Jump to content

Search the Community

Showing results for tags 'নিউজ'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


Categories

  • ইন্ডিকেটর
  • এক্সপার্ট এডভাইসর
    • বিডিপিপস EA ল্যাব
  • স্ক্রিপ্ট
  • ট্রেডিং স্ট্রাটেজী
  • ট্রেডিং প্লাটফর্ম
  • ফরেক্স ই-বুক
    • বাংলা ই-বুক
  • চার্ট টেমপ্লেট

Forex Bangladesh - বিডিপিপস

  • ট্রেডিং এডুকেশন
    • সাধারণ ট্রেডিং আলোচনা
    • ফরেক্স স্টাডি
    • প্রশ্ন এবং উত্তর
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • ফরেক্স নিউজ
    • ট্রেডিং আইডিয়া
    • ট্রেডিং স্ট্রাটেজি
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার
    • ফরেক্স ইন্ডিকেটর
    • এক্সপার্ট এডভাইসর
    • মেটাট্রেডার এবং MQL
  • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স ব্রোকার
  • বিডিপিপস ফোরাম সাপোর্ট
    • ফোরাম সাপোর্ট
  • অফ-টপিক
    • অপ্রাসঙ্গিক
    • ফরেক্স হিউমার
  • লাইভ ট্রেডিং রুম

Find results in...

Find results that contain...


Date Created

  • Start

    End


Last Updated

  • Start

    End


Filter by number of...

Joined

  • Start

    End


Group


AIM


MSN


Website URL


ICQ


Yahoo


Jabber


Skype


লোকেশন


Interests


ব্রোকার


মোবাইল নং

Found 5 results

  1. যুক্তরাজ্যের মুদ্রাস্ফীতি এপ্রিলে কমেছে! যুক্তরাজ্যের মুদ্রাস্ফীতি হঠাৎ করে এক বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে তার সর্বনিম্ন লেভেলে কমেছে কারণ কম খরচে মুদ্রিত ক্যাশ ব্রিটানের মাধমে কিছু ত্রাণ সরবরাহ করা হয়েছিল এই তথ্য প্রকাশের পর পাউন্ড ২০১৮ সালে তার সর্বনিম্ন লেভেলে নেমে গেছে। জাতীয় পরিসংখ্যান অফিসের তথ্য অনুযায়ী, এপ্রিল মাসে ভোক্তা মূল্য সূচক বার্ষিক পরিবর্তন ২.৪ শতাংশ থেকে ২.৫ শতাংশে নেমে এসেছে। অর্থনীতিবিদদের পূর্বাভাস ছিল এটি অপরিবর্তিত থাকবে। বিস্তারিত: https://goo.gl/QHNNAA *মার্কেট এর নিউজ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  2. আসসালামু আলাইকুম, নিউজ ট্রেডিং এবং ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিস সংক্রান্ত কিছু আর্টিকেল (বাংলা ও ইংরেজি) সংগ্রহ করেছিলাম নিজের জন্য। বিডিপিপস সহ আরো অন্যান্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে বেশ কিছু আর্টিকেল সংগ্রহ করেছিলাম। সেগুলো থেকে বেছে কিছু আর্টিকেল MS-Word -এ কপি পেস্ট করেছিলাম প্রিন্ট আউট করার জন্য। মনে হলো- আপনাদেরও কাজে লাগতে পারে, তাই ভাবলাম আপলোড করে রাখি। এখানে আপলোড করবো জানতাম না। তাই কপি পেস্ট করার সময় লেখকদের নামগুলো রাখিনি (তবে এটা নিশ্চিত এখানে আমার কোন লিখা নাই)। আশা করি, কেউ কিছু মনে করবেন না। সেবাই যাদের ব্রত, তারা কিছু মনে করার কথা না। PDF এবং Doc - দুই ফরমেটেই দিলাম, যাতে প্রয়োজনে এডিট করতে পারেন নিজের মত। এখানে শুধু বাংলা ফাইলটা দেয়া হয়েছে, ইংরেজিটা এখনো তৈরি হয় নি। বিডিপিপস সহ আরো বেশ কয়েকটি বাংলাভাষী ওয়েবসাইট -এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আর্টিকেল গুলার লেখকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। মানুষ মৃত্যু থেকে বাঁচার চেষ্টা করে, জাহান্নাম থেকে নয়। অথচ, চেষ্টা করলে মানুষ জাহান্নাম থেকে বাঁচতে পারে, মৃত্যু থেকে নয়। Forex_News_Fundamental_doc.docx Forex_News_Fundamental_pdf.rar
  3. নিয়মিত ট্রেড করে থাকলে পাউন্ড যে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় কারেন্সি, তা আর আপনার অজানা থাকার কথা না। নিয়মিত ট্রেড করতে গিয়ে কম-বেশি প্রত্যেক ট্রেডারই উপলব্ধি করেছেন যে, পাউন্ড সম্পর্কিত প্রায় সবগুলো কারেন্সিই বেশ ভোলাটাইল, অর্থাৎ হুটহাট মার্কেটে প্রচুর পরিমান প্রাইস পরিবর্তনে সক্ষম। ফরেক্স ট্রেড করতে গেলে পাউন্ড সম্পর্কে প্রতিটি ট্রেডারের কি কি জানা উচিত, তা নিয়ে বিডিপিপসে একটি বিস্তারিত লেখা রয়েছে। আজকে আমরা জানবো কোন ৫ ধরনের নিউজ রিপোর্ট পাউন্ডকে অর্থাৎ পাউন্ড সম্পর্কিত পেয়ারগুলোকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে। পাউন্ডের বিপুল জনপ্রিয়তার জন্য প্রায় প্রতিটি ফরেক্স ট্রেডারই ডলারের পাশাপাশি পাউন্ডের পেয়ারগুলো দিয়ে তাদের ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করে। যেসব ট্রেডার ফান্ডামেন্টাল অ্যানালাইসিস করে ট্রেড করে, অর্থাৎ ট্রেডিংয়ের সময় অর্থনৈতিক রিপোর্টসমূহ এবং ডাটা রিপোর্টগুলোকে বিবেচনায় রাখে, তারা কোন নিউজ রিপোর্টগুলো পাউন্ডকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে, তা জানতে পারলে তাদের ট্রেডিংয়ে উপকৃত হবে এবং সেসব বিষয়ে অতিরিক্ত নজর দিতে পারবে। এই লেখায় সেরকমই কিছু গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক রিপোর্ট সম্পর্কে আলোচনা করা হবে যা নতুন এবং পুরাতন ২ রকম ট্রেডারদেরই সাহায্য করবে পাউন্ড ট্রেডিংয়ে ফান্ডামেন্টাল অ্যানালাইসিসের বিষয়গুলোকে আরও ভালভাবে বুঝতে। ৫টি প্রধান অর্থনৈতিক ইন্ডিকেটর শুরু করার আগে এটুকু জানা জরুরী যে, পৃথিবীর প্রায় সবগুলো দেশের কারেন্সিগুলোই মূলত সাধারণ কিছু বিষয় দ্বারা প্রভাবিত হয়ে থাকে। একই বিষয়গুলো কম-বেশি তাদের দুর্বল বা শক্তিশালী হতে সাহায্য করে। বিশেষ করে ৫টি বিষয়ে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি মিল পাওয়া যায় এবং এরাই সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে সেই কারেন্সিটিকে। পাউন্ডও তার ব্যাতিক্রম নয়। আর্থিক নীতিমালা (Monetary Policy), মুদ্রাস্ফিতি (Inflation), কনজিউমার কনফিডেন্স ও সেন্টিমেন্ট, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি (GDP), ব্যালেন্স অফ পেমেন্ট এই বিষয়গুলো সবচেয়ে বেশি প্রভাব রাখে। এই ৫ ধরণের রিপোর্ট বিবেচনায় রাখলেই আপনি বুঝতে পারবেন কোন রিপোর্টগুলো একক বা সম্মিলিতভাবে যেকোনো কারেন্সিকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করতে যাচ্ছে। চলুন জানা যাক এ বিষয়গুলো পাউন্ডকে কিভাবে প্রভাবিত করে। ১. মুদ্রাস্ফীতি (Inflation) যে রিপোর্টগুলোকে বিবেচনায় রাখতে হবেঃ CPI, PPI পাউন্ডের মুল্যায়নের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর একটি হল মুদ্রাস্ফীতি। সাধারণভাবে, যেসব দেশের মুদ্রাস্ফীতি বেশি, সেসব দেশের মুদ্রার মান অন্য দেশের মুদ্রার তুলনায় দুর্বল হয়ে যায়। মুদ্রাস্ফীতি বাড়লে বা কমলে সে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের জন্য উদ্যোগ নিয়ে থাকে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই কেন্দ্রীয় ব্যাংক অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে সুদের হার বা ইন্টারেস্ট রেট পরিবর্তন করে থাকে। কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স (CPI) এই রিপোর্টটি কিন্তু ইউকের মুদ্রাস্ফীতির মাত্রা জানার অন্যতম একটি নির্ণায়ক হিসেবে বিবেচিত হয়। তাই ট্রেডাররাই এই CPI রিপোর্টটির ওপর বেশ নজর রাখেন এবং গুরুত্বের সাথেই নিয়ে থাকেন। ব্রিটেনের অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্স এই রিপোর্টটি প্রকাশ করে। কোন নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভোক্তা বা ক্রেতারা (consumer) কি পরিমান দামের পন্য বা সেবা কিনছে, তার পার্থক্য এই CPI রিপোর্টের মাধ্যমে নির্ণয় করা হয়। এ রিপোর্টটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড (BoE) এ রিপোর্টটি বিবেচনা করে মুদ্রাস্ফীতির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে থাকে। তাই CPI তে কোন নতুন পরিবর্তন এলে তা যদি ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের বর্তমান লক্ষ্যমাত্রার থেকে আলাদা হয়, তবে আশা করা যায় যে তা ভবিষ্যতে BoE এর আর্থিক নীতিমালায় পরিবর্তন আনবে, যা কিনা পাউন্ডকে তাৎপর্যপূর্ণভাবে প্রভাবিত করতে পারে। যদিও কনজিউমার প্রাইস ইনডেক্স মুদ্রাস্ফীতির মাত্রা নির্ধারণে ভুমিকা রাখে, পাশাপাশি প্রডিউসার প্রাইস ইনডেক্স (PPI) ও এক্ষেত্রে কিছু ভুমিকা রাখে। PPI কে অনেকেই মুদ্রাস্ফীতির নির্ণায়ক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ইন্ডিকেটর হিসেবে বিবেচনা করেন। একদম কাঁচামালের পর্যায় থেকেই মুদ্রাস্ফীতি সংক্রান্ত পরিবর্তনগুলো এ রিপোর্টে ধরা পরে, যা কিনা পরবর্তীতে CPI কে প্রভাবিত করে। আর যেহুতু PPI রিপোর্টটি CPI এর আগেই প্রকাশিত হয়, তাই মুদ্রাস্ফীতি সংক্রান্ত সম্পূর্ণ ধারনা পেতে CPI এবং PPI দুটিকেই বিবেচনায় রাখতে হবে। ২. আর্থিক নীতিমালা (Monetary Policy) যে রিপোর্টগুলোকে বিবেচনায় রাখতে হবেঃ Bank Interest Rate, BoE Inflation Report পাউন্ডের ভবিষ্যৎ বিবেচনায় ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের মনেটারী পলিসি বা আর্থিক নীতিমালাগুলোকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করা প্রয়োজন। ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের অন্যতম প্রধান আর্থিক লক্ষ্য হল মুদ্রাস্ফীতির মাত্রা কমের মধ্যে রাখা এবং পাউন্ডের কনফিডেন্স বজায় রাখা। তাই যখনই কেন্দ্রীয় ব্যাংক মনে করে পাউন্ডের মুদ্রাস্ফীতি এমন পর্যায়ে চলে যাচ্ছে যা পাউন্ডের স্থিতিশীলতার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ, ঠিক তখনই BoE বিভিন্ন আর্থিক নীতিমালা আরোপ করে মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রন করার চেষ্টা করে। ট্রেডাররা এসব আর্থিক নীতিমালা বা মনেটারী পলিসি, যেমন - ইন্টারেস্ট রেট কখন বা কি পরিমাণে পরিবর্তন হবে সেসব অনুমান করার চেষ্টা করে। এই আর্থিক নীতিমালাগুলো সম্পর্কে অবগত থাকতে ট্রেডাররা ব্যাংক রেটের যেকোনো পরিবর্তন অনুসরণ করে। ব্যাংক রেট হল যে ইন্টারেস্ট রেটে কেন্দ্রীয় ব্যাংক BoE অন্যান্য ব্যাংকগুলোকে চার্জ করে। এই রেট সম্পর্কে সিদ্ধান্ত হয় Monetary Policy Committee (MPC) এর একটি মাসিক মিটিংয়ে। আপনি নিয়মিত ফরেক্স ক্যালেন্ডার অনুসরণ করলেই মাঝে মাঝে MPC Meeting নামে বা এরকম কিছু ইভেন্ট দেখতে পারবেন। প্রতি মাসে অনুষ্ঠিত এ মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত এবং ব্যাংক রেট ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের ওয়েবসাইটে পাওয়া যায়। তবে যদি MPC আগের রেটই বজায় রাখে, তবে আর এ সংক্রান্ত কোন আলোচনা হয় না। কিন্তু যদি মনেটারি পলিসি কমিটি (MPC) ব্যাংক রেটে কোন পরিবর্তন আনে, তবে তারা এ সংক্রান্ত একটি স্টেটমেন্ট বা বিবরণী প্রকাশ করে। সাধারণত ট্রেডাররা এই স্টেট্মেন্টকে গুরুত্বের সাথে নিয়ে থাকে, কারণ বেশিরভাগ সময় এ বিবরণী থেকে ভবিষ্যতে পাউন্ড কোনদিকে যেতে পারে সে সম্পর্কে ধারনা পাওয়া যায়। ১ম পর্বে আলচনাকরা হল মুদ্রাস্ফীতি (Inflation) এবং আর্থিক নীতিমালা (Monetary Policy) নিয়ে। ২য় পর্বে আলোচনা করা হবে বাকি ৩টি প্রধান অর্থনৈতিক ইন্ডিকেটর কনজিউমার কনফিডেন্স ও সেন্টিমেন্ট, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি (GDP) এবং ব্যালেন্স অফ পেমেন্ট নিয়ে। ১ম পর্বটি কেমন লাগলো নিচে মন্তব্যে জানাতে জানাতে ভুলবেন না। [পরবর্তী পর্ব পড়ুনঃ পাউন্ডকে প্রভাবিত করে এমন ৫ ধরনের নিউজ রিপোর্ট - ২য় পর্ব]
  4. Unemployment Claims এই নিউজটি দিয়ে বুঝায় যে কত লোক বেকার রয়েছে, এর ফলাফল বেশি মানে কারেন্সি দুর্বল হতে পারে এবং কম হলে কারেন্সি শক্তিশালী হবার সুযোগ রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় ৭:৩০ মিনিটে Unemployment Claims নিউজটি প্রকাশ হবে। গতবারের ফলাফলঃ 339K (৩৩৯০০০) এবার আশা করা হচ্ছেঃ 337K (৩৩৭০০০) সচরাচর প্রভাবঃ ফলাফল যদি 337K এর কম হয় তবে তা ডলারকে শক্তিশালী করতে পারে। আশা করা যাচ্ছে যে নিউজ দুর্বল হবে, অর্থাৎ কারেন্সি প্রাইস বাড়বে। তাই এর পেয়ার USD/XXX বাড়বে, তবে ৩২৫-৩৪০ থাকলে বড় মুভমেন্ট হবে না, এর ৩২০ নিচে আর ৩৪৫ উপরে গেলে বড় মুভমেন্ট হবে আসা করা যায়। নিউজটি প্রতি সপ্তাহে প্রকাশিত হয়। পরবর্তী নিউজ প্রকাশিত হবে ১৬ জানুয়ারি, ২০১৪. এই নিউজটিকে জবলেস ক্লেইম বা ইনিশিয়াল ক্লেইমও বলা হয়ে থাকে।
  5. ফরেক্স এ কোন কোন নিউজ গুলোতে মারকের্ট বেশি উঠানাম করে , এবং ভাল নিউজ গুলো কি কি ??????? দয়া করে যানাবেন। আমার প্রথম পোষ্ট ভূল হলে ক্ষমা করবেন মুসা
×
×
  • Create New...