Jump to content

Joadder

Members
  • Content count

    115
  • Joined

  • Last visited

  • Days Won

    13

Joadder last won the day on October 27 2015

Joadder had the most liked content!

Community Reputation

102 Excellent

About Joadder

  • Rank
    Forex in the blood
  • Birthday শুক্রবার 10 অক্টো 1980

Contact Methods

  • Skype
    rayhanxy

Profile Information

  • Gender
    Male
  • লোকেশন
    Bagerhat
  1. মুভিং এভারেজ কি? মুভিং এভারেজ হচ্ছে # ফরেক্স ট্রেডারদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন ইন্ডিকেটর । একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মার্কেটের এভারেজ প্রাইজ ভ্যালু কেমন ছিল তা বোঝার জন্য মুভিং এভারেজ ব্যবহার করা হয়। মুভিং এভারেজ সম্পর্কে ভাল ধারনা আছে এমন যেকোনো ট্রেডার মুভিং এভারেজ এর সাহায্যে খুব সহজেই মার্কেটের ভবিষ্যৎ অবস্থান সম্পর্কে ধারনা করতে পারে। মুভিং এভারেজ ইনডিকেটর টি মেটাট্রেডার ইন্ডিকেটর লিস্টে ডিফল্ট হিসেবে দেয়া আছে। মুভিং এভারেজ কীভাবে কাজ করে? মুভিং এভারেজকে বলা হয় #ফরেক্স টেকনিক্যাল এনালাইসিসের প্রাণ। #ফরেক্স মার্কেটে মুভিং এভারেজ ইন্ডিকেটর দিয়ে হাই, লো, মিডেল, ক্লোজ, ওপেন, টিপিকাল ইত্যাদির গড় বাহির করা হয়। কোনটি আপনার সবচেয়ে ভাল লাগে সেটি আপনি চাইলে নিজে নিজে যাচাই করে নিতে পারেন এবং আপনার মত করে মার্কেট প্রাইস ফোরকাস্ট করতে পারবেন। মুভিং এভারেজ সাধারনভাবে সম্ভব্য সাপোর্ট এবং রেসিসটেনস এর এরিয়া এবং গতি পরিমাপক একটি টুল হিসেবে ব্যবহারিত হয় । মুভিং এভারেজ ইনডিকেটর এর মধ্যে পিরিয়ড, শিফট, স্টাইল, লেভেলস এবং ভিজুলাইজেশন আছে। পিরিয়ড মানে হচ্ছে আপনি কতগুলো ক্যান্ডেলস্টিক এর গড় নির্ণয় করবেন। শিফট দিয়ে বর্তমান চার্ট টি আগে নাকি পরে দেখবেন টা বুঝানো হয়। স্টাইল দ্বারা আপনার পছন্দমত মুভিং এভারেজ তৈরি করবেন। লেভেলস দিয়ে বর্তমান মুভিং এভারেজ এর সমান্তরাল লাইন তৈরি করা। ভিজুলাইজেশন দিয়ে আপনি কোন কোন চার্টতে ব্যবহার করবেন তা সিলেক্ট করবেন। মুভিং এভারেজ এর ধরনঃ #ফরেক্স মার্কেটে মোটামুটি ৪ ধরণের মুভিং এভারেজ ট্রেডাররা বেশি ব্যাবহার করে থাকেঃ ১. সিম্পল মুভিং এভারেজ(SMA) ২. এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ (EMA) ৩. স্মুথড মুভিং এভারেজ (SMMA) ৪. লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ (LWMA) * সিম্পল মুভিং এভারেজ(SMA) কি? বাই বা সেল করার সংকেত লাভের জন্য এটি একটি জনপ্রিয় মাধ্যম। এই ইন্ডিকেটরটি দিয়ে পিরিয়ড এবং প্রাইস এর ভিত্তিতে একটি গাণিতিক হিসাব এর মাধ্যমে আপনি ট্রেন্ড ডিরেকশন বুঝতে পারবেন। আপনি কত সময়ের মুভিং এভারেজ পছন্দ করেন তার উপরে নিরভর করবে আপনি দীর্ঘ মেয়াদী নাকি স্বল্প মেয়াদী ট্রেড করতে আগ্রহী হবেন। ট্রেডাররা ৩টি সময়ের মুভিং এভারেজ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করেন। সেগুলো হলঃ • ১০ দিনের মুভিং এভারেজ (সর্ট টার্ম ) • ৫০ দিনের মুভিং এভারেজ (ইন্টারমিডিয়েড টার্ম) • ২০০ দিনের মুভিং এভারেজ (লং টার্ম) কিভাবে সিম্পল মুভিং এভারেজ বের করব? গাণিতিক সুত্রঃ SMA = নির্দিষ্ট পিরিয়ডে ক্লোজিং প্রাইসের যোগফল / পিরিয়ড সংখ্যা উদহারনঃ ধরুন শেষ ৫ দিনের মার্কেট ক্লোজিং প্রাইস দেওয়া আছে। এগুলো হলঃ ১ম দিন= ২.৩১৬৬, ২য় দিন= ২.৩৩৪১, ৩য় দিন= ২.৩৩৯৮, ৪র্থ দিন= ২.৩৩৬৪, এখন এদের যোগফলকে ৪ দিয়ে ভাগ করুনঃ ১.২১৬৬ + ১.২৩৪১ + ১.২৩৯৮+ ১.২৩৬৪,+ ১.২৩০৫ / ৫ = ১.২৩১৪ সিম্পল মুভিং এভারেজ এর ট্রেড সিগন্যালঃ আপনি বাই করবেন যদি দেখন মুভিং এভারেজ প্রাইস বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর উপরে আছে। এবং প্রাইস যদি বর্তমান মার্কেট প্রাইস এর নিচে হয় তাহলে সেল করবেন। * এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ (EMA) কি? এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ হচ্ছে সিম্পল মুভিং এভারেজ এর মতই কিন্তু দুটোর মধ্যে ছোট একটু পার্থক্য আছে। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজও মার্কেট ডিরেকশন দেয় তবে পার্থক্য এটাই যে এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজে তুলনামুলক পূর্ব পিরিয়ড প্রাইস থেকে বর্তমান পিরিয়ড প্রাইস কে অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়। সিম্পল মুভিং এভারেজ এ মার্কেটের সব ডাটার বা অথবা আপনি যতগুলো সিলেক্ট করে দিবেন তার সবগুলোর গড় দেখাবে। কিন্তু মাঝে মাঝে মার্কেটের ব্যপক পরিবরতন হলেও সিম্পল মুভিং এভারেজ এর তেমন কোন পরিবরতন হয় না। আর এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজেও সব ডাটার গড় বের করা হয় কিন্তু এটি বর্তমান মার্কেটের প্রাইস আপ ডাউনকে বেশি গুরুত্ব দেয়। উদাহরনঃ মনে করুন, আপনি ৫ দিনের সিম্পল মুভিং এভারেজ বের করবেন, প্রথম দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩১৬৬, দ্বিতীয় দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৪১, তৃতীয় দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৯৮, চতুর্থ দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩৬৪, পঞ্চম দিন ক্লোজিং প্রাইস – ২.৩৩০৫ একটু খেয়াল করলেই দেখবেন এখানে ১ম দিনের ক্লোজিং প্রাইস এর সাথে ২য় দিনের ক্লোজিং প্রাইস এর একটা বড় পার্থক্য দেখা যাচ্ছে যা পরবর্তী ৩দিনের এভারেজ ক্লোজিং প্রাইস থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। এমন হঠাৎ করে প্রাইসের পরিবর্তনটুকু স্বাভাবিক নয়। সম্ভবত ২য় দিন ভালো কোন ইকোনমিক নিউজ এসেছে যার কারনে প্রাইস অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। সিম্পল মুভিং এভারেজে নির্দিষ্ট কোন দিন এর এমন দামের বৃদ্ধি বা হ্রাস পাওয়াকে তেমন কোন গুরুত্ব দেওয়া হয় নি। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজের সাথে সিম্পল মুভিং এভারেজ এর পার্থক্যটা এখানেই। এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজে প্রথম দুদিনের প্রাইস থেকে শেষ ৩দিনের প্রাইসকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে মুভিং এভারেজ বের করা হয়। * লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ (LWMA) লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ ব্যবহারের একটা বড় সুবিধা হচ্ছে এটি সিম্পল মুভিং এভারেজ তুলনায় অনেক দ্রুত মার্কেটের ভবিষ্যৎ মুভমেন্ট প্রকাশ করে থাকে। কারন আমরা জানি যে অতীতের মার্কেটের ডাটা থেকে আমরা ভবিষ্যৎ মার্কেটের ধারনা করে থাকি। লিনিয়ার ওয়েটেড মুভিং এভারেজ ইনডিকেটরটি অতীত থেকে বর্তমান মার্কেটের প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকে। এটি কোন কোন ক্ষেত্রে এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ থেকেও অনেক দ্রুত ওঠা নামা করে। * স্মুথড মুভিং এভারেজ (SMMA) এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ ও সিম্পল মুভিং এভারেজ এর সমন্বয়ে প্রস্তুত এক বিশেষ ধরনের এভারেজ হচ্ছে এই স্মুথড মুভিং এভারেজ । আপনি লং পিরিয়ডে ট্রেড করার সময় দেখবেন স্মুথড মুভিং এভারেজ কিছুটা এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং এভারেজ এর মতই কাজ করে । আমি অতি সংক্ষিপ্ত কিছু আলোচনা করলাম মুভিং এভারেজ সম্পর্কে ।আশাকরি বুঝতে পারবেন । আমার কাছে মনে হয় যত ইন্ডিকেটর আছে তার ভিতর মুভিং এভারেজ খুবই গুরুত্বপূর্ন ।
  2. ভাই আপনি অবশ্যই Neteller এর কার্ড অবশ্যই পাবেন । যাইহোক হয়তো কোনো মিসটেক হতে পারে । আপনি Neteller এর ওয়েবসাইটে গিয়ে ওখান থেকে ওদের কোম্পানীর কাষ্টমার কেয়ার এর মোবাইল নং নিয়ে সরাসরি ফোন করে আপনার সমস্যা জানান কমপ্রিন করেন তারপর দেখবেন তাড়াতাড়ি আপনার সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে আশাকরি অবশ্য কিছুদিন আগে কোম্পানীর Skype চ্যাট সিষ্টেম চালু ছিল । তাই চিন্তা করবেননা । আর আপনার নিকটবর্তী পোষ্ট অফিস ও ঢাকা কেন্দ্রীয় পোষ্ট আফিসে গিয়ে পোষ্ট মাষ্টারের সাথে যোগাযোগ করুন তাহলে ভালো হবে ।
  3. টেকনিক্যাল এনালাইসিস কি : টেকনিক্যাল এনালাইসিস হল বিগত দিনের মার্কেট চার্ট পড়ে পরবর্তী মার্কেট মুভমেন্ট কি হতে পারে তা বের করার বা বোঝার একটি পদ্ধতি। ইহা হল বিভিন্ন চার্ট , ট্রেডিং টুল এবং মার্কেট তথ্যর উপর ভিত্তি করে ভবিষ্যৎ মার্কেট মুভমেন্ট কি হবে তার একটি সহজ সার্বজনীন ট্রেডিং পদ্ধতি। টেকনিক্যাল এনালাইসিস ৩ টি বিশেষ নীতির মাধ্যমে কাজ করে থাকে। ১। মার্কেট অ্যাকশনঃ ২। ট্রেন্ড এ প্রাইস মুভমেন্ট ৩। ইতিহাস পুনরাবৃত্তি চার্টঃ টেকনিক্যাল এনালাইসিস এর ৩ টি জনপ্রিয় চার্ট হলঃ ১। লাইন চার্ট ২। বার চার্ট ৩। ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট তারমধ্যে ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট বেশির ভাগ ট্রেডারদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। আমরা ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট নিয়েই আলোচনা করবো। জাপানিস রাইস ট্রেডার Homma’r কাছ থেকে ক্যান্ডেলস্টিক ধারণাটি # ফরেক্স মার্কেটে আসে। ট্রেন্ডঃ হল মার্কেটের একটি স্বস্বাভাবিক গতিবিধি (মুভমেন্ট), একটি মার্কেট ট্রেন্ড কখনো স্ট্রেইট (সোজাসুজি) গতিতে চলে না। মার্কেট সব সময় প্রগতিশীল অর্থাৎ কখনো ঊর্ধ্বমুখী বা কখনো নিম্নমুখী এবং মাঝে মাঝে সমান্তরাল। যদি প্রত্যেক ক্রমানুযায়ী আপ মুভমেন্ট আগের নিম্নমুখী ট্রেন্ডের আরো নিচের দিকে মোড় নিতে শুরু করে তখন মার্কেট এর নিম্নক্রম প্রবনতা বলে ধরা যায়। আবার প্রত্যেক ক্রমানুযায়ী ডাউন মুভমেন্ট আগের ঊর্ধ্বমুখী ট্রেন্ডের আরো উপরের দিকে মোড় নিতে শুরু করে তখন মার্কেট এর ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা বলে ধরে নেওয়া হয়। এটাই আসলে মার্কেটের প্রকৃত চিত্র। সাপোর্ট এন্ড রেসিসটেন্সঃ টেকনিকেল এনালাইসিস এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি মৌলিক ধারণা হল সাপোর্ট এবং রেসিসটেনস। অর্থনীতির ভাষায় মার্কেটের চাহিদা এবং যোগানের দুটি মিলিত পয়েন্ট হচ্ছে এই সাপোর্ট এবং রেসিসটেনস । # ফরেক্স মার্কেট যেহেতু অর্থনির্ভর একটি মার্কেট তাই এই ধারণাটি এখানে বেশ মূল্যবান। সঠিক সাপোর্ট এবং রেসিস্টেন্স নির্ধারণ এর মাধ্যমে আপনি বুঝতে পারবেন কখন ট্রেডে ডুকবেন এবং কখন ট্রেড থেকে বের হবেন এবং কি পরিমান লাভ করবেন কিংবা লস হলেও তা কি পরিমান। অর্থাৎ ট্রেন্ড এনালাইসিস এর মাধ্যমে সাপোর্ট এবং রেসিসটেনস লেভেল নির্ধারণের মাধ্যমে সঠিক সময়ে ট্রেড ওপেন এবং ট্রেড ক্লোজ করতে পারবেন। সাপোর্ট এন্ড রেসিসটেন্স লেভেল নির্ধারণঃ সাপোর্ট এন্ড রেসিসটেন্স সবসময় পরিবর্তনশীল কতগুলো লেভেল, যা কখনো একটি লেভেলে স্থির থাকে না। উপরের চিত্রে লক্ষ্য করুন, আপট্রেন্ড মার্কেটের প্রত্যেকটি সর্বোচ্চ চুড়া হচ্ছে এক একটি রেসিসটেনস লেভেল এবং ডাউন ট্রেন্ডের সর্বনিম্ন প্রত্যেকটি পয়েন্টই হচ্ছে এক একটি সাপোর্ট লেভেল। আপ মার্কেট ট্রেন্ডে পূর্ববর্তী রেসিসটেনস ব্রেক করলে পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল রেসিসটেনস হিসেবে কাজ করে আবার ডাউন ট্রেন্ড মার্কেটে পূর্ববর্তী সাপোর্ট ব্রেক করলে পরবর্তী রেসিসটেনস লেভেল সাপোর্ট হিসেবে কাজ করে। আজ এই পর্যন্ত । পরবর্তীতে আরো আলোচনা করবো ।
  4. একজন সফল ট্রেডারের সফলতার পিছনে মুল চাবিকাঠি হল তার স্ট্রং এবং সুশৃংখল মানি ম্যানেজমেন্ট। মানি ম্যানেজমেন্ট না মেনে দৈবক্রমে হয়তো কিছু প্রফিট করা যায়, কিন্তু কখনো # ফরেক্স মার্কেটে লং রান করা যায়না। কোন একসময় এ মার্কেটে মুখ থুবড়ে পড়তে হবে মানি ম্যানেজমেন্ট না মানলে। আপনারা ভাল করেই জানেন # ফরেক্স মার্কেটে ৯০% নতুন ট্রেডার তাদের একাউন্ট জিরো করে থাকে। তার কিন্তু একমাত্র কারণ হলো মানি ম্যানেজমেন্ট না মানা। ছোট্ট একটা উদাহরণ দেই, মনে করেন আপনি একজন ভার্সিটি ছাত্র। আপনার মাসিক খরচ ৯০০০ টাকা। আপনার বাবা আপনাকে মাসে ৯০০০ টাকা পাঠায়। এখন আপনাকে দৈনিক খরচ করতে হবে ৩০০ টাকা ৩০০x৩০= ৯০০০ টাকা। আপনি যদি একজন সুশৃংখল মানুষ হয়ে থাকেন তাহলে আপনি দৈনিক ৩০০ টাকা খরচ করেই চলবেন। তাহলে পুরা মাস আপনি সুন্দর ভাবে চলতে পারবেন। এখন যদি আপনি মাসের প্রথম ১০ দিনেই ৯০০০ টাকা খরচ করে ফেলেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই বাকি ২০ দিন কষ্ট করতে হবে। হাত পাততে হবে বন্ধুদের কাছে। তেমনি # ফরেক্স ট্রেডে আপনাকে আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স হিসেবে ট্রেড করতে হবে। তাহলে লস হোক বা লাভ হোক আপনার একাউন্ট জিরো হবেনা। কারণ # ফরেক্স এ আপনি একটি ট্রেড দেবার পর আপনি নিশ্চিত বলতে পারেননা আপনার ট্রেডটি প্রফিটে যাবে। আপনার ট্রেডটি স্টপলস ও হিট করতে পারে। এখন যদি আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স এর তুলনায় রিস্ক বেশি নিয়ে বড় লটে ট্রেড করেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই রিস্কে পড়তে হবে। তাই ট্রেড করার সময় আপনাকে রিস্ক রিওয়ার্ড অবশ্যই হিসাব করতে হবে ট্রেড দেয়ার সময়। আপনি কতটুকু রিস্ক নিবেন এবং কতটুকু তার থেকে রিটার্ণ নিবেন সেটা আপনাকে অবশ্যই সেট করে নিতে হবে। একজন ভাল ট্রেডারকে অবশ্যই সেটা মানতে হবে। * রিস্ক এন্ড রিওয়ার্ড : একটি ট্রেড দেয়ার আগে অবশ্যই আপনি কতটুকু রিস্ক নিবেন তা ঠিক করতে হবে। এবং সে ট্রেডটি থেকে কত রিওয়ার্ড বা প্রফিট আশা করছেন সেটিও ঠিক করে নিতে হবে। নতুন ট্রেডাররা বেশিরভাগ সময় আন্দাজে ট্রেড করে থাকে। যার ফলে রিস্ক রিওয়ার্ডের সমন্বয় না থাকায় একাউন্টে লসের পাল্লাটি অনেক বেড়ে যায়। প্রথমেই ঠিক করুন কতটুকু রিস্ক নিবেন প্রতিটি ট্রেডে একজন ট্রেডার ট্রেড নেয়ার আগে অবশ্যই তার ট্রেডের রিস্ক কত % নিবে তা ঠিক করতে হবে। একজন সফল ট্রেডার নরমালি .৫০% ১% রিস্ক নেয়। আসুন আমরা একটু হিসাব করে দেখি কতটুকু রিস্ক নিলে কতটি ট্রেডে একাউন্ট জিরো হয়। আসুন আমরা একটি হিসাব করি। একাউন্ট ব্যালেন্স ১০০০ ডলার ট্রেড লট রিস্ক % স্টপলস নিট লস মন্তব্য ১ স্টান্ডার্ড লট ১০০% ১০০ পিপ ১০০০ ১ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .৫০ লট ৫০% ১০০ পিপ ৫০০ ২ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .২০ লট ২০% ১০০ পিপ ২০০ ৫ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .১০ লট ১০% ১০০ পিপ ১০০ ১০ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .০৫ ৫% ১০০ পিপ ৫০ ২০ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .০২ ২% ১০০ পিপ ২০ ৫০ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ .০১ ১% ১০০ পিপ ১০ ১০০ ট্রেড বিপরীতে গেলেই একাউন্ট ০ উপরের চার্টটি দেখলে ভাল করে খেয়াল করেন। আপনি চাইলে একটি ট্রেড দিয়েই একাউন্ট জিরো করতে পারেন বা ডাবল করতে পারেন। অথবা ১০০ টি ট্রেড দিয়ে একাউন্ট জিরো করতে পারেন অথবা ডাবল করতে পারেন। এখন একটু মনোযোগ দিয়ে খেয়াল করুন, আপনি একটি ট্রেড দেয়ার পর সেটা প্রফিটেও যেতে পারে অথবা লসেও যেতে পারে। যদি আপনি একট্রেডেই একাউন্টটি জিরো করে ফেলেন তাহলে আপনাকে ট্রেড থেকে সরে দাড়াতে হবে। কিন্তু যদি ব্যাপারটি এমন হতো যেআপনি একটি ট্রেড দিছেন ১% রিস্কে সেটা স্টপলস হিট করল কিন্তু পররর্তী ট্রেডে টেকপ্রফিট নিয়ে আপনার লস রিকোভার হয়ে আরো ১% প্রফিট হয়ে গেল। আসলেই সেটাই হতে হবে। এক-দু ট্রেডে একাউন্ট জিরো করা বা একাউন্টের ১০-২০% লস করে ফেললে আপনাকে মানসিক প্রেশারে পড়তে হবে। তখন লস কাভার করার চেষ্টায় আপনার একাউন্টে অভার ট্রেড , অভার লটের কারণে লস আরো বাড়বে। তাই সব সময় চেষ্টা করবেন প্রতি ট্রেডে .৫০% বা ১% রিস্ক নিতে। তাতে প্রফিট হয়তো কম হবে কিন্তু আপনি দীর্ঘদিন ট্রেডে টিকে থাকতে পারবেন। * রিস্ক VS রিওয়ার্ড এতক্ষন তো আপনাদের বললাম একটি ট্রেডে রিস্ক কতটুকু নিবেন সেটার ব্যাপারে। এখন আসি রিস্কের বিপরীতে আপনার রিওয়ার্ড নিয়ে। রিস্ক মানেতো বুঝলেন? একটি ট্রেডে কতটুকু ঝুকি নিবেন সেটাকেই রিস্ক বলে। এখন আপনি যে ঝুকি নিছেন তার বিপরীতে আপনার প্রাপ্য কি? কতটুকু পেতে হবে আপনাকে? মনে করেন একটি ট্রেডে ১০ ডলার রিস্ক নিছেন এখন তার বিপরীতে কি আপনি ১০ ডলার চান, না ২০ ডলার চান, না ৩০ ডলার চান? সেটা আপনিই ঠিক করবেন। মুলত রিস্ক রিওয়ার্ড টাকে এভাবে হিসাব করতে পারি। ১:১ (১০ ডলার রিস্ক এর বিনিময়ে ১০ ডলার প্রফিট বা ১০ পিপ স্টপলস ১০ পিপ টেকপ্রফিট ) ১:২ (১০ ডলার রিস্ক এর বিনিময়ে ২০ ডলার প্রফিট বা ১০ পিপ স্টপলস ২০ পিপ টেকপ্রফিট ) ১:৩ (১০ ডলার রিস্ক এর বিনিময়ে ৩০ ডলার প্রফিট বা ১০ পিপ স্টপলস ৩০ পিপ টেকপ্রফিট ) ১:৪ (১০ ডলার রিস্ক এর বিনিময়ে ৪০ ডলার প্রফিট বা ১০ পিপ স্টপলস ৪০ পিপ টেকপ্রফিট ) ১:৫ (১০ ডলার রিস্ক এর বিনিময়ে ৫০ ডলার প্রফিট বা ১০ পিপ স্টপলস ৫০ পিপ টেকপ্রফিট ) আপনার রিস্কের বিপরীতে রিওয়ার্ড যত বেশি হবে আপনার প্রফিট ততই বাড়বে। একটা পর্যায়ে দেখা যায় রিস্ক রিওয়ার্ড যদি বেশি হয় তাহলে ৫০% ট্রেড বিপরীতে গেলেও বেশ ভাল অংকের প্রফিট হাতে আসে। মনে করেন ১০ টি ট্রেডে ১:৩ রিস্ক রিওয়ার্ডে ৫ টি যদি স্টপলস হিট করে তাহলে লস হয় ৫০ পিপ এবং প্রফিট হয় ১৫০ পিপ। নিট লাভ ১০০ পিপ। একটি চার্টে রিস্ক রিওয়ার্ডের হিসাবটা ভাল করে বুঝে নিই, একটু ভাল করে লক্ষ্য করুন- আসুন আমরা একটি হিসাব করি। ১০ টি ট্রেডে ৫ টি টিপি ৫ টি স্টপলস : রিস্ক রিওয়াড মোট ট্রেড স্টপলস টেকপ্রফিট লস পিপস প্রফিট পিপস নিট প্রফিট ১:১ ১০ টি ৫০ পিপ ৫০ পিপ ২৫০ পিপ ২৫০ পিপ ০ পিপ ১:২ ১০ টি ৫০ পিপ ১০০ পিপ ২৫০ পিপ ৫০০ পিপ ২৫০ পিপ ১:৩ ১০ টি ৫০ পিপ ১৫০ পিপ ২৫০ পিপ ৭৫০ পিপ ৫০০ পিপ ১:৪ ১০ টি ৫০ পিপ ২০০ পিপ ২৫০ পিপ ১০০০ পিপ ৭৫০ পিপ ১:৫ ১০ টি ৫০ পিপ ২৫০ পিপ ২৫০ পিপ ১২৫০ পিপ ১০০০ পিপ একটু ভাল করে লক্ষ্য করে দেখুন শুধু রিস্ক রিওয়ার্ডটা ভাল করে ফলো করার কারণে ৫০% ট্রেড স্টপলস হিট করার পরো কত ভালো একটা প্রফিট এসেছে ১০ টি ট্রেড করে। আজ এই পর্যন্ত । আশাকরি বুঝাতে সক্ষম হয়েছি ।
  5. এবার অন্য কারো সাহায্য নয়। নিজের রোবট নিজেই মডিফাই করুন : ইদানিং ফেসবুকে অনেকে অনেককে রিকোয়েস্ট করেন রোবট মডিফাই করার জন্য। কেহ বলেন মাল্টিলট বন্ধ করে দিতে, আবার কেহ এসএল,টিপি ইত্যাদি মডিফাই করাতে চান। আমি আপনাদেরকে একটি সহজ সলিউশন দিচ্ছি। দেখেন তো পারেন কি না। প্রথমে মেটা এডিটর দিয়ে আপনার রোবট ওপেন করুন। তারপর কন্ট্রোল+এফ চাপুন। এবার ফাইন্ড বক্সে লিখুন OrderSend ব্যাস, পেয়ে গেলেন আপনার রোবটের অর্ডার সেন্ড ফাংশন। যেমন: OrderSend(Symbol(), OP_BUY, LotSize, Ask, 0, SL, TP, NULL, NULL, 0, Blue); এখন এই কোড বুঝার পালা। প্রথমে অর্ডার বাই দেয়া আছে। আপনি চাইলে সেল অথবা পেন্ডিং অর্ডার দিতে পারেন। যেমন: OrderSend(Symbol(), OP_BUYSTOP, LotSize, Ask, 0, SL, TP, NULL, NULL, 0, Blue); OrderSend(Symbol(), OP_SELL, LotSize, Ask, 0, SL, TP, NULL, NULL, 0, Blue); OrderSend(Symbol(), OP_BUYLIMIT, LotSize, Ask, 0, SL, TP, NULL, NULL, 0, Blue); এমন করে। এবার ”,” এর পরে লট সাইজ। যেমন: OrderSend(Symbol(), OP_BUY, 0.01, Ask, 0, SL, TP, NULL, NULL, 0, Blue); এরপর ওপেন প্রাইস, তারপর এসএল, টিপি, এভাবে। একবার চেষ্টা করে দেখুন আশা করি পারবেন। # Forex ট্রেডিং ব্যাবসা বর্তমানে দিনে দিনে অনেক জনপ্রিয়তা বাড়ছে ।তবে আমি মনে করি ম্যানুয়াল ট্রেডিং সবচেয়ে উত্তম । আমি খুব সংক্ষিপ্ত একটি উদাহারন দিলাম রোবট মডিফাই এর জন্য ।
  6. Slippage কি ও কেন : আমরা যারা # Forex ট্রেড করি আমরা প্রতিনিয়ত Slippage অথবা রিকুট সমস্যার সম্মুখীন হই। কিন্তু কেন এসব ঝামেলা? এগুলো না থাকলে কতই না ভালো হতো তাই না? ধরেন EURUSD এর প্রাইস এখন 1.35310 এ আছে, এখন এটা 1.35311 না ছুয়ে লাঁফ দিয়ে চলে গেল 1.35315 তে। এটাই মূলত স্লিপেজ। স্লিপেজ মূলত সরাসরি ব্যাংক থেকে আসে এবং অবশ্যই স্লিপেজ ছাড়া কোনও ব্রোকার নেই। মার্কেট মেকার ব্রোকারগুলো ছাড়া সব এসটিপি/ইসিএন ব্রোকারেই স্লিপেজ আছে। ফরেক্স মার্কেটে প্রতিনিয়ত স্লিপেজ হয়। এবং এটা স্বাভাবিক। মার্কেটে যত বেশি মূভমেন্ট হয় তত বেশি স্লিপেজ ও হয়। তাই মার্কেট লাফালাফি করবেই এবং স্লিপেজ হবেই। হ্যা, তবে স্লিপেজ এর মধ্যে ও লিকুইডিটি আবার ব্রোকারদের কারসাজির ব্যাপার ও থাকতে পারে। কোন কোন ব্রোকার কারসাজি করে ছোট্ট একটা স্লিপেজকে টানা-হেঁচড়া করে অনেক বড় তে পরিণত করতে পারে। তাই ভালো একটি ব্রোকারে (যারা ডিপ লিকুইডিটি দিতে সক্ষম) ট্রেড করা ভালো। আজ এই পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত আলোচনা করলাম আপনারা আরো ভালো কিছু জানলে শেয়ার করুন ।
  7. ট্রেন্ডলাইন : ট্রেন্ডলাইন খুব সাধারন এক ধরনের অ্যানালিসিস। ট্রেন্ডলাইনের আবার সবচেয়ে বেশি অপব্যাবহার করা হয়। যদি ট্রেন্ডলাইন ঠিক করে আকা হয় তাহলে এটা অন্যান্য মেথডের মত প্রাইসের সঠিক ধারা দেখাবে। দুর্ভাগ্যক্রমে বেশিরভাগ ট্রেডাররাই ট্রেন্ডলাইন ঠিক করে আকে না আর তারা লাইনগুলোকে নিজের ইচ্ছামত মার্কেটে ফিট করার চেষ্টা করে। ট্রেন্ডলাইন কিভাবে ড্র করে? সঠিকভাবে ট্রেন্ডলাইন ড্র করতে আপনাকে ২টা মেজর টপ অথবা বটম খুজে বের করতে হবে । ৩ ধরনের ট্রেন্ড : আপট্রেন্ড - যখন প্রাইস হাইয়ার লো দেখায় ডাউনট্রেন্ড - যখন প্রাইস লোয়ার হাই দেখায় সাইড/ফ্ল্যাট ট্রেন্ড - যখন প্রাইস একটা রেঞ্জের মধ্যে চলাচল করে । ট্রেন্ডলাইন সম্পর্কে কিছু জিনিস মনে রাখবেন: *ট্রেন্ডলাইন ড্র করতে ২টা টপ অথবা বটম প্রয়োজন, কিন্তু ট্রেন্ড নিশ্চিত করতে ৩য় টপ অথবা বটম লাগে। *ট্রেন্ডলাইন যত খাড়া হবে সেটা ততো অনির্ভরশীল হবে। *ট্রেন্ডলাইন যত সাপোর্ট ও রেজিস্টেন্স টেস্ট করবে, তা ততো নির্ভরযোগ্য হবে। *টেন্ডলাইনকে মার্কেটে ফিট করার চেষ্টা করবেন না। যদি ট্রেন্ডলাইন ফিট না হয়, তাহলে সেটা সঠিক ট্রেন্ডলাইন না।
  8. হ্যা ভাই আমিও একমত তবে Skrill থেকে যখন ব্যাংক উইড্রো দিবেন যে ব্যাংকে অবশ্যই আপনার ব্যাংক একাউন্টটি অনলাইন একাউন্ট হতে হবে ও ব্যাংকের সুইফট কোড থাকতে হবে । আমিও একমত যে ব্রাক ব্যাংক ও ডাচ বাংলা ব্যাংক এ খুব দ্রুত আপনার পেমেন্ট পেয়ে যাবেন । প্রথমত আপনার Skrill একাউন্টটি পুরো ভেরিফাইড করে ফেলুন এ্যাড্রেস ভেরিফাইড করুন তারপর নিশ্চিন্তে আনলিমিটেড উইড্রো করতে পারবেন ।
  9. কিছুদিন আগে প্রথমে ফেইজবুকে একটা ফরেন নাম দিয়ে একজন আমাকে ফেইজবুকে ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠায় আমি গ্রহন করি পরে সে আমাকে বলে আমি নাকি 1000 ডলার জিতেছি Neteller পেমেন্ট প্রসেসর থেকে । আমাকে ইমেইল চেক করতে বলে । আমি ইমেইল চেক করি spam এ দেখি একটা ইমেইল আসছে ম্যাসেজটা পরে আর দেখে বুঝতে বাকি থাকলনা যে কত বড় ফেক ম্যাসেজ । আমার কাছে Neteller এর ইমেইল, পাসওয়ার্ড ও Neteller এর কার্ড নাম্বার চাওয়া হলো আমি এগুলো দিলে নাকি আমাকে 1000 ডলার দিয়া হবে । তাই আপনাদের সবাইকে সতর্ক করে দিচ্ছি যে এ ধরনের ফেক ম্যাসেজ প্রতারকদের দ্বারা প্রতারিত হবেননা প্রতারকদের প্রলোভনে ফাদে কেউ পা দিবেননা । বিশেষ করে নতুনরা নতুন ট্রেডাররা এ ধরনের ভূল করতে পারেন নতুনরা না বুঝে এই প্রতারকদের ফাদে পা দেয় । আপনার Neteller এর ইমেইল, পাসওয়ার্ড ও Neteller এর কার্ড নাম্বার কখনো ভূল করেও কা্উকে দিবেননা দিলে কিন্তু সর্বনাশ হয়ে যাবে আর তখন আপনাকে ভূলের মাশুল দিতে হবে তখন আপনি ভূল করে তখন দোষ দিবেন যে Neteller পেমেন্ট প্রসেসর ভালনা তারা আমার ডলার মেরে দিছে তাই নিজের দোষ কখনো অন্যের ঘারে দিবেননা । কারন আপনার ভূলের মাশুল আরেকজন দিবে কেন তাই আগে থেকেই সাবধান থাকুন । বর্তমানে Neteller পেমেন্ট প্রসেসর খুব ভালো জনপ্রিয় ও সিকিউরেটেড । Neteller-fake-message-new.doc
  10. Take profit and Stop LOss Tips

    আসলে টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস খুব গুরুত্বপূর্ন একটা দিক তবে যারা লং ট্রেডার যারা প্রফেশনাল ট্রেডার তারা টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস ব্যাবহার করেনা যাদের অনেক বড় ডিপোজিট আছে তারা কখনো এটা ব্যাবহার করেনা । তবে যারা নতুন ট্রেডার আর যাদের অল্প ব্যালেন্স আছে তাদের অবশ্যই টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস ব্যাবহার করতে হবে কারন ফরেক্স মার্কেট যে কোনো সময় বড় ধরনের মুভ করতে পারে । ফরেক্স যেমন লাভজনক তেমন রিস্কি তাই নতুন ট্রেডারদের সব সময় টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস ব্যাবহার করা উচিৎ আবার নিউজের সময় নিউজ ট্রেড করতে গেলেও অবশ্যই টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস ব্যাবহার করতে হবে তা না হলে আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স জিরো হয়ে যেতে পারে এ ক্ষেত্রে নিউজ ট্রেড এর সময় আপনি টেক প্রফিট দিতে পারেন 100 পিপস আর ষ্টপ লস দিতে পারেন 30 পিপস আর এমনি সব সময় টেক প্রফিট দিতে পারেন 40 পিপস আর ষ্টপ লস দিতে পারেন 20 পিপস । টেক প্রফিট ও ষ্টপ লস প্রত্যেক ট্রেডারদের জন্য বড় উপকারী বন্ধু ।
  11. NFP NEWS

    ভাইয়া NFP নিউজ খুব গুরুত্বপূর্ন এই NFP নিউজ এর সময় মার্কেট বড় ধরনের মুভ করতে পারে তাই যারা স্কালপিং ট্রেড করেন তারা খুব সাকধান এই নিউজের সময় । বিশ্বের অনেক বড় বড় ট্রেডার অনেক ডলার ডিপোজিট করে বসে থাকে যে NFP নিউজ কবে আসবে সেই দিন তারা খুব বড় লটে ট্রেড ধরে NFP নিউজ খুব জনপ্রিয় ফান্ডামেন্টাল ট্রেডাররা খুব ভালোবাসে NFP নিউজ । আপনি NFP নিউজের জন্য ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিসের জন্য অনেক সাইট আছে যেখান থেকে NFP নিউজ সম্পর্কে তথ্য পাবেন ও ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিস করতে পারবেন আমি মনে করি মাত্র একটা সাইটের উপর নির্ভর না করে অনেকগুলো সাইট থেকে নিউজ নিয়ে একত্র করে তারপর ফাইনাল একটা সিদ্ধান্তে আসলে ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিস ভালো হয় । ধরুন আমি 6 টা নিউজ সাইট ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিস করলার এখান থেকে বেশিরভাগ নিউজ সাইট আমাকে যে সিগনাল দিবে আমি সেই অনুযায়ী বাই বা সেল অর্ডার নিব । যেমন সাইটগুলো : http://www.fxstreet.com/ http://www.dailyfx.com/ http://www.forexcrunch.com/category/forex-weekly-outlook/ http://www.forexfactory.com/calendar.php/ http://www.bloomberg.com/ http://www.reuters.com/finance/currencies http://www.economist.com/sections/business-finance http://money.cnn.com/data/currencies/ http://www.fxstreet.com/fundamental/ http://www.investopedia.com/university/forexmarke www.investing.com এই সমস্ত সাইটগুলো থেকে আপনি অনেক নিউজ নিয়ে ফান্ডামেন্টাল এ্যানালাইসিস করতে পারবেন ।
  12. ভাই এটা খুব সহজ তবে ঝামেলা কারন skrill থেকে আগে ব্যাংক উইড্রো দিলে এত কিছু লাগতোনা কিন্তু এখন অনেক প্রমান কাগজসুরপ দিতে হয় কারন এখন এটা বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশ যাই হোক আমার জানা মতে 5000 ডলার এর নিচে উইড্রো করলে 2 টা জিনিস লাগে এ ক্ষেত্রে c form লাগেনা c form লাগে 5000 ডলার এর উপরে উত্তোলন করলে আপনি এ ক্ষেত্রে ব্রাক ব্যাংকের হেড অফিসে যোগাযোগ করেন রেমিট্যান্স বিভাগে । 5000 ডলার এর নিচে উইড্রো করলে 2 টা জিনিস লাগে তা হলো (1) আপনি skrill থেকে শেষে যে ইমেইল পেয়েছেন মোট 2 টা মেইল পাবেন শেষেরটা যেটাতে আপনাকে skrill থেকে কনফার্ম করা হয়েছে সেই ইমেইলট ইমেইলে লগইন করে তারপর একটা স্ক্রীন শর্ট নিয়ে পুরো ইমেইলটা প্রিন্ট আউট করবেন (2) আপনার skrill একাউন্টে লগইন করে পুরা skrill এর পেজটা একটা স্ক্রীন শর্ট প্রিন্ট আউট করবেন তারপর ব্যাংক পেমেন্ট পবার জন্য ব্যাংক ম্যানেজার বরাবর সাদা কাগজে একটা দরখাস্ত করবেন এগুলো সব ব্যাংকে জমা দিবেন দিয়ার 48 ঘন্টার ভিতর আপনার ব্রাক ব্যাংকের একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে । আর c form যদি দিতেই বলে c form টা ব্রাক ব্যাংকের যে কোনো শাখা অফিসে পাবেন c form টা পূরন করতে হয় তারপর জমা দিতে হবে আপনার ব্রাক ব্যাংকের শাখায় । আমার জানা মতে 5000 ডলারের নিচে c form লাগেনা । আপনার ব্যাংকের শাখা অফিসারকে হেড অফিসের রেমিট্যান্স বিভাগে ফোন দিতে বলেন ।
  13. ধন্যবাদ ভাই আপনাকে স্বাগতম ট্রেডিং করার জন্য STP/ECN ব্রোকার অবশ্যই বেষ্ট চয়েস খুব ভালো পছন্দ আমি এই বিষয়ে একটা ব্রোকারের নাম জানি ও তাদের বিষয় জানি আপনি Skrill Deposit করে ট্রেড করতে চাইলে Exness Broker এর ECN একাউন্টটি নির্বাচন করতে পারেন । আমার জানা মতে খুব ভালো । Instant Withdraw and Deposit করে কোনো কমিশন কাটেনা । আমি এবার Exness Broker এর ECN একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত বলছি : অ্যাকাউন্টের ধরন--------ECN নূন্যতম জমা------$300 সর্বোচ্চ বিশেষ সুবিধা এত পর্যন্ত লেভারেজ রয়েছে---------1:200 প্রতি 1 মিলি USD লেনদেনে কমিশন-------------25 USD e-currency মারফত জমা-------হ্যা ওয়্যার স্থানান্তর মারফত জমা--------হ্যা স্প্রেড--------থেকে 0.0 ন্যূনতম ভলিউমের অবস্থান--------------------0.01 অনেক (1K) সর্বোচ্চ ভলিউমের অবস্থান-------------- ----- সর্বোচ্চ ক্রমবর্ধমান ভলিউমের অবস্থান-------------কোনো সীমা নেই সর্বোচ্চ সংখ্যক অবস্থান--------- কোনো সীমা নেই Hedged মার্জিন----------- 100 % মার্জিন কল/ স্টপ আউট------------ 100% / 50% ইন্টারব্যাঙ্ক মার্কেটে অ্যাক্সেস----------------- স্বয়ংক্রিয় মাল্টি ব্যাঙ্ক অর্ডার সম্পাদন (FOREX)-------------------- Market execution অর্ডার সম্পাদন করা (Futures এর ক্ষেত্রে CFD)------------------------ CFD নেই আপনি এই বিষয়ে আরো বিস্তারিত কিছু জানতে চাইলে সরাসরি আমাকে ফোন করতে পারেন অবশ্যই সাহায্য করবো ।
  14. ধন্যবাদ ভাই সুন্দর একটা পোষ্ট করার জন্য । আমিও একমত আমাদের নতুন ট্রেডারদের লস করার অন্যতম প্রধান একটা কারন হলো ইমোশন ও অল্প ব্যালান্স ডেমোতে আমরা বেশিরভাগ ট্রেডাররা লস করিনা এখানে কোনো ইমোশন কাজ করেনা এখানে লস খাওয়ার ভয় কাজ করেনা মনে তাই । এখানে মানে ডেমোতে একটা অর্ডারে লস করলেও অনেক সাহসের সাথে আরো অর্ডার নিয়ে থাকি বড় লটেও ট্রেড করি কিন্তু রিয়েলে গিয়ে তার উল্টোটা ঘটে কারন রিয়েল একাউন্টে লস খাওয়ার খুব ভয় কাজ করে রিয়েলে ইমোশন খুব বড় বাধা হয়ে দাড়ায় । একটা লস খেলে সাথে সাথে মন ভেঙ্গে যায় অল্প ব্যালান্স দিয়ে অনেকে ট্রেড শুরু করে । তাই ডেমো ও রিয়েল সমান করতে হলে প্রথমে ইমোশন কে বিদায় জানাতে হবে তারপর আরো অনেক ধাপ আছে এগুলো পর্যায়ক্রমে মানতে হবে ।
  15. ভাই স্কালপিং ট্রেড ভালো অল্প লাভ করা যায় স্কালপিং ট্রেড নতুনরা করে । কিন্তু আপনি যদি একজন প্রফেশনাল ট্রেডার হতে চান আপনি যদি ফরেক্স কে ভবিষৎ ক্যারীয়ার হিসাবে নিতে চান লং টার্ম ট্রেডের কোনো বিকল্প নাই এই ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই লং টার্ম ট্রেড করতে হবে স্কালপিং ট্রেডে অল্প লাভ হয় আবার রিস্ক ও আছে তবে প্রাথমিক পর্যায় স্কালপিং ট্রেড করতে পারেন পরে কিছুটা দক্ষতা অর্জন করার পর আপনি ফুল টাইম ট্রেডার হয়ে লং টার্ম ট্রেড করুন । তবে লং টার্ম ট্রেডিং করতে হলে আপনাকে বড় এমাউন্ট ইনভেষ্ট করতে হবে আর লাভও বেশি । স্কালপিং ট্রেডের চেয়ে লং টার্ম ট্রেডিং অনেক উত্তম । যারা লং টার্ম ট্রেডিং করে তারা অনেক ভালো দক্ষ ট্রেডার হয় আর লাভও করে অনেক বেশি । আমার দেখা মতে স্কালপিং ট্রেডে লসের সংখ্যা বেশি লং টার্ম ট্রেডে অনেকে ষ্টপ লস টেক প্রফিট ও ব্যাবহার করেনা কারন তাদের এমাউন্ট অনেক বড় ব্যাকআপ থাকে অনেক ।

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×