গত দুসপ্তাহ AUDUSD পেয়ারের প্রাইস কমলেও চলতি দুসপ্তাহ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ সোমবার ইউরোপিয়ান সেশনে পেয়ারটি ০.৭০৯০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। এক ঘন্টার চার্টে পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা হচ্ছে ২০০ HMA অনুযায়ী ০.৭০৯৫।  ৫০-HMA অনুযায়ী পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ০.৭১৭০। আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে শর্ট-টার্মে ০.৭১৭০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। ৫০% এবং ৬১.৮% ফিবোনাসি অনুযায়ী পেয়ারের পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ২৮ জানুয়ারির ০.৭০৬৭ এবং ০৩ ফেব্রুয়ারির সর্বোচ্চ প্রাইস ০.৭০৪৩।

১১৫.০০ প্রাইসের নিচে গেলে USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমতে পারে

আজ সোমবার ইউরোপিয়ান সেশনে USDJPY পেয়ার ১১৫.৩৫ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। ৫০ এবং ২০০ ‍SMA লাইন পরস্পরকে ক্রোস করেছে। এক্ষেত্রে পেয়ার ক্রোস লাইনের নিচে আসলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। অপরদিকে পেয়ার ক্রোস লাইনের উপরে থাকলে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করছে ০৪ জানুয়ারির সর্বোচ্চ প্রাইস ১১৫.৫০। পেয়ার ১১ জানুয়ারির সর্বোচ্চ প্রাইস ১১৬.৩৫ অতিক্রমে সক্ষম হলে আপট্রেন্ড অব্

GBPUSD সেলারদের জন্য ১০০-DMA অতিক্রম হওয়া প্রয়োজন

আজ সোমবার ইউরোপিয়ান সেশনে GBPUSD পেয়ার ১.৩৫২০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। গত সপ্তাহে পেয়ারের আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলেও সপ্তাহের শেষের দিন কমেছিল। চলতি সপ্তাহের প্রথমদিনও পেয়ারের প্রাইস কমছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩৫২০ এর কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ১০০-DMA অনুযায়ী পেয়ার ১.৩৫১০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ১.৩৫০০ সাপোর্টে যেতে পারে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, পেয়ার ১০০- DMA এর নিচে আসলে সেলারদের সুযোগ বৃদ্ধি পেতে পারে। এক্ষেত্রে পেয়ার ১.৩৪৭০ সাপোর্ট অতিক্রমের পরবর্তীতে ২০২১ সালের নভেম্বরের শুরুর

GOLD সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট (০৭-১১ ফেব্রুয়ারি,২০২২)

দ্বিতীয় সপ্তাহ গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। আজ সোমবার ট্রেডিং সপ্তাহের প্রথমদিন গোল্ডের প্রাইস বেড়ে ১৮১৫ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। তবে মার্কিন ননফার্ম পেরোলস ডাটা রিলিজের সময় গোল্ডের প্রাইস কমে ১৭৯২-তে নেমেছিল। মার্কিন বেকারত্বের হার ৪.০% থেকে কমে ৩.৯%-তে এসেছে। যা ডলারের প্রাইস কমাতে সহায়তা করছে। এর ফলে গোল্ডের প্রাইস বেড়েছিল। GOLD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস গোল্ডের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে দেখা হচ্ছে (sL) গোল্ডের আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে পরবর্তী রেজিস্ট্

USDJPY সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট (০৭-১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২)

গত সপ্তাহের শরুর দিকে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইয়েন শক্তিশালী হলেও শেষের দিকে পুনরায় দুর্বল হয়েছিল।চলতি সপ্তাহে পেয়ারটি নিরপেক্ষ অবস্থানে মুভমেন্ট করছে। গত সপ্তাহে পেয়ারটি ১১৫.১৭ প্রাইসে ক্লোজ হলেও সপ্তাহের শুরুতে ১১৫.৩৪ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। গত সপ্তাহে মার্কিন জব রিপোর্ট হতাশাজনক আসায় ইয়েনের বিপরীতে মার্কিন ডলার দুর্বল হয়েছিল। বর্তমানে মার্কিন ডলার পুনরায় শক্তিশালী হচ্ছে। জাপানের ইকোনমিক ডাটা লক্ষ করে দেখা যাচ্ছে। দেশটির ইকোনমিতে তেমন কোন অগ্রগতি দেখা যাচ্ছে না। দেশটির কনজিউ

EURUSD সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট ( ০৭ থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২)

গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের NFP ডাটা কেন্দ্র করে EURUSD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়েছিল। পেয়ারের প্রাইস ৩৫০ পিপসের মতো বৃদ্ধি পেয়েছিল। ২০২২ সালে সাপ্তাহিক ক্যান্ডেলে পেয়ারের প্রাইস প্রথমবারের মতো এতো বেশি বেড়েছিল। তবে ২০২০ সালের মার্চ মাসে পেয়ারের এরকম আরেকটি বড় মুভমেন্ট দেখা গিয়েছিল। এছাড়াও ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান লেগার্ডের হকিশ টোন ইউরোর প্রাইস বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে। গত সপ্তাহে প্রকাশিত ইউরোপিয়ান কনজিউমার প্রাইস বাৎসরিক হিসেবে বেড়ে ৫.১% এসেছে। যা প্র

USDJPY পেয়ারের প্রাইস বেড়ে ১১৫.০০-তে যাচ্ছে

গত কয়েকদিন USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমলেও আজকের সেশনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১১৪.৭০ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, পেয়ারটি খুব তাড়াতাড়ি ২১-দিনের EMA অনুযায়ী ১১৫.০০ ব্রেকে সক্ষম হবে। পেয়ার আপট্রেন্ড অব্যাহত রাখতে সক্ষম হলে সেক্ষেত্রে ১১৫.৫০ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১১৬.৩৫ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। অপরদিকে পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে ১১৪.৬৫। পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে ১১৪.১৫ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১১৩.৫০ সাপোর্টে যেতে পারে।

আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখে ১.১৩১৫ রেজিস্ট্যান্সে যাচ্ছে EURUSD

ডেইলি চার্টে দেখা যাচ্ছে EURUSD পেয়ার চতুর্থদিনের মতো আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখে আজ বুধবার এশিয়ান সেশনে ১.১২৭০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। চার ঘন্টার চার্টে MACD এবং RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ার ওভারবটের কাছাকাছি অবস্থান করছে। সেক্ষেত্রে পেয়ারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে পেয়ারের সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে ১.১২০৫। পরবর্তীতে পেয়ার ১.১১২০ অতিক্রমের পরবর্তীতে ১.১১০০ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। ২০২০ সালের এপ্রিলে পেয়ারের সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল ১.১১০০। অপদিকে পেয়ার আপট্রেন

AUDUSD সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট ( ৩১ জানুয়ারি থেকে ০৫ ফেব্রুয়ারি)

AUDUSD পেয়ারের বিয়ারিশ অবস্থান বেশ শক্তিশালী মনে হচ্ছে। এমনকি পেয়ারটি ০.৭০০০ লেভেল অতিক্রমে সক্ষম হয়েছে। মূলত মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের আলোচনাকে কেন্দ্র করে পেয়ারের প্রাইস কমছে। ২০২০ সালের জুলাই মাসে পেয়ারকে ০.৬৯৬৬ প্রাইসে দেখা গিয়েছিল। যদিও সপ্তাহের প্রথমদিন এশিয়ান সেশনে পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ সপ্তাহে যা হতে পারে চলতি সপ্তাহে ব্যাংক অব অস্টেলিয়ার ইন্টারেস্ট রেট মিটিং রয়েছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ব্যাংক ইন্টারেস্ট ০.১% অপরিবর্তনীয় রাখতে পারে।

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...