Jump to content

ctghacker

Members
  • Content count

    61
  • Joined

  • Last visited

  • Days Won

    22

ctghacker last won the day on April 17

ctghacker had the most liked content!

Community Reputation

185 Excellent

About ctghacker

  • Rank
    Forex in the blood
  • Birthday December 8

Contact Methods

  • Skype
    ebznes

Profile Information

  • Gender
    Male
  • লোকেশন
    চট্টগ্রাম
  • Interests
    Pinbar

Recent Profile Visitors

5,450 profile views
  1. আলী ভাই, প্রথমে বলি আমি ভুল করবই, করতেই পারি, ভুল যে কেও ধরতে পারবে। আর আপনার প্রশ্নটা আমি ক্লিয়ার না। দ্বিতীয় ছবিটা হল টেক প্রফিট নেয়ার স্টেপ, যে খানে ফিবো লেভেল উল্টাই নেয়া হয়েছে। আর আমার ফিবনাচ্চি নিয়ে আর কোন পোস্ট নাই। তবে আমি বিশ্বাস করি নাসিম ভাইয়ের বইটার বাইরে আর কোন রিসোর্স বাংলাদেশে নাই। আপনি ওনার বইটাকে ফলো করতে পারেন। ধন্যবাদ। নাসিম ভাইয়ের বইয়ের লিঙ্ক
  2. বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে যাচ্ছে...

  3. শুধু শুধু ৩৩ $ লস হল, কালকে এক্সেম এর সার্ভার এর কারণে

  4. Nasim bhai, ami post ti update korbo. But time pacchi na. So give me time and thanks for your important correction. Tobe ami tinta post e etai bujhate chaichi j eto candlestick er name mone na rekhe sudhu pinbar er boishishtho mone rakhlei hobe.
  5. প্রথম অংশ দ্বিতীয় অংশ প্রথম এবং দ্বিতীয় অংশ দেখে আপনার কাছে নিশ্চয় মনে হচ্ছে যে ফরেক্স অনেক সোজা। শুধু বসে বসে পিনবার খুঁজে বের করবো আর মুভিং এভারেজ দিয়ে পিনবার সিগন্যাল শক্তিশালী করে ট্রেড ওপেন করবো। আর পকেটে ডলার ভরবো। আসুন এবার আমরা আমাদের পিনবার গুলোকে আরো শক্তিশালী করি। Navin Prithyani র মতে পারফেক্ট পিনবারের কয়েকটি বৈশিষ্ট্য আছে- অবশ্যই আপ কিংবা ডাউন ট্রেন্ডে গঠিত হতে হবে সহজে বুঝা যায় এমন টেইল/উইক/শেডো থাকতে হবে আগের ক্যান্ডলের আকার থেকে বড় হতে হবে পিনবারের বডি অবশ্যই আগের ক্যান্ডলের হাই এবং লোয়ের মধ্যে অবস্থিত হতে হবে এবার আসুন আমরা চার্টে এর প্রয়োগ দেখি। উপরের চার্টে খেয়াল করে দেখুন হলুদ মার্ক করে প্যাটার্নটি পিনবার। এখন পিনবারের বৈশিষ্ট্যের সাথে চার্টের পিনবার গুলোর বৈশিষ্ট্য মিলিয়ে দেখুন। আমাদের প্রথম বৈশিষ্ট্য হল পিনাবার গঠন হতে হবে যে কোন ধরণের ট্রেন্ডে, আর উপরের চিত্রে হলুদ মার্ক করা সবগুলো পিনাবার একটি আপ ট্রেন্ডে কিংবা ডাউন ট্রেন্ডে গঠিত হয়েছে। এবার পিনবারের টেইলের দিকে নজর দেই, প্রত্যেকটি টেইল খালি চোখেই বুঝা যাচ্ছে যে লং শেডো আছে। প্রত্যেকটি পিনবারের আগের ক্যান্ডলটি আকারেপিনবারের চাইতে আকারে ছোট এবং পিনবারের বডি আগের পিনবারের হাই এবং লোয়ের মধ্যে অবস্থিত। কিন্তু বাম পাশ থেকে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পিনবারটির বডি আগের পিনবারের হাই এবং লোয়ের মধ্যে অবস্থিত নয়। যে পিনবারগুলো চারটি বৈশিষ্ট্য সম্পূর্ণ করেছে সেগুলোতে আমরা নিশ্চিতভাবে ট্রেড ওপেন করতে পারি। আর যে পিনবার গুলো সব কয়টি বৈশিষ্ট্য সম্পূর্ণ করেনি সেগুলোর জন্য আমরা প্রাইস একশন এনালাইসিস করবো। মূলত খেয়াল করে দেখুন প্রত্যেকটি পিনবার শক্তিশালী সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স লেভেলে আছে, যা লং টেইলের শর্ত পূরণ করে। এরপর পিনবারের আগের ক্যান্ডলের আকার ছোট হলে বুঝা যায় যে পিনবারটি যে ট্রেন্ডে আছে তা আস্তে আস্তে দুর্বল হয়ে যাচ্ছে। এরপর পিনবারের বডি আগের ক্যান্ডলের হাই এবং লোয়ের মধ্যে অবস্থিত হলে বুঝায় যে বায়ার এবং সেলার আগের পিরিয়ডের প্রেসারকে অতিক্রম করতে পারে নাই। উপরের চিত্রে মিলিয়ে দেখুন পিনবারের বৈশিষ্ট্যের সাথে শুধু একটি ক্যান্ডলের মিল পাওয়া গেছে। তাই আপনি ঐ ক্যান্ডলটিতে ট্রেড ওপেন করতে পারেন। এরপর খেয়াল করে দেখুন একটি ক্যান্ডল নীল মার্ক করা আছে। এই ক্যান্ডলের গুনাগুণ পিনবারের বৈশিষ্ট্যের সাথে মিলে শুধু একটি ছাড়া। ক্যান্ডলের বডি আগের ক্যান্ডলের হাই এবং লোয়ের মধ্যে নাই। যদিও ব্যাপারটি যাচাই করতে একটু সন্দেহ থেকে যায় আর যদি পিনবার নির্ধারণের ক্ষেত্রে এমন সন্দেহ থাকে তাহলে ঐ ক্যান্ডলে ট্রেড ওপেন করা থেকে বিরত থাকুন। সঠিক পিনবার নির্ধারণের ক্ষেত্রে আপনি যদি সফল হন তবে বিশ্বাস করুণ আর নাই করুণ আপনি শুধু পিনবার দিয়েই ভালো একটি লাভজনক ট্রেডিং মেথড তৈরি করতে পারবেন। আসুন আবার একটি রিভিউ করি উপরের চার্টে দুইটা শর্ত পূরণ হয়েছে এবং আর দুইটা শর্ত পূরণ হয় নাই। পিনবার ট্রেডের ক্ষেত্রে আপনি মার্কেট এন্ট্রি করবেন পিনবার ক্লোজ হওয়ার পর। মনে রাখবের চলমান ক্যান্ডলে কখনই ট্রেড ওপেন করবেন না। ট্রেডের ক্ষেত্রে শৃঙ্খলাই আপনাকে ফরেক্সে সফল করতে পারবে। উপরের চার্টে দেখুন আমি প্রফিট জোন তা কোথায় দিয়েছি। ঠিক আগের যে সাপোর্ট অথবা রেসিসটেন্স লেভেল ছিল ঐখানে। ঐ লেভেলের কিছু পিপ্স উপরে কিংবা নিচে (ডাউন ট্রেন্ডের ক্ষেত্রে) আপনার টেক প্রফিট নির্ধারণ করতে হবে। এখন আর আপনার স্টপ লস হবে পিনবারের টেইলের কিছু পিপ্স উপরে কিংবা নিচে (বুলিশ পিনবারের ক্ষেত্রে)। এখন চার্টে আরেকবার খেয়াল করে দেখুন পিনবারের ক্যান্ডলটি বিয়ারিশ এবং ট্রেন্ডটি বুলিশ অর্থাৎ পিনবারের আগের ক্যান্ডল বুলিশ ক্যান্ডল। এধরণের প্যাটার্নের ক্ষেত্রে আপনি কিছু বাড়তি সুযোগ পাবেন। আসুন দেখি কি বাড়তি সুবিধা। আপনি যখন কোন আপ ট্রেন্ডে পিনবার খুঁজে পাবেন আর পিনবারের ক্যান্ডলটি যদি বিয়ারিশ (লাল/কাল রঙের) হয় তাহলে আপনি একটি শর্ত অগ্রাহ্য করতে পারেন, তবে সে ক্ষেত্রে আরেকটি শর্ত যুক্ত হবে। যে শর্তটি বাদ যাবে তা হল পিনাবারের আগের ক্যান্ডলের আকার পিনবারের চাইতে ছোট হতে হবে তা। আর নতুন যে শর্তটি যুক্ত হবে তা হল পিনবারের আগের ক্যান্ডলের রঙ বুলিশ হতে হবে (সবুজ/ সাদা রঙের)। ডাউন ট্রেন্ডের ক্ষেত্রে ঠিক তার উল্টা শর্ত যুক্ত হবে। অর্থাৎ পিনবারের রঙ সবুজ/সাদা এবং আগের দুইটা ক্যান্ডল লাল/কাল রঙের হতে হবে। তাহলে পিনবারের শর্ত চারটি, তবে পিনবার বুলিশ ক্যান্ডল হলে আর আগের দুইটা ক্যান্ডল বিয়ারিশ হলে কিংবা পিনাবার বিয়ারিশ ক্যান্ডল হলে এবং আগের দুইটা ক্যান্ডল বুলিশ হলে একটি শর্ত বাদ যাবে। তা হল পিনবারের আকার আগের ক্যান্ডলের চাইতে বড় হতে হবে। এবার একটু চিন্তা করে দেখুন আমি একদম শুরুর দিকে বলেছিলাম যে Shooting Star বিয়ারিশ এবং Hammer বুলিশ ক্যান্ডল হলে তা আরো শক্তিশালী রিভার্স ট্রেন্ডের সিগন্যাল প্রদান করে। মার্কেট চার্টে পিনবার হয়ত আপনি সচারচর দেখবেন না। এর জন্য অনেক ধৈর্যের প্রয়োজন। 1H, 4H এবং ডেইলি চার্টে পিনবারের ভালো প্রয়োগ দেখতে পাবেন তবে, 4H এবং ডেইলি চার্টে পিনবার ট্রেডিং বেষ্ট ফলাফল পাবেন। Hanging Man এবং Inverted Hammer এর সাথে পিনবারের তুলনা এতক্ষন আমরা পিনবারের সাথে Shooting Star এবং Hammer এর মধ্যকার যে সম্পর্ক তা নিয়ে আলোচনা করালাম। এবার দেখি Hanging Man এবং Inverted Hammer এর সাথে এর কি সাদৃশ্য এবং বৈসাদৃশ্য রয়েছে। গঠনগত দিক থেকে পিনবারের সাথে এই দুইটি ক্যান্ডল প্যাটার্নের কোন বৈসাদৃশ্য নেই। তবে কার্যক্রমের সাথে আছে। এই দুটি ক্যান্ডল প্যাটার্ন কখন রিভারসাল প্যাটার্ন হিসেবে কাজ করতে পারে তা আমি আগেই আলোচনা করেছি। এখন বলবো তার উল্টা কথা। অর্থাৎ Hanging Man এবং Inverted Hammer পিনবারের মোট দেখতে হলেও এই দুইটা কিন্তু মার্কেট Reversal সিগন্যাল না দিয়ে ট্রেন্ড Continuous সিগন্যাল প্রদান করে। হয়ত আপনার কাছে ব্যাপারটি অদ্ভুত লাগতে পারে, কিন্তু বাস্তবে এমনটি ঘটে। এই আলোচনা শুরু করার পূর্বে আমার বর্ণনাকৃত Hanging Man এবং Inverted Hammer এর বৈশিষ্ট্য গুলো একটু রিভিউ করে আসুন। এতে আপনার বুঝতে সুবিধা হবে। নিচের উদাহরণটি ভালো করে খেয়াল করুণ এখানে মূলত যে ঘটনাটি ঘটে তা হল মার্কেট একটি ট্রেন্ডে থাকে, মার্কেটে বায়ার এবং সেলারের মধ্যে একটি নির্দিষ্ট পিরিয়ডে স্বল্পমেয়াদী যুদ্ধ শুরু হয়। তারপর যুদ্ধে মার্কেট যে ট্রেন্ডে থাকে ঐ ট্রেন্ডের যোদ্ধাদের জয় হয় তখন মার্কেট আবার ট্রেন্ড ধরে চলতে থাকে। মনে হচ্ছে ঐতিহাসিক ঘটনার বর্ণনা দিচ্ছি। উপরের উদাহরণে যে ঘটনাটি ঘটেছে তা হল মার্কেট আপ ট্রেন্ডে ছিল, যে পিরিয়ডে Hanging Man গঠিত হয় ঐ পিরিয়ডে মার্কেট সর্বনিম্ন প্রাইসকে Reject করে উপরের দিকে উঠার প্রবণতা দেখিয়েছে। আর এসময় বায়াররা আরও শক্তি নিয়ে মার্কেটে প্রবেশ করে এবং ফলশ্রুতিতে মার্কেট আপ ট্রেন্ডে চলে যায়। আরও কিছু উদাহরণ দেখলে ব্যাপারটি সম্পর্কে আরও ধারণা আরও পরিষ্কার হবে উপরের চার্টে ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে যা আমি পূর্বের উদাহরণে আলোচনা করেছি। মূলত এখানে আপনি আদর্শ Hanging Man কিংবা সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স এ গঠিত Hanging Man কে এভয়েড করে ট্রেন্ড Continuous ধরে মার্কেট এন্ট্রি করতে পারেন। তবে এই ক্ষেত্রেও পিনবারের চারটি বৈশিষ্ট্য কার্যকর। অর্থাৎ আপনি মার্কেট এন্ট্রি নেয়ার আগে চারটি বৈশিষ্ট্য মিলিয়ে Valid Hanging Man/Pin Bar নির্ধারণ করে মার্কেট এন্ট্রি নিবেন।
  6. আপনাকেও উৎসাহ দেয়ার জন্য ধন্যবাদ!
  7. ফরেক্স মার্কেটের সতর্কতাঃ ক) হায়ার হাই এবং লোয়ার লো খেয়াল করা এবং খ) মার্কেট এখন কে নিয়ন্ত্রণ করছে; বায়ার নাকি সেলার !

    1. ForExFighter

      ForExFighter

      Follow the correct Candle Divergence + correct Stochastic Divergence + 3 combined Time Frame !

  8. পিডিএফ আশা করি দিবো, তবে সম্পূর্ণটা একসাথে দিবো।
  9. রাজীব ভাই...... আমি কিন্তু তানভীর ভাইয়ের নামে মামলা করে দিবো!
  10. আমি জানি অনেকেই ভাববেন ক্যান্ডল এবং প্রাইস একশন নিয়ে অনেক লেখাই তো বিডি পিপ্সে পোস্ট করা আছে। এরপরেও কেন এই পোস্ট? এটার কোন উত্তর নাই, আমার নিজের কিছু লেখা কালেক্ট করা ছিল। তাই প্রাইস একশন নিয়ে সিরিজ লিখা শুরু করলাম।
  11. ২য় অংশের জন্য এই লিঙ্কে ক্লিক করুণ!
  12. ক্যান্ডলসটীক চার্ট প্যাটার্ন জাপানিজ ক্যান্ডলসটীকের গল্প শুরু করতে গেলে আমাদের আঠারো শতকে ফিরে যেতে হবে। আঠারো শতকের শুরুর দিকে যখন মুদ্রার পরিবর্তে ধানকে বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করত, তখন সামান্ততান্ত্রিক রাজারা ওসাকায় চালের বিনিময়কৃত চালের রসিদের অংশ ওয়ারহাউসে জমা করত। ফলশ্রুতিতে শিকাগো বোর্ড অফ ট্রেড (CBOT) গঠন হওয়ার ১৫০ বছর আগে এই বিনিময় প্রথাই আধুনিক গঠনমূলক বিনিময় প্রথায় পরিণত হতে থাকে, যাকে বলা হত “ডজিমা রাইস এক্সচেঞ্জ”। ১৭০০ খ্রিষ্টাব্দের শুরুর দিকে বিখ্যাত জাপানিজ ট্রেডার হমা মুনহিসিয়া (১৭২৪ – ১৮০৩) এই রাইস ট্রেডিং এর Fundamental হতে শুরু করে মার্কেট Psychology সম্পর্কে গবেষণা শুরু করে এবং নিজেকে সম্পূর্ণ রুপে এই রাইস/ধান ট্রেডিং এ আত্মনিয়োগ করে এবং বিশাল এক সৌভাগ্যের সূচনা করে। তিনি ঐ সময়ের রাইস কিং এ পরিণত হন এবং তার ট্রেডিং ক্যারিয়ারে $১০০ বিলিয়ন ডলার এর বেশি প্রফিট অর্জন করেন। অনেক ক্ষেত্রে তিনি বছরে $১০ বিলিয়নের চাইতেও বেশি প্রফিট অর্জন করেছিলেন। হমার এই ট্রেডিং টেকনিক এবং মূলনীতি ‘ই অন্তর্নিহিত আছে ক্যান্ডলসটীক Methodology তে। পরবর্তীতে যখন ১৮৭০ খ্রিষ্টাব্দে জাপানিজ স্টক এক্সচেঞ্জ শুরু হয় তখন এই ক্যান্ডলসটীক টেকনিক জাপানিজ এনালিস্টরা ব্যবহার করতে থাকে। পরবর্তীতে এই মেথড প্রসিদ্ধ মার্কেট টেকনিশিয়ান চার্লস ডো ১৯০০ খ্রিষ্টাব্দের দিকে পশ্চিমা ট্রেডারদের সামনে নিয়ে আসে। আর কিছু দিন আগেই ১৯৯০ খ্রিষ্টাব্দে Steve Nilson তাঁর বহুল আলোচিত Japanese Candlestick Charting Techniques বইয়ের মাধ্যমে এই ক্যান্ডলসটীককে সারা বিশ্বে সকলের কাছে পরিচয় করিয়ে দেন। এই সকল ব্যক্তির মাধ্যমে পরিচয়ের পর ক্যান্ডলসটীক পশ্চিমা বিশ্বে জনপ্রিয় হতে থাকে এবং বর্তমানে তা ফরেক্স মার্কেটে বিশাল আকারে ব্যবহারিত হচ্ছে। প্রারম্ভিক কথা ক্যান্ডলসটীক চার্ট কিংবা ক্যান্ডল চিনে না এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া মুশকিল হয়ে যাবে যারা ফরেক্সের অতি সাধারণ জ্ঞান নিজের মধ্যে রাখে। যদিও আমি যে টপিকস নিয়ে কথা বলছি তা সকলের জানা এবং অনেক পুরানো টপিকস তথাপি কিছু নতুনত্ব আনার ইচ্ছা থেকে এই লেখাটি লিখছি। ফরেক্সের প্রত্যেকটি ট্রেডিং স্ট্রাটেজিতেই ক্যান্ডলসটীক চার্ট প্যাটার্নের কথা উল্লেখ থাকে। অনেক অনেক ট্রেডার বিভিন্ন ইনডিকেটরের পিছনে অন্ধের মত ঘুরতে থাকে। কিন্তু ক্যান্ডলসটীকের সধারন কিছু জ্ঞান থেকেই ভালো ট্রেডিং স্ট্রাটেজি গঠন করা সম্ভব। যাই হোক কথা না বাড়িয়ে মূল লেখায় আসি। শুরুতেই একেবারে নতুনদের জন্য সাধারণ কিছু পরিচিতি। দুই ধরণের ক্যান্ডল পাওয়া যায় চার্টে। একটি হল Bullish এবং আরেকটি হল Bearish. Bullish ক্যান্ডল এর রঙ সাধারণ সবুজ কিংবা সাদা হয়। মূলত এটা যার যার ব্যাক্তিগত ব্যাপার। আপনি আপনার চার্টের টেম্পলেট কিভাবে সাজাবেন এটা একান্তই আপনার ব্যাপার। অপরদিকে Bearish ক্যান্ডল এর রঙ সাধারণত লাল কিংবা কালো হয়। একটি সম্পূর্ণ ক্যান্ডল এ প্রধানত তিনটি অংশ থাকে। আর তিনটি অংশের সমন্বয়ে একটি ক্যান্ডলের বডি গঠিত হয়। Upper Shadow Real Body Lower Shadow একটি সম্পূর্ণ ক্যান্ডলের বডির রেঞ্জের মাধ্যমে আপনি কিছু ঘটনা ধরতে পারবেন। যদি ক্যান্ডলের রেঞ্জ Wide হয় তাহলে বুঝবেন মার্কেটে Volatility বাড়ছে কিংবা বেশি। অপরদিকে রেঞ্জ যদি Narrow হয় তাহলে বুঝবেন যে মার্কেটে Volatility কম কিংবা কমে যাচ্ছে। এতক্ষণে নিশ্চয় ক্যান্ডলের shadow কি জিনিস বুঝে গেছেন। না বুঝলেও সমস্যা নাই, ক্যান্ডলের Real Body র উপরে এবং নিচে যে লম্বা দাগ থাকে তাকেই ক্যান্ডলের Shadow বলে। দুই পাশেই যে Shadow থাকতে হবে এমন কোন নিয়ম নেই। শুধু মাত্র এক পাশেও Shadow থাকতে পারে। অনেক সময় এই Shadow দেখেও আপনি মার্কেটের Movement বুঝতে পারবেন কিংবা ইংগিত পাবেন। ক্যান্ডলের যদি শুধুমাত্র লম্বা Upper Shadow থাকে তাহলে এ থেকে বুঝা যায় যে মার্কেট সর্বোচ্চ প্রাইসকে Reject করে Down Trend এর দিকে যাচ্ছে। অর্থাৎ মার্কেটে বায়ারের প্রেসার কমে যাচ্ছে। অপরদিকে যদি ক্যান্ডলের শুধুমাত্র লম্বা Lower Shadow থাকে তাহলে এ থেকে বুঝা যায় যে মার্কেট সর্বনিম্ন প্রাইসকে Reject করে Up Trend এর দিকে যাচ্ছে। ক্যান্ডলসটীক সম্পর্কে প্রারম্ভিক সাধারণ বর্ণনা আশা করি সকলেই বুঝতে পেরছেন। এবার আসুন আমরা এখন দেখবো ফরেক্স মার্কেটে কয়েকটি সাধারণ কিন্তু খুবি গুরুত্বপূর্ণ ক্যান্ডলসটীক প্যাটার্ন। তবে এখানে একটি কথা বলে রাখা ভালো এই লেখাটি পড়ার আগে আপনাকে কিছু ব্যাপার জানতে হবে। বায়ার এবং সেলার, মার্কেটের মুভমেন্ট বুঝার জন্য ট্রেন্ড এবং সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স এবার আসুন আমরা ফরেক্স চার্টে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ক্যান্ডলসটীক চার্ট প্যাটার্ন দেখি। Doji Doji ক্যান্ডল মূলত মার্কেটে বায়ার এবং সেলারের অমীমাংসিত যুদ্ধকে বুঝানো হয়। আমরা জানি মার্কেটে বায়ারের চাপ বেশি থাকলে বুলিশ ক্যান্ডল গঠিত হয় এবং অপরদিকে সেলারের চাপ বেশি থাকলে বিয়ারিশ ক্যান্ডল গঠিত হয়। কিন্তু Doji এমন একটি প্যাটার্ন যেখানে বায়ার কিংবা সেলারের চাপ কোনটাই থাকে না। অর্থাৎ মার্কেটের Opening Price এবং Closing Price সমান থাকে। অনেকে সময় মার্কেটে Volatility ও কম থাকে যখন Doji ক্যান্ডল গঠিত হয়। তিনটি প্রধান Doji প্যাটার্ন হলঃ Doji Gravestone Doji Dragonfly Doji এই প্যাটার্নটি একটি Reversal Pattern। এই প্যাটার্নটি যদি Up Trend এ গঠিত হয় তাহলে তা Bearish Reversal সিগন্যাল দেয় আর যদি Down Trend এ গঠিত হয় তাহলে তা Bullish Reversal সিগন্যাল প্রদান করে। সাধারণত Reversal সিগন্যাল দেয়ার জন্য Gravestone Doji, Up Trend এ দেখা যায় আর Dragonfly Doji দেখা যায় Down Trend এ। তবে পারতপক্ষে Doji গঠিত হওয়ার পর পরের ক্যান্ডলটি Reversal কনফার্মেশন করে। আসুন কিছু উদাহরণের মাধ্যমে দেখি এই Reversal Pattern, Doji র কাজ কারবার। নিচের চিত্র থেকে খেয়ায়ল করুণ মারকিং করা Doji র পরে একটু গ্যাপ দিয়ে আরেকটি Doji গঠিত হয় এবং পরের ক্যান্ডলটি বিয়ারিশ। তাই এটি একটি Strong Bearish Reversal সিগন্যাল প্রদান করে। নিচের চিত্রে একটি লং টেইল / শেডো সম্বলিত Dragonfly Doji। যা থেকে বুঝা যাচ্ছে যে মার্কেট সর্বনিম্ন প্রাইসকে Reject করে উপরের দিকে উঠতে চাচ্ছে এবং এক পর্যায়ে বায়ারের চাপে মার্কেট Reverse করে Up Trend এ যাওয়া শুরু করে। একইভাবে নিচের চিত্রে দেখুন একটি লং টেইল / শেডো সম্বলিত Gravestone Doji যা সর্বোচ্চ প্রাইস কে Reject করে সেলারের চাপে Down Trend এ যাইতে বাধ্য হয়েছে। প্রকৃত পক্ষে Doji গঠিত হয় Side Way Trend / Movement এর ক্ষেত্রে। কারণ এই প্যাটার্নটি ফরেক্স মার্কেটে একটি Indecision অবস্থা প্রকাশ করে। আপনি খেয়াল করে দেখবেন বেশিরভাগ Side Way Trend এ অনেক ক্ষেত্রে প্রচুর Doji গঠিত হয়। এই প্যাটার্নটিকে Indecision এই জন্যই বলা হয় কারণ বায়ার এবং সেলারের মধ্যকার যুদ্ধে কার জয় নিশ্চিত হয় তা এই প্যাটার্ন দেখে বুঝা যায় না। তবে আপনি লং টেইল / শেডো দেখে মার্কেটের মুভমেন্ট বুঝতে পারবেন এটা ঠিক। আপনি Strong সিগন্যাল পাবেন তখনি যখন তা Support এবং Resistance লেভেলে গঠিত হবে। Shooting Star ফরেক্সে অনেক অনেক ট্রেডিং সিস্টেম আছে এই Shooting Star ক্যান্ডল প্যাটার্ন নিয়ে। Shooting Star হল একটি Bearish Reversal Pattern । Up Trend মার্কেটে এটি গঠিত হয়। লাল কিংবা সবুজ যে কোন রঙের হতে পারে। ছোট বডি থাকে এবং বডির দুই গুন কিংবা তার বেশি Upper Shadow থাকে এই Shooting Star এর। তবে রঙের ক্ষেত্রে যদি লাল রঙের হয় তবে তা Strong Reversal Pattern হিসেবে বিবেচিত হবে সবুজ ক্যান্ডলের চাইতে। নিচের উদাহরণের মাধ্যমে দেখি কি রকম দেখতে এই Shooting Star – মার্কেটের টপে এই প্যাটার্ন গঠিত হয়েছে । টেইল / শেডোর আকার বডির দুই গুনের চাইতে বেশি। আর লং টেইল দ্বারা বুঝা যাচ্ছে যে তা মার্কেটের সর্বোচ্চ প্রাইসকে Reject করে সেলারের চাপে Down Trend এ চলে গিয়েছে। আরেকটি উদাহরণের মাধ্যমে দেখি মূলত Resistance লেভেল এ আপনি যদি এই প্যাটার্ন দেখেন এবং টেইলের পিক যদি Significant হয় তাহলে ক্যান্ডল Close এর পর আপনি সেল এন্ট্রি দিলে আপনার একটি ভালো লাভজনক ট্রেড ওপেন হবে। আরেকটি উদাহরণ দিয়ে ব্যাপারটি পরিষ্কার করে দিচ্ছি। উপরের চিত্রে খেয়াল করুণ মার্কেটের নিকটতম একটি Resistance লেভেল এ Shooting Star ক্যান্ডল প্যাটার্ন গঠিত হয়েছে এবং এর টেইল এর পিক পূর্বের Trend থেকে সর্বোচ্চ হাইতে এবং তা সহজেই বুঝা যাচ্ছে। তাই এইখানে ক্যান্ডল Close হওয়ার সাথে সাথে যদি আপনি সেল এন্ট্রি দেন তাহলে ৯০% নিশ্চিত আপনি লাভজনক ট্রেড ওপেন করেছেন। Hanging Man Hanging Man হল Shooting Star এর ঠিক উল্টা। অর্থাৎ Up Trend এ ছোট বডি এবং বডির দুই গুন কিংবা তার বেশি টেইল / শেডো নিয়ে যে কোন রঙ দ্বারা গঠিত হয় এই Hanging Man, তবে এ ক্ষেত্রে টেইল / শেডোটি হবে Lower । Hanging Man এর বাংলা করলে দাঁড়ায় ঝুলন্ত মানব, ঠিক তেমনি এই প্যাটার্নটি দেখতেও ঝুলন্ত মানবের মত। আর Shooting Star এর মতনই এর রঙ যদি লাল/কাল হলে তা আরো Strong Reversal Pattern প্রকাশ করে। নিচের চিত্র থেকে দেখি কেমন দেখতে ফরেক্সের এই ঝুলন্ত মানবকে। অর্থাৎ মার্কেটের Resistance লেভেলে Lower Shadow সম্বলিত ছোট বডি আকৃতির এই ঝুলন্ত মানব মার্কেটের Down Trend এর ভবিষ্যৎবাণী করে থাকে। আরেকটি উদাহরণ দেখি উপরের চিত্রে দেখুন মার্কেটের টপে এই প্যাটার্নটি গঠিত হয়েছে। এবং আর কনফার্মেশনের জন্য আপনি পরবর্তী ক্যান্ডলের জন্য অপেক্ষা করতে পারেন। যদি পরের ক্যান্ডলটি Hanging Man এর বডির নিচে Close হয় তাহলে আপনি ট্রেড ওপেনের জন্য Strong Confirmation পেয়ে যাবেন। Hammer আমার প্রিয় একটি ক্যান্ডল প্যাটার্ন Hammer । এটি Down Trend মার্কেটে ছোট বডি এবং বডির দুই গুন কিংবা তারও বেশি বড় টেইল / শেডো নিয়ে গঠিত হয় এই Hammer । রঙের ক্ষেত্রেও ধারবাধা কোন নিয়ম নাই, তবে সবুজ/সাদা রঙ হলে পারফেক্ট Bullish Reversal Pattern । এর বাংলা আবিধানিক অর্থ হল হাতুড়ী। মার্কেট যখন Down Trend এ থাকে তখন বায়াররা এই হাতুড়ী দিয়ে পিটিয়ে মার্কেটকে Up Trend এর দিকে নিয়ে যায়। আসুন দেখি বাস্তবে কেমন দেখতে এই হাতুড়ী কিংবা Hammer উপরের চার্টে মোট চারতি ক্যান্ডল প্যাটার্নের উদাহরণ দেয়া হয়েছে। দুইটি Hammer, একটি Hanging Man এবং একটি Rising Three । বাম পাশ থেকে শুরু করছি। মার্কেটের বটমে কিংবা Support লেভেল এ একটি Hammer গঠিত হয়েছে এবং এর টেইলের পিকটি দেখে বুঝা যাচ্ছে যে এটিই সর্বনিম্ন পয়েন্ট। এই Hammer Close এর সাথে মার্কেট Up Trend এ চলে গেছে। তবে আপনি এখানে নিশ্চিত হওয়ার জন্য পরের ক্যান্ডলটির জন্য অপেক্ষা করতে পারেন। যদি পরের ক্যান্ডলটি Hammer এর বডির উপরে Close হয় তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে বাই অর্ডার দিতে পারেন যা আপনার জন্য ৯০% নিশ্চিত একটি লাভজনক ট্রেড। এর পরের প্যাটার্নটি হল Rising Three, এ নিয়ে পরবর্তীতে আলোচনা করব। এর পরের মারকিং করা প্যাটার্নটি হল Hanging Man, যা পূর্বে আলোচনা হয়েছে। তাই পূর্বের আলোচনা থেকে মিলিয়ে নিন। আর যদি দেখেই বুঝতে পারেন তাহলে আমি বুঝব আপনি প্যাটার্ন গুলো ভালো মতই বুঝতে পারছেন। এবার সর্বশেষ প্যাটার্ন হল আবার সেই হাতুড়ী প্যাটার্ন। এখানেও আপনি দেখেন মার্কেটের পূর্ববর্তী Support লেভেল এ Hammer গঠিত হয়েছে এবং এর টেইলটি অনেক Significant, খালি চোখেই তা বুঝা যাচ্ছে। এবং পরবর্তী ক্যান্ডলের Closing, Hammer এর বডির উপরে হয়েছে। তাই এখানে আপনি নিশ্চিন্তে বলে দিতে পারেন যে মার্কেট এখন Reverse করে Up Trend এ যাবে। আসুন আরও উদাহরণ দেখি উপরের চিত্র দেখে নিশ্চয় আপনি এতক্ষণে বুঝে গেছেন কিভাবে মার্কেট Down Trend থেকে Up Trend এ গেছে এবং কিভাবে আবার Up Trend থেকে Reverse করে Down Trend গেছে। আর আমি নিশ্চিত আপনি হয়ত এও বুঝে গেছেন যে Shooting Star এবং Hammer এর গঠন প্রক্রিয়া অনেকাংশে একই। একটি মার্কেটের Up Trend এ গঠিত হয় (Shooting Star) এবং আরেকটি মার্কেটের Down Trend এ গঠিত হয় (Hammer) । কনফিউস মনে হলে আসুন আরেকটি উদাহরণ দেখে Hammer কি জিনিস তা নিশ্চিত হই Inverted Hammer সব কিছুই Hammer এর মতই তবে অমিল হল শুধু টেইল / শেডোতে। Hammer এ Lower Shadow থাকে আর Inverted Hammer এ Upper Shadow থাকে। রঙের ক্ষেত্রেও একি লজিক। লাল কিংবা সবুজ যে কোন রঙের হতে পারে, তবে লাল হলে সিগন্যাল Strong হয়।এবং পরবর্তী ক্যান্ডলের Closing এই Inverted Hammer এর বডির উপরে হলে Reversal এর ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে আরেকটি কথা Formation টা কিন্তু Support লেভেল এ হতে হবে। আসুন উদাহরণ দিলে আরও পরিষ্কার ধারণা পাওয়া যাবে আশা করি বুঝতে পেরেছেন এই প্যাটার্নটি সম্পর্কে। Hammer এবং Inverted Hammer এর ধারণা আরও পরিষ্কার হওয়ার জন্য আরেকটি উদাহরণ দেখতে পারেন তবে এই Hanging Man এবং Inverted Hammer প্যাটার্ন এ Reversal ট্রেড ওপেন না করাই ভালো। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে ট্রেড ওপেন করি না। কারণ একটি আদর্শ Hanging Man এবং Inverted Hammer হওয়ার আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ শর্ত হল এই প্যাটার্ন দুটি আগের ক্যান্ডলের একটু GAP এ গঠিত হতে হবে। বাস্তবে এমন GAP খুঁজে পাওয়া একটু কষ্টকর। আর তাছাড়া এই দুইটি প্যাটার্নের কিছু Laggings আছে যা আমি পরের টপিকসের পর আলোচনা করব। নিচের চিত্রে দেখুন আদর্শ Hanging Man এবং Inverted Hammer দেখতে কেমন হওয়া উচিৎ আমরা অনেকে প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড বলতে পিন বার ট্রেডিং বুঝি। কারন ম্যাক্সিমাম প্রাইস একশন ট্রেডারের ট্রেডিং সিস্টেমে পিন বার সেট আপ থাকেই। আজ আমরা পিন বার ট্রেডিং মেথড সম্পর্কে জানবো। পিন বার মূলত ফরেক্স চার্টের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ক্যান্ডলসটীক প্যাটার্ন। পিন বার ও অন্যন্য ক্যান্ডল প্যাটার্ন পিন বার হল Hammer এবং Shooting Star ক্যান্ডল প্যাটার্ন। অনেক সময় লং টেইল Gravestone Doji এবং Dragonfly Doji ও পিন বার হিসেবে প্রাধান্য পায়। আগের আলচনায় আমি আপনাদের যে কয়টি ক্যান্ডলসটীক চার্ট প্যাটার্ন এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে চেষ্টা করেছি তার মধ্যে Doji ছাড়া বাকি সব ক্যান্ডল Formation কেই পিন বার Formation বলা হয়। তাই আপনাদের আর কষ্ট করে এত এত ক্যান্ডলের নাম মনে রাখা দরকার নাই। শধু মনে রাখতে হবে ছোট আকারের বডি এবং বডির আকারের দুই গুন কিংবা দুই গুণের চাইতে বড় আকারের লম্বা টেইল / শেডো থাকতে হবে। আর ট্রেড ওপেন করার জন্য পিন বার গঠিত হতে হবে Support এবং Resistance লেভেলে। তবে এখানে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে Support লেভেলে পিন বারের Lower Shadow থাকতে হবে এবং অপরদিকে Resistance লেভেলে পিন বারের Upper Shadow থাকতে হবে। এখন আপনাকে যদি বুলিশ পিন বার কিংবা বিয়ারিশ পিন বার আলাদা করে বুঝাতে যাই তাহলে আমার মনে হয় সেটা না করাটাই ভালো। আপনি শুধু উপরের শর্ত গুলো মনে রাখলেই হবে। এবার দেখি কে কিভাবে এই পিন বার ব্যবহহার করে ট্রেড করে। তবে এখানে আমি আপনাকে ৯০% গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি যে শুধু মাত্র এই পিন বার ব্যবহার করে এবং ভালো একটি মানি ম্যানেজমেন্ট দ্বারা ভালো একটি ট্রেডিং পোর্টফলিও দাঁড় করাতে পারবেন। আমার এ ধরণের কথা শুনে চোখ কপালে না তুলে গুগোল মামাকে একটু গুতা মেরে এর সত্যতা যাচাই করে দেখুন। কারণ ফরেক্সে আপনি চোখ বন্ধ করে কাওকে বিশ্বাস করাটা উচিৎ হবে না। তাই নিজে জেনে, নিজে শিখে, বুদ্ধি বিবেচনা খরচ করে সব কিছু যাচাই করে নিজের ট্রেড নিজেই করুণ। পিন বার প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড Nial Fuller এর কথা নিশ্চয় সকলেই জানে। মাত্র ত্রিশ বছর বয়সেই তিনি বিশ্বে একজন সফল ট্রেডার হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। বর্তমানে প্রাইস একশন ট্রেডিং এর কথা উঠলেই একটি নামি সকলের মুখে আসে এবং তা হল এই Nial Fuller । অনেকে প্রাইস একশনের Authority হিসেবে Nial Fuller এর নাম জানে, কারণ তিনি তার ওয়েব সাইটে এই ধরণের বর্ণনাই দিয়েছেন। এরপর আসুন ফিউচার এবং ফরেক্স মার্কেটে প্রাইস একশন ট্রেডিং এর মাস্টার হিসেবে বিখ্যাত Johnathon Fox । তিনিও তার প্রাইস একশন ট্রেডিং এ পিন বারকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকেন। এরপর আসুন আমার প্রিয় একজন এনালিস্টের কথা বলি, যার কথা হয়ত অনেকে জানেন আবার অনেকে জানেন না। তিনি হলেন Navin Prithiyani, FX Street এর এনালিস্ট। তিনি এই পিন বারের নাম দেন Exhaustion Candle যার মানে তার বাংলা অর্থেই নিহিত রয়েছে। এরপর আসুন Nick B’র কথা। তার প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথডের অধিকাংশ অংশই জুড়ে আছে এই পিন বারকে নিয়ে। প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড অনেক অনেক পুরানো মেথড। কারণ শুরুর দিকে কোন ইনডিকেটর ছিল না। আর আমি এতক্ষন যে সকল ট্রেডারদের কথা বলেছি তারা সকলেই আধুনিক ট্রেডার। এবং প্রাইস একশন জগতে তারা নিজ নিজ স্বকীয়তায় সকল ফরেক্স ট্রেডারদের কাছে হিরো হয়ে আছে। আর নতুন এবং পুরাতন বেশীরভাগ ট্রেডারদের কাছে প্রাইস একশন একটি লোভনীয় বিষয় হয়ে আছে এর সহজ সরল বোধগম্যতা এবং সফলতার জন্য। অনেক কথা বলে ফেলেছি এবার মূল কথায় আসি। প্রাইস একশন হল মার্কেটে প্রাইসের উঠা নামা দেখে চার্ট এনালাইসিস করা। এ ক্ষেত্রে কোন ইনডিকেটর ব্যাবহার করা হয় না। অর্থাৎ খালি চোখে শুধুমাত্র ক্যান্ডলসটীক এনালাইসিস করে মার্কেটের দাম কোথায় আছে তা বুঝে বায়ার এবং সেলারের প্রেসার নির্ণয় করে মার্কেটের ভবিষ্যৎ নির্ণয় করাই হল প্রাইস একশন। আর এই ভবিষ্যৎ বিবেচনা করে ট্রেড ওপেন করে লাভ লস করাই হল প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড। এ ক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো যে অনেকে আবার Trend এবং Dynamic Support এবং Resistance নির্ণয় করার জন্য শুধুমাত্র মুভিং এভারেজ ব্যবহার করে থাকে। এখন শুধু প্রাইসে একশন ট্রেডিং মেথডের পিন বার সেট আপ এবং এন্ট্রি নিয়ে আলোচনা করব। আপনাকে অবশ্যই কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে পরিষ্কার এবং প্রফেশনাল জ্ঞান থাকতে হবে- সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্সমার্কেট ট্রেন্ডক্যান্ডলসটীক প্রাইস একশন পিন বার গঠন এবং বৈশিষ্ট্য পিন বারের লং আপার কিংবা লোয়ার টেইল থাকতে হবে যাকে ফরেক্সের ভাষায় “Wick” অথবা “Shadow” বলা হয়। আর আপনি Support এবং Resistance এ গঠিত পিন বারকেই গুরুত্ব দিবেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় পিন বারের টেইল কোন লেভেলকে Reject করে আসে। সে ক্ষেত্রেও আপনি ট্রেড সেট আপ করতে পারবেন। পিন বারের বডি কিংবা রিয়েল বডি যাই বলেন না কেন তার রঙ যে কোন রঙের হতে পারে। পিন বারের Close হবে Open এর খুব কাছে কিংবা Open যেখানে হবে Close ও সেখানে হবে। যত বেশী নিকতে ক্যান্ডল Close হবে ততো ভালো পিন বার গঠিত হবে। পিন বারের টেইল বডির তুলনায় তিন গুন হতে হবে এবং যত লম্বা হবে ততই ভালো পিন বার গঠিত হবে। টেইল, বডি এবং বডির অপর পাশের অংশকে “Nose” বলা হয়। বুলিশ পিন বারঃ ডাউন ট্রেন্ড এর তলদেশে সাপোর্ট লেভেলে লং লোয়ার শেডো সম্বলিত বুলিশ পিন বার গঠিত হয়। বিয়ারিশ পিন বারঃ আপ ট্রেন্ড এর চুড়ায় রেসিসটেন্স লেভেলে লং আপার শেডো সম্বলিত বিয়ারিশ পিন বার গঠিত হয়। ট্রেডিংএ পিন বার এন্ট্রি সেটআপ প্রাইস একশন ট্রেড সেটআপের আগে আপনাকে কিছু ব্যাপার সম্পর্কে জানতে হবে মার্কেট এন্ট্রি অর্ডার এখানে আপনি চলতি প্রাইসে পিনবার গঠনের পর মার্কেট অর্ডার প্রদান করবেন। অর্থাৎ মার্কেট আপ ট্রেন্ড এ ছিল , রেসিসটেন্স লেভেলে পিন বার গঠন হয়েছে, আপনি নেক্সট ক্যান্ডলের শুরুতে সেল এন্ট্রি দিলেন। অর্থাৎ আপনি প্রাইস একশন বুঝে সাথে সাথে যে অর্ডার দিয়ে মার্কেট এন্ট্রি করেন তাকে মার্কেট অর্ডার বলা হয়। লিমিট এন্ট্রি অর্ডার লিমিট অর্ডার হল আপনি চলতি মার্কেটের উপরে সেল অর্ডার এবং চলতি মার্কেটের নিচে বাই অর্ডার দেয়া। শুরুতেই এ ব্যাপারটি বুঝতে একটু অসুবিধা হবে। উদাহরণ সহ ব্যাপারটি দেখলে সহজবোধ্য হবে। মনে করি EUR/USD এখন ১.৩৪০০ তে আপ ট্রেন্ড আছে। এখন আমি চাচ্ছি ১.৩৪৫০ তে একটি আগাম সেল অর্ডার দিব। সেক্ষেত্রে আমি টার্মিনালে গিয়ে সেল লিমিট অর্ডার ১.৩৪৫০ তে দিব। মার্কেট যখন উঠতে উঠতে ১.৩৪৫০ টাচ করবে তখনি আমার সেল অর্ডার একটিভ হয়ে যাবে। আশা করি বুঝতে আর অসুবিধা হবে না। স্টপ এন্ট্রি অর্ডার স্টপ অর্ডার হল লিমিট অর্ডারের বিপরীত প্রণালি। এক্ষেত্রে আপনি চলতি মার্কেটের উপরে বাই অর্ডার দিবেন এবং চলতি মার্কেটের নিচে সেল অর্ডার দিবেন। যেমন EUR/USD যদি ১.৩৪০০ তে আপ ট্রেন্ড এ থাকে এবং আমি চাচ্ছি যে ১.৩৪৫০ তে একটি বাই অর্ডার দিব। তখন আমি আমার টার্মিনালে স্টপ অর্ডার এ গিয়ে ১.৩৪৫০ তে একটি বাই স্টপ অর্ডার সেট করব। মার্কেট যখন উঠতে উঠতে ১.৩৪৫০ টাচ করবে ঠিক তখনি আমার বাই অর্ডার একটিভ হয়ে যাবে। এখন পিনবার ট্রেডিং এর ক্ষেত্রে তিন ধরণের অর্ডারি কার্যকর। মার্কেট এন্ট্রির ক্ষেত্রে যখন সাপোর্ট অথবা রেসিসটেন্স লেভেলে পিনবার গঠিত হবে তখন পিনবার ক্লোজ হওয়ার সাথে সাথেই মার্কেট অর্ডার দিতে হবে। আর লিমিট এন্ট্রির ক্ষেত্রে পিনবারের টেইলের ৫০% রিট্রেস এ বাই অথবা সেল এন্ট্রি দিতে হবে। আর স্টপ এন্ট্রি শেষের দিকে আলোচনা করবো। আসুন উদাহরণের মাধ্যমে দেখি পিনবারের তিন ধরণের অর্ডার কিভাবে দিতে হয়। পিনবারের লিমিট এন্ট্রি নিয়ে অনেকে হয়ত দ্বিধায় ঘুরছেন। সহজেই তো আমি মার্কেট এন্ট্রি দিতে পারি আবার এই লিমিট এন্ট্রির ভেজাল কিসের জন্য। ফরেক্সে আপনি এসেছনে লাভ করার জন্য, তাই লভ্যাংশ বৃদ্ধির সকল সুযোগই আপনার কাজে লাগানো উচতি। আসুন উদাহরণের মাধ্যমে ব্যাপারটি বুঝি। উপরের চিত্রে দেখুন একটি কি রেসিসটেন্স লেভেল পিনবার গঠিত হয়েছে, কিন্তু টেইলটি দেখুন তা রেসিসটেন্স লেভেল ব্রেক করতে চেয়েছিল কিন্তু পারে নি। যার ফলে এটি একটি False Break ও। তাই পরের ক্যান্ডলটি ঐ রেসিসটেন্স লেভেল টাচ করার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আর তাই পিনবারে অর্ধেকে অর্থাৎ ৫০% রিট্রেস এ লিমিত সেল এন্ট্রি দেয়া হয়েছে। যাতে করে আপনি কম দামে কিনে বেশি দামে বিক্রি করতে পারেন। অনেক সময় মার্কেটে অনেক গুলো ফ্যাক্টর একত্রিত করে আপনি পিনবার সেটআপ শক্তিশালী করতে পারেন। নিচের চিত্রটি খেয়াল করে দেখুন এখানে ডাউন ট্রেন্ড এ একটি পিনবার গঠিত হয়, যা ৮/২১ EMA দ্বারা অংকিত ডাইনামিক রেসিসটেন্স এবং Horizontal Line দ্বারা অংকিত রেসিসটেন্স লেভেলকে ফেক ব্রেকআউট করে। এ ধরণের চলমান ট্রেন্ডে কিংবা লেভেলে ফেক ব্রেকআউট দিয়ে পিনবার গঠিত হলে সেটি একটি শক্তিশালী পিনবার সিগন্যাল প্রকাশ করে। সব কয়টি উদাহরণ ৪ ঘণ্টা এবং ডেইলি চার্ট থেকে নেয়া। আপনি পিনবার ট্রেডিং এক ঘণ্টা, চার ঘণ্টা এবং ডেইলি চার্টে করলে ভালো ফলাফল পাবেন, তবে চার ঘণ্টা এবং ডেইলি চার্টে সবচাইতে ভালো ফলাফল পাবেন। এতক্ষন আমি Nial Fuller এর পিনবার ট্রেডিং মেথড আলোচনা করেছি। এবার আমি আরও কিছু পিনবার ট্রেডিং মেথড আলোচনা করব যা আপনাকে পিনবারের প্রতি আরো বেশি আস্থাশীল করবে। আর আপনি যাচাই করে দেখতে পারেন যে যারা পিনবার ট্রেডিং করে তাদের বেশীরভাগই এই মেথডে ট্রেড করে। আসলে যখন কোন আপ ট্রেন্ড কিংবা ডাউন ট্রেন্ডের চূড়ায় কিংবা তলদেশে লং টেইল সম্বলিত বিয়ারিশ কিংবা বুলিশ পিনবার গঠিত তখন এর কিছু ব্যাখ্যা পাওয়া যায়। ধরুন আপ ট্রেন্ডে একটি লং টেইল যুক্ত পিনবার দেখা গেছে এবং এই পিনবারটি রেসিসটেন্স লেভেলে গঠিত হল। এখন আপনি প্রথমেই যে ব্যাপারটি চিন্তা করবেন যে আপ ট্রেন্ড রেসিসটেন্স লেভেল থেকে রিভার্স করবে। আসলেই লজিকাল ধারণা। এর পর আসুন পিনবারের লং টেইল মার্কেট সম্পর্কে একটি পরিষ্কার ধারণা দেয় যে প্রাইস সর্বোচ্চ প্রাইসকে Reject করে সেলারের Pressure এ ডাউন ট্রেন্ডের দিকে ধাবিত হচ্ছে। আর এর মধ্যে যদি পিনবারের লং টেইল রেসিসটেন্স লেভেলকে Reject করে ফিরে এসে False Break করে তাহলে নিশ্চিত হওয়া যায় যে- না, মার্কেট এখন রিভার্স করবে। বায়াররা মার্কেট থেকে প্রফিট তুলা শুরু করেছে এবং যে সকল সেলার রেসিসটেন্স লেভেল সেল দেয়ার জন্য বসে ছিল তারা সেল এন্ট্রির মাধ্যমে মার্কেটে এন্ট্রি করেছে। ফলাফল মার্কেট রিভার্স করে ডাউন ট্রেন্ড ফলো করা শুরু করে। *** ৩য় অংশে থাকবে এডভান্স পিনবার মেথড।
  13. প্রাইস একশন কি প্রাইস একশন ট্রেডিং হল এমন একটি দক্ষতা যার মাধ্যমে কোন ইনডিকেটর ছাড়া, যে কোন মার্কেটে, যে কোন টাইম ফ্রেমে চার্টে প্রাইস পড়তে পারে এবং ট্রেড ওপেন করতে পারে। বেসিক অর্থে একটি নির্দিষ্ট পেয়ারে বিশেষ টাইম ফ্রেমে ট্রেডাররা চার্ট দেখে মার্কেটের যে ছবি আঁকে তাই হল প্রাইস একশন। উদাহরণ স্বরূপ একটি ক্যান্ডল দেখে আপনি বুঝতে পারবেন যে কিভাবে মার্কেট উপরে উঠে, কিভাবে মার্কেট নিচে নামে, প্রাইস কততে ওপেন হয়েছে এবং প্রাইস কততে ক্লোজ হয়েছে। বেশীরভাগ চার্ট প্লাটফর্মেই ক্যান্ডল চার্ট প্যাটার্ন দেখা যায় এক মিনিট থেকে এক মাস পর্যন্ত টাইম ফ্রেমে। আরেকভাবে বললে বলা যায় প্রাইস একশন হল শুধুমাত্র মার্কেট চার্ট দেখে মানুষ কি করছে এবং কিভাবে ট্রেড করছে। প্রাইস একশন হল একটি সাধারণ ট্রেডিং মেথড যা প্রফেশনাল ট্রেডাররা ব্যবহার করে থাকে। এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকে প্রাইসের স্বভাবগত তথ্য যা দেখা যায় পরিষ্কার মার্কেট চার্টে। অনেক সময় মার্কেট চার্ট দেখে বুঝার উপায় থাকে না যে প্রাইস কি আপ ট্রেন্ডে আছে নাকি ডাউন ট্রেন্ডে আছে। তখন আমরা টাইম ফ্রেম বড় করে দেখি। যেমন ডেইলি চার্টে আপনি দেখলেন যে মার্কেট সাইড ওয়েতে আছে, যা খুবি বিভ্রান্তিকর মার্কেট বুঝার জন্য। তখন আপনি উইক্লি চার্ট দেখে খুব সহজেই বুঝতে পারবেন মার্কেটের ট্রেন্ড কোন পর্যায়ে আছে। মূলত এই ক্ষেত্রেই ইনডিকেটর আমাদের সাহায্য করে। আবার ইনডিকেটর আপনাকে মার্কেটের অতীত সম্পর্কে ধারণা প্রদান করে এবং আমরা ইনডিকেটর ব্যবহার করে যে সকল ট্রেড ওপেন করি কিংবা মার্কেট সম্পর্কে ভবিষ্যৎবাণী করি তা মার্কেটের ইতিহাস থেকেই করে থাকি। কিন্তু আপনাকে মার্কেটের বর্তমান অবস্থা বুঝার জন্য প্রাইস একশনের সাহায্যই নিতে হবে। ইনডিকেটর যুক্ত ট্রেডিং মেথডে যেমন কিছু সুবিধা আছে তেমনি অনেক অসুবিধাও আছে। আমি আগেই বলেছি ইনডিকেটর আপনাকে মার্কেটের অতীত সম্পর্কে বলবে। আর সবচাইতে বড় সমস্যা হল আপনার ট্রেডিং মেথডে যদি ইনডিকেটর যুক্ত থাকে তাহলে ট্রেড করার সময় আপনি মার্কেটের প্রাইস দেখে ট্রেড করতে পারবেন না। আপনাকে সবসময় ইনডিকেটরের সিগন্যালের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। আর যদি দুই থেকে তিনটা কিংবা তারও বেশি ইনডিকেটর ব্যবহার করবেন তাহলে তো আরও বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতির স্বীকার হতে হবে। তাই বলে ভাববেন না যে আমি ইনডিকেটরের বিরুদ্ধে কথা বলছি। আপনি হয়ত বলতে পারেন যে আমার দরকার প্রফিট, আর সেটা যে করেই হোক আমার সিস্টেমে ইনডিকেটর থাক কিংবা নাই থাক। টাকা আসলেই হল। ইনডিকেটর ব্যবহার করে ফল না পাওয়া গেলে এতদিনে কেউ নিশ্চয় আবিষ্কার করে বিখ্যাত হয়ে যেত যে সকল ইনডিকেটর মূলত ভুয়া, যার কোন বাস্তব রূপরেখা নেই। আসলে একেক ইনডিকেটরের ব্যবহার এবং এপ্লিকেশন একেক ধরণের। শুধু এসব ব্যবহারে কিছু সুবিধা আছে এবং কিছু অসুবিধা আছে। আপনি একটু খেয়াল করে দেখবেন সকল ইনডিকেটরেই ভুল সিগন্যাল দেয়ার প্রবনতা থাকে এবং এই ভুল সিগন্যাল ধরার জন্য আপনাকে আরো একটি কিংবা কয়েকটি ইনডিকেটরের সাহায্য নিতে হয়। ফলে আপনার চার্ট ভরে উঠে ফ্রি এপ্লিকেশনের বিভিন্য এডের মত। মনে হবে আপনি চার্টে ট্রেন্ড দেখছেন না, বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখছেন। নিচের চার্ট দেখে বলুন কোনটি দেখে মার্কেট এনালাইসিস করা বেশি সহজ এবার চার্টে কোন ধরণের ইনডিকেটর ব্যবহার করা ছাড়াই কেমন লাগে দেখুন আশাকরি আর বিস্তারিত বলতে হবে না আমি আসলে কি বুঝাতে চাইছি। প্রাইস একশন এনালাইসিস কি প্রাইস একশন এনালিসিস হল মার্কেট চলা অবস্থায় মার্কেটের গতিবিধি বিশ্লেষণ। মার্কেটের প্রাইস একশন ধরতে গেলে আমাদের মার্কেট প্রাইসের ভাব বুঝতে হবে। প্রাইস একশন প্যাটার্ন কিংবা প্রাইস একশন সেটআপের মাধ্যমে আমাদের মার্কেটের পরিবর্তন কিংবা একইদিকে চলার মুভমেন্ট বুঝতে হবে। প্রাইস একশন এনালাইসিস হল দামের প্রাকৃতিক কিংবা “মূল” পরিবর্তন বিশ্লেষণ করা এবং সেই অনুপাতে ট্রেড করা। অর্থাৎ আপনাকে আপনার ট্রেডিং এর সকল সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে একটি খালি চার্টে খাঁটি প্রাইস বার দেখে, যেখানে কোন ইনডিকেটর থাকবে না। সকল অর্থনৈতিক চলক সমূহ প্রাইসের মুভমেন্ট সৃষ্টি করে যা আমরা মার্কেট প্রাইস চার্টে দেখতে পাই। একজন মানব ট্রেডার কিংবা একজন রোবট ট্রেডার এর মাধ্যমে অর্থনৈতিক চলক সমূহ ফিল্টার করা হয়েছে কিনা, এই চলক সমূহ দ্বারা সৃষ্ট মার্কেট মুভমেন্ট খুব সহজেই বুঝতে পারা যায়। অর্থনৈতিক প্রত্যেকটি চলক সমূহ যার পরিমাণ হাজার হাজার সেগুলো এনলাইসিস না করে (যদিও তা সম্ভব না) আপনি প্রাইস একশন এনালাইসিস শিখে ট্রেড করতে পারেন কারণ এই মেথডে আপনি খুব সহজেই মার্কেট এনালাইসিস করতে পারবেন। কারণ প্রাইস একশন সৃষ্টি হয় অর্থনৈতিক চলকসমূহের পরিবর্তনের মাধ্যমে। কিভাবে আপনি প্রাইস একশন এনালাইসিস ফরেক্স মার্কেটে ব্যবহার করবেন ফরেক্স কি, কিভাবে লাভ লোকসানের হিসাব করতে হয় এবং কিভাবে লাভ কিংবা লোকসান হয় এবং এই মার্কেটে রিস্কের পরিমাণ কতটুকু এবং কিভাবে রিস্ক রিওয়ার্ড রেশিও হিসাব করে এই মার্কেটে বিনিয়োগ করতে হয় আমি আশা করব আপনি তা ভালো করেই জানেন। কারণ আপনি আমার প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড নিয়ে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেছেন তাই আমি ভেবে নিচ্ছি আপনি ফরেক্সে বেসিক লেভেল পার করে এডভান্সড লেভেলে পা দিয়েছেন। প্রাইস একশন এনালাইসিস ব্যবহার করে ফরেক্স মার্কেট থেকে আপনি আপনার চাওয়া পাওয়া পূরণ করতে পারবেন। আপনি যে কোন ট্রেডিং মেথড ব্যবহার করেন তিনটি কারণ কিংবা লেভেল নির্ধারণের জন্য। এক- এন্ট্রি, দুই- রিস্ক, তিন- রিওয়ার্ড। আর প্রাইস একশন এনালাইসিস ব্যবহার করে আপনি এই তিনটি লেভেল অত্যন্ত সফলতার সাথে নির্ধারণ করতে পারবেন। কখন মার্কেট এন্ট্রি করবেন, টেক প্রফিট কততে থাকবে এবং স্টপ লস কততে নির্ধারিত হবে সকল কিছুই আপনি প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথডে জানতে এবং শিখতে পারবেন। তবে এ ক্ষেত্রে আপনাকে মার্কেট সম্পর্কিত আপনার মনস্তাত্ত্বিক কিংবা মানসিক দুর্বলতাকে জয় করতে হবে এবং যে কোন ধরণের আশা থেকে ট্রেড করা থেকে বিরত থাকতে হবে। প্রাইস একশন এনালাইসিস ব্যবহার করে আপনি আপনার ট্রিগার পয়েন্ট নির্ধারণ করতে পারবেন, কখন মার্কেট এন্ট্রি নিবেন ঐ লেভেলটি আবিষ্কার করতে পারবেন। *** সূচনাটা যদি যথাযথ না হয় তবে ক্ষমা করবেন, আমার উদ্দেশ্য ছিল প্রাইস একশন ট্রেডিং মেথড ক্রমান্বয়ে আলোচনা করা। তাই অনেক বড় পোস্ট হওয়ার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সূচনাটি আলাদা করে দেয়া। তবে ২য় অংশটিও আজকেই পোস্ট করে দিলাম। পরবর্তী অংশগুলি সহজে বুঝার জন্য সহায়তাকারী পোস্টগুলো হলঃ > সাপোর্ট এবং রেসিসটেন্স > ট্রেন্ড লাইন

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×