Jump to content

ফরেক্স নিউজ

  • entries
    1,092
  • comments
    16
  • views
    9,146

Contributors to this blog

  • মার্কেট আপডেট 1092

About this blog

ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত সব নিউজ, অ্যানালাইসিস এবং মার্কেট আপডেট পাবেন এখানেই।

Entries in this blog

১০০ DMA অতিক্রমে বৃদ্ধি পেতে পারে GBPJPY পেয়ারের প্রাইস

GBPJPY পেয়ার বর্তমানে ১৫২.৩০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে।  ১০০ DMA অনুযায়ী পেয়ার ১৫২.৫৫ প্রাইস অতিক্রমে সক্ষম হলে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে।  যদিও বর্তমানে পেয়ারটি কাছাকাছি অবস্থান করছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৬১.৮% অনুযায়ী পেয়ারটি ১৫৩.১৬ প্রাইসে যেতে পারে। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে মাসের সর্বোচ্চ প্রাইস ১৫৩.৫০ এবং ১৫৪.১০। অপরদিকে পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট হতে পারে ১৫২.০০।  পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে গত মাসের সর্বনিন্মম প্রাইস ১৫০.৬৫। GBPJPY ডেইলি চার্ট XM ব্রো

USDCHF সাপ্তাহিক ফরেকাস্ট (১৯ – ২৩ জুলাই, ২০২১)

সপ্তাহের শেষের দিন USDCHF পেয়ারের প্রাইস সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছিল।  এর ফলে পেয়ার গত সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে উঠেছিল।  পেয়ারটি ০.৯২০০ প্রাইস অতিক্রমে সক্ষম হয়েছিল এবং আজকের সেশনের শুরুর দিকে পেয়ারের প্রাইস কমলেও পরবর্তীতে বৃদ্ধি পেয়ে ০.৯২০০ প্রাইসের উপরে অবস্থান করছে। এর ফলে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে সুইস ফ্রাঙ্কের বিপরীতে মার্কিন ডলারের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও কারেন্সি কয়েক সপ্তাহ ন্যারো রেঞ্জে মুভমেন্ট করছে।  যা USDCHF পেয়ারকে আরও উপরে তুলতে সক্ষম হবে কিনা

সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে USDCAD

আজ বৃহস্পতিবার ইউরোপিয়ান সেশনে USDCAD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে ১.২৪০০ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে।  পেয়ারের পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.২৪৩০। চার ঘন্টার চার্টে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে পারে।  USDCAD হলুদ কালারের ট্রেন্ড লাইনটি অতিক্রমে সক্ষম হলে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে।  অপরদিকে সবুজ কালারের ট্রেন্ড লাইন ৫০ EMA অতিক্রমে সক্ষম হলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। পেয়ারের পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে জুন মাসের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.২৪৯০।  পেয়ারটি ১.২৪৯০ অতি

মার্কিন ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে

ফেডের ডোভিশ আলোচনাকে কেন্দ্র করে GBPUSD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে।  চলতি সপ্তাহে চতুর্থ দিনের মতো GBPUSD আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। যুক্তরাজ্যে ক্রমবর্ধমান করোনাভাইরাসের সংক্রামণ কিছুটা হ্রাস পেতে শুরু করেছে।  যা পাউন্ডের প্রাইস বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে।  দেশটিতে সংক্রামণের চতুর্থ ঢেউ চলছে, যা ধীর হয়ে এসেছে।  সম্প্রতি প্রতিদিন দেশটিতে  ২০ থেকে ২৫ হাজারের মতো আক্রান্ত হচ্ছে। যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলোতে বৃদ্ধি পাচ্ছে।  যা যুক্তরাজ্যে ভয়ের সাথে ব্র

USDJPY সেলারদের টার্গেট ১০৯.৫০

ইউরোপিয়ান ট্রেডিং সেশনের শুরু থেকে USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমছে।  বর্তমানে পেয়ারটি ১০৯.৮০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। আজকের সেশনের পেয়ারের প্রাইস কমে সর্বনিন্ম ১০৯.৬৫-তে এসেছিল।  পেয়ারটি ১০৯.৫০ প্রাইস ব্রেকে সক্ষম হলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারটি নিরপেক্ষ অবস্থানে রয়েছে।  USDJPY ১০৯.৫০ ব্রেকে সক্ষম হলে ২০ জুলাইয়ের সর্বনিন্ম প্রাইস ১০৯.৩২-তে যেতে পারে।  পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১০৯.০০। অপরদিকে পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল  ১১০.০০। পরবর্ত

গোল্ডের প্রাইস বেড়ে মাসের সর্বোচ্চে অবস্থান করছে

FOMC মনেটারী পলিসি মিটিংয়ের এনাউন্সমেন্টকে কেন্দ্র করে গত ২৪ ঘন্টায় গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে মাসের সর্বোচ্চ প্রাইসে অবস্থান করছে। গতকালের মিটিংয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রত্যাশা অনুযায়ী ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছে। রেট ডিসিশনের পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েল আলোচনায় ইন্টারেস্ট রেট বাড়ানোর জন্য অপেক্ষা করতে বলেছেন।  যা মার্কিন ডলারের ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।  এর ফলে মার্কিন ডলারের বিপরীতে গোল্ডের পাশাপাশি অন্যান্য কারেন্সিগুলোর প্রাইস শক্তিশালী হচ্ছে।

চতুর্থ দিন আপট্রেন্ডে  থাকলেও আজ কমবে USDCAD পেয়ারের প্রাইস

USDCAD পেয়ারের প্রাইস গত চারদিন বৃদ্ধি পেলেও আজকের সেশনে কমতে শুরু করেছে।  বর্তমানে লোনি পেয়ারের প্রাইস কমে ১.২৫২৫ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে।  সেক্ষেত্রে পেয়ারের প্রাইস কমে ১.২৫০০ এর কাছাকাছি যেতে পারে।  পেয়ারের পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১ জুনের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.২৪৬০।  পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১.২৪২০-২৫। অপরদিকে পেয়ার আপট্রেন্ড অব্যাহত রাখতে সক্ষম হলে ২১ DMA অনুযায়ী ১.২৫৪৭ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। ২০০ DMA অনুযায়ী পরবর্তী রেজিস

১.১৭০০ প্রাইসের নিচে মুভমেন্ট করছে EURUSD

সপ্তাহের শেষের দিনের সাথে মিল রেখে চলতি সপ্তাহের প্রথমদিনও EURUSD পেয়ার ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। আজ সোমবার পেয়ারের প্রাইস কমে সর্বনিন্ম ১.১৬৮০-তে গিয়েছিল। ফেড চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েলের আলোচনার পরবর্তীতে মার্কিন ডলারের রিকভার কেন্দ্র করে EURUSD পেয়ারের প্রাইস ক্রমাগত কমছে। যদিও বৃহস্পতিবার পেয়ারের প্রাইস বেড়েছিল। ফেড চেয়ারম্যানের আলোচনার সাথে পেয়ারের সেলিং প্রেসার শক্তিশালী হচ্ছে শুক্রবার প্রকাশিত সেপ্টেম্বর মাসে জার্মান বিজনেস ক্লাইমেট প্রত্যাশার থেকে কম আসায় ইউরোর প্রাইস

১৫৩.০০ প্রাইসে যেতে ব্যর্থ হয়ে ২০০ DMA এর দিকে যাচ্ছে GBPJPY

তৃতীয় দিনের মতো GBPJPY ধারাবাহিক ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখে ১৫২.৪৪ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। পেয়ারটি ১৫৩.১৭ অতিক্রমে সক্ষম হলে আপট্রেন্ড্ শক্তিশালী হতে পারে। অপরদিকে পেয়ার ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রাখলে ১৫১.০০ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে।  ২০০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী ১৫১.৯৭ সাপোর্ট হতে পারে। পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১৫১.০০। ডাউনট্রেন্ড ক্রমাগত অব্যাহত থাকলে সেক্ষেত্রে ২১ সেপ্টেম্বরের নিন্ম প্রাইস ১৫০.০০ সাপোর্ট হতে পারে। পেয়ারটি ৫০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী ১৫৩.১৭ রেজিস্ট্যান্স অত

EURUSD মাসের সর্বোচ্চ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে

আজ বৃহস্পতিবার এশিয়ান সেশনে EURUSD ১.১৪৪০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। আজকের সেশনে পেয়ার বুলিশ অবস্থানে থাকতে সক্ষম হলে টানা তৃতীয়দিন আপট্রেন্ডে থাকতে সক্ষম হবে। ডেইলি চার্টে MACD ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ার বুলিশে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে মাসের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.১৪৫০। ১০০-DMA অনুযায়ী পেয়ারের রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.১৫১০ এবং পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১.১৫৩০। পেয়ারের আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে সেক্ষ

LUNA-এর প্রাইস ২৪ ঘন্টার মধ্যে ৩৩%-এর বেশি কমে যাওয়ায়, স্টেবলকয়েন USDT ১ – ০.৯৩ ডলারে নেমে এসেছে

বিটকয়েনের ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকায়, গত ২৪ ঘন্টায় টেরা (LUNA) এর দাম ৩৩.৩% কমে গেছে। টেরা প্রকল্পের অন্যতম স্টেবলকয়েন টেরা USDT স্থিতিশীলতা হারিয়ে প্রতি টোকেন ০.৯৩২০০৮০-এ নেমে গেছে। গত ২৪ ঘন্টায়, ক্রিপ্টো ইকোনমি থেকে ৮৩০ মিলিয়ন ডলারের বেশি ক্রিপ্টো লিকুইড করা হয়েছে এবং বিটকয়েনের প্রাইস ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে সর্বনিন্মে নেমে এসেছে। তবে টেরা লুনা কয়েনের প্রাইস ৩৩.৩% কমে যাওয়ায় অসংখ্য ক্রিপ্টো সম্পদ গভীর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। Coingecko.com পরিসংখ্যান অনুসারে সোমবার USDT তার সর্

চীনা হাইকোর্টের ক্রিপ্টোকারেন্সিকে ভার্চুয়াল সম্পদ হিসেবে ঘোষণা

সাংহাই হাই পিপলস কোর্ট ঘোষণা করেছে চীনে ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং নিষিদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও বিটকয়েন চীনা আইন দ্বারা সুরক্ষিত ভার্চুয়াল সম্পদ হিসেবে যোগ্যতা অর্জন করেছে। আদালতের অফিসিয়ালি একটি নোটিশে পোস্ট করা হয়েছে: প্রকৃত বিচারের অনুশীলনে পিপলস কোর্ট বিটকয়েনের আইনি অবস্থানের উপর একটি ঐক্যবদ্ধ মতামত গঠন করেছে এবং এটি একটি ভার্চুয়াল সম্পত্তি হিসেবে চিহ্নিত করেছে। আদালত আরও ব্যাখ্যা করেছে বিটকয়েনের একটি নির্দিষ্ট ইকোনমিক প্রাইস রয়েছে এবং সম্পত্তির বৈশিষ্ট্যগুলোর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। প্রথমবারের মত

মার্কিন ডলার দুই দশকের সর্বোচ্চে

মার্কিন CPI প্রত্যাশার থেকে বৃদ্ধি পাওয়ায় ফেডারেল রিজার্ভের আক্রমনাত্মক নীতি অর্থাৎ ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধির সম্ভাবনা প্রবল হওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার মার্কিন ডলার দুই দশকের সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। সেফ হেভেন হিসেবে মার্কিন ডলারের সুবিধা থাকলেও ইতিমেধ্যেই চীনের দীর্ঘায়িত কোভিড ১৯ লকডাউনের ঝুঁকিতে ডলার অতিরিক্ত সুবিধা পাচ্ছে। অজি এবং নিউজিল্যান্ড ডলারের মতো ঝুঁকিপূর্ণ কারেন্সি গুলোর প্রাইস ক্রমাগত কমতে শুরু করেছে। অজি ও নিউজিল্যান্ড ডলারের প্রাইস কমার অন্যতম একটি কারণ হলো চীন অস্টেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের

ক্রিপ্টো মার্কেটের ডাউনট্রেন্ড নিয়ে Binance সিইও-এর মতামত

Bitcoin থেকে শুরু করে সমস্ত অল্টকয়েন ডাউনট্রেন্ডে রয়েছে। কিছু ক্রিপ্টোকারেন্সি তার অতীতের ইতিহাস ব্রেক করে সর্বনিন্মে চলে এসেছে। মার্কেটের এ ধরনের অবস্থা ক্রিপ্টো হোল্ডার এবং বিনিয়োগকারীদের সমস্যায় ফেলেছে। বিশ্বের শীর্ষ ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জার Binance- এর সিইও ক্রিপ্টোর ডাউনট্রেন্ড সম্পর্কে একটি টুইট বার্তায় বলেন: স্টক মার্কেটও বর্তমানে ক্রিপ্টো মার্কেটের মতো অস্থিরতার মধ্যে রয়েছে। টুইটে তিনি কয়েনবেস এবং নেটফ্লিক্স স্টক মার্কেটের স্ক্রিনশর্ট যোগ করেছেন যেখানে স্টকগুলোতে যথাক্রমে ৮৪% ও

ইউরোর বিপরীতে মার্কিন ডলার শক্তিশালী যেসব কারণে

আজ বৃহস্পতিবার এশিয়ান সেশনে EURUSD ১.১৯৫০ প্রাইসের নিচে অবস্থান করছে।  আর্টিকেলটি লেখার সময় পেয়ারের প্রাইস ০.০১% কমে ১.১৯২৪ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। মুদ্রাস্ফীতি এবং সুদের হারের দৃষ্টিভঙ্গি বিষয়ে ফেডের মিশ্র মন্তব্যগুলো মার্কিন ডলারকে প্রভাবিত করেছে। বর্তমানে মার্কিন ডলারের প্রাইস কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে ৯১.৮২ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। আটলান্টা ফেডের প্রেসিডেন্ট রাফেল বোস্টিক বলেছেন যে তিনি আশা করছেন ২০২২ সালের শেষের দিকে সুদের হার বৃদ্ধি এবং এ বছর ফেডের ২% লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে মুদ্রা

USDCHF পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে বুলিশ ফ্ল্যাগ অতিক্রমের অপেক্ষায়

USDCHF ধারাবাহিক তৃতীয় দিন আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। বর্তমানে ইউরোপিয়ান সেশনে পেয়ারটি ০.৯১৯৫ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। চার ঘন্টার চার্টে (H4) দেখা যাচ্ছে, USDCHF বুলিশ ফ্ল্যাগ চার্ট প্যাটার্ন তৈরি করেছে। RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারটি ৫০ এর উপরে অবস্থান করছে। যা ওভারবটের অনেক দূরে রয়েছে। পেয়ারটি ০.৯২০০ রেজিস্ট্যান্স অতিক্রমে সক্ষম হলে ০.৯২৪০ প্রাইসে যেতে পারে। USDCHF পরবর্তীতে ০.৯২৪০, ০.৯৩০০ এবং ০.৯৩৭৫ প্রাইসে বাধা প্রাপ্ত হতে পারে। অপরদিকে পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ০.৯১৪৫

১.২৩০০ প্রাইস কেন্দ্র করে মুভমেন্ট করছে USDCAD

কয়েকদিন USDCAD পেয়ারের প্রাইস কমলেও গতকাল পেয়ারটি ডজি ক্যান্ডেল তৈরি করেছিল। বর্তমানে পেয়ারটি ১.২৩০০ প্রাইস কেন্দ্র করে মুভমেন্ট করছে। আর্টিকেল লেখার সময় পেয়ারটি ১.২৩০৭ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। চলতি সপ্তাহে পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড শুরু হয় ১.২৪৮৭ প্রাইস থেকে। পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে থাকলে ১.২৩৫০ হরিজোনটাল রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। RSI ইনডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে পেয়ারের পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ২২ জুনের সর্বোচ্চ প্

২ বছরের সর্বোচ্চে জার্মান বিজনেস সেন্টিমেন্ট

জার্মানে পুনরায় ব্যবসায়িক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টায় জুনে ব্যবসায়িক সেন্টিমন্টে উন্নত হয়েছে। যা দুই বছরেরও বেশি উচ্চতায় পৌঁছেছে। IFO ইনিস্টিটিউট থেকে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, মে মাসে নিবন্ধিত ৯৯.২ পয়েন্টের তুলনায় জুনে বেড়ে ১০১.৮ পয়েন্ট এসেছে।  দ্যা ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল পরিচালিত অর্থনীতিবিদদের পূর্বাভাস অনুযায়ী ১০০.৫ উন্নীত হওয়ার প্রত্যাশা করা হয়েছিল। ২০১৮ সালের নভেম্বরের পরবর্তীতে এটা সর্বোচ্চ। ১৮ সালে ১০১.৯ পয়েন্ট এসেছিল।  কারেন্ট বিজনেস অ্যাসেসমেন্ট  ৯৫.৭ থেকে বেড়ে ৯৯.৬ পয়

১৩২.৬০ প্রাইসে যেতে পারে EURJPY

চতুর্থ দিনের মতো EURJPY পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১৩২.৩০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। EURJPY পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স ১৩২.৬০। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১৩৩.০০।  পেয়ারের আপট্রেন্ড শক্তিশালী হলে ১৩৪.১২ রেজিস্ট্যান্সে যেতে পারে। পেয়ারটি ১৩৪.১২ রেজিস্ট্যান্সে গেলে তা ২০২১ সালের সর্বোচ্চ প্রাইস হবে। অপরদিকে ২০০ দিনের সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ অনুযায়ী ১২৭.৭১ প্রাইসের নিচে আসলে ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে। EURJPY ডেইলি চার্ট

ডজি ক্যান্ডেলের পরবর্তীতে বৃদ্ধি পাচ্ছে গোল্ডের প্রাইস

মুদ্রাস্ফীতি এবং ফেডের পরবর্তী মুদ্রানীতি সংক্রান্ত পদক্ষেপের বিষয়ে বিরোধী সংকেতগুলোর মধ্যে মার্কিন ডলার রক্ষণাত্মক অবস্থানে থাকায় গোল্ডের প্রাইস কিছুটা কমলেও বর্তমানে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়াও গতকাল গোল্ডের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে ১৭৯৪-তে আসলেও পরবর্তীতে ডজি ক্যান্ডেলে ক্লোজ হয়েছিল। গতকাল গোল্ড ওপেন প্রাইস ১৭৭৮-এ ক্লোজ হলেও আজকের সেশনে বৃদ্ধি পেয়ে ১৭৮৫ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। এক সপ্তাহের চার্টে গোল্ড ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ২৩.৬% অনুযায়ী গোল্ড ১৭৯০ প্রাইসে আসতে পারে।  এক দিনের চার্টে ১

ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের ডোভিশ সুরে EURGBP প্রাইস বাড়ছে

ব্যাংক অব ইংল্যান্ড (DOE) দেশটির অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার এবং মুদ্রাস্ফীতির মাত্রাকে বহুলাংশে ক্ষণস্থায়ী হিসাবে দেখে আশ্চর্যজনকভাবে ডভিশ সুরে আঘাতের পর EURGBP পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে পেয়ারটি ০.৮৫৭০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মনেটারী পলিসি কমিটি (MPC) এর মতে, মুদ্রাস্ফীতি অস্থায়ী সময়ের জন্য সমস্যা হতে পারে।  বর্তমানে এটা বৃদ্ধি পেলেও পরবর্তীতে পিছিয়ে পড়বে। এদিকে ইংল্যান্ডে ক্রমবর্ধমান কোভিড-১৯ সংক্রামণ মিশ্র অবস্থানে রয়েছে।  যা গতকাল ৪০% বৃদ্ধি পে

USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে

আজ শুক্রবার USDJPY পেয়ারের প্রাইস কমে ১১০.৮৭ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে।  গতকাল পেয়ারটি Bearish spinning top তৈরি করেছে।  যা প্রাইস কমার নির্দেশনা দিচ্ছে। গতকাল USDJPY লসে ক্লোজ হওয়ার পূর্বে ২০২০ সালের মার্চের সর্বোচ্চ প্রাইসে উঠেছিল। পেয়ারটি ট্রেন্ড চ্যানেলের নিচে Bearish spinning top তৈরি করেছে।  যা আজকের সেশনে সেলারদের পক্ষে থাকতে পারে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, USDJPY ১১০.৭০ প্রাইসে আসতে পারে।  চলতি মাসের শুরুর দিকের ১১০.৩০ প্রাইসে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।  পেয়ারের পরবর্তী সাপোর্টগুলো হতে প

২০০ HMA এর উপরে AUDUSD

আজ শুক্রবার ইউরোপিয়ান সেশনে AUDUSD পেয়ারের প্রাইস বৃদ্ধি পেয়ে ০.৭৫৯৫ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে।  পেয়ারটি ২০০ HMA লেভেল ব্রেক করতে সক্ষম হয়েছে।  যা বায়ারদের জন্য সুযোগ তৈরি করেছে। ফিবোনাসি রিট্রেসমেন্ট ৫০% অনুযায়ী পেয়ারের বর্তমান রেজিস্ট্যান্স ০.৭৬০০।  পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স হতে পারে ১৭ জুনের সর্বোচ্চ প্রাইস ০.৭৬৫০।  আপসাইড স্থায়ী হলে ০.৭৬৭৫-৮০ প্রাইসে যেতে পারে। অপরদিকে AUDUSD  পেয়ারের বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ২০০ HMA ০.৭৫৮৪।  পেয়ারটি উক্ত সাপোর্ট অতিক্রমে সক্ষম হলে ০.৭৫৬৫-৬০ সাপোর্টে আসত

মার্কিন ডাটার পূর্বে রিকভারের চেষ্টায় GBPUSD

গতকাল ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের মনেটারী পলিসি ডিসিশনের মাধ্যমে GBPUSD পেয়ারের প্রাইস কমতে থাকে।  আজও পেয়ারের প্রাইস কমছে।  বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩৯০০ প্রাইসের কাছাকাছি মুভমেন্ট করছে। মার্কিন মুদ্রাস্ফীতি ডাটাকে কেন্দ্র করে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ড শক্তিশালী হওয়ার চেষ্টা করছে।  শেষ পর্যন্ত কি হয় সেটা দেখার বিষয়। বিনিয়োগকারীরা মুদ্রাস্ফীতি সম্পর্কে ফেডের অবস্থানের মূল্যায়ন করেছেন কারণ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের শীর্ষ অগ্রাধিকার হল অর্থনৈতিক বৃদ্ধি এবং শ্রমবাজারের উন্নতি।  মার্কিন ফে

১.২৩০০ প্রাইসের নিচে USDCAD পেয়ারের ডাউনট্রেন্ড শক্তিশালী হতে পারে

USDCAD পেয়ারটি ১.২৪৯০ প্রাইস থেকে নিচে নামতে শুরু করেছিল।  বর্তমানে পেয়ারের প্রাইস কমে ১.২৩০০ এর কাছাকাছি অবস্থান করছে। RSI ইনডিকেটরের ট্রেন্ড লাইন ৫০ লেভেলে সামান্য উপরে অবস্থান করছে।  যা পেয়ারের সাইডওয়ে নির্দেশ করছে।  MACD ইনডিকেটরে পেয়ারটি জিরো পয়েন্টের উপরে অবস্থান করছে।  এটাও পেয়ারের প্রাইস কমার সম্ভাবনার ইঙ্গিত দিচ্ছে। তবে ২০ এবং ৪০ দিনের সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ পেয়ারের বুলিশ অবস্থানের ইঙ্গিত দিচ্ছে।  পেয়ারটি গত কয়েকদিন ১.২৩০০ প্রাইসকে কেন্দ্র করে মুভমেন্ট করছে।  সেক্ষেত্রে USDCAD ১.২

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...