Jump to content
bmfxanalyst

প্রফেশনাল ট্রেডারদের দৃষ্টিতে জেনে নিন, কেন আপনি লস করে চলেছেন? আর কিভাবে এই লস কাটিয়ে প্রফিটে ফিরবেন।

Recommended Posts

 

একথা নতুন করে বলার কিছু নাই যে, ফরেক্স মার্কেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় লিকুইডিটি মার্কেট। যেখানে ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন ডলার লেনদেন হয় প্রতিদিন। এই মার্কেটে আমার আপনার মত যারা ট্রেড করি তারা শুরুতেই একটা কথা শুনে আসি যে, এই মার্কেটে ৯৫% লুজার!! কিন্ত কেন এতো বড় অংশ লুজার তা কি কেউ জানি??
 

=> আজ এই লেখায় আপনি অনেক নতুন বিষয় জানতে চলেছেন, তা হয়তো আপনি আগে ভাবেননি কখনো। অথবা ভেবেছেন, কিন্ত সিরিয়াস হিসেবে নেন নি কখনো অথবা জেনেও থাকতে পারেন, কিন্ত ততোটা গুরুত্ব দেননি। আজ থেকে সেসব গুরুত্ব দিতে শিখবেন আশা করছি।
হাতে সময় আছে তো? একটু সময় নিয়ে লেখাটা পড়ুন। বোঝার চেষ্ঠা করুন। দরকার হলে আরেকবার পড়ুন। নয়তো বুকমার্কে সেইভ করে রাখুন, আপনার ফেসবুক ওয়ালেও শেয়ার করে রাখুন যাতে সবাই জানতে পারে ফরেক্স মার্কেটের এই নিগুঢ় রহস্যের ব্যাপারে।

 

                                                                                          hqdefault.jpg.3608f0856ce3ca4bc49a3f2bd6db6e40.jpg

 

সবার প্রথমে আপনাকে জানতে হবে এই ফরেক্স মার্কেটে ব্যবসা করে দুই শ্রেনীর ব্যবসায়ী। এক রাঘব বোয়ালেরা, আর দুই চুনোপুঁটিরা।

এখানে রাঘব বোয়াল কারা?
এখানে রাঘব বোয়াল হিসেবে কাজ করে বিশ্বের বড় বড় ব্যাংক, বড় বড় ফিন্যান্সিয়াল করপোরেশানগুলো। তবে তারা কিন্ত বাংলাদেশের শেয়ার মার্কেটের মত এই মার্কেটকে ম্যানিপুলেট করার কোন ক্ষমতাই রাখে না। মার্কেট মার্কেটের মতোই চলে।

এবার আসি চুনোপুঁটিদের কথায়। এই চুনোপুঁটিই হচ্ছে আমার আপনার মত ট্রেডারেরা। বলা হয় এই মার্কেটে ৯৫% লুজার। এই লুজার কারা? ঐ সব রাঘব বোয়ালেরা?
কখনোই না! তারা কিন্ত এই ৯৫% লুজারের মাঝে পড়েনা। কেন?

কারন তারা এখানেই তাদের অর্থ যথাযথ ব্যবহার করে। বিভিন্ন ব্রোকারেরা তাদের কাছ থেকে কমিশনের ভিত্তিতে স্বত্ব কিনে নিয়ে আমাদের মত ট্রেডারদের ট্রেড করার সুযোগ করে দেয়।

আর লুজারদের তালিকায় আমাদের মত ট্রেডারেরা থাকে। এই যে আপনি ৯৫% লুজারের কথা শুনছেন, তারা কিন্ত আমার আপনার মতোই ট্রেডারেরা। নয়তো সেই সব রাঘব বোয়ালেরা লস করলে ফরেক্স মার্কেটে লিকুইডিটি সংকট দেখা দিত। এই ট্রিলিয়ন ডলারের লেনদেনও কমে আসত যদি এখানে সেই রাঘব বোয়ালদেরও ৯৫% লুজার হতো। কিন্ত বাস্তবে সেই মার্কেট আরও বড় হচ্ছে। এতেই বোঝা যাচ্ছে বাস্তবতা।

এই বিশাল মার্কেটে বড় বড় বিজনেসম্যানদের সঙে আপনিও যখন নিজেকে শামিল করছেন, তখন আপনার চিন্তাধারাও তাদের চিন্তাধারার সাথে মেলাতে হবে। যদি তা না করতে পারেন, তবেই আপনি লুজার হবেন নিশ্চিত। আর লুজারদের পার্সেন্টেজ দেখে বোঝাই যায় যে শতকরা ৯৫ জন ট্রেডারেরাই নিজেদের সেই সব বিজনেসম্যানদের চিন্তাধারার সাথে নিজেদের মেলাতে পারেনি। ফলাফল এমন বিশাল লুজারের সংখ্যাবৃদ্ধি।

এবার আসি বড় বড় ব্যাবসায়ীদের সাথে আমাদের মত ট্রেডারদের স্ট্র্যাটেজিক্যাল পার্থক্যের বিষয়েঃ

আপনি সাড়ে পাঁচ’ফুট বা ছ’ফুট উচ্চতার মানুষ। আপনি হাটার সময় এক ধাপেই প্রায় দুই ফুট পার হয়ে যেতে পারেন। এই দু ফুট রাস্তায় হালকা কাদা পানি, খানা খন্দ যাই থাকুক না কেন। আপনার কিন্ত সেসব না দেখলেও চলে। কিন্ত এই পথ যদি একটা পিপড়া অতিক্রম করতে চায়? তাহলে কি হবে?

তাকে প্রতি ইঞ্চি ইঞ্চি হিসেব করে এগতে হবে, নয়তো কাদায় আটকে যেতে পারে, খানাখন্দের ভিতর পানি থাকলে সেখানেও প্রান সংশয় দেখা যেতে পারে। তাই তাকে হিসেব করে করে এগোতে হয়। চারদিকে দেখেশুনে নিয়ে এগোতে হয়। ঠিকঠাক ভাবে এগোতে পারলে সেই পথ পারি দিয়ে পারে। অথবা কোন ভুল করলে প্রানটাও হারাতে পারে।
এই উদাহরনের সাথে ফরেক্স এর কি সম্পর্ক??
জ্বি, সম্পর্ক আছে। এটাই আসল সম্পর্ক। যারা যারা রাঘব বোয়াল, তারা মিলিয়ন মিলিয়ন ডলারের ব্যালান্স নিয়ে একবারে মাসের পর মাস ট্রেড ওপেন করে বসে থাকে, টাইমফ্রেমের দিক দিয়ে তারা এক লাফে দুই-আড়াই ফুট যাবার মত এগিয়ে থাকে, এই সময়ের মাঝে আমাদের মত ছোট ছোট ট্রেডারদের কেউ এক মিনিট, কেউ ৫ মিনিট, কেউ ৩০ মিনিট, কেউ ১ ঘন্টা, কেউ ৪ ঘন্টা আবার কেউ এক দিনের টাইমফ্রেম নিয়ে সেই পিপড়ার মত হিসেব করে করে সামনে এগোতে চায়। ফলাফল আমাদের মত ট্রেডারদের রিস্ক কয়েক হাজার গুন বৃদ্ধি পায়।

এই ঝুঁকিপুর্ণ পথ পার হতে হতেই বেশিরভাগ ট্রেডার ঝড়ে পড়ে অনায়াসে। কারন তারা হয় ঝুঁকি সম্পর্কে তেমন সচেতন থাকেন না। নয়তো তারা ঝুঁকিটাকে ঠিকমত ম্যানেজ করতে শেখেন না। ফলাফল একের পর এক একাউন্ট ডাম্প হয়ে যাওয়া।আর লুজারদের পার্সেন্টেজ বাড়তে থাকা।

এতোক্ষন তো আলোচনা করা হল কেন এতো লুজার হয়। এবার আসেন আমরা একটু জেনে নেই কিভাবে এই ঝুকিপুর্ন পথ নিরাপদে পর হতে পারবেন।

আমি পয়েন্ট আকারে বিষয়গুলো ব্যাখ্যা করি। তাতে হয়তো বুঝতে সুবিধা হবে।
১) সেহেতু ফরেক্স এর পথ সমতল নয়, উঁচুনিচু আর খানা-খন্দে ভরা, সেহেতু আপনাকে সর্বপ্রথম এই পথ পাড়ি দেবার মত একটা স্ট্র্যাটেজী ঠিক করতে হবে।

২) স্ট্র্যাটেজীটা যেমনই হোক না কেন, আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে নুন্যতম প্রফিট রেশিও যেন রিস্ক রেশিওর থেকে তিনগুন হয়। অর্থ্যাত আপনার স্টপ লস ১০ পিপ্স হলে যেন টেক প্রফিট ৩০ পিপ্স হয় কমপক্ষে।

৩) এমন স্ট্র্যাটেজীর সুফল আপনি এভাবে পাবেন যে, আপনার একটা ট্রেড প্রফিটে গেলে সেই প্রফিট আপনার পরবর্তী তিনটা ট্রেড লসে গেলেও আপনার মুল ব্যালান্স অক্ষুন্ন থাকবে।

৪) যে স্ট্র্যাটেজীই ব্যবহার করেন না কেন, সবসময় ট্রেন্ডের পক্ষে ট্রেড নেবেন। সাগরে ঢেউ বেশি হলে মাঝি নৌকার পাল কিন্ত যেদিকে বাতাস বইতে থাকে ঠিক সেদিকে তুলে ধরে, কারন বাতাসের উল্টোদিকে যেতে চাইলে প্রানটা হারাতে হতে পারে।

ফরেক্স মার্কেটে ট্রেন্ডটাও ঠিক তেমনি। আপনি ট্রেন্ডের পক্ষে থাকলে নিজেকে বেশ নিরাপদে রাখতে পারবেন। কিন্ত ট্রিলিয়ন ডলারের সমুদ্রে নিজের কয়েকশত বা কয়েকহাজার ডলারের মুলধন নিয়ে ট্রেন্ডের বিপক্ষে যাবার সাহস করলে ফলাফল কি হতে পারে তা নিশ্চয় আপনি নিজেই আঁচ করতে পারছেন।

৫) কখনোই বিশ্বাস করবেন না যদি কেউ বলে যে, সে এই মার্কেটে কেউ ৮০% বা ৯০% টানা প্রফিট করে চলছে। তার মানে আপনিও তেমনটি করতে পারবেন। সুতরাং আপনি তার কথা শুনেই ছুটে চললেন তার কাছে, তার তালীম নেবার আশায়, কিন্ত ফলাফল দেখলেন নেগেটিভ। অর্থ্যাত আপনি আবারও লস করেছেন।

বিখ্যাত এক ট্রেডারের এক বানী জেনে রাখুনঃ

“In this business if you’re good, you’re right six times out of ten. You’re never going to be right nine times out of ten.” -Peter Lynch

৬) মনে রাখবেন ১০ টা ট্রেডের ৮-৯ টা ট্রেডে আপনি ১০ পিপ্স করে প্রফিট নিলেন এভারেজে, কিন্ত বাকি ১-২ টা ট্রেডেই আপনি লস করেছেন ৫০-১০০ পিপ্স করে টোটাল ১০০-২০০ পিপ্স। এখানে আপনার ট্রেডগুলোর প্রফিট রেশিও ৮০%-৯০% হলেও আল্টিমেটলি কিন্ত আপনি বেশ ভালোই লসের স্বীকার হয়ে চলেছেন। এখন কি বুঝতে পারছেন সমস্যাটা কোথায় ??

৭) আমি ১:৩ রেশিওতে ট্রেড করতে বলেছি, তার কারন আপনি যদি ৫০% উইনও করেন , তবুও আপনি ভাল রকমের প্রফিটে থাকবেন।

১০টা ট্রেডের ৫টা ১০ পিপ্স করে লস করলেন, তার মানে ৫০ পিপ্স লস হলো, আর বাকি ৫টা তিনগুন করে প্রফিট করলেন।তার মানে ১৫০ পিপ্স প্রফিট হলো। লাভ লস মিলে কিন্ত আরও ১০০ পিপ্স প্রফিট করলেন আপনি। এখানেই প্রকৃতপক্ষে লাভ লসের হিসেব লুকিয়ে থাকে।

৮) নিজের ব্যালান্স নিয়ে সবসময় যত্নবান হবেন। কখনোও নেগেটিভ হলে হাল ছেড়ে দেবেন না। ঠান্ডা মাথায় ভেবে এর কারন বের করুন। ইমোশনালি কোন ট্রেড চালু করবেন না। ফরেক্স মার্কেট কারও ইমোশনকে পাত্তা দেয় না।

জেনে রাখুন এই সফল ট্রেডার কি বলেছেনঃ
 “Don’t focus on making money; focus on protecting what you have.” – Paul Tudor Jones

৯) এরপর কারেন্সী পেয়ার বাছাই করতে সচেতন হোন। মনে রাখবেন আলাদা দেশ, আলাদা কারেন্সি মুভমেন্ট। সুতরাং একই ব্যবসা পদ্ধতি দিয়ে আলাদা দেশের কারেন্সি মুভমেন্টকে নিজের কন্ট্রোলে নিয়ে আসা অনেক কষ্টের। কারন মাছের ব্যবসা পদ্ধতি দিয়ে আপনি আলুর ব্যবসা করতে গেলে লস খাবেনই। সুতরাং পারতপক্ষে একটি কারেন্সী পেয়ার বাছাই করুন যা আপনার স্ট্র্যাটেজীর সাথে মানানসই হয়।

নয়তো কোন একটা কারেন্সী বাছাই করুন, এরপর সেই কারেন্সীর যতগুলো পেয়ার আছে, সেগুলোতে ট্রেড করুন।

১০) যতগুলো পেয়ারই বাছাই করেন না কেন। এখানে মানি ম্যানেজমেন্ট আপনাকে ফলো করতেই হবে। এই বিষয়টা অনেকেই জানে না। আজ পরিস্কার হয়ে জেনে নিন।
মানি ম্যানেজমেন্ট হচ্ছে, আপনার মুলধনকে নিরাপদ রাখা।
ধরুন আপনার ব্যালান্স ১০০ ডলার। আপনি ৫% রিস্ক নিবেন। তাহলে কি করবেন?
এখানে, আপনি যতগুলো ট্রেডই নেন না কেন, আপনার সকল স্টপ লসের হিসেব মিলিয়ে যেন ৫ ডলারের বেশি না লস হয়। কারন একবার সবগুলো লস হয়ে গেলেও আপনি আরও ১৯ বার একই ভাবে ট্রেড করার সুযোগ পাবেন। আগের লস রিকভারি করে আবারও প্রফিটে নিয়ে আসার সুযোগ পাবেন।

এ বিষয়ে আরেকজন সফল ট্রেডারের বানী শুনুনঃ

“Frankly, I don’t see markets; I see risks, rewards, and money.” – Larry Hite

১১) বাংলা একটা প্রবাদ আছে, “ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না”

এটা এখানে প্রযোজ্য হবে। সুতরাং ট্রেড ওপেন করার আগে ট্রেন্ড, আপনার স্ট্র্যাটেজী, সব দিক বিবেচনা করে পারফেক্ত হলে তবেই ট্রেড ওপেন করুন। টেক প্রফিট লেভেল, স্টপ লস লেভেল সেট করুন। এরপর বার বার চার্ট দেখতে যাবেন না। তাতে অস্থিরতা বাড়ে শুধু। আর অস্থির মনই আপনাকে ভুল ডিরেকশান দিয়ে ভুল কিছু সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য করে।

সুতরাং ট্রেড ওপেন করুন এবং তার কথা ভুলে যান। পরের এন্ট্রি খোঁজ করুন।

সমসময় মনে রাখবেন এই সফল ট্রেডারের কথাঃ

The goal of a successful trader is to make the best trades. Money is secondary.” – Alexander Elder

সবশেষে বলতে পারি যে, ট্রেড বাই ট্রেড হিসেব না করে মাসে কয়টা ট্রেড নিলেন, তার টোটাল হিসেব করুন। কত পিপ্স প্রফিট পেলেন, কত পিপ্স লস করলেন তার হিসেব বের করুন।
একই ভাবে ব্যাকটেস্ট করুন। মাসে কেমন প্রফিট এর সুযোগ ছিল সেসব মাসে তা বের করুন। একটা পরিস্কার ধারনা পাবেন। এভাবে টানা ২-৩ মাস করে যান, এতে অভ্যস্ত হয়ে যাবেন একসময়। আর একবার অভ্যস্ত হয়ে গেলে আপনি নিজেকে সেই ৫% প্রফিটেবল ট্রেডারদের মাঝে দেখতে পাবেন আমি নিশ্চিত।

পরিশেষে, সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যেন আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আমাকে সুস্থ রাখেন। আর ফরেক্স মার্কেটের কল্যানে আরও বেশি বেশি মানুষের মেহনত করতে পারি।

অনেকেই ভালভাবে ফরেক্স জানতে ও শিখতে আগ্রহ দেখিয়েছেন, অনেকে আবার ট্রেডিং সিগনাল ফলো করার আগ্রহের কথাও জানিয়েছেন, তারা আমাকে মেসেজ দিতে পারেন অথবা আমার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে ইনবক্সে একটা মেসেজ দিয়ে রাখবেন। আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দেবার চেষ্ঠা করা হবে ইনশাল্লাহ। অত্যন্ত স্বল্প ফী’র মাধ্যমে যে কেউ এখানে সিগনাল পেতে পারেন নিজেদের ফরেক্স শেখার পাশাপাশি বাড়তি কিছু প্রফিট পাবার আশায়।

আমার ফেসবুক পেইজ লিংকঃ https://www.facebook.com/bmfxanalystbd/

আমার স্কাইপ আইডীঃ live:bmfxanalyst

পরিশেষেঃ ব্যবসা নিজে ভালভাবে শিখে নিয়ে নিজের বুদ্ধি ব্যবহার করে করাই সবচেয়ে ভাল। এতে ব্যবসায় আন্তরিকতা বজায় থাকে। আর আন্তরিকতার উপর নির্ভর করে সৃষ্টিকর্তা ব্যবসায় বরকত দিয়ে থাকেন। কারন আল্লাহ তায়ালা ব্যবসাকে হালাল করেছেন। আর মহানবী (স) বলেছেন, “তোমরা ব্যবসা করো, ব্যবসায়ে ১০ ভাগের ৯ ভাগ রিজিকের ব্যবস্থা আছে।”

সৃষ্টিকর্তা আমাদের কবুল করুন। আমীন।

hqdefault.jpg

Share this post


Link to post
Share on other sites

ভাই আপনার পুরা আর্টিকেলটি পড়লাম অনেক ভালো লাগলো । আপনাকে 100/100% র্মাক দিতে পারতাম যদি না আপনি টেডিং সিগনাল দেয়ার বেপারে কথা না বলতেন । ভাই যে খানে কোনো দেশের ইকোনোমি, ব্যাংক, সুদের হার ও নানা কিছুর উপর ভিত্তি করে মার্কেট মুভ করে সেক্ষেত্রে আপনি কিভাবে সিগনাল দিবেন ??? প্রথমে আপনি কারো সিগনাল না মানার কথা বললেন, পরে আপনি সিগনাল দেওয়ার কথা বললেন ব্যাপরটা আনেকটা ইন্টারেস্টিং মনে হলো আমার কাছে ।

  • Thanks 2

Share this post


Link to post
Share on other sites
25 minutes ago, JOTON1456 said:

ভাই আপনার পুরা আর্টিকেলটি পড়লাম অনেক ভালো লাগলো । আপনাকে 100/100% র্মাক দিতে পারতাম যদি না আপনি টেডিং সিগনাল দেয়ার বেপারে কথা না বলতেন । ভাই যে খানে কোনো দেশের ইকোনোমি, ব্যাংক, সুদের হার ও নানা কিছুর উপর ভিত্তি করে মার্কেট মুভ করে সেক্ষেত্রে আপনি কিভাবে সিগনাল দিবেন ??? প্রথমে আপনি কারো সিগনাল না মানার কথা বললেন, পরে আপনি সিগনাল দেওয়ার কথা বললেন ব্যাপরটা আনেকটা ইন্টারেস্টিং মনে হলো আমার কাছে ।

 

পুরো আর্টিকেল পড়ার জন্য ধন্যবাদ। রিস্কি মার্কেটে কিভাবে উত্তরন করবেন তারও যথাযথ রাস্তা বলে দেওয়া হয়েছে আর্টিকেলে। এইসব মেথড মাথায় রেখে কেউ ট্রেড করলে তবেই সে প্রফিট পেতে পারে অন এভারেজে।

আর আপনার ইন্টারেস্টিং এর ব্যাপারে বলি, খুব কম ট্রেডারই আছে এভাবে ট্রেড করে। আর যারা করে তারাই প্রফিটেবল ট্রেডার।
লেখাটা নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই লেখা, আবার সঠিক ভাবে ট্রেড করার চেষ্ঠায় আজও থাকতে পারছি বলেই সার্ভিসটার কথা উল্লেখ করেছি। কেউ শিখতে চাইলে শেখার পাশাপাশি সার্ভিসটা নিতেই পারে। দোষনীয় কিছু হয়েছে কি? 
যদি হয়ে থাকে তবে ধরে নেবেন দোষে গুনেই মানুষ। অনেক অনেক ধন্যবাদ। :money::bijoy:

Share this post


Link to post
Share on other sites

অনেক সুন্দর আর্টিকেল, কিন্তু আমি আপনার সিগনাল নিয়ে ট্রেডিং এর সাথে একমত হতে পারলাম না। ফরেক্স এ প্রফিট করার জন্য ভালো ট্রেডিং বোঝার পাশাপাশি একটা ভালো ব্রোকার চুজ করতে হবে। আমি ForexChief এ ট্রেডিং করি তাদের সার্ভিস আমার ভালো লাগে। 

Share this post


Link to post
Share on other sites

আপনার টপিক থেকে অনেক কিছু শিখলাম। আপনাকে ধন্যবাদ।তবে সিগনাল বিক্রয়  বিষয়টা অনেকেই ভালো চোখে দেখেনা।ভালোটুকু অবশ্যই গ্রহনযোগ্য।আপনার কাছ থেকে আরো ভালো টপিকের প্রত্যাশায় রইলাম।

Share this post


Link to post
Share on other sites

৫০ বছর ধরেও  আপনার লেখাটি পড়ে forex trade এ কিছু শিখবে না।বরংপ্রফেশনাল ট্রেডারদের দৃষ্টিতে জেনে নিন, কেন আপনি লস করে চলেছেন? আর কিভাবে এই লস কাটিয়ে প্রফিটে ফিরবেন।শিরোনামে লেখাটির মধ্য দিয়ে আপনার signal বিক্রির মূল উদ্দেশ্য প্রকাশ করে professional forex trader দেরেকে অপমান করেছেন কারন professional forex trader গন এমনিতের market থেকে ভাল profit করে।লস করছে এমন trader দের কাছে তথাকথিত signal বেচে খেতে হয় না।

 

Share this post


Link to post
Share on other sites
Guest
You are commenting as a guest. If you have an account, please sign in.
Reply to this topic...

×   Pasted as rich text.   Paste as plain text instead

  Only 75 emoticons maximum are allowed.

×   Your link has been automatically embedded.   Display as a link instead

×   Your previous content has been restored.   Clear editor

×   You cannot paste images directly. Upload or insert images from URL.

Loading...

  • Similar Content

    • By Tozammel
      I need a forex broker which have the following criteria:
      1. Provide swap free account.
      2. There is no limit of open trades or higher limits like 3000/4000 trades ( some brokers limits 200 trades) 
      3. Provide micro lot. And minimum lot will be 0.01
      4. No fee or Commission on carry trade. I can carry a trade for years.    
      5. Allow hedgeing  
       
    • By masteroffx2018
        USA এর ট্রাম্প সরকার নানা দিক দিয়ে ইরানের উপরে আরও অবরোধ বাড়াতে চায়। মধ্যপ্রাচ্যে তাদের একমাত্র হুমকী ইরান বলেই মনে করে তারা।   এদিকে এমন পরিস্থিতির মুখেই ইরাক সরাসরি ঘোষনা দিয়েছে তারা ইরানের উপর আমেরিকার কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দেবে না। রাশিয়াও গত পরশু কাস্পিয়ান সাগর ব্যবহার করে তাদের বানিজ্য প্রসারে ইরানের সাহায্য নেবে মর্মে চুক্তিও করে ফেলেছে। এটিও ট্রাম্প সরকারের উপরে চাপ ফেলেছে প্রচুর পরিমানে। এদিকে ইরান তাদের বানিজ্যিক চুক্তি বাড়িয়ে পাকিস্তানের সাথেও গতকাল বৈঠক করে ফেলেছে। উভয় দেশ সকল বৈরিতা মোকাবেলায় একে অপরের পাশে থাকবে বলে সম্মতিও হয়েছে!!   অন্যদিকে ট্রাম্প সরকার তার দেশে চায়নিজ পন্যের শুল্ক কয়েকগুন বৃদ্ধি করার মৌন প্রতিশোধ হিসেবে চিনও ঘোষনা দিয়েছে, তারা ইরানের উপর আর কোন অবরোধ দেখতে চায় না।   আমেরিকার বন্ধুরাষ্ট জার্মানির এঞ্জেলা মার্কেলও ঘোষনা দিয়েছে তারা ইরানের উপরে আমেরিকার অবরোধ আরোপের চিন্তাকে সমর্থন করেনা।তারা আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের পক্ষে।   এতোসব ঘটনার মাঝে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা, আয়াতুল্লাহ খোমেনী প্রকাশ্যে ঘোষনা দিয়েছে, আমেরিকার সাথে এবার যদি তাদের নুন্যতম কোন যুদ্ধাবস্থা সৃষ্টি হয়,তবে তারা কোন আলোচনার চিন্তাও করবেনা। সরাসরি আক্রমন করা শুরু করে দেবে।আর তার উপরে একটি ক্ষেপনাস্ত্রের জবাব তারা ১০ টি ক্ষেপনাস্ত্র দিয়ে দেবে।   এতসবের প্রেক্ষিতে ট্রাম্প সরকার বর্তমানে বুদ্ধিবৃত্তিমুলক সমস্যায় ভুগছেন। তার কোন সিদ্ধান্তই সঠিকভাবে কাজ করছে না। পায়ের নিচে থাকা ইরাকও আজ মুখের উপর কথা বলছে, আফগান সিরিয়ায় চরম বিপর্যয়ের পর বর্তমানে সারা বিশ্ব থেকে এমন চোখ রাঙ্গানী, সব কিছু মিলিয়ে USD এর মুল্যমান চরম অস্থিতিশীল অবস্থায় সময় পার করছে।   আর তাই ইউএস ডলারের দুর্বল হবার আশংকাই অনেক বেশি হয়ে দেখিয়েছে।যা ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে কিছু কিছু কারেন্সী পেয়ারে। তবে ট্রাম্প সরকার গুরুত্বপুর্ন কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারলেই কেবল এমন সংকটময় অবস্থা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে। এখন দেখার পালা, কেমন পদক্ষেপ নেয় ট্রাম্প সরকার নিজেদের অবস্থান শক্তপোক্ত করতে।   সবাইকে আন্তর্জাতিক নিউজ সম্পর্কে ধারনা রাখার জন্য অনুরোধ করা হল, কারন এসব নিউজের ইফেক্ট আপনাকে নিমিষেই আপনার সকল টেকনিক্যাল এনালাইসিসকে বোকা বানিয়ে আপনাকে লুজার বানিয়ে দিতে পারে, আবার যদি ভালভাবে নিউজ ধরে ধরে ট্রেড করতে পারেন, তবে নিয়মিত ও ভালভাবে প্রফিটও করে যেতে পারেন অনায়াসে।   সকলের জন্য শুভকামনা রইল <3 <3 <3   Trade with real ECN broker: 
    • By masteroffx2018
        #USDJPY D1 চার্টে আমরা দেখতে পাচ্ছি Head & Shoulder প্যাটার্ন তৈরী করেছে, এমনকি উপর থেকে আসা একটা ডাউনট্রেন্ড লেভেল ব্রেক করেও ফেলেছে। আবার নিচের দিক থেকে আপট্রেন্ড কন্টিনিউ করেই চলেছে। এখন এন্ত্রি কনফার্মেশনের অপেক্ষা শুধু। আপনার নিজের ট্রেডিং স্ট্রাটেজীতে যদি এমন পজিশনে কোন এন্ট্রি কনফার্মেশন পেয়ে যান, তবে সুন্দর একটা এন্ট্রি পেয়ে যাবেন, এমন আশা করছি।   পরিশেষে, ইরান ও রাশান নেতাদের বৈঠক ইস্যুতে আমেরিকাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে রাশিয়া কাস্পিয়ান সাগরে ইরানের সাথে বানিজ্য কন্টিনিউ রাখার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কি সিদ্ধান্ত নেবেন ট্রাম্প সরকার, এমন সকল ইউএস এর বানিজ্যিক সংক্রান্ত ইস্যুর দিকে নজর রাখা উচিত ফান্ডামেন্টালি। কারন ট্রাম্প প্রশাসনের একটি সিদ্ধান্ত ইউএসডি কারেন্সির মুভমেন্ট যে কোন দিকে ঘটাতে পারে। তাই, সেদিকেও একটি চোখ দিয়ে রাখা উচিত।  
      সবার জন্য শুভকামনা রইল।   Trade with real ECN Broker: 
    • By masteroffx2018
       
      আপনি সাধারন যে কোন একটি ব্যবসা করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাহলে কি করবেন?
      প্রথমে সেই ব্যবসা সম্পর্কে ধারনা নেবার চেষ্ঠা করবেন। তা ইউটিউব, অনলাইন বিভিন্ন আর্টিকেল, পত্রিকা ইত্যাদি থেকেই মুলত বেশি চেষ্ঠা করবেন। তাই না? কারন এসব অনলাইন মাধ্যম থেকে বিভিন্নজনের মন্তব্যও জানতে পারা যায়, যারা কিনা আগে থেকেই এই ব্যবসা করছে।
      আপনি অনলাইনেই তাদের স্বচ্ছলতার কথা শুনে পুলকিত হোন, আপনার ভাল লাগে এই ভেবে যে এই ব্যবসা করলে আপনিও এমন স্বচ্ছল অবস্থায় যেতে পারেন। 
      এরপর কি করেন আপনি? অনলাইন থেকে তথ্য ও বিভিন্নজনের মন্তব্য জানার পর থেকেই কি ব্যবসা শুরু করেন?
      উত্তর হবে না। কারন এতো কিছু জানার পরেও এই ব্যবসায় স্বচ্ছল হওয়া অভিজ্ঞ ঐসব লোকেদের মাঝে যার সঙ্গে আপনার পক্ষে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়, তার কন্ট্যাক্ট নাম্বার নিয়ে হলেও আপনি তার সাথে সরাসরি কথা বলেন, প্রয়োজনে তার বাসায় যান। কেউ কেউ উনাদের সাথে কিছুদিন থাকারও চেষ্ঠা করেন ব্যবসা ভালভাবে বোঝার জন্য। এরপর নিজে নিজে সেই ব্যবসা শুরু করার চেষ্ঠা করেন।
       

       
      আমার উপরের বক্তব্যের সাথে কি আপনি দ্বিমত পোষন করবেন? যদি করেন, তবে এই লেখা আপনার জন্য নয়। আপনি এভোয়েড করতে পারেন আমাকে।
      আর যদি একমত হোন, বা একমত হবেন কি না বুঝতে পারছেন না, তারাই লেখাটা পড়বেন। লেখাটা পড়ার পরই একটা সিদ্ধান্তে আসতে পারবেন আশা করি।
       
      উপরের বিষয় হতে এটা পরিস্কার হওয়া যায় যে, আপনি যাই করেন না কেন, যে কাজই শুরু করতে যান না কেন, নিজে নিজে চেষ্ঠা করলে সেসকল কাজ সম্পর্কে বেসিক একটা আইডিয়া পাওয়া যায় মাত্র। প্রফেশনাল হতে হলে প্রফেশনাল কারও সংস্পর্শে থাকাটা জরুরী।
      তাহলে আন্তর্জাতিক মুদ্রা লেনদেনের ব্যবসাক্ষেত্র ফরেক্স মার্কেটে ব্যবসা করতে আসলে কেন বয়ান করেন যে, নিজে নিজে চেষ্ঠা করেন তাহলে শিখে যাবেন, নিজে নিজেই ফরেক্স এর সব শিখতে পারবেন, নিয়মিত প্রফিট ভী করতে পারবেন, ইত্যাদি ইত্যাদি!!
      আপনার জানা মতে এমন কোন প্রফেশনাল ট্রেডার আছে, যারা নিজেরা নিজেরাই শিখে প্রফেশনাল হতে পেরেছে?
      যারা প্রফেশনাল, খোজ নিয়ে দেখবেন তারা নিশ্চয়ই কোন না কোন মেন্টরের সাপোর্ট নিয়েই কোন না কোন বিষয়ে এক্সপার্ট হয়েছে। তবেই না তারা প্রফেশনাল হতে পেরেছে। এই মেন্টরশিপ হতে পারে অফলাইন বা অনলাইন যে কোনটা।
       
      মেডিকেল ভর্তি হয়ে অভিজ্ঞ চিকিতসকের অধীনে থেকে সার্জারি অপারেশন করা না শিখলে শুধু বই পরে কোনদিন আপনি অপারেশন সার্জারি করা শিখতে পারবেন না, এটা কি বিশ্বাস করেন?
      বই বা আর্টিকেল আপনাকে বেসিক আইডিয়া জানাবে, কিন্ত প্র্যাকটিক্যাল, সাইকোলজিক্যাল? তার জন্য চাই সরাসরি তত্বাবধান।
      অনেকে আবার ভিডিও টিউওরিয়াল দেখেই সব শিখতে চায়। আমি মানছি ভিডিও টিউটরিয়াল দেখে সরাসরি শেখার মতই জানতে পারেন। কিন্ত শেখার মাঝে কোন প্রশ্ন মনে আসলে তা কিভাবে করবেন আপনি? আর হ্যা, সেই প্রশ্ন না করার কারনে বা প্রশ্নের উত্তর না পাবার কারনে আপনার মনে ভুল তথ্য জমা হয়ে থাকতে পারে, যা আপনাকে লুজার বানাতে যথেষ্ঠ। আশা করি পরিস্কার বুঝতে পারছেন আমার কথা।
      এবার আসুন সঠিক গাইডলাইনের কথায় আসি, যার মাধ্যমে আপনি ধীরে ধীরে প্রফেশনাল ট্রেডারের পর্যায়ে যেতে থাকবেনঃ
       
      ð   যে কোন ব্যবসা করতে যান, যে কোন একটা আইটেমের পন্য নিয়েই ত আপনি ব্যবসা শুরু করবেন। তাই না? তাহলে ফরেক্স করতে এসে কেন আপনি একাধারে ২৮ টি পেয়ার নিয়ে আপনার চর্চা শুরু করে দেন? আপনি কি জানেন, একেকটি পেয়ার একেকটা আলাদা আলাদা দেশের অর্থনৈতিক বিষয়কে প্রতিনিধিত্ব করে? আপনি কেবল ফরেক্স ট্রেডিং শিখছেন, সেখানে আপনি এক সাথে ২৮ টি পেয়ার নিয়ে এনালাইসিস করার মত ভুল পরামর্শ কই থেকে পান? যা আপনাকে শুধু লসই করে দিতে পারে?
       
      ð  যে কোন একটা স্ট্রাটেজী ভালভাবে শিখে নির্দিষ্ট কোন কারেন্সী পেয়ারে তা প্রয়োগ করতে থাকুন ও টানা ৫-৬ মাস তা ফলো করে যান। লাভ হোক বা লস হোক, অন্ধের মত এটা ফলো করবেন আপনি। কয়েকটা ট্রেড লস হলেই ধুম করে সিদ্ধান্ত নেবেন না যে, এটি বোধহয় খারাপ স্ট্রাটেজী, এটা দিয়ে হবে না, এটা চেঞ্জ করে ফেলি!! এমন করতে থাকলে সারা জীবনই শুধু স্ট্রাটেজী চেঞ্জ করতে করতে ও লস করতে করতেই আপনার সময় চলে যাবে! লসগুলো রিকভার করা ও প্রফিট করা আর হয়ে উঠবে না।
       
      ð  কোন স্ট্রাটেজীর ব্যাক টেস্ট করে যদি দেখতে পান, কোন স্ট্রাটেজী কোন একটি নির্দিষ্ট পেয়ারে ভাল কাজ করছে। তাহলে সেই স্ট্রাটেজী দিয়ে ঐ একটা পেয়ারেই ট্রেড করতে থাকুন। ভুলেও একের অধিক পেয়ারে এপ্লাই করতে যাবেন না। মনে রাখবেন, মাছের ব্যবসার সিস্টেম দিয়ে আলুর ব্যবসা করতে পারবেন না। আবার পিয়াজ রসুনের ব্যবসার সিস্টেম দিয়ে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা করতে পারবেন না। তাহলে কোন যুক্তিতে আপনি একটি ট্রেডিং সিস্টেম দিয়ে একাধিক পেয়ারে ট্রেড করার সাহস পান? আবার নিয়মিত প্রফিটও করতে চান? যেখানে আলাদা আলাদা দেশের মুদ্রা আছে, ভুলে যাবেন না আলাদা আলাদা দেশ মানে আলাদা আলাদা অর্থনৈতিক ব্যবস্থা। যেমন সাধারন ব্যবসায় আলাদা আলাদা পন্য হচ্ছে মাছ, আলু, রসুন ও রিয়েল এস্টেট ব্যবসাও!!
       
      ð  তাহলে আপনি কি পেলেন?নির্দিষ্ট একটা পেয়ার বেছে নিলেন, ভাল একটা স্ট্র্যাটেজী হাতে পেলেন। এবার চর্চা শুরু করুন। ৫-৬ মাস ডেমোতে চর্চা করুন। এর সাথে সাপোর্ট রেসিস্ট্যান্স ও ট্রেন্ডলাইন ফলো করতে শিখুন। ভুলেও ট্রেন্ড লাইনের বিপরিতে ট্রেড করতে যাবেন না। আবার সাপোর্ট বা রেসিস্ট্যান্স লেভেলেও উলটো ট্রেড প্লেস করবেন না। এগুলো আপনার ট্রেডিং সিস্টেমকে ইউনিক ও আরও প্রফিটেবল করে তুলবে। ট্রেডলাইন ও সাপোর্ট রেসিস্ট্যান্ট লেভেলগুলো দ্বারা আপনি আপনার লসের সম্ভাবনার ট্রেডগুলোকে ফিল্টারিং করে ফেলতে পারেন। আর আপনার ট্রেডিং লাইফকে করে তুলতে পারেন প্রফিটেবল। <3  
       
      ð  ভুলেও অন্য পেয়ারে যাবেন না, অন্যের প্রফিট দেখে তার দিকে নজর দিতে যেয়ে নিজের সিস্টেমকে অকেজো মনে করবেন না। নিজের কাজ নিয়ে থাকুন, প্রফেশনাল কোন মেন্টরের তত্বাবধানে থেকে এগুলি ফলো করতে পারলে আপনি আরও বেশি পারফেক্ট হয়ে উঠতে পারবেন সহজেই। আপনার ভুল করার সম্ভাবনা একেবারেই কমে যাবে। কারন সেই মেন্টর আপনার ভুল ধরিয়ে দেবে। এতে আপনার সাইকোলজি পজিটিভ হতে শুরু করবে, নিজের উপর কন্ট্রোল আসতে শুরু করবে। ভুলে যাবেন না, আর্মি বা সেনাবাহিনীর ট্রেনিং এ সবসময়ের জন্য একজন মেন্টর থাকে। যার নাঙ্গা লাঠির বাড়ী খাবার ভয়েই সেনারা ত্রুটি মুক্ত ট্রেনিং করে যেতে পারে। ফলে একেকজন চৌকস প্রতিরক্ষাবাহিনীর সদস্য হয়ে গোটা জীবন রুটিন মাফিক নিজেদের রাষ্ট্রকে রক্ষা করে যেতে পারে চৌকস থেকেই। নিজে নিজে কয়েক জনম চেষ্ঠা করেও সেই ট্রেনিং আপনি নিজের মাঝে নিতে পারবেন না। এটা সম্ভব হয় না। ফরেক্স ট্রেডিংও ঠিক তেমনি। আশা করি বুঝতে কোন অসুবিধা হচ্ছে না কোন প্র্যাকটিক্যাল কিছু ভালভাবে আয়ত্ত করতে হলে মেন্টরের গুরুত্ব কতটুকু।
       
       
      ð  এবার ফান্ডামেন্টাল বিষয়ে একটু ধারনা দেই। ট্রেড করার জন্য যে কোন একটা কারেন্সি পেয়ার বেছে নিন। এরপর সেই পেয়ারে থাকা দুই দেশের অনলাইনে যে কয়টা পাওয়া যায়, ইংরেজী ভাষার নিউজ পোর্টাল এর লিংক বুকমার্ক করে রাখুন। এবার সেই অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোর উপরে রেগুলার চোখ বুলাবার দেখার চেষ্ঠা করুন। অর্থনৈতিক পেইজ ভিজিট করার চেষ্ঠা করবেন বেশি। ডেইলি আপডেট জানার চেষ্ঠা করবেন। প্রয়োজনে নোট করে রাখবেন সেগুলো। সেই দেশের কারেন্সির উপরে ফান্ডামেন্টাল একটা বেইজ তৈরি হবে আপনার মাঝে ধীরে ধীরে। যা আপনাকে ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস বুঝতে ও শিখতে সাহায্য করবে। যদিও আরও বিষয় আছে ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস এর ভিতরে। তবে আমি যা বললাম তা আপনাকে একটা ফান্ডামেন্টাল বেইজ তৈরি করে দিতে সাহায্য করবে মাত্র। বাকি বিষয়গুলো আপনি আরও বেশি স্টাডি করলে আরও পরিস্কার হতে পারবেন বা আপনার ফরেক্স গুরু বা মেন্টরদের কাছ থেকে ভালভাবে জানতে পারবেন আশা করি।
       
      ð  সর্বশেষ বলি, যে প্রফিট করে, সে লাল শাক বিক্রি করেও প্রফিট করে। আর যে প্রফিট করতে পারে না, সে অন্যের মুখে শুনে স্টক মার্কেটে কোটি টাকার শেয়ার কিনেও ফতুর হয়ে যায়। লাখ লাখ রুপি খরচ করে বিশাল ব্যবসা দাড় করিয়েও কয়েক মাসের লসে একেবারে নিঃস্ব হয়ে যায়।
      সুতরাং ব্যবসাকে মন থেকে ভালবাসতে শিখুন। নিজের সন্তানের মত মনে করুন। দুই একটি ট্রেড ভুল হলেই যে সেই ট্রেডিং সিস্টেম বাদ দিয়ে নতুন সিস্টেম ফল করা শুরু করবেন এমন মেন্টালিটি ত্যাগ করুন। সন্তান দুই একটা ভুল করলে বাবা-মা কিন্ত সন্তানকে বাদ দিয়ে নতুন সন্তান নিয়ে আবার শুরু করতে চায় না। আগের সন্তানকেই বুঝিয়ে শুনিয়ে ভালভাবে বেড়ে তোলার চেষ্ঠা করে। আপনিও তাই করুন না। আপনার ট্রেডিং সিস্টেমকে আদর দিয়ে, আন্তরিকতা দিয়ে ভালভাবে কন্টিনিউ ফলো করার মাধ্যমে ধীরে ধীরে আপনার একাউন্ট ব্যালান্সকে বড় করে তুলুন। তবেই না আপনি নিজেকে সফল ট্রেডার হিসেবে মনে করতে পারবেন। তা নয়তো বৃদ্ধাশ্রমে জায়গা পাওয়া বাবা-মায়ের মত আপনিও দেনার দায়ে, লোনের দায়ে, ফরেক্স মার্কেটে লুজার হয়ে নিজেকে একসময় আত্মবন্দি করে ফেলবেন। আর এমন নিদারুন ভাবেই আপনার মুল্যবান জীবনের করুণ ইতি ঘটতে পারে। নিশ্চয় আপনি তা চান না। আমরা কেউই তা চাই না। সুতরাং ফরেক্স নামের বিশাল সম্ভাবনাময় মার্কেটে যদি নিয়মিত আপনার রিজিক সন্ধান করতেই চান, তবে ভালভাবে ও সঠিকভাবেই শুরু করুণ না। কেন আপনার মুখ দিয়ে এমন কথা বের হবে- “দাদা, আমি ফরেক্স করছি ৩-৪ বছরেরও বেশি সময় ধরে, কিন্ত আজও ভাল ট্রেডিং সিস্টেম পাইনি, আর হাজার হাজার ডলার লস করে ফেলেছি! প্লিজ আমায় একটু সাপোর্ট দিন না!!”
       
      পরিশেষে, আপনার সার্বিক দিক দিয়ে সাফল্য কামনা করছি। আর আমার লেখা এখানেই শেষ করছি। সবাই ভাল থাকবেন। সকলের জন্য শুভকামনা রইল।।
      আমার অন্যান্য লেখাগুলো আমার ফেসবুকে দেখতে পারেনঃ M B FX Facebook
       
      Trade with real ECN broker: 

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×