Jump to content

Search the Community

Showing results for tags 'আনিস আহমেদ'.



More search options

  • Search By Tags

    Type tags separated by commas.
  • Search By Author

Content Type


Categories

  • ইন্ডিকেটর
  • এক্সপার্ট এডভাইসর
    • বিডিপিপস EA ল্যাব
  • স্ক্রিপ্ট
  • ট্রেডিং স্ট্রাটেজী
  • ট্রেডিং প্লাটফর্ম
  • ফরেক্স ই-বুক
    • বাংলা ই-বুক
  • চার্ট টেমপ্লেট

বিডিপিপস

  • ট্রেডিং এডুকেশন
    • সাধারণ ট্রেডিং আলোচনা
    • ফরেক্স স্টাডি
    • প্রশ্ন এবং উত্তর
  • ফরেক্স ট্রেডিং আলোচনা
    • ফরেক্স নিউজ
    • ট্রেডিং আইডিয়া
    • ট্রেডিং স্ট্রাটেজি
  • ট্রেডিং সফটওয়্যার
    • ফরেক্স ইন্ডিকেটর
    • এক্সপার্ট এডভাইসর
    • মেটাট্রেডার এবং MQL
  • ফরেক্স ব্রোকার
    • ফরেক্স ব্রোকার
    • ডিপোজিট ও উইথড্র
  • বিডিপিপস ফোরাম সাপোর্ট
    • ফোরাম সাপোর্ট
  • অফ-টপিক
    • অপ্রাসঙ্গিক
    • ফরেক্স হিউমার
    • বিজ্ঞাপন
  • লাইভ ট্রেডিং রুম

Categories

There are no results to display.


Found 7 results

  1. Just realize and make proper answer for yourself !!!!! Then act like your answer. ------------------------------------------------------------------------------------- 1. Was the loss of money worth all the emotional pain and financial heartache ? 2. If you had the opportunity to do that trade or investment again, what would you do differently ? 3. What is the biggest loss you have personally taken in the market ? 4. If you have never traded in the market, what is the biggest loss you have taken as an investor or in business ? 5. What was your emotional experience during this event ? 6. What went through your head and your heart during this event ? 7. Were you in emotianal control or was your destructive ego in control ? 8. Was it worth it ? 9. What did you learn from this experience ? if nothing, then I am sad to inform you that you will probably repeat it in the future. 10. What new disciplines have you now implemented when you invest or trade to protect yourself against losses ? ----------------------------------------------------Jared Martinez
  2. People are often unreasonable, illogical and self-centered .......... forgive them anyway ! If you are kind, people may accuse you of selfish, ulterior motives ................... be kind anyway ! If you are successful, you will win some false friends and make some true enemies........... succeed anyway ! If you are honest and frank, people may cheat you, ...........be honest and frank anyway ! What you spend years building, someone may destroy overnight ............ go ahead and build it anyway ! If you find serenity and happiness, People may be jealous............be happy anyway ! The good you do today, Poople will often forget tomrrow......... do good anyway ! Give the world the best you have, and even that may never be enough.......give it anyway ! =========== Mother Theresa AND STRONGLY REMEMBER .................................. When it comes time to trade, it is between you and your bad habits..........it was never meant to be between the bulls and the bears anyway !!! ------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- If your target is strong enough, Your belief is also so strong............ You must be succeed, We will meet in success............
  3. ফরেক্স এ ট্রেডিং এর জন্য আপনার ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এর উপর ভাল আইডিয়া থাকা প্রয়োজন। এতে করে আপনি ফান্ডাম্যানটাল ব্যাপারগুলো ভালো বুজবেন। আমি এখানে ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এর প্রাথমিক আলোচনা করছি। ভালো লাগলে জানাবেন, ভবিষ্যতে তাহলে আরও কিছু পোস্ট করতে পারি ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এর উপরে। আড় ভালো না লাগলে ও জানাবেন, তাহলে এইটাই প্রথম ও শেষ পোস্ট হবে ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এর উপরে। --------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- ম্যাক্রো ইকোনোমিকস কি ? অর্থনীতির যে শাখায় একটি দেশের সামগ্রিক অর্থ বেবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয় তাকে ম্যাক্রো ইকোনোমিকস বলে। এক কথায় শেষ !! মাইক্রো ইকোনোমিকস এ বেক্তিগত চাহিদা, হিসাব নিকেশ ইত্যাদি প্রকাশ পেলেও ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এ পুরো অবকাঠামোগত অর্থনৈতিক টার্মস গুলো উঠে আসে। অর্থাৎ, অর্থনীতির সতন্র ধারা গুলো খণ্ড খণ্ড বা এককাবে বিশ্লেষণ না করে, পুরো সামগ্রিকভাবে দৃষ্টিকোণ থেকে আলোচনা করা হয়। আর এই জন্যই বোধহয় বাংলায় এর নাম হয়েছে, সামসটিক অর্থনীতি। ম্যাক্রো ইকোনোমিকস কি কি বিষয়ের উপরে গুরুত্ব দেয় মূলত বা এর উদ্দেশ্য কি কি ? এর মূল উদ্দেশ্য হোল, দেশের মোট উৎপাদন শীর্ষে নিয়ে যাওয়া, নিয়োগের হার বৃদ্ধি, অনিচ্ছাকৃত বেকারত্বের হার হ্রাস, মূলস্থর স্থিতিশীল রাখা, বাণিজ্যিক লেনদেন অনুকূলে অ্যানা ইত্যাদি ইত্যাদি। কিভাবে ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এই গুলো করে ? উপরোক্ত উদ্দেশ্যসমূহ হাছিল করার জন্য, ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এ দুই ধরণের নীতি অবলম্বন করা হয়, কেননা এইটা ও অর্থনীতির একটা শাখা, নীতি তো আসবেই। মজা করলাম। দুই ধরণের নীতি দুই ধরণের নীতি হোল...... ১. মানিটারি পলিসি ২. ফিস্কেল পলিসি ম্যাক্রো ইকোনোমিকস এর হাতিয়ারগুলো কি কি ? উপরোক্ত নীতি সুমুহের আবার নিজস্ব কিছু হাতিয়ার রয়েছে। আমরা নিচে দেখি... মানিটারি পলিসিঃ এই নীতির হাতিয়ারগুলো একনজরে দেখুন... ক. মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ খ. খোলা বাজার কার্যক্রম গ. রিজার্ভের হার নিয়ন্ত্রন ঘ. ব্যাংক হার এছাড়া ও সরকারের পক্ষে সেন্ট্রাল ব্যাংক আরো কিছু হাতিয়ার ব্যাবহার করে, যেইগুলোকে গুণগত হাতিয়ার বলা হয়। যেমন, নৈতিক চাপ, ঋণদান নিষিদ্ধকরন, ঋণের রেসনিং ইত্যাদি ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। ফিস্কেল পলিসিঃ এইনিতির হাতিয়ারগুলো ও এক নজরে দেখে নিন ... ক. সরকারি খরচ খ. কর গ. ভর্তুকি ঘ. সরকারি ঋণ ঙ. বাধ্যতামূলক সঞ্চয় দেখুন তো নির্দিষ্ট কারেন্সির দেশে উপরোক্ত হাতিয়ারগুলোর পিরিয়ডিকেল পরিবর্তনে আপনার চার্টে ওই কারন্সি পেয়ারের প্রাইস এর উঠানামা হয় কিনা ?? যদি হয়, তবে ম্যাক্রো ইকোনোমিকস নিয়ে একটু হলে ও স্টাডি করুন। ফান্ডাম্যানটাল টার্মস গুলো বুজতে সুবিধা হবে।
  4. আমি এই থ্রেড টায় মুবিং এভারেজ সম্পর্কে বেবি পিপ্স, অন্যান্য রিসোর্স ও আমার নিজস্ব ধারণা, অভিজ্ঞতার আঙ্গিকে মুবিং এভারেজ সম্পর্কে লিখবো বিডি পিপ্স স্কুল এর জন্য। দেখি কত টুকু এগিয়ে নেয়া যায় সবার প্রিয় ইনডিকেটর মুবিং এভারেজ কে।কিছু কথা হয়তো মডিফাই করে নিতে হতে পারে বা বাদ দিতে হতে পারে, কারণ একটু সাহিত্য সাহিত্য ভাব আনলে লিখায়, বোজার ক্ষেত্রে সুবিধা হয়, আর এই ক্ষেত্রে দেখা যায়, কিছু অপ্রাসঙ্গিক কথা ও চলে আসতে পারে !! কারণ আমি চাই, পোস্ট টা আনন্দদায়ক উপায়ে সবার বোধগম্য করা। এর আগে মুবিং এভারেজ সম্পর্কে একটা পোস্ট করেছিলাম। ওইটা ছিল হালকার উপর ঝাপসা ! এবার মনে হয়, ভারির উপর ..................আপনারা বুজে নিন। তো চলে যাই, পোস্ট এ ............... মুবিং এভারেজ-নামেই যার পরিচয় ! মুবিং এভারেজ কি ? মুবিং এভারেজ হোল একটা স্পেসিফিক সময়ের প্রাইস একশন বের করার উপায়। মুবিং এভারেজ যদি আমরা ক্লোজিং প্রাইসের উপর এপ্লাই করি, তবে আমরা একটি কারেন্সি পেয়ার এর শেষ X নাম্বার পিরিয়ড এর ক্লোজিং প্রাইস এর এভারেজ নিচ্ছি। সোজা না ??? আচ্ছা আবার একটু দেখি, মুবিং এভারেজ ইনডিকেটর হোল সবচেয়ে বেশি ও কমনলি বেবহারিত ইনডিকেটর। ইনডিকেটর ক্যাটাগরি এর মধ্যে এর অবস্থান ট্রেনড ইনডিকেটরে। অর্থাৎ ট্রেনড বোজার ক্ষেত্রে ট্রেডাররা এইটি ব্যাবহার করে থাকেন। এইটি ব্যাবহার করা ও অনেক সহজ। এটি সেট করা অনেক সহজ ও সহজেই ব্যাখ্যা করা যায়। সাধারণভাবে বলা যায়, মুবিং এভারেজ একটা নিদিষ্ট সময়ের প্রাইস উঠা নামার একটা গড় মাত্রা দেয়। মার্কেট ট্রেনড ও ট্রেনডেন্সি, প্রাইস একশন সম্পর্কে অনেক তথ্য পেতে এইটি সাহায্য করে। এখনো ক্লিয়ার না ? অন্যান্য ইনডিকেটর এর মতো মুবিং এভারেজ ও ভবিষ্যৎ প্রাইস ফরকাস্ট করার জন্য সাহায্য পেতে বেবহারিত হয়। আগে ছবি দেখে নেয়া যেতে পারে। কি দেখা যায় ? লম্বা দরির মতো (নাকি সুতো বা রেখার মতো ?) যাইহোক, যেইগুলো উপরের চিত্রে ক্যান্ডল সটীক গুলোর উপরে লাল, সবুজ ইত্যাদি বিভিন্ন রঙ্গে দেখা যাচ্ছে এইগুলো ই মুবিং এভারেজ। এইগুলোর দিকে তাকিয়ে আপনি নিজেই মার্কেট এর সম্ভাব্য পথ খুজে নিতে পারবেন। উপরের চিত্রে দেখা জাছে একটা গেছে এক এলাকা দিয়ে, তো আরেকটা আরেক এলাকায় !! এর কারণ হচ্ছে এর বিভিন্ন সেটিং আছে, যেইগুলো নিয়ে আমরা পরে(বেশি পরে না) আলোচনা করবো। তো আশা করি এতক্ষণে মুবিং এভারেজ বেটা(নাকি বেটি !!!) কে চিনে ফেলেছেন । বিশ্বের বেশিরভাগ ট্রেডার তাদের ট্রেডিঙ্গ কৌশল মুবিং এভারেজ দিয়ে তৈরি করে। মুবিং এভারেজ ব্যাবহার করে কি কি তথ্য পেতে পারেন এর দ্বারা ...... মুবিং এভারেজের স্পষ্ট সিমপ্লি ব্যাবহার ছাড়া ও আরও অনেক কাজ করে। ফরেক্স মার্কেটে মুভিং এভারেজ যেইভাবে ব্যাবহারীতো হয়... . --- প্রাইস ডাইরেকসন= আপ, ডাউন এবং সাইড ওয়ে ট্রেনড বুজতে। --- প্রাইস অবস্থান= ট্রেডিং নির্দেশ.................................. মুভিং এভারেজের উপরে হলে- buy মুভিং এভারেজের নিচে হলে- sell --- সাপোর্ট এবং রেজিসটেন্স লেভেল এর প্রাইস বুজতে। এই গেলো বেসিক আইডিয়া, আশা করি এই পোস্ট শেষ করে আপনি নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন কি মুবিং এভারেজ কি মাথায় ইউজ করা হয়, নাকি খাওয়া হয় !! আমরা এইবার আরেকটা ছবি দেখে মুবিং এভারেজ এর গভীরে ডুকে যাই, কি বলেন ? ----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- Post will be continued লিখা সম্পর্কে কারো কোন মতামত বা সাজেশন থাকলে দিতে পারেন। যেমন, এইভাবে না, আরও একটু ক্লিয়ার করেন, বা আপনার যে কারণে মনঃপুত হয় নি,।
  5. ট্রেন্ড লাইন কে সাধারণত Diagonal সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স লেভেল বলে। ট্রেন্ড ৩ রকমঃ আপট্রেন্ড (higher lows) ডাউনট্রেন্ড (lower high) সাইডওয়ে ট্রেন্ড (ranging) আপট্রেন্ডে মার্কেট ঊর্ধ্বমুখী থাকে। তাই আপনি বাই করতে পারবেন। ডাউনট্রেন্ডে মার্কেট নিম্নমুখী থাকে। তাই আপনি সেল করতে পারবেন। সাইডওয়ে ট্রেন্ডে মার্কেট একটি নির্দিষ্ট রেঞ্জের মধ্যে ঘুরতে থাকে। তাই সাইডওয়ে ট্রেন্ডে ট্রেড না করাই ভাল। ট্রেন্ড লাইন আঁকার সময় যেসব বিষয়ের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে............... অন্তত ২টি টপ (top) অথবা বটম (bottom) পয়েন্ট সংযুক্ত করে ট্রেন্ড লাইন আঁকতে হয়। তবে ৩টি পয়েন্ট হলে ট্রেন্ড লাইন কনফার্ম হয়। সাপোর্ট এবং রেসিসট্যান্স লাইনের মত যতই প্রাইস ট্রেন্ড লাইনগুলোকে টেস্ট করবে, ট্রেন্ড লাইনগুলো তত শক্তিশালী হবে। জোর করে ট্রেন্ড লাইন আঁকার চেষ্টা করবেন না যদি। সেক্ষেত্রে তা ভ্যালিড ট্রেন্ড লাইন হবে না। যত খাড়াভাবে আপনি ট্রেন্ড লাইন আঁকবেন, ততই এইটি গুরুত্বহীন বা অকার্যকর হয়ে পরবে এবং তত শিগ্রই এর ভেঙ্গে পড়ার সম্ভাবনা বেশি।
  6. প্রকৃত অর্থেই আপনি ফরেক্স শিখতে চান ? ফরেক্সে ট্রেড এর মাধ্যমে উপার্জন করতে চান ? যদি উত্তর হ্যাঁ হয় তবে মিলিয়ে দেখুন তো এই গুন গুলো আপনার মধ্যে আছে কিনা ! --- ধৈর্য --- অদ্ধাবসায় করার ক্ষমতা --- চিন্তা করার ক্ষমতা --- কোন বিষয় ভালোভাবে বিশ্লেষণ করার ক্ষমতা --- পরিশ্রম করার মন-মানসিকতা ও সামর্থ্য --- ত্যাগ করার ক্ষমতা --- লোভ সামলানোর ক্ষমতা --- কোন বিষয়ে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবার ক্ষমতা --- নিজের ক্ষতি মেনে নেওয়ার ক্ষমতা --- অপরকে সহযোগিতার মনোভাব আসুন আমরা কিছু বিষয় আলোচনার মাধ্যমে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করি। আপনারাও প্রয়োজনে কিছু অ্যাড করুণ যদি কিছু মিস হয়ে থাকে। আপনাকে ট্রেড এ নামতে মিনিমাম ৬-৮ মাস ধৈর্য ধরে ট্রেড শিখতে হবে। হয়তো ২-৩ মাসের মাথায় আপনার মনে হবে, বাহ! আমি ভালই তো পারি। রিয়েল এ নেমে যাই! এর সাজেশন হবে, না! কেন ? প্রথমেই বলেছি আপনাকে ধৈর্য ধরে ৬-৮ মাস শিখতে হবে। প্রচুর প্র্যাকটিস আর অদ্ধাবসায় করতে হবে। ৬-৮ মাসে যে আপনি পরিপূর্ণ ট্রেডার হয়ে যাবেন তা কিন্তু না। আপনার পরিপূর্ণ ট্রেডার হতে মিনিমাম ২-৪ বছর লাগতে পারে। কিন্তু ৬-৮ মাসের মাথায় আপনি কিছু কিছু প্রফিট ইনকাম করার ক্ষমতা পাবেন। অর্থাৎ আপনার যোগ্যতা হবে। প্রচুর জুক্তি-বিস্লেসনমূলক চিন্তা-ভাবনা করে ট্রেড করতে হবে। এবং ট্রেড এর অবস্থা আপনি বিভিন্ন এঙ্গেলে বিশ্লেষণ করে তারপর ট্রেড করবেন। আর এইগুলো আপনি প্রথমে অনেক দিন আপনার ডেমো এ/সি তে টেস্ট করে নিবেন । ডেমো ১০০% ফুল ফিল সাকসেস হবার পর ও আরও কিছু দিন ডেমো করুণ। তারপর রিয়েল এ কনভার্ট হতে পারেন । অনেক সময় ভালো লাভ এর ট্রেড হাত ছানি দিতে পারে। কিন্তু আপাত দৃষ্টিতে তা, কিন্তু প্রকৃত অর্থে তা না। সেই ক্ষেত্রে আপনাকে লোভ সামলানোর ক্ষমতা থাকতে হবে । স্কেল্পিং করলে হয়তো ঠিক আছে। কিন্তু যদি লং টার্মে ট্রেড করতে যান তবে ভেবে চিন্তে যাবেন। সমসময় যে প্রফিট করবেন তা না । যদি কোন ট্রেড ভুল হয়ে থাকে এবং লস এর শিখার হন তবে সে লস মানসিকভাবে ও ফাইনেন্সিয়াল ভাবে মেনে নেওয়ার ক্ষমতা যেন আপনার থাকে সেই দিকে নজর দিবেন। অপরকে সহযোগিতার মাধ্যমে আপনার ট্রেড আরও বেশি সফল হবার সম্ভাবনা বেশি। কিভাবে ? আপনি যখন অপরকে যে বিষয়ে বোজাবেন সে বিষয় এ আপনারও ততটা জ্ঞান অর্জন করতে হবে। আর যাকে বুজাবেন সে আপনাকে প্রশ্ন করতে পারে। এমন প্রশ্ন ও করতে পারে হয়তো যার উত্তর আপনার জানা নেই। আপনাকে প্রশ্নের উত্তর খুজতে হবে, এবং পেলে আপনারও জানা হয়ে গেলো। তার উপর, সকলের দৃষ্টিভঙ্গি এক না। আপনি যে দৃষ্টিভঙ্গি দ্বারা একটি বিষয় দেখছেন অপরজন হয়তো অন্য ভাবে দেখছেন । তো এভাবে পারস্পারিক আলোচনা ও বোজানোর মাধ্যমে অনেক কিছু ই নোতুন ভাবে শিখা যায়। আর অপরকে সাহায্য করে আপনি অনেক দোয়া পাবেন, যা পরবর্তীতে আপনার একধরণের পুজি হয়ে থাকবে। প্রচুর পরিশ্রম করার ক্ষমতা থাকতে হবে। পরিশ্রম করে শিখলে সে শিখা সহজে মন থেকে যায় না। আপনি যদি ট্রেড ভালোভাবে না শিখেই রিয়েল ট্রেড এ নেমে যেতে চান, তবে আমার অনুরধ থাকবে টাকাটা এভাবে নষ্ট না করে কোন দরিদ্র মানুষ অথবা দাতব্য প্রতিষ্ঠানে দিয়ে দেন। তাতে অনেকেরই উপরকার হবে। এমনকি আপনার ও। আমার কথায় হয়তো ভুল থাকতে পারে। যদি থাকে ধরিয়ে দিবেন, আমি শুধরিয়ে নেবো । আমিও নোতুন লার্নার । আমি মনে করি পারস্পারিক আলোচনার মাধ্যমে অনেক কিছুই শিখা ও শিখানো যায়। -------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------- যদি লক্ষ্য থাকে অটুট, বিশ্বাস হৃদয়ে।। হবে, হবেই দেখা, দেখা হবে বিজয়ে ।।
  7. ক্যান্ডলসটীক চার্ট কি ? - কারিগরি বিশ্লেষণের(টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস) সহজ ও নির্ভরযোগ্য পদ্ধতির জন্য ক্যান্ডলসটীক চার্ট জাপানের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং পুরনো। এটি পয়েন্ট,ফিগার এবং বার চার্ট এর চেয়েও অনেক বেশি পুরনো। ক্যান্ডলসটীক চার্টিঙ টেকনিক সুদূর পূর্বে(জাপানে বোজানো হয়েছে) ব্যাবহার হতো উৎপাদনের জন্য,এবং বিস্ময়করভাবে পশ্চিমা পৃথিবীতে অপরিচিত ছিল, যতক্ষণ না stive nison তার লেখা বই Japanese Candlestick Charting Techniques back in 1991 এ প্রকাশ করে। জাপানিজ ক্যান্ডলসটীক (ক্যান্ডল নামে ও ডাকা হয়) চার্ট বিখ্যাত কারন, লাইনগুলো মোমবাতির মতো এর শিখাসহ, টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস এর পদ্ধতির জন্য জাপানে অনেক জনপ্রিয়। পশ্চিমা বার চার্ট, পয়েন্ট এবং ফিগার চার্টের চেয়ে ও ক্যান্ডল চার্ট ১০০০ বছর পুরনো। তথাপি, বিস্ময়করভাবে,প্রায় সাম্প্রতিক পর্যন্ত, এই চার্ট পশ্চিমা পৃথিবীতে অপরিচিত রয়ে গিয়েছিল ! সারা পৃথিবীতে ক্যান্ডল চার্ট এখন সবচেয়ে আলোচিত ও সমাদৃত সিস্টেম টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস এর জন্য। এখন প্রায় প্রত্যেক টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস সফটওয়ার প্যাকেজ এবং ইন্টারনেট চার্টিঙ সার্ভিসে ক্যান্ডল চার্ট সংযুক্ত আছে। পরবর্তীতে সাদাকাল ফিগারে কিছু তথ্য দেখানো হতে পারে। তাই আগে এখন আমরা দেখবো মডার্ন চার্ট এর পিকচার। বাস্তবে বর্তমানে ক্যান্ডল সটীক চার্ট নিচের মত দেখতে হয়। এখানে EUR/USD এর পেয়ার দেখানো হয়েছে। ক্যান্ডল চার্টের সুবিধাগুলো কি কি ? ১- ক্যান্ডল চার্ট সহজে বোজা যায়। ২- ক্যান্ডল চার্টিঙ টুলস আপনাকে প্রতিযোগিতায় উতরে উঠতে সহজগিতা করবে। ৩- এইটি আপনার ক্যাপিটাল সংরক্ষন করতে হেল্প করবে। ৪- এইটি সহজ ওয়েস্টার্ন চার্টিঙ টুলসের সাথে যোগ দিতে। ৫- ক্যান্ডল চার্ট অনেক ক্ষেত্রে ব্যাবহার করা যায় যেমন, স্টক, যে কোন কোন মার্কেট এ যেটিতে ওপেন, হাই, লো এবং ক্লোজ এর ব্যাপার রয়েছে। সর্বোপরি, টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস এর জন্য ক্যান্ডলসটীক চার্ট অসাধারণ, অন্যান্য চার্ট এর তুলনায়। ক্যান্ডলসটীক লাইন এর ব্যাখ্যা দৃশ্য ১(নিচে Exhibit 1) এ, ক্যান্ডল সটীক লাইন এর প্রসস্থ অংশটিকে বলা হয় রিয়েল বডি। রিয়েল বডি ট্রেডিং সেসন ওপেন এবং ক্লোজ এর মধ্যে পরিসরটি বর্ণনা করে। যদি ট্রেডিং সেসন এর ক্লোজ ওপেন এর উপরে হয় তবে রিয়েল বডি হোয়াইট থাকে এবং যদি রিয়েল বডি কাল হয় তাহলে ট্রেডিং সেসন এর ক্লোজ ওপেন এর চেয়ে লোয়ার হয়। রিয়েল বডি এর উপরের ও নিচের চিকন লাইন গুলো হোল "সেডো"। এইগুলা হোল সেশন প্রাইজ এর শেষ সীমা। রিয়েল বডি এর উপরের "সেডো" কে বলা হয় আপার সেডো এবং আপার সেডো এর সর্বউচ্চ বিন্দু হোল এই সেশনের হাই প্রাইজ। অপরদিকে, রিয়েল বডি এর নিচের "সেডো" কে বলা হয় লোয়ার সেডো এবং লোয়ার সেডো এর সর্বনিম্ম বিন্দু হোল এই সেশনের লো প্রাইজ। ক্যান্ডল লাইন যেকোনো সময় থেকে শুরু করে মাসিক, যেকোনো টাইম ফ্রেমে আঁকা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, একটি ৬০ মিনিট ক্যান্ডল লাইন নির্দেশ করে ৬০ মিনিট পিরিয়ড এর ওপেন, ক্লোজ, হাই, এবং লো। এভাবে, একটি ডেইলি ক্যান্ডল লাইন নির্দেশ করে একটি দিনের পিরিয়ড এর ওপেন, ক্লোজ, হাই এবং লো। তেমনি, একটি সপ্তাহিক ক্যান্ডল লাইন নির্দেশ করে ওই সপ্তাহিক পিরিয়ড এর ওপেন, ক্লোজ, হাই এবং লো। লক্ষ্য করুন, exhibit 1(দৃশ্য ১) এর ডানের অংশে ক্যান্ডল এর কোন বডি নেই। এদেরকে বলা হয় ডোজি। ডোজি হোল এরকম ক্যান্ডল যাতে ওপেনিং এবং ক্লোজিং একই থাকে। ডোজি একটি মার্কেট বর্ণনা করে যেখানে চাহিদা এবং যোগানের মধ্যে ভারসাম্য থাকে। আমরা নিচের আরেকটি চার্ট উদাহরণের মাধ্যমে ডোজি এর দিকে আরও লক্ষ্য করবো। যখন ক্যান্ডল লাইন বার চার্ট এর মতো একই উপাত্ত(ডাটা) বহন করে, ক্যান্ডলসটীক এর রিয়েল বডি, ক্যান্ডল লাইন এর রিয়েল বডি এর দৈর্ঘ্য এবং সেডো একটি তৎক্ষণাৎ আলোকচিত্র বহন করে যে, যুদ্ধ ক্ষেত্রে, ষাঁড় এবং ভল্লুক এর মধ্যে কে জয় লাভ করছে। ছোট রিয়েল বডি(স্পিনিং টপস) ক্যান্ডল সটীক চার্ট এর বিভিন্ন শক্তিশালী দিকের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী দিক হচ্ছে, তারা প্রায়ই বিপরীত সিগন্যাল প্রদান করবে যা প্রথাগত বার চার্টিঙ টেকনিক এ সহজলভ্য নয়। চলুন এই বিষয়টি দেখি স্পিনিং টপস এর সাথে... পূর্বে ই উল্লেখ করা হয়েছে, ক্যান্ডল চার্টের বিভিন্ন শক্তিশালী দিকের মধ্যে সবচেয়ে বিষয় হোল, তারা দ্রুত চাক্ষুষ মার্কেট এর পরিস্থিতি বহন করে। উদাহরণস্বরূপ, একটি ছোট রিয়েল বডি(সাদা অথাবা কালো) একটি সময় কে নির্দেশ করে, যেটির মধ্যে ষাঁড় ও ভল্লুক একটি কঠোর সংগ্রামের মধ্যে। জাপানীরা ছোট রিয়েল বডি এর জন্য একটি ডাকনাম ব্যাবহার করে। এটি হোল "স্পিনিং টপস", কারন, তাদের মাথা, আমারা যখন শিশু ছিলাম তার সাথে সাদৃশ্য রয়েছে। এই সব রিয়েল বডি সমূহ ওয়ার্নিং দেয় যে মার্কেট তার গতি হারাতে পারে। জাপানি ভাষায় একে বলা হয়, "মার্কেট তার নিঃশ্বাস হারাচ্ছে"। একটি স্পিনিং টপস দৃশ্য ২ (Exhibit 2) এ দেখানো হয়েছে। চলুন একটি উদাহরণের দিকে লক্ষ্য করা যাক যে ক্যান্ডল চার্ট কিভাবে আপনার ক্যাপিটাল সংরক্ষন করতে আপনাকে হেল্প করবে, কারন আজকের পরিবর্তনশীল পরিবেশে একটি উপকারই খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই দৃশ্যে আমি ব্যাখ্যা করবো যে কিভাবে লং সাইড থেকে ক্যান্ডল চার্ট আপনাকে সম্ভাব্য লস ট্রেড ঠেকাতে হেল্প করবে। নিচে দুটি চার্ট আছে। প্রথম (Exhibit 3) টি বার চার্ট । এখানে, বৃত্তকার এলাকা টি তে লক্ষ্য করুন। যেহেতু, এটি ধারাবাহিকভাবে ক্লোজিং এর চেয়ে হাইয়ার তৈরি করছে, এটি একটি স্টক ক্রয় করতে বলে। একই ডাটা ব্যাবহার করে (বার চার্টে যে ডাটা ছিল) আমরা এখন একটি ক্যান্ডল চার্ট(Exhibit 4) তৈরি করবো। লক্ষ্য করুন যে, একই ডাটা দিয়ে বার চার্ট এর চেয়ে ক্যান্ডল চার্টে আমরা আলাদা দৃশ্য পাই। ক্যান্ডল চার্টে সেইম বৃত্তকার এলাকায় কিছু ছোট রিয়েল বডি দেখা যায়(জাপানিজ নাম "স্পিনিং টপস")। ছোট রিয়েল বডি(স্পিনিং টপস) পুরভাবাস দেয় যে আগের ট্রেনড এর মুহূর্তকালে হারাতে পারে। যেখানে বার চার্ট এটিকে ক্রয় করার জন্য আকর্ষণীয় করছিলো, সেখানে ক্যান্ডল চার্ট দেখায় যে এখানে ক্রয় করতে যাবার পূর্বে প্রকৃতপক্ষে সতর্কতার একটা কারন রয়েছে। ছোট রিয়েল বডি(স্পিনিং টপস) ব্যাখ্যা করে যে ষাঁড় শক্তি হারাচ্ছে। ক্যান্ডল চার্ট ব্যাবহার করে, এভাবে, একজন ট্রেডার বৃত্তকার এরিয়ায় ক্রয় করতে চাইবেনা এবং এভাবে এটি হেল্প করে লসিং ট্রেড পরিত্যাগ করতে। আরও একটু জেনে নেই আমরা, কেমন !! অপরের বেক্ষায় যদি কেউ স্পিনিং টপস না ধরতে পারেন তবে এখন দেখুন। লং আপার সেডো এবং লং লোয়ার সেডো সহ ক্যান্ডল সটীকের ছোট রিয়েল বডিকে বলা হয় স্পিনিং টপস। রিয়েল বডির রঙ যাইহোক, এটা দেখার বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার নয়। এই অবস্থা বায়ারদের ও সেলারদের মধ্যে নির্দেশ একটি সিদ্ধান্তহিন অবস্থা করে । ছোট রিয়েল বডি(রঙ যাইহোক) দেখায় যে ওপেন ও ক্লোজ এর সামান্য প্রাইস মুভমেন্ট এবং সেডো গুলো দেখায় যে বায়াররা ও সেলাররা উভয়ই প্রচুর যুদ্ধ করেছে কিন্তু কেউই সফল হয় নি। বায়াররা সফল হউয়া মানে প্রাইস উপরের দিকে মুভ করবে আর সেলাররা সফল হউয়া মানে প্রাইস নিচের দিকে মুভ করবে। যদিও সেশন টি খুব ই সামান্য পরিবর্তনে ওপেন ও ক্লোজ হয়েছিলো এবং প্রাইস অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণভাবে হাইয়ার ও লোয়ার হয়েছিলো এই সময়ে, কিন্তু বায়ার ও সেলার কেউই সফল হয় নি এবং ফলাফল স্থির। লক্ষ্য করুন, আমরা স্পিনিং টপস এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপারে এসে গেছি... যদি আপট্রেনড এর সময়ে স্পিনিং টপস দেখা যায়, তবে এইটি বোজায় যে, এখানে এই মুহূর্তে আর প্রচুর বায়ার নেই এবং প্রাইস বিপরীত দিকে মুভ করার একটি ভালো সম্ভাবনা রয়েছে। আবার যদি ডাউনট্রেনড এর সময়ে স্পিনিং টপস দেখা যায়, তবে এইটি বোজায় যে, এখানে এই মুহূর্তে আর প্রচুর সেলার নেই এবং প্রাইস বিপরীত দিকে মুভ করার একটি ভালো সম্ভাবনার রয়েছে। মারুবজু নামটাই কেমন যেন লাগছে তাই না !!! নাম যাইহোক, চলুন আগে জেন নেই মারুবজু কি ও কাকে বলে এবং কিভাবে চিনবো, এবং এই মহাশয় কে দেখলে ইনি কি উদ্দেশ্য নিয়ে সামনে এসেছেন !!! জানতে চাইলে পড়তে শুরু করুন। মারুবজু মানে হোল কোন সেডো ছাড়া ক্যান্ডল সটীক এর রিয়েল বডি। সেডো কি মনে আছে তো !!! মনে না থাকলে পোস্ট এর প্রথমে চোখ বুলিয়ে নিন। এর হাইয়ার ও লোয়ার প্রাইস, ওপেন এবং ক্লোজ এর মতো সেইম থাকে। অর্থাৎ ওপেন এবং ক্লোজ ও সেইম থাকে। তবে এখানে এর রঙ এর উপর অনেক কিছু নির্ভর করে। আমরা মনে করে নিবো যে আমাদের চার্টে বুলিস বোজাতে সাদা ও বিয়ারিস বোজাতে কালো রঙ ব্যাবহার করেছি। অবশ্য উপরের ব্যাপার গুলো ও এভাবে বোজানো হয়েছে। না বুজলে আবার মিলিয়ে নিন। তো এখন দেখুন মারুবজু এর পিকচার। ইনিকে মাজে মাজেই চার্টে দেখা যায় তাই না !!! একটি সাদা মারুবজু অর্থাৎ সেডো ছাড়া একটি বড় সাদা রিয়েল বডি। এইটি বোজায় যে ওপেন প্রাইস লো প্রাইস এর সমান এবং ক্লোজ প্রাইস হাই প্রাইস এর সমান। যদি এই অবস্থায় এইটি দেখায় তবে এইটি খুব বুলিস ক্যান্ডল এবং এইটি দেখায় যে বায়াররা পুরো সেশনে কন্ট্রোলে ছিল। বায়াররা কন্ট্রোলে ছিল মানে প্রাইস বায়ারদের কন্ট্রোলে এবং আপ ছিল। এইটি সাধারণত প্রাইস বুলিস হউয়ার প্রথম অংশ এবং একে বলা হয় বুলিস রিভারসাল প্যাটার্ন। আবার একটি কালো মারুবজু মানে সেডো ছাড়া একটি বড় কালো রিয়েল বডি। এইটি বোজায় যে ওপেন প্রাইস হাই প্রাইস এর সমান এবং ক্লোজ প্রাইস লো প্রাইস এর সমান। যদি এই অবস্থায় এইটি দেখায় তবে এইটি খুব বিয়ারিস ক্যান্ডল এবং এইটি বোজায় যে সেলাররা পুরো প্রাইস একশনের সময় পুরো সেশনে কন্ট্রোলে ছিল। এইটি সাধারণত বিয়ারিস নিয়মিত হতে পারে এরকম বোজায়। একে বলা হয় বিয়ারিস রিভারসাল প্যাটার্ন। ডোজি অনেকেই ডোজি ও স্পিনিং টপস এর ব্যাপারটা এক করে ফেলে। তাই ডোজি সম্পর্কে এখন ভালো করে জেনে নিন। ডোজি এর হোল এমন ক্যান্ডল সটীক যার ওপেন এবং লো প্রাইস সেইম থাকে এবং তাদের বডি খুবই ছোট থাকে, একচুয়াল্লি বডি দেখা যায় না বললেই চলে, শুধু একটা সমান্তরাল রেখার মতো অনেক টা মনে হয়। ডোজির খুব ছোট বডি থাকবে যা চিকন লাইন এর মতো সম্মুখে উপস্থিত হবে। ডোজি এইটা সাধারণত নির্দেশ করে যে, বায়ার ও সেলারদের মধ্যে কঠিন যুদ্ধ হয়েছে এবং ফলাফল অসিদ্ধান্তহিন অবস্থায় আছে। এই সেশন টাইমে প্রাইস ওপেন প্রাইস এর উপরে ও নিচে মুভ করে, কিন্তু ওপেন প্রাইস এর খুব কাছে বা ওপেন প্রাইসে ক্লোজ হয়। বায়াররা ও সেলারা কেউই সফল হয় না এবং ফলাফল এককথায় ড্র। চার ধরণের স্পেশাল ডোজি রয়েছে। আপার ও লোয়ার সেডো এর দৈর্ঘ্য এর মাধ্যমে তাদের পার্থক্ষ করা যায় এবং ক্যান্ডল সটীক ক্রস,ইনভারটেড ক্রস, বা প্লাস সাইন আর মতো দেখায়। ডোজি শব্দটি সিঙ্গুলার এবং প্লুরাল উভয়ই রেফার করে। যখন আপনার চার্টে একটি ডোজি গঠন হয়, তখন এর আগের ক্যান্ডলসটীকের প্রতি লক্ষ্য করুন। যদি একটি লং সাদা বডি ক্যান্ডলসটীকের সিরিজের পর একটি ডোজি দেখা যায়, তখন এই ডোজি টি নির্দেশ করে যে বায়াররা ক্লান্ত ও দুর্বল হয়ে পরছে। প্রাইস বৃদ্ধি কণ্টীনিউ করার জন্য আরও বায়ার দরকার কিন্তু এখানে আর বেশি বায়ার নেই !!! তখন সেলাররা সুযোগ খুজে এবং প্রাইস নিচের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। যেহেতু বায়ারদের শক্তি কমে গেছে, তাই সেলাররা সাধারণত সফল হয়। আবার, যদি একটি লং কালো বডির সিরিজের পর একটি ডোজি গঠিত হয় বা আসে তবে এইটি নির্দেশ করে যে সেলাররা ক্লান্ত ও দুর্বল হয়ে পরেছে এবং প্রাইস নিচে নামানো বা হ্রাস কণ্টীনিউ করার জন্য এখানে এই মুহূর্তে আর বেশি সংখ্যক সেলার নেই, কিন্তু আরও প্রাইস হ্রাস করার জন্য আরও সেলার প্রয়োজন !!! এই মুহূর্তে বায়াররা সেলারদের এই দুর্বলতার সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চায়। এবং যেহেতু সেলারদের শক্তি কমে গেছে তাই অপেক্ষাকৃত সবল বায়ারদের সাথে তারা পেরে উঠতে পারে না। ফলাফল ? সাধারণত বায়াররা এই ক্ষেত্রে সফল হয়। কারণ তো জানা ই রয়েছে, বিপরীত পক্ষ দুর্বল হলে, এবং সবল পক্ষের জয় অনেকটা সুনিশ্চিত, তাই না ? যখন হ্রাস শুরু হয়েছে, সেলারদের অপর্যাপ্ততার জন্য, কনফার্ম রিভারসাল এর জন্য বায়ারদের বায়িং শক্তি আবশ্যক । ========================================================================== বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ-- ক্যান্ডলসটীক চার্ট প্যাটার্ন রিভারসাল অথবা কণ্টীনিউ এর হিন্টস দেয়। কিন্তু এটা এই বোজায় না যে এইটা যে ইঙ্গিত দিয়েছে, তা নিশ্চিত ঘটবে !!! সুতরাং আরও জানা ও বিশ্লেষণ প্রয়োজন। আপনাকে অবশ্যই মার্কেট কন্ডিশন বিবেচনা করতে হবে এবং এও বিবেচনা করতে হবে যে প্রাইস একশন আপনাকে কি বলছে।অন্যান্য টুলস এর সাথে ক্যান্ডলসটীক বিবেচনা করে ট্রেড করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। অন্যান্য টুলস হতে পারে, ট্রেনড লাইন, ফিবনেসি, সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স। ইনডিকেটর ইউজ করা যেতে পারে, মুবিং এভারেজ, এমএসিডি। যেই টুলস ই ইউজ করেন না কেন, ভেবেচিন্তে ট্রেড করাটাই যুক্তিযুক্ত ও জ্ঞানীর কাজ হবে। ক্যান্ডল সটীক চার্ট এর পুরো পোস্টমর্টেম করা হবে এখানে। সত্যি ! মাজে মাজে বিডি পিপ্স এর স্ট্যাটাস লক্ষ্য রাখলেই হবে যদি আপনি ক্যান্ডল সটীক চার্ট এর এই আপডেট মিস না করতে চান। নতুন কনটেন্ট যোগ হলে আমি স্ট্যাটাস এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবো। কিচ্ছু মিস হওয়ার চান্স নেই ! পরবর্তীতে ক্রমাগত ক্যান্ডল চার্ট সম্পর্কে আরও লিখা আসবে এই পোস্টে। আপনি ক্যান্ডল চার্ট সম্পর্কে যা জানেন তা এখানে পোস্ট করতে পারেন সকলের কথা চিন্তা করে।

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×