Jump to content
Sign in to follow this  
মার্কেট আপডেট

চলতি সপ্তাহের USDCAD ফরেক্স মার্কেট আপডেট (২৫ থেকে ২৯ নভেম্বর)

Recommended Posts

USDCAD পেয়ারটির প্রাইস এ মাসে তৃতীয় সপ্তাহের মতো বেড়েছে।এ সপ্তাহে কানাডিয়ান জিডিপি (GDP) মার্কেটে প্রভাব ফেলতে পারে।এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং USDCAD পেয়ারটির টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিসগুলো আলোচনা করা হলো।

গত সপ্তাহে কানাডার কনজিউমার ডাটা মার্কেটে প্রভাব ফেলেছিল। কানাডার মুদ্রাস্ফীতি গত তিন মাসের মধ্যে এবার শতকরা ০.৩% বেড়েছে। রিটেইল সেল মিশ্র অবস্থানে ছিল। গত দুই মাস রিটেইল সেলস খারাপ অবস্থানে থাকার পর এবার শতকরা ০.২% বেড়েছে। রিটেইল সেলস শতকরা ০.১% কমেছে।

ফেড নীতিনির্ধারকরা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ইকোনমিতে তেমন কোন পরিবর্তন না আসলে বর্তমানে ফেড ইন্টারেস্ট রেট কমাবে না। এর ফলে গত সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে থাকে। অক্টোবরে ফেড ডভিশ অবস্থানে থাকলেও দেশটির ইকোনমি বেশ ভাল অবস্থানে ছিল। এ ধরণের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহে ডলারের প্রাইস বেড়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের ইকোনমি যেহেতু ভাল অবস্থানে রয়েছে,তাই প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এবার যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রাস্ফীতি ফেড নির্ধারিত ২ পার্সেন্ট বাড়তে পারে।

USDCAD প্রতদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো

USD_CAD-Forecast-Nov.25-29.._2019.thumb.png.19fd3672e253f2b9bd6a3ea20dac6919.png

১.Wholesale Sales

সোমবার,সন্ধ্যা ০৭:৩০। ভোক্তাদের ব্যয় যখন ভাল থাকে,তখন সাধারণত হোল সেলস ভাল হয়ে থাকে। আগস্ট মাসে কানাডার হোল সেলস  শতকরা ১.২% ছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ০.৩% এর নিচে এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে,সেপ্টেম্বরে এ সেক্টরটি রিবাউন্ড করতে পারে।

২.Corporate Profits

মঙ্গলবার,সন্ধ্যা ০৭:৩০।  গত দুই বারের রিপোর্টে এ সেক্টরটি খারাপ আসলেও ২য় প্রান্তীকে কানাডার এ সেক্টরে শতকরা ৫.২% বেড়েছে। বর্তমানে আমরা তৃতীয় প্রান্তীকের রিপোর্টের অপেক্ষা করছি।

৩.GDP

শুক্রবার,সন্ধ্যা ০৭:৩০।  আগস্ট মাসে কানাডার জিডিপি শতকরা ০.১% বেড়েছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ০.২% এর নিচে এসেছিল। এবার এ সেক্টরটি বাড়বে  কিনা সেটা দেখার বিষয়?

৪.RMPI

শুক্রবার,সন্ধ্যা ০৭:৩০।  সেপ্টেম্বরে এ সেক্টরটি অপরিবর্তনীয় ০.০% ছিল। যেখানে প্রত্যাশ করা হয়েছিল, এ সেক্টরটি শতকরা ২.৫% বাড়বে। বর্তমানে আমরা অক্টোবরের ডাটার অপেক্ষা করছি।

USDCAD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস

টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো:

আমরা ১.৩৬৬০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। পরবর্তীতে পেয়ারটি ১.৩৫৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলকে অনুসরণ করেছিল।

জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে ১.৩৪৪৫ গুরুত্বপূর্ণ একটি রেজিস্ট্যান্স লেভেলি ছিল। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১.৩৩৮৫।

অক্টোবরের শুরুর দিকে ১.৩৩৩০ আরেকটি রেজিস্ট্যান্স লেভের হিসেবে কাজ  করেছিল।

বর্তমানে ১.৩২৬৫ গুরুত্বপূর্ণ একটি সাপোর্ট লেভেল ।  পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ১.৩১৫০।

অক্টোবরের শেষের দিকে ১.৩১০০ গুরুত্বপূর্ণ একটি সাপোর্ট লেভেল ছিল। পরবর্তীতে এখান থেকে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে থাকে।

২০১৮ সালের অক্টোবরে পেয়ারটি ১.২৯১৬ সাপোর্ট লেভেলে টেস্ট করেছিল। সর্বশেষ সাপোর্ট লেভেল ১.২৯১৬।

শেষ কথা

ফরেক্স বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে পারে।

গত সপ্তাহে পেয়ারটি পজিটিভ অবস্থানে ছিল এবং পেয়ারটি গত ছয় সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে উঠেছিল। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য আলোচনা নিয়ে, যে কোন উত্তেজনা কানাডিয়ান ডলারের ঝুকি কমাতে সহায়তা করতে পারে। সুতরাং বিনিয়োগকারীদের ইভেন্টগুলো প্রতি খেয়াল রাখা প্রয়োজন।

Share this post


Link to post
Share on other sites

Create an account or sign in to comment

You need to be a member in order to leave a comment

Create an account

Sign up for a new account in our community. It's easy!

Register a new account

লগিন

Already have an account? Sign in here.

Sign In Now
Sign in to follow this  

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×