Jump to content
Sign in to follow this  
forexnews

পেয়ারিটি কি? EUR/USD কি পেয়ারিটি ১.০০ পয়েন্টের দিকেই যাচ্ছে?

Recommended Posts

পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় কারেন্সি পেয়ার ইউরো/ডলার তার গত ১৪ বছরের সর্বনিম্ন প্রাইসে নেমে গিয়েছিল সম্প্রতি। ডলার থেকে ইউরো শক্তিশালী সেই গত ২০০৩ সাল থেকে। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বেশ জোর দিয়েই বলছেন এই কারেন্সি দুটির বিনিময় মূল্য নাকি সমান হয়ে যেতে পারে। অর্থাৎ, আপনার জনপ্রিয় EUR/USD পেয়ারটি নেমে আসতে পারে ১.০০ প্রাইসে। একটি কারেন্সি পেয়ারের ২টি কারেন্সির সমান মূল্য হয়ে যাওয়াকেই পেয়ারিটি বলে। এবং ইউরোডলার যদি পেয়ারিটিতে পৌঁছে যায়, তার প্রভাব হতে পারে ব্যাপক। তবে আসলেই কি তা ঘটতে পারে, অথবা এর সম্ভাবনা কতটুকু? তাই নিয়ে বিষদ আলোচনা থাকবে এই লেখায়।

 

ইউরোডলার পেয়ারটি এখন একদম পেয়ারিটির কাছাকাছি রয়েছে। ১.০৩-০৪ এ পেয়ারটির বর্তমান প্রাইস ঘুরছে। কখনও প্রাইস কমলেই ট্রেডাররা ভাবছেন এই বুঝি মার্কেট ১.০০ তে যাচ্ছে। আবার একটু বাড়লেই ভাবছেন ধুর কিসের পেয়ারিটি, ইউরোর প্রাইস কখনও অত নিচে নামবেই না। 

 

 

nJKoibt.png

 

 

ডলার দিক থেকে বিবেচনা করলে, মনেটারী পলিসির দিয়ে নজর রাখতে হবে। ফেডের ইন্টারেস্ট রেট বৃদ্ধি ডলারকে অনেক শক্তিশালী করেছে। এছাড়া জিডিপির প্রত্যাশা বাড়িয়েছে তারা। ডলারকে আরেক ভাবে প্রভাবিত করবে নতুন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকার অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি অনেক পরিকল্পনার কথা বলেছেন। জানুয়ারির ২০ তারিখ অফিসিয়ালি প্রেসিডেন্ট পদ পাচ্ছেন তিনি। সাধারনত প্রেসিডেন্ট হবার প্রথম ১০০ দিন পর্যন্ত প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে অনেক প্রত্যাশা এবং চাপ থাকে। ধরা হয় প্রেসিদেন্ট যদি প্রথম ১০০ দিন ভালো ধরনের কাজ এবং উন্নয়ন করতে পারেন, পরবর্তী ৪ বছরেও তা পারবেন। তাই এ ক্ষেত্রে প্রত্যাশা অনেক বেশী থাকবে এবং প্রত্যাশা পূরণ হলেও ডলার এবং আমেরিকার অর্থনীতি আরও অনেক এগিয়ে যাবে। আর ট্রাম্প প্রথম ১০০ দিনের চাপ সামলাতে ব্যর্থ হলে ডলার বিপাকে পড়তে পারে। তবে ফেডারেল রিসার্ভের অ্যাকশনগুলো যে শুধু ট্রাম্পের ওপর নির্ভর করে তা কিন্তু নয়। আমেরিকার বিভিন্ন ইকোনমিক ডাটাগুলোর ভালো ফলাফলের প্রেক্ষিতেই ফেড ইন্টারেস্ট রেট এবং জিডিপির ফরেকাস্ট বৃদ্ধি করেছে।

 

ইউরোর দিক বিবেচনা করলে, ইসিবির অ্যাকশন ইউরোকে খুব একটা শক্তিশালী করতে পারছে না। এদিক থেকে ইসিবির অবস্থান অনেক ডোভিশ। ফ্রান্সের নির্বাচন প্রভাব ফেলবে। নেদারল্যান্ড এবং জার্মানির নির্বাচনও রয়েছে এই তালিকায়। জাতীয় নির্বাচনগুলো যে বড় ফান্ডামেন্টাল ইভেন্ট তা তো সবাই জানে। ইতালির সমস্যাও রয়েছে। আর গ্রিসও যেকোনো সময় আবার লাইমলাইটে চলে আসতে পারে। সবদিক থেকে ইউরোপ নানা সমস্যায় জর্জরিত। তাদের হুটহাট বড় ধরনের রিকভার করার আশা দেখা যাচ্ছে না। ইউরো লাভাররাও বেশী কিছু প্রত্যাশা করতে পারছেন না ইউরো থেকে এই অবস্থায়।

 

পেয়ারিটি হবার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু হবেই যে তা বলা যাবে না। সেক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে বেশ কিছু বিষয়ের দিকে। অনেক অ্যানালিস্টরাই বলছেন হয়তো ২০১৭ এর প্রথম কোয়ার্টারের (Q1) এর মধ্যে ইউরোডলার ০.৯৮৫ এও চলে আসতে পারে। বেশিরভাগ অ্যানালিস্টরাই কনফিডেন্ট যে পেয়ারিটি হবেই। তবে পেয়ারিটি হবে কিনা তার জন্য নজর রাখতে হবে মার্কেটের দিকে। EUR/USD পেয়ারটি যেহুতু ইউরো এবং ডলার ২টি কারেন্সির সমন্বয়ে তৈরি, তাই এটি ট্রেড করতে গেলেই ২টি কারেন্সির দেশগুলোর অর্থনৈতিক অবস্থা মাথায় রেখেই ট্রেড করতে হবে, যেকোনো একটি নিয়ে ভাবলে চলবে না। প্রতিদিনের নিউজ আপডেটগুলো ভালো করে খেয়াল রাখতে হবে, ফান্ডামেন্টাল ইভেন্টগুলো অনুসরন করতে হবে। হবে কিংবা হবে না গুজব শুনে ট্রেড করলে হবে না। এখন বেশিরভাগ অনভিজ্ঞ ট্রেডার বাই করছেন এই ভেবে যে ইউরোর প্রাইস তো একদিন বাড়বেই। আবার যারা পেয়ারিটি সম্পর্কে ধারনা পেয়েছেন, তারা সেল করছেন এই ভেবে যে পেয়ারিটিতে যাবে আর নিশ্চিত লাভ করবো। এভাবে ট্রেড করলে লসের সম্ভাবনাই বেশী। গুজব ট্রেড না করে মার্কেট বুঝে ট্রেড করলেই লস এড়ানো যাবে। এ সংক্রান্ত আরও বিস্তারিত আপডেট প্রকাশিত হবে বিডিপিপসে।

  • Love 1

Share this post


Link to post
Share on other sites

Create an account or sign in to comment

You need to be a member in order to leave a comment

Create an account

Sign up for a new account in our community. It's easy!

Register a new account

লগিন

Already have an account? Sign in here.

Sign In Now
Sign in to follow this  

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×