Jump to content

Nirmal1992

Members
  • Content count

    20
  • Joined

  • Last visited

  • Days Won

    6

Nirmal1992 last won the day on March 10 2015

Nirmal1992 had the most liked content!

Community Reputation

50 Excellent

4 Followers

About Nirmal1992

  • Rank
    My charts talks to me
  • Birthday April 4

Profile Information

  • Gender
    Male
  1. FOMC এর নিউজ আছে ১৯ তারিখ। এটা নিয়ে সম্পূর্ণ ৫০-৫০ কনফিউশনে আছি। ডলার এগিয়ে যাচ্ছে ইতিহাস গড়ার দিকে। রেট হাইকের বাতাসেই মার্কেটের এই অবস্থা আর সত্যি সত্যি হাইক করলে কি হবে ইয়েলেন নিজেই জানেন না। ডলারের এত উচ্চ মূল্য তাদের অনেক ব্যাবসায় ধ্বস নামিয়ে দিয়েছে আবার ইউএস ইকোনমি ফেডের রেট হাইকের শর্ত গুলোও ভাল ভাবে পূরণ করে চলেছে। ফেড জল ঘোলা করা ছাড়া কি করবে বুঝতে পারছি না। আমি পরামর্শ দিব নিউজটির ব্যাপারে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার জন্য। ফেড নিউট্রাল থাকলে মার্কেট আপসাইড রিট্রেসমেন্ট দেবার কথা। সেটার আশায় আছি। আর সেটাতে আমরা একটা ভাল এন্ট্রি পয়েন্ট পেতে পারি। আর ইউরো ডলার এর প্যারিটির ফোরকাস্ট তো এখন আকাশে বাতাসে। ফেড এর স্ট্রং ডভিস হস্তক্ষেপ ছাড়া এটা আটকানোর তেমন কোন চান্স নেই।
  2. মার্কেট যে অবস্থা ছোট খাট একটা "retracement" দেবারও মুড নাই। ১.০৭ থেকে অন্তত একটা দেওয়া উচিত। তাহলে একটা নতুন এন্ট্রি পয়েন্ট পাই।
  3. কিছু মনে করবেন না দয়া করে, আপনার কোশ্চেন গুলো দেখে মনে হচ্ছে অতিসাম্প্রতিক কালেই আপনি ফরেক্স এর সাথে পরিচয় হয়েছে। আপনার উচিত হবে ফরেক্স নিয়ে আরেকটু পড়াশুনা করা। যেহেতু আপনি রিয়াল ট্রেড করতে যাচ্ছেন, তা আপনি যে কয় টাকাই ইনভেস্ট করেন না কেন? এক্ষেত্রে আমি আপনাকে নিচের দুটি সাইট সাজেস্ট করব। ফরেক্স বেসিক এর A-Z এখানে পাবেন। http://www.babypips.com/school http://www.forexpeacearmy.com/forex-forum/forex-military-school-complete-forex-education-pro-banker/
  4. তেমন টাই হবার কথা। সলিড পতন না হইলেও প্রেসারে থাকবে এটুকু বলা যায়, কেননা মার্কেট অলরেডি ওভারসোল্ড। বিয়ার ট্রেডাররা বেশ ক্লান্ত। তবে মনে রাখবেন বিদেশি নিউজের সব কিন্তু সলিড না, ব্লাফ দেওয়া পাব্লিক বা টুকটাক মিথ্যা বলা পাবলিক কিন্তু কম নাই। রুমর ছড়ানো আর মিসলিডিং নিউজ থেকে সাবধান।
  5. এবারের NFP যে যেন তেন NFP ছিল না সেটা মার্কেটের জানা ছিল ভালমতনই। ফেড তাদের রেট হাইক করবে কিনা সেটার অন্যতম প্রধান লিডিং ইনডিকেটর ছিল এবারে NFP। আমি পারসনালি আশায় ছিলাম ভাল খবরের। কিন্তু এতটা ভাল আসবে চিন্তাই করি নি। মার্কেট তার রিএকশনও দিয়েছে সেইভাবেই। :fire: ফেড এর রেট হাইক করার সম্ভাবনা একলাফে বেড়ে গেল অনেকখানি। চোখের সামনে নিজের অ্যাকাউন্ট এর স্বাস্থ্য একটু একটু করে ভাল হতে দেখার মজাই আলাদা। ফান্ডামেন্টাল ট্রেডার, কিন্তু মার্কেটে এখন ডলার সেল করতে চান এমন লোক হয়ত হারিকেন দিয়ে খুজতে হবে। আমি নিজে একজন সলিড ফান্ডামেন্টাল ট্রেডার, শুধুমাত্র Stop Loss বা Take Profit দেবার সময় কোন মেজর সাইকোলজিক্যাল লেভেলের খোঁজ করি। মার্কেটের টেকনিক্যাল ভিউ অন্যকিছুর পরামর্শ দিতে পারে কিন্তু আমি মনে করি ডলারের মূল্য হ্রাসের খুব কম কারণই আছে যা মার্কেটে অদুর ভবিষ্যতে আধিপত্য বিস্তার করবে। ফেড যদি একবারে সরাসরি রেট হাইক করার বিষয়ে বিপরিত মতামত দেয়, বা প্রক্রিয়া বিলম্বের স্পষ্ট ইঙ্গিত দেয় তখনি ডলার হয়ত একটা ধাক্কা খাবে, যেটার সম্ভাবনা কম কারণ ফেডের রেট হাইকের শর্তগুলো ইউএস ইকোনমি ভালভাবেই পূরণ করে চলেছে । যতদিন রেট হাইক করার বাজনা বাজতে থাকবে ডলারের মূল্য ততদিন একটু একটু করে বাড়ার কথা। একটি বাড়তি সাইকোলজিক্যাল পরামর্শ, যদি দেখেন মার্কেটের এমন পরিবেশে ডলার কিছুটা দুর্বল হচ্ছে তাহলে ধরে নিবেন “A bunch of winners are just taking their profit off the market, and going to enjoy a vacation.” আর যদি ফেড যেভাবে হকিস মুডে আছে সেভাবে সময়মতন রেট হাইক করেই ফেলে তাহলে আমি বলব ডলার আর ইউরো সমান হওয়া শুধু সময়ের ব্যাপার। কারণ আমরা প্রায় সবাই জানি ইউরো এখন কারেন্সি ওয়ারের দুর্বলতম যোদ্ধা। অচিরেই আসছে ECB-র তথা সুপার মারিওর বৃহৎ QE প্রোগ্রাম। বলা যায় ইউরোর দুঃসময় চলবে আরও কয়েক মাস। ইউরোর বিপরীতে ডলার কেনার পরামর্শই দেব আমি, তথাপি অসি(AUD) বা লুনির(CAD) বিপরীতেও ডলার কিনতে পারেন। সোজা কথায় EUR/USD AUD/USD sell অথবা USD/CAD buy করতে পারেন। যেকোনো সময় পজিশন ওপেন না করে ছোটখাটো পুল ব্যাক দেখে পজিশন নিতে পারেন। উল্টোদিকে যাদের ইউরো বা গোল্ড এর এত লোভনীয় মূল্য দেখে কেনার তর সইছে না তাদের বলছি, সবুরে মেওয়া ফলে। সবুর করুন আশা করি সামনে আরও অনেক বেশি সুস্বাদু মূল্য পাবেন, মার্কেটে সর্বোচ্চ “মাইনর পারশিয়াল” পজিশন নিতে পারেন। তবে অপেক্ষা করাটাই সবদিক দিয়ে কল্যাণকর। ফরেক্স মার্কেট নিয়ে এত সরাসরি কথা বলা কিন্তু বোকামির সামিল। কারণ দিন শেষে মার্কেটে সবাই ছাত্র, শিক্ষক কেউ না। একমাত্র শিক্ষক স্বয়ং মার্কেট নিজে। মনে রাখবেন, লস খেলে ভুলটা আপনারই, মার্কেট কিন্তু সবসময় সঠিক!! কাজেই সব কথার শেষ কথা আপনাদের যতই পরামর্শ দেই না কেন, ট্রেড করবেন নিজের রিস্কে। টাকা আপনার, রিস্ক আপনার। লস খেলে আমি ক্ষতিপূরণ দিব না। উপরের লেখা গুলো শুধুমাত্র মার্কেট সম্পর্কে আমার একান্ত নিজস্ব মনোভাব আর মতামত। :devil:
  6. উপরের কথাগুলোর সাথে একমত। লাস্টের পয়েন্ট এর সাথে কিঞ্চিত দ্বিমত আছে। ইউরো বাইএর চিন্তা করার সময় এখনও আসে নাই। এ বছরের পুরোটাই আমার মনে হয় ইউরো ডাউন সাইড প্রেসারে থাকবে।
  7. ভাই আসলে এক কথায় বা এক বাক্যে কোন কারেন্সি কে কোন ট্যাগ দেওয়া সম্ভব না। Kathy Lien এর "Day trading and swing trading the currency market" বইটার ২য় সংস্করণ এর ১২ নাম্বার চ্যাপ্টারটা পুরোটাই কারেন্সি গুলোর বিশেষ বৈশিষ্ট্য নিয়ে লিখা। অনলাইনে পেয়ে যাবেন আশা করি বইটা। পুরো বইটাই অনেক কাজের।
  8. ফরেক্স এ শিওর হয়ে কখনই কিছু বলা যায় না। সম্ভাব্যতার ডালপালা যেকোনো অবস্থায় উপরে ও নিচে সবদিকে ছড়ানো থাকে। "Very high probability" বা "Very low probability" কথাটাও অভিজ্ঞ এনালিস্টরা এড়িয়ে যান। বাস্তবতাও আসলে তাই। বলা যায় মার্কেট প্রেডিকশনের ক্ষেত্রে, "Higher probaility" বা "Lower Probability" কথা গুলোই সবচেয়ে উপযুক্ত। আপনারা যারা নতুন, তাদের বলব আপনি যে স্টাইলের ট্রেডার হন না কেন মার্কেটের ফান্ডামেন্টাল বোঝার চেষ্টা করবেন সব সময়। ফিনান্স এর অল্প কিছু বেসিক জ্ঞানের সাথে ওয়ার্ল্ড ইকনোমির কিছু আইডিয়া থাকলে এইটা অনেকটাই সফল ভাবে করা যায়। অভিজ্ঞতা আর ডেডিকেশন হল এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ব্যাপার। আর হ্যাঁ, ট্রেড করবেন অবশ্য অবশ্যই রিস্ক ম্যানেজমেন্ট করে।
  9. সুইস ফ্রাংক ফরেক্স ইতিহাসের অন্যতম “Volatile” মুভমেন্ট দিল গত জানুয়ারি মাসের ১৫ তারিখ। ওইদিনে মিনিটের ব্যবধানে GBP/CHF ফল করেছে ২০০০+ পিপস EUR/CHF ১৭০০+ পিপস USD/CHF ১৫০০+ পিপস। রিটেইল ট্রেডারদের কথা বাদ দিলাম, আলপারির মতন ব্রোকার পর্যন্ত ইনসল্ভেনসিতে পরে যায় ওই ঘটনার পর। মার্কেটে একটি সেন্ট্রাল ব্যাংকের প্রভাব কত বেশি হতে পারে এটি তার একটি বড় প্রমান। ওইদিন সুইস ব্যাংক তাদের ৩ বছরের অধিক পুরানো EUR/CHF 1.2 ক্যাপ তুলে নেয়। এই তিন বছর সুইস ব্যাংক বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ঢেলে EUR/CHF এর মূল্য 1.2 তে ধরে রাখে। এখন এখানে তিনটি সহজ সরল প্রশ্ন করতে পারি আমরা- ১। কি জন্য সুইস ব্যাংক EUR/CHF কে ক্যাপিং করেছিল? ২। হঠাৎ করে কেনইবা তারা এই ফ্লোর তুলে দিল? ৩। ফ্লোর তুলে দেবার ফলে সুইস ফ্রাংক এর মূল্য এত বেশি বাড়ল কেন? কেন কমতেও তো পারত!! এই তিনটি সহজ সরল প্রশ্নের উত্তর কিন্তু একবারে সহজ সরল উপায়ে দেয়া যায় না। তারপরও আমরা সহজ সরল উত্তরই খুজে বের করে চেষ্টা করবো আসন্ন দিন গুলোতে আমরা কিভাবে মার্কেট থেকে প্রফিট করতে পারি। প্রথমত সুইস ব্যাংক অবশ্যই কিছু সুবিধা পাবার জন্য EUR/CHF ক্যাপিং করেছিল , এবং সেই সুবিধা হতে পারে Monetary policy making সংক্রান্ত সুবিধা যা ইউরোপীয় দেশ গুলোর সাথে তাদের অর্থনীতির বন্ধন সবল ও নমনীয় রাখত । তারা এই ক্যাপিং তুলে নেবার দুটি কারণ হতে পারে, এক সুইস ব্যাংকের পক্ষে অসুবিধাজনক হয়ে পড়েছিল কাজটি করা, দুই তাদের ক্যাপিং করে রাখার প্রয়োজন ফুরিয়ে গেছে। এখানে কমন সেন্স বলে যে রাতারাতি প্রয়োজন একেবারে ফুরিয়ে যাবার মতন কোন ঘটনা ঘটেনি, তা হলে মার্কেট কখনই এত বেশি সারপ্রাইজড হত না। EUR/CHF এর চার্ট দেখলে বুঝবেন ২০০৭ সালের শেষের দিক থেকে মার্কেট লং টার্ম ডাউন ট্রেন্ডে চলে চলে গিয়েছিল যা ক্যাপিং আরোপ করার পর থেমে যায়। কাজেই ক্যাপিং এর আগে মার্কেটে ডাউন সাইড প্রেসার ছিল যেটা সুইস ব্যাংক ধরে রেখেছিল। ইউরোর বিপরীতে সুইস ফ্রাংক এর ন্যাচারাল ডেসটিনেশন ছিল আরও উপরে, অর্থাৎ EUR/CHF এর গন্তব্য ছিল আরও নিচে। এই প্রেসার বর্তমানেও বলবৎ ছিল। ব্যাপারটা আরও সহজ করে আমরা বলি, EUR/CHF এর রেট ১.২ তে থাকলে অনেক সুবিধা ছিল সুইস ব্যাংকের কিন্তু পেয়ারটি ন্যাচারালি আরও অনেক নিচে নামার কথা ছিল যেটা সুইস ব্যাংক হতে দেয়নি। মার্কেট থেকে ব্যাংক তার হস্তক্ষেপ তুলে নেবার পর মার্কেট খুব দ্রুত তার ন্যাচারাল অবস্থান এ চলে যাবার চেষ্টা করে। ফলস্বরূপ পেয়ারটির এত বিশাল পতন। আবার ফিরে আসি পুরানো কথায়। ক্যাপিং করে রাখার প্রয়োজন রাতারাতি ফুরিয়ে যাবার মতন কোন ঘটনা আশা করা যায় ঘটেনি। কাজেই সুইস ব্যাংক চাইতেই পারে মার্কেট আগের অবস্থায় যাক। সুইস ফ্রাংকের চার্ট গুলো দেখুন, মার্কেট কিন্তু খুব সুন্দর করে সেই পথেই হাঁটছে!! কিন্তু পৌঁছাতে এখনও অনেক বাকি। GBP/CHF বা USD/CHF এ অর্ধেকের বেশি এগুলেও EUR/CHF পিছিয়ে আছে অনেকখানি। সুইস ব্যাংক মার্কেট থেকে তাদের হস্তক্ষেপ অফিসিয়ালি তুলে নিলেও আনঅফিসিয়ালি যে চুপচাপ বসে আছে এটা ভাবা মনে হয় বোকামি। তবে আগের চেয়ে কম কষ্টে তারা লক্ষ্য অর্জনের চেষ্টা করবে। সেই সাথে EUR/CHF যে একবারে 1.2 তে গিয়েই ঠেকবে এইটা ভাবাও বোকামি। ধরে নিতে পারি অনেকটা কাছাকাছি যাবে পেয়ারটি। এদিকে ইউরো কিন্তু খুব নাজুক অবস্থায় আছে। সেটাও আলাদা ভাবে বিবেচনা করা জরুরি। এ কারণে ইউরোর পেয়ারে পজিশন নেবার চেয়ে ডলার কিংবা পাউন্ডের পেয়ারে পজিশন নেয়া বেশি লজিক্যাল হবে। খেয়াল রাখবেন সপ্তাহান্তে ডলারের অন্যতম প্রধান নিউজ NFP রিলিজ হবে। যে পেয়ারেই পজিশন নেন না কেন তার ফান্ডামেন্টাল অবস্থা দেখেশুনে পজিশন নেয়া ভাল। মনে রাখবেন, দিন শেষে মার্কেটে সবাই ছাত্র, শিক্ষক কেউ না। একমাত্র শিক্ষক স্বয়ং মার্কেট নিজে। লস খেলে ভুলটা আপনারই, মার্কেট কিন্তু সবসময় সঠিক!! আশা করি সবাই সঠিকভাবে রিস্ক ম্যানেজমেন্ট করেই ট্রেড করবেন। উপরের লেখা গুলো শুধুমাত্র মার্কেট সম্পর্কে আমার একান্ত নিজস্ব মনোভাব আর মতামত। আমি কাউকে ট্রেড করার সিগন্যাল দেই না। Happy Trading.
  10. এই উইকে ফান্ডামেন্টাল ট্রেডারদের জন্য আছে বেশ কিছু সম্ভাবনা। ৩ তারিখে অস্ট্রেলিয়ার সেন্ট্রাল ব্যাংকএর interest rate release. Forecast এ এসেছে আবারো সেন্ট্রাল ব্যাংক interest rate কমাতে যাচ্ছে .২৫% । গতবারে রেট কমানোর পরও অসির পতন আশানুরুপ হয় নাই। তাই ডভিস মুডে থাকা অস্ট্রেলিয়ান ব্যাংক আবারো চাচ্ছে রেট কমানোর। ঘটনা যাই হোক না কেন, এইটা খুবই স্পষ্ট যে ব্যাংক চাচ্ছে অসির দাম কমুক, এইটাই সবচেয়ে বড় বিষয়। তাই আশা করছি এই উইকে অসির মূল্য কমবে। যদি সেন্ট্রাল ব্যাংক ফোরকাস্ট অনুযায়ী রেট না কমায় তাহলে নিউজ রিলিজের পরই হয়ত বেশ খানিকটা বেড়ে যাবে অসির মান, সেই সাথে সেন্ট্রাল ব্যাংকের বর্তমান ডভিস স্টান্সে থাকা না থাকার উপরও অনেক কিছু নির্ভর করছে। কিন্তু নিউজ রিলিজ হবার আগ পর্যন্ত আশা করা যায় অসি ফল করবে। ফরেক্স দুনিয়ার খুব প্রমিনেন্ট থিওরি "বাই দ্য রুমর" এর বেসিসে বলছি যে, আসন্ন সপ্তাহে অসি ফল করার অনেক বেশি সম্ভাবনা। সপ্তাহান্তে আছে NFP নিউজ, যা হতে পারে আগামী মাস পর্যন্ত ডলারের মূল্য নির্ধারণকারী। কিংবা হতে পারে আগামী কয়েক মাস অব্দি! কারণ ফেড রেট হাইক করবে কি করবে না সেটা অনেকটাই নির্ভর করছে ইমপ্লয়মেন্ট এর উপর। ফেড এর অন্যতম মূল ফোকাস এখন আনইমপ্লয়মেন্ট রেট। এছাড়াও আমার কাছে খুব ইন্টারেসটিং মনে হচ্ছে বর্তমানে সুইস ফ্রাঙ্কএর অবস্থাকে। এই বিষয়ে কিছুটা আলোচনা করবো পরের পোষ্টে। সংক্ষেপে বলি, CHF সেল করার জন্য আমি মার্কেট খোলার অপেক্ষায় আছি!! অলরেডি আমার USD/CHF এ long entry দেওয়া আছে, স্কেল ইন এর অপেক্ষায়। মনে রাখবেন, দিন শেষে মার্কেটে সবাই ছাত্র, শিক্ষক কেউ না। একমাত্র শিক্ষক স্বয়ং মার্কেট নিজে। লস খেলে ভুলটা আপনারই, মার্কেট কিন্তু সবসময় সঠিক!! আশা করি সবাই সঠিকভাবে রিস্ক ম্যানেজমেন্ট করেই ট্রেড করবেন। উপরের লেখা গুলো শুধুমাত্র মার্কেট সম্পর্কে আমার একান্ত নিজস্ব মনোভাব আর মতামত। আমি কাউকে ট্রেড করার সিগন্যাল দেই না। Happy Trading.
  11. বিগত কয়েক মাস ধরে মার্কেটের সবচেয়ে দুর্বল কারেন্সি হল ইউরো, যা ক্রমাগত দুর্বল হচ্ছে প্রায় সবগুলো প্রধান মুদ্রার বিপরীতে। মিলিয়ন ডলার কোশ্চেন হচ্ছে মার্কেট এখন আছে কোথায়, ইউরোর পতন কি শেষের দিকে নাকি কাহিনি এখনো বাকি!! তার উপর বাকি থাকলে আরও কত বাকি! এইটা নিশ্চিত করে বলা গেলে মনে হয় আমরা অনেকেই আগামি কয়েক মাসে বড়লোক হয়ে যেতাম। যাই হোক কাজের কথায় আসি, সামনের মাস থেকে শুরু হচ্ছে ইসিবির QE. কাজেই কোন পজিশনাল ট্রেডার এর এখন ইউরো ধরে রাখার কথা না। উল্টো কথা না বললেও ইউরোর পক্ষে সহজেই কেউ ভবিষ্যৎবানী করছেন না। তাই আমার মতে ইউরোতে বাই দেবার কথা ভাবার সময় এখন না। এখন আসি উল্টো পথে জেতে রাজি কারা কারা!! যারা লং টার্ম পজিশনাল ট্রেডার তাদের ইতোমধ্যে ইউরোর বিপক্ষে পজিশন ওপেন থাকার কথা! COT report দেখলেও তাই বুঝা যায়। আপনি যদি পজিশনাল ট্রেডার হন তাহলে আমি বলব আপনি লাভ করার উচ্চসম্ভাবনা নিয়ে এখন ইউরো সেল করতে পারেন। যদি আরও পরিস্কার করে বলতে বলেন তাইলে আমি বলব সম্ভাবনা >৮০% :D এখন আপনি যদি মিডিয়াম টার্ম ট্রেডার হন সেক্ষেত্রে আপনার হয়ত কিছুদিন অপেক্ষা করা ভাল হবে। অন্তত গ্রিস ইস্যুটা থিতিয়ে যাওয়া অব্দি। এই সপ্তাহের ক্যালেন্ডারটা দেখলেই বুঝবেন কিছু গুরুত্বপূর্ণ নিউজ আছে এই সপ্তাহে। আর যদি ডলার এর বিপরীতে ইউরো সেল করতে চান সোজা কথায় EUR/USD তে sell দিতে চান তাহলে আমি বলব আগামী মাসের NFP পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। “অপেক্ষায় হায় সুযোগটা হারিয়ে যায়” মানে যাদের ট্রেন মিস করার টেনশন আছে, তারা এখন হাফ পজিশন ওপেন করে রাখতে পারেন। পরে সুযোগ পেলে স্কেল ইন করে নিলেন। এখন কথা হল কোন পেয়ার এ ট্রেড করবেন, সাম্প্রতিক সময়ে শক্তিশালী মুদ্রা হল পাউন্ড, ডলার, নিউজিল্যান্ড ডলার। সময় সুযোগ বুঝে এগুলোর বিপরীতে পজিশন নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। সোজা কথায় EUR/USD, EUR/GBP, EUR/NZD sell oppotunity খোঁজা। ফরেক্স মার্কেট নিয়ে এত সরাসরি কথা বলা কিন্তু বোকামির সামিল। কারণ দিন শেষে মার্কেটে সবাই ছাত্র, শিক্ষক কেউ না। একমাত্র শিক্ষক স্বয়ং মার্কেট নিজে। মনে রাখবেন, লস খেলে ভুলটা আপনারই, মার্কেট কিন্তু সবসময় সঠিক!! একটা ছোট্ট উদাহরন, Swiss France এর যেকোনো পেয়ার এর রিসেন্ট চার্ট দেখলে বুঝবেন, মার্কেট কিভাবে বহুবছরের নিয়ম ভেঙ্গে এগিয়ে চলে। মার্কেট নিয়ে ১০০% নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারে না। যদি আজ একজন ব্যাক্তিও সত্যি সত্যি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারে কাল মার্কেট কোথায় যাবে, তাহলে অবশ্য-অবশ্যই মার্কেট কালকে গিয়ে অন্য কোথাও পৌঁছাবে!! টাইম ট্রাভেল করেও মার্কেটে নিশ্চয়তা দেওয়া সম্ভব না!! কাজেই সব কথার শেষ কথা আপনাদের যতই পরামর্শ দেই না কেন, ট্রেড করবেন নিজের রিস্কে। টাকা আপনার, রিস্ক আপনার। লস খেলে আমি ক্ষতিপূরণ দিব না উপরের লেখা গুলো শুধুমাত্র মার্কেট সম্পর্কে আমার একান্ত নিজস্ব মনোভাব আর মতামত।
  12. কানাডিয়ান ডলার এর আরেক নাম লুনি (Loonie) http://www.babypips.com/school/preschool/what-is-forex/currencies-are-traded-in-pairs.html
  13. "FOMC minutes revealed that some policymakers expressed concerns about raising interest rates too early" FOMC এর ব্যপারে প্রেডিকশন মোটামুটি ঠিক ছিল। মার্কেট ইতোমধ্যে ডলারের পক্ষে অধিকাংশ মুভ দিয়ে ফেলেছে, কাজেই মার্কেটকে নতুন করে সারপ্রাইজ করার জন্য ফেডকে অনেক বেশি হকিস হতে হইত। স্বাভাবিকভাবেই FOMC এর পর ডলারের পতন হয়েছে, (E/U up 70 pips, G/U 60 pips, ) তারপরও আমেরিকান অর্থনীতি এখন অনেকটাই পোক্ত, অপরদিকে কানাডা এর সময় ভাল যাচ্ছে না খুব একটা। তাছাড়া তেলের দাম প্রতি ব্যারেলে ৫৩ থেকে নেমে এসেছে ৫০ ডলারে। আর এই তেলের কম দামের কারণেই অনবরত প্রেসারে আছে লুনি। গতকাল FOMC এর পরেও দিনশেষে ডলারের বিপরিতে কমেছে কানাডিয়ান ডলার। তাই আমি মনে করি লুনির মার্কেট সেন্টিমেন্ট বিয়ারিশ। আজ-কাল এবং সামনের সপ্তাহে লুনি সেল করার সুযোগ খুঁজবো। My current position USD/CAD Buy @1.2450 target minimum 1.2600 (should penetrate previous high, and reach close to 1.3) SL 1.2300
  14. আপডেটঃ গ্রীক ইস্যুতে euro strong হচ্ছে বটে, তবে মুভটা অনেকটা হুজুগের উপরই আছে বলে মনে হয়, গ্রীক ইস্যু তে এখনও কোন সমাধান আসেনি বলা যায়। eur/jpy entry লসে পড়ে গেছে। কালকের BOJ press release হয়ত আমাকে কিছুটা রিলিভ দিবে। ওদিকে FOMC meeting এ কি আসবে সে ব্যাপারে কিছুই বলা যাচ্ছে না, ডলারের মূল্য বাড়ায় আমেরিকার বড় বড় কোম্পানিই বিরক্ত। বলা যায় না ফেড হয়ত হকিস মুড কমিয়ে ফেলবে। টেকনিক্যালি E/U market লং টার্ম ওভারবট, মার্কেট কিছু হুজুগ পেলেই বাউন্স দিবে।
  15. নিজের অভিমত প্রকাশ আর আপনাদের গঠনমূলক আলোচনার জন্যই এই টপিক। যে দুটি নিউজ এর কারণে EUR/JPY তে bearish sentiment তৈরি হয়েছে তা হল ১। “Greek Bailout End Without Agreement” ২। জাপানি নীতি নির্ধারকরা তাদের অর্থনীতি নিয়ে সন্তুষ্ট এবং ইকোনোমি মিনিস্টার মনে করেন অর্থনীতির উন্নতি চলমান থাকবে। নিউজ দুইটার সুত্র Bloomberg. এটা খুবই সত্যি কথা যে রাজনিতিকরা নিজেদের সম্পর্কে সবসময়ই আশাবাদী থাকেন, তারপরও জাপানীরা তাদের ইয়েনের বর্তমান মূল্য নিয়ে সন্তুষ্ট এটুকু বুঝা যায়। Further Monetary easing কথা এখনি তাদের ভাবার কথা না, অপরদিকে দ্রাঘির পার্টি সুপার ডভিস অবস্থায়। আগামীকাল BOJ press conference. Hopeful for Yen rally. এই মাসে EUR/JPY এর পতন চলমান থাকবে বলেই আমার বিশ্বাস। পারসোনালি এখনি ট্রেড করার ইচ্ছা এই পেয়ার এ, রুমর এর রেজাল্ট আসলে হয়ত press conference এর আগেই পারসিয়ালি ট্রেড ক্লোজ করব, বাকিটা হয়ত মাসব্যাপী ওপেন থাকবে। EUR/USD এর sentiment বহুদিন থেকেই বিয়ারিস। প্রশ্ন হচ্ছে দুই দেশের দুই সেন্ট্রাল ব্যাংক এর বিপরিত মুখি চলাচলের ফলে EUR/USD এর পতন কি শেষের পথে নাকি এখনও নাটক বাকি আছে!!! যদিও এই পেয়ার এ আমার লং টার্ম এন্ট্রি ওপেন আছে যার tp 1.01. তবুও আমি খুব একটা আশাবাদী হতে পারতেছিনা। অপেক্ষা করছি পরশু ১৯ তারিখের FOMC meeting এর। EUR/USD নতুন করে পতনের জন্য মার্কেটের জ্বালানী প্রয়োজন।

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×