Jump to content

Leaderboard


Popular Content

Showing most liked content since রবিবার 15 সেপ্টে 2019 in all areas

  1. 1 point
    আমি জিহান, বয়স ২৭, একটা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে এন্ট্রি লেভেলে জব করছি। বিগত ২ বছর যাবত Instagram Marketing এ ফ্রিলেন্সিং করছি। কিন্তু এই সেক্টরে ভবিষ্যৎ kharap dekhe বিগত ৩/৪ মাস ধরে Instagram Marketing থেকে সরে আসতে হয়েছে। এর ই মাঝে YouTube, Babypips থেকে Forex বেসিক Ta জেনেছি। কিন্তু কিছু সমস্যার কারণে মাঠে নামতে ভয় পাচ্ছি। যেমনঃ ১। পরিবারের আর্থিক অসচ্ছলতা, পারবারিক দায়িত্ব er কারণে risk নিতে ভয় পাচ্ছি। ২। চাকরি এর পরাশুনা করছি। তাই forex স্টাডি মেটেরিয়ালে মনোযোগ কম দেয়া হচ্ছে । ট্রেডিং এর প্রতি অনেক আগ্রহ এবং আজীবন ট্রেডিং করে সফল ট্রেডার হতে চাই। তাই একজন মেন্টর/ ট্রেইনার er খোজ করছিলাম। যার কাছে শিখতে পারবো, গাইডেড হবো এবং আজীবন এক সাথে ট্রেডিং করে যাব। এর জন্য সম্মানী দিতে প্রস্তুত ami. আগেই বলে নেই. আমি একজন সৎ এবং বিশ্বাসী মানুষ এবং ভাল শ্রোতা।
  2. 1 point
    আমরা প্রত্যেকেই তো কোন না কোন ফরেক্স ব্রোকারের সাথে ট্রেড করি। এই ব্রোকারগুলোর আবার সম্পর্ক আছে বিভিন্ন ব্যাংকের সাথে। বিশ্বের বড় বড় সব ব্যাংকগুলো তাদের গ্রাহকদের সরাসরিই ফরেক্স মার্কেটে ট্রেড করার সুযোগ দেয়। তবে হ্যাঁ, চাইলেই আমি বা আপনি এই সুবিধা নিতে পারবো না। এর জন্য থাকতে হবে ডিপোজিট করার মত অনেক অনেক অর্থ। যেমন, আন্তর্জাতিক ব্যাংক Citi ব্যাংকের সাথে (বাংলাদেশের সিটি City Bank না) কারেন্সি ট্রেড করতে চাইলে, অ্যাকাউন্ট এ থাকতে হবে নুন্যতম দেড় লক্ষ পাউন্ড বা প্রায় ২ লক্ষ ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় দেড় কোটি টাকারও বেশি। মাথায় হাত দিলেন? অবাক হওয়ার কিছু নেই। ফরেক্স মার্কেট তো আগে শুধু এলিটদের জন্যেই ছিল, একথা ভুলে গেলে কি চলবে? আরও মজার তথ্য হচ্ছে, প্রধান দশটি ব্যাংকের মাধ্যমেই ফরেক্স মার্কেটের প্রায় ৭৫% কারেন্সি এক্সচেঞ্জ হয়। এ ব্যাংকগুলো নিজেরাও গ্রাহকদের পাশাপাশি কারেন্সি ট্রেড করে থাকে এবং কোন কারেন্সি কিনলে মাঝে মাঝে এত বিশাল পরিমানে কিনে যে ওই কারেন্সি নিজেই এর ফলে শক্তিশালী বা দুর্বল হয়ে যায়। আর একারনেই আন্তর্জাতিক ফরেক্স মিডিয়ায় প্রতি ২০ টা নিউজ পড়লে অন্তত একটি রিপোর্ট পাবেন কোন না কোন ব্যাংক নিয়ে। যেমন, কোন ব্যাংক কোন কারেন্সি বাই/সেল করল, কোন ব্যাংকের অ্যানালাইসিস কি ইত্যাদি। ব্যাংকের নাম শুনলেই আপনার জানা উচিত, কোন ব্যাংক কত বড় আর ওই ব্যাংকের মার্কেটে প্রভাবই বা কেমন। তাহলে, কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেওয়া যাক, ফরেক্স মার্কেটের শীর্ষ প্রভাবশালী ব্যাংক কোনগুলো। ইউরোমানি গত বছর যে ফরেক্স সার্ভে করেছে, সে অনুসারে ফরেক্স মার্কেটের শীর্ষ ১৫ টি ব্যাংক ও তাদের মার্কেট শেয়ার হলঃ HSBC আর Standard Chartered তো আমাদের আগে থেকেই পরিচিত, মতিঝিলে যে Citi ব্যাংকের একটা অফিস আছে, তা অনেকেরই অজানা। আমি নিজেও প্রথমে Citi Bank কে আমাদের দেশের City Bank ভেবে ভুল করেছিলাম। যাই হোক, চলুন এই ব্যাংকগুলো সম্পর্কে খুব অল্প করে কিন্তু প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য জেনে নেইঃ ১। Citibank এই মুহূর্তে ফরেক্স মার্কেটে এই ব্যাংকের মার্কেট শেয়ারই সবচেয়ে বেশি, ১৬.১১%। নামে Citibank হলেও যুক্তরাষ্ট্রের এই ব্যাংকটিকে আদর করে Citi বলে ডাকা হয়। ব্যাংকটির স্লোগানও বেশ মজার, "Citi never sleeps". ২০৪ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত এবং বর্তমানে Citi Group এর মালিকানাধীন এই ব্যাংকটির হেড কোয়ার্টার যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। ২। Deutsche Bank AG জার্মানরা ইঞ্জিনিয়ারিং এ ভালো, দামী দামী গাড়ি, মেশিন ইত্যাদি বানায়। তার বাইরেও যে কত বিখ্যাত জার্মান কোম্পানি আছে, তা অনেকেই জানে না। যেমন, জানে না যে, ফরেক্স মার্কেটের দ্বিতীয় প্রধান ব্যাংকটিও জার্মানদের। জার্মানরা সবকিছুতেই জার্মান ভাষা ব্যবহার করতে ভালোবাসে। তাই, ব্যাংকের নামও রেখেছে জার্মানে। তা নাহলে, ইংলিশে যদি "German Bank" বলা হত, তাহলে কি আর কারও বুঝতে সমস্যা হত? যাইহোক, গত বছর ৩৩ বিলিয়ন ইউরো রেভিনিউ করা ব্যাংকটির সদরদপ্তর জার্মানিরই ফ্রাংকফুর্টে। ফরেক্স মার্কেটের ১৪.৫৪% শেয়ার নিয়ে Citi র ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে ব্যাংকটি। ৩। Barclays Brexit এর ফলে ইউকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ায় অনেক ব্যাংকই লন্ডন থেকে অধিকাংশ কার্যক্রম কমিয়ে এনে জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে বা ফ্রান্সের প্যারিসে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে। কিন্তু, এরকম কিছু করার সুযোগ নেই Barclays এর। কারন, ব্যাংকটি স্বয়ং ইউকেরই আর এর সদরদপ্তর অবস্থিত লন্ডনে। ফরেক্স মার্কেটে শেয়ার ৮% হলেও নামের দিক দিয়ে ৩২৫ বছরের পুরনো এই ব্যাংকটি অনেক বিখ্যাত। ৪। JPMorgan আমেরিকান ব্যাংক, সদরদপ্তর নিউইয়র্কে। কুখ্যাত জে.পি.মরগ্যানকে নিয়ে বিডিপিপসে একদিন লেখার প্লান আছে। গত বছর ব্যাংকটির মোট সম্পদের পরিমান ছিল ২.৩৫ ট্রিলিয়ন আর আয় ছিল ২৪.৪৪ বিলিয়ন। ৫। UBS সুইস বৈশ্বিক আর্থিক সংস্থা, সদরদপ্তর যৌথভাবে সুইজারল্যান্ডের জুরিখ ও বাসেলে অবস্থিত। ফরেক্স মার্কেটে প্রতিস্থানটির শেয়ার ৭.৩০% ৬। Bank of America Merrill Lynch নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে এটি আমেরিকান ব্যাংক। কিন্তু, নামের শেষে Merrill Lynch কেন? আসলে Bank of America ২০০৯ সালে Merrill Lynch & Co কে কিনে নেয় আর ব্যাংকটির কর্পোরেট ও ইনভেস্টমেন্ট সেকশনের নামকরন করে "Bank of America Merrill Lynch". ফরেক্স মার্কেটে ব্যাংকটির শেয়ার বর্তমানে ৬.২২%, আর সদরদপ্তর নিউইয়র্কে। ৭। HSBC HSBC শব্দের অর্থ হচ্ছে The Hongkong and Shanghai Banking Corporation Limited। ১৮৬৫ সালে হংকং ও চীনের সাইহাইয়ে কে কেন্দ্র করে ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠিত হলেও এখন এর হেডকোয়ার্টার যুক্তরাজ্যের লন্ডনে। মাত্র ৫.৪০% মার্কেট শেয়ার নিয়ে ফরেক্স মার্কেটে সপ্তম অবস্থানে থাকলেও সম্পদের দিক দিয়ে এটি বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম ব্যাংক। ৮। BNP Paribas বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাংকগুলোর একটি ফ্রেঞ্চ বহুজাতিক ব্যাংক BNP Paribas. ২০১২ সালে ফোর্বস ও ব্লুমবার্গের জরীপে মোট সম্পদের ভিত্তিতে এটি বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম ব্যাংক। ৯। Goldman Sachs এটিও নিউইয়র্ক ভিত্তিক বহুজাতিক আমেরিকান ব্যাংক। ১৮৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ব্যাংকটির ২০১৫ সালে আয় ছিল ৩৯ বিলিয়ন ডলার। ২০১৪ সালে ব্যাংকটি বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের বন্ড ছাড়ার দায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। এ নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সাথে তার সম্মেলন কক্ষে গোল্ডম্যান স্যাকসের প্রতিনিধি দলের একটি মীটিংও অনুষ্ঠিত হয়। ১০। RBS The Royal Bank of Scotland কে সংক্ষেপে RBS ডাকা হয়। ফরেক্স মার্কেট শেয়ার মাত্র ৩.৩৮% হলেও ব্যাংকটি কিন্তু অনেক পুরনো। সেই ১৭২৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ব্যাংকটি। ব্যাংকটির কার্যক্রম মূলত যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডকে ঘিরে। ব্যাংকটির সদরদপ্তর অবস্থিত স্কটল্যান্ডের এডিনবার্গে। ১১। Société Générale ফ্রান্সের প্যারিসভিত্তিক ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯০৬ সালে। বিশ্বজুড়ে খুব বেশি পরিচিত না হলেও ফরেক্স মার্কেটে ব্যাংকটির ২.৪৩% মার্কেট শেয়ার রয়েছে। ১২। Standard Charterd এটি একটি ব্রিটিশ ব্যাংক, হেড কোয়ার্টারও লন্ডনে কিন্তু ব্রিটেনে কোন রিটেইল ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করে না। মজার ব্যাপার হলো ব্যাংকটি ব্যবসা করে মূলত এশিয়া, আফ্রিকা ও মিডল ইস্টে। একারনেই বাংলাদেশে এত পরিচিত ব্যাংকটি। ২০১৫ সালে ব্যাংকটির আয় ছিল ১৪.৬ বিলিয়ন ডলার। ১৩। Morgan Stanley আরেকটি নিউইয়র্কভিত্তিক আমেরিকান ব্যাংক। ফরেক্স মার্কেট শেয়ার Standard Charterd থেকে কম হলেও, ২০১৫ সালে ব্যাংকটির আয় ছিল ৩২.৪৯ বিলিয়ন যা SC থেকে দ্বিগুণেরও বেশি। ১৪। Credit Suisse ইউরোপে বেশ জনপ্রিয় ব্যাংকটি। এর সদরদপ্তর অবস্থিত সুইজারল্যান্ডের জুরিখে। Credit Suisse প্রায়শই বিভিন্ন কারেন্সির টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস প্রকাশ করে। ফরেক্স মার্কেটে ব্যাংকটির শেয়ার মাত্র ১.৬৬% ১৫। State Street আমেরিকার ম্যাসাচুসেটসে অবস্থিত এর সদরদপ্তর। এক সময়ে ব্যাংকিং সুবিধা প্রদান করলেও এটি এখন আর কোন ব্যাংক নয়, বরং বিনিয়োগসহ বিভিন্ন অর্থনৈতিক কার্যক্রমের সাথে যুক্ত। ১৭৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত State Street, যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রাচীন ব্যাংক। ফরেক্স মার্কেটে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির মার্কেট শেয়ার ১.৫৫%
  3. 1 point
    আমি প্রায় ৩ মাস যাবত ফরেক্স শিখতেছি। কিন্তু যেখানে ফরেক্স শিখাচ্ছে তা আমার কাছে যথার্থ মনে হচ্ছে না।তার চেয়ে ফরেক্স বিডি গ্রুপটি কে বেশি পারফেক্ট মনে হয়।তাই এখানে পোষ্ট করলাম, যদি কেউ ফরেক্স শেখার ভাল কোন উপায় বলে দিতে পারেন।ধন্যবাদ।
  4. 1 point
    Dhaka te ki kono training centre ache jekhane Forex basic-to-advanced shekhano hoy? Ami akta offline course chachi jekhane Forex hate dhore shekhano hobe. Please help!
  5. 1 point
    গত সপ্তাহে USDCAD পেয়ারটির প্রাইস বেড়েছিল এবং পেয়ারটি গত চার সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইসে স্পর্শ করেছিল। পরবর্তীতে পেয়ারটি সর্বোচ্চ প্রাইস ধরে রাখতে পারেনি। পেয়ারটির জন্য এ সপ্তাহের মূল ইভেন্ট ইমপ্লোইমেন্ট রিপোর্ট। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং USDCAD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। আগস্ট মাসে কানাডার Raw Materials প্রাইস শতকরা ১.৮% এসেছিল। এটা গত চার মাসের মধ্যে তৃতীয় বারের মতো খারাপ করেছে। জুলাই মাসে কানাডার জিডিপি অপরিবর্তনীয় ছিল, এটা গত ৫ মাসের সর্বনিন্ম প্রাইস। বানিজ্য ঘাটতি ১.০ বিলিয়ন কানাডিয়ান ডলার এসেছিল। প্রত্যাশা করা হয়েছিল, ১.০ বিলিয়ন থেকে বেশি ঘাটতি হবে। সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের ISM মেনুফেকচারিং পিএমআই দ্বিতীয় মাসের মতো খারাপ এসেছে। সার্ভিস পিএমআই কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে ৫২.৬ পয়েন্ট এসেছে। ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে এ ধরণের রিপোর্ট এসেছিল। ইমপ্লোইমেন্ট ডাটা হতাশাজনক এসেছিল। এ বারের রিপোর্টে ননফার্ম পে-রোলস ১ লক্ষ ৩৬ হাজার এসেছিল। তবে প্রত্যাশা করা হয়েছিল ১ লক্ষ ৪৫ হাজার আসবে। বেতন (ওয়েজ) শতকরা ০.৪% অপরিবর্তনীয় ছিল। বেকারত্বের হার শতকরা ৩.৫% এসেছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ৩.৭% এর নিচে এসেছিল। USDCAD প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো ১.Housing Starts মঙ্গলবার,সন্ধ্যা ০৬:১৫। আগস্ট মাসে কানাডায় ২ লক্ষ ২৭ হাজার বাড়ি নির্মানের কাজ শুরু হয়েছিল। এটা গত বারের ২ লক্ষ ২২ হাজারের তুলনায় বেশি। তবে সেপ্টম্বরে বাড়ি নির্মাণ কমে ২ লক্ষ ১৭ হাজার আসতে পারে। ২.Building Permits মঙ্গলবার,সন্ধ্যা ০৬:৩০। কানাডায় বিল্ডিং অনুমোধন গত দুইবার কিছুটা খারাপ ছিল, আগস্ট মাসে কিছুটা রিবাইন্ড করেছিল। আগস্ট মাসে বিল্ডিং অনুমোধন শতকরা ৩.০% বেড়েছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ২.১% এর উপরে এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরেও এ ধরণের আরেকটি রিবাউন্ড লক্ষ্য করা যেতে পারে। ধারণা করা হচ্ছে,সেপ্টেম্বরে ২.৩% আসতে পারে। ৩.NHPI বৃহস্পতিবার, সন্ধ্যা ০৭:৩০। এ সেক্টরটি গত তিনবার ধরে খারাপ অবস্থানে রয়েছে। গতবার এ সেক্টরে শতকরা ০.১% এসেছিল। হাউজিং সেক্টরের জন্য এটা খারাপ অবস্থান। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, আগস্ট মাসে ০.১% অপবির্তনীয় থাকতে পারে। ৪.Employment Data শুক্রবার,সন্ধ্যা ০৬:৩০। আগস্ট মাসে কানাডার ইকোনমিতে ৮১ হাজার ১ শত জব যোগ হয়ে ছিল। এ সেক্টরে গত দুইবার স্থবিরতা বিরাজ করার পর, এবার কিছুটা রিবাউন্ড করেছে। আগস্ট মাসে বেকারত্বের হার শতকরা ৫.৭% ছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছিল। USDCAD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো আমরা ১.৩৬৩০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। জানুয়ারিতে এটা গুরুত্বপূর্ণ একটি রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১.৩৫৬৫। জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে ১.৩৪৪৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১.৩৩৮৫। গত সপ্তাহে পেয়ারটি ১.৩৩৫০ প্রাইস থেকে কমতে শুরু করেছে এবং পেয়ারটি গত সপ্তাহে ১.৩৩৫০ প্রাইসে টেস্ট করেছিল। গত সপ্তাহে ১.৩২৬৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ সোপোর্ট লেভেল হিসেবে কাজ করেছিল। পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ছিল ১.৩১৭৫। জুলাই মাসের শেষের দিকে ১.৩১২৫ গুরুত্বপূর্ণ একটি সাপোর্ট লেভেল ছিল। পেয়ারটি গত সপ্তাহে ১.৩১২৫ প্রাইসে টেস্ট করেছিল। অক্টোবরে ১.২৯১৬ গুরুত্বপূর্ণ একটি সাপোর্ট লেভেল ছিল। বর্তমানে এবং সর্বশেষ সাপোর্ট লেভেল ১.২৯১৬। শেষ কথা ফরেক্স বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে USDCAD পেয়াটির প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। সেপ্টেম্বরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সার্ভিস এবং মেনুফেকচারিং পিএমআই সেক্টরে স্থবিরতা পরিলক্ষিত হয়েছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, অক্টোবরেও একই অবস্থা বিরাজ করতে পারে। এ সেক্টর দু’টি যুক্তরাষ্ট্রের ইকোনমির জন্য একটি চিন্তার বিষয়। এছাড়াও ফেড ইন্টারেস্ট রেট কমাতে পারে,এটা মার্কিন কারেন্সির প্রাইস কমাতে সহায়তা করবে। এদিকে কানাডার ইকোনমি আগের তুলনায় কিছুটা গতিশীল হচ্ছে, যার ফলে কানাডিয়ান ডলারের প্রাইস বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সুতরাং এ সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে।
  6. 1 point
    গত সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস কমেছিল। এ সপ্তাহে পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো দশটি ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং AUDUSD ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে মেনুফেকচারিং পিএমআই বেশ গুরুত্বপূর্ণ। সেপ্টেম্বরে অস্টেলিয়ার পিএমআই তেমন শক্তিশালী ছিল না। আগস্ট মাসে মেনুফেকচারিং সেক্টর বেশ শক্তিশালী ছিল। আগস্টে এ সেক্টরটি ৫০ পয়েন্টের উপরে ছিল। এদিকে সার্ভিস সেক্টরের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে, এ সেক্টরটি মেনুফেকচারিং সেক্টরের তুলনায় ভাল করেছে। আগস্ট মাসের সার্ভিস পিএমআই ৫২.৫ পয়েন্ট এসেছে। এটা অস্টেলিয়ার ইকোনমির জন্য ভাল নিউজ ছিল। ২য় প্রান্তীকে যুক্তরাষ্ট্রে জিডিপি শতকরা ২.০% বৃদ্ধি পেয়েছিল, এটা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছিল। ১ম প্রান্তীকের জিডিপি শতকরা ৩.১% এর তুলনায় কম এসেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মন্দাভাব কানাডার ইকোনমিতে নেগেটিব প্রভাব ফেলতে পারে। কারণ যুক্তরাষ্ট্রের তেলের চাহিদা অনেকাংশ কানাডার ‍উপর নির্ভরশীল। ডেমোক্রেটরা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ক্ষমতার অপব্যবহারের জন্য ইম্পিচমেন্টের মাধ্যমে পদত্যাগ করানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। ট্রাম্প ইউক্রেনিয়ান প্রেসিডেন্টকে টেলিফোন করে জো বিডেন এবং তার পুত্রের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে আলোচনা করেছেন। সুতরাং এ ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিতে অস্থিরতা সৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে। ১.MI Inflation Gauge সোমবার,সকাল ০৭:০০। জুলাই মাসে এ সেক্টরটি অপরিবর্তনীয় ছিল। গত চার মাসের মধ্যে প্রথম বারের মতো এ সেক্টরটি জুলাই মাসে অপরিবর্তনীয় ছিল। ২.Chinese Manufacturing PMI সোমবার,সকাল ০৭:৩০। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য যুদ্ধের প্রভাব ইতিমধ্যে চীনের ইকোনমিকে প্রভাবিত করছে। যার ফরে গত চার মাস ধরে, এ সেক্টরটি ৫০ পয়েন্টের নিচে অবস্থান করছে। এটা চীনের ইকোনমির জন্য একটি খারাপ রিপোর্ট। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরেও এ ধরণের ফলাফল আসতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, সেপ্টেম্বরে এ সেক্টর থেকে ৪৯.৬ পয়েন্ট আসার সম্ভাবনা রয়েছে। ৩.Private Sector Credit সোমবার, সকাল ০৭:৩০। চীনের কনজিউমার এবং ব্যক্তিগত ক্রেডিটি তেমন ভাল অবস্থানে নেই। গত রিলিজে এ সেক্টর থেকে ০.২% এসেছিল। এটা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছিল। আগস্টে এ সেক্টরে কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে ০.৩% আসতে পারে। ৪.Chinese Caixin Manufacturing PMI সোমবার, সকাল ০৭:৪৫। জুলাই মাসের মেনুফেকচারিং সেক্টরটি মোটামুটি ভাল করেছিল। জুলাই মাসে মেনুফেকচারিং পিএমআই ৫০.৪ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এ লেভেল পরিবর্তীয় হয়ে ৫০.২ পয়েন্ট আসতে পারে। ৫.AIG Manufacturing Index মঙ্গলবার, রাত ০২:০০। আগস্ট মাসে এ সেক্টরটি বৃদ্ধি পেয়ে ৫৩.১ পয়েন্ট এসেছিল। এটা গত চার মাসের সর্বোচ্চ স্কোয়ার ছিল। তবে সেপ্টম্বরে এ ধরণের আরেকটি রিবাউন্ড দেখতে পারবো কিনা সেটা দেখার বিষয়। ৬.Building Approvals মঙ্গলবার, সকাল ০৭:৩০। ধারণা করা হয়েছিল, জুলাই মাসে অস্টেলিয়ায় বিল্ডিং অনুমোধন জুন মাসের রিপোর্টে অপরিবর্তনীয় থাকবে। কিন্তু সেটা না হয়ে শতকরা ৯.৭% কমেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, আগস্ট মাসের এ সেক্টরটি রিবাউন্ড করবে এবং ৫০.২ পয়েন্ট আসতে পারে। ৭.RBA Rate Decision মঙ্গলবার, সকাল ০৭:৩০। বিনিয়োগকারীদের সকলের নজর থাকবে রিজার্ভ ব্যাংক অব অস্টেলিয়ার দিকে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এ মিটিং থেকে ব্যাংক ইন্টারেস্ট রেট ১.০০% থেকে কমিয়ে ০.৭৫% আনতে পারে। এর ফলে অস্টেলিয়ান ডলারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। সুতরাং এ সপ্তাহে ট্রেডাররা রিজার্ভ ব্যাংক অব অস্টেলিয়ার ইন্টারেস্ট রেট মনিটরী করবেন। ৮.AIG Services Index বৃহস্পতিবার,রাত ০২:৩০। গত চার মাসের মধ্যে তিন বার এ সেক্টরটি ৫০ পয়েন্টের উপরে ছিল। আগস্ট মাসেও সেক্টরটি আপট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। আগস্ট মাসে এ সেক্টর থেকে ৫১.৪ পয়েন্ট এসেছে। তবে সেপ্টেম্বরে আমরা আরেকটি রিবাউন্ড দেখতে পারবো কিনা সেটা দেখার বিষয়। ৯.Retail Sales শুক্রবার, সন্ধ্যা ০৭:৩০। জুলাই মাসে এ সেক্টরটি কিছুটা হতাশাজনক অবস্থানে ছিল, জুলাই মাসে এ সেক্টরে শতকরা ০.১% কমেছে। তবে বিনিয়োগকারীরা প্রত্যাশা করছে, আগস্ট মাসে এ সেক্টরে কিছুটা রিবাউন্ড হয়ে ০.৫% আসতে পারে। ১০.RBA Financial Stability Review শনিবার, সকাল ০৭:৩০। রিজার্ভ ব্যাংক অব অস্টেলিয়া প্রতি বছর একটি অর্থনৈতিক প্রতিবেদেন পেশ করে থাকেন। এ প্রতিবেদনটি মার্কে বেশ ভাল কাজ করে। প্রতিবেদনে ভাল নিউজ আসলে অস্টেলিয়ান ডলারের প্রাইস বাড়তে পারে। AUDUSD প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো AUDUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো: আমরা ০.৭১৬৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। এপ্রিলের শুরুর দিকে এটা সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল। সেপ্টেম্বরে সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল ০.৭০৮৫। পরবর্তী প্রাইস ছিল ০.৭০২২। এপ্রিলে সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল ০.৬৯৮৮। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে ০.৬৮৬৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল হিসেবে কাজ করেছিল। গত সপ্তাহে ০.৬৮২৫ গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লাইন ছিল এবং পেয়ারটি ০.৬৭৪৪ সাপোর্ট লেভেলে টেস্টিং করেছিল। ২০০০ সালের জানুয়ারিতে ০.৬৬৮৬ আরেকটি সাপোর্ট লেভেল ছিল। ২০০৯ সালের মার্চমাসে ০.৬৬২৭ আরেকটি সাপোর্ট লেভেল ছিল এবং পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ছিল ০.৬৫৩২। বর্তমান এবং সর্বশেষ সাপোর্ট লেভেল ০.৬৪৫৬। শেষ কথা ফরেক্স বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে AUDUSD প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। গত গ্রীষ্মে রিজার্ভ ব্যাংক অব অস্টেলিয়া ইন্টারেস্ট রেট কিছুটা কমিয়ে ছিল এবং প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এ সপ্তাহেও একই ঘটনা পুনরায় ঘটতে পারে। অস্টেলিয়ার ব্যাংকের ডভিশ অবস্থানের কারণে তাদের ইকোনমিতে কিছুটা মন্দাভাব পরিলক্ষিত হতে পারে। এর ফলে অস্টেলিয়ান ডলারের প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে।
  7. 1 point
    পাউন্ড/ডলার পেয়ারটি আজকের ট্রেডিং সেশনে ওপেন হয়েছিল ১.২৪৯৬ প্রাইসে।পেয়ারটি আজ সর্বোচ্চ ১.২৫০৫ প্রাইসে উঠেছিল এবং সর্বনিন্ম ১.২৪৩৮ প্রাইসে নেমেছিল।বর্তমানে পেয়ারটি ১.২৪৪৫ প্রাইসে অবস্থান করছে।আগস্ট মাসে যুক্তরাজ্যের সিপিআই প্রত্যাশিত লেভেল ১.৮% থেকে কমে ১.৭% এসেছে।যার ফলে পেয়ারটির প্রাইস কমতে শুরু করেছে এবং পেয়ারটি বর্তমানে কিছুটা নিন্মগামী অবস্থানে রয়েছে। পেয়ারটির বর্তমান নজর ফেড ডিসিশনের দিকে।প্রত্যাশা করা হচ্ছে, আজ পেয়ারটির প্রাইস বেড়ে গতকালের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.২৫২৭ আসতে পারে।ফেড ডিসিশনের উপর ভিত্তি করে পেয়ারটির পরবর্তী টার্গেট হতে পারে ১.২৫৫৬ প্রাইস। ধারণা করা হচ্ছে, ফেড ডিসিশনের পূর্ব পর্যন্ত পেয়ারটি কিছুটা নিন্মগামী অবস্থানে থাকতে পারে।ফেড ডিসিশনের পর পেয়ারটির প্রাইস পুনরায় বাড়তে পারে।তবে যুক্তরাজ্যের মুদ্রাস্ফীতি কম আসার কারণে পেয়ারের প্রাইস যে হারে বাড়ার ধারণা করা হয়েছিল, সে হারে নাও বাড়তে পারে। সুতরাং বিনিয়োগকারীদের বর্তমান নজর থাকবে ফেড ডিসিশনের দিকে।আজ রাত ১২:০০ ফেড পলিসি মিটিং রয়েছে।
  8. 1 point
    আজকের সেশনে EUR/USD পেয়ারটি ওপেন হয়েছে১.১০৭০ প্রাইসে। পরবর্তীতে পেয়ারটির প্রাইস বেড়ে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১.১০৭৫ প্রাইসে উঠেছিল এবং সর্বনিন্ম ১.১০৩৬ প্রাইসে নেমেছিল। বর্তমানে পেয়ারটির ১.১০৫৯ প্রাইসে ট্রেড করছে।পেয়ারটি জন্য বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল নির্ধারণ করা হয়েছে ১.১০৭০ । পেয়ারটি ১.০৯৭০ প্রাইসকে অতিক্রম করলে পেয়ারটির পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল হতে পারে গত তিন সপ্তাহের সর্বোচ্চ প্রাইস ১.১১০০ এর কাছাকাছি। ৫৫ দিনের এসএমএ অনুযায়ী, পেয়ারটির পরবর্তী টার্গেট হতে পারে ১.১১২৯।পেয়ারটি ১.১১২৯ প্রাইসকে অতিক্রম করলে, পরবর্তী টার্গেট হতে পারে ১.১১৬৩। ইউরো/ডলারের আজকের চার্ট
  9. 1 point
    পারিবারিক অস্বচ্ছলতা থাকলে ভুলেও ফরেক্স ট্রেডিং করার দরকার নেই। শুনতে খারাপ লাগলেও এটাই বাস্তব। এখানে দেখুন অনেক বছর ধরে ট্রেড করছে এরকম অনেক ট্রেডার আছে যারা নিয়মিত লাভ করতে পারছে না। সত্যি বলতে টুকটাক ট্রেডিং করলে মাঝে মাঝেই ভালো লাভ করা যায়। কিন্তু সেরকম ভালো লসও হয়। সব মিলিয়ে মাস শেষে অংক কষলে অনেকেই দেখে যে লাভের চেয়ে লস বেশি। শুধু ফরেক্স না, যেকোনো ধরনের বিনিয়োগ সংক্রান্ত ব্যবসাতেই এটা মাথায় রেখেই নামা উচিত যে লস হতে পারে। আপনি ৫০০ ডলার দিয়ে ট্রেডিং শুরু করতে চাইলে আগে ভাবতে হবে ঐ ৫০০ ডলারের মায়া আপনি ছাড়তে পারবেন কিনা। প্রথম দিকে লস হবেই, আর পরের দিকে লস হবে কিনা সেটা আপনার মানিসিক দক্ষতার ব্যপার। চাকরির পড়াশোনার পাশাপাশি ফরেক্স করা অসম্ভব কিছু নয়। কিন্তু আপনি যতটুকু বোঝেন, তার অনুপাতেই ছোট রিস্ক নিয়েই ট্রেড করতে হবে। আর আরেকটা ব্যাপার আমার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। তা হল ফরেক্স থেকেই সম্পূর্ণ জীবিকা নির্বাহের চেষ্টা না করাই ভালো। কারন আপনার মাথায় যদি এই প্রেসার আসে যে এই মাসে আমাকে অমুক পরিমাণ লাভ করতেই হবে, তা নাহলে চলতে পারবো না, তাহলেই আপনি শেষ। আমি মেন্টরিং করতে পারবো না, তবে বিডিপিপসে অনেকে আছেন যারা আপনাকে সাহায্য করতে পারবে, এবং অনেক অনেক ভালো লেখা আছে যারা আপনাকে অনেক ভালো গাইড করবে। কিন্তু দিনশেষে কোন মেন্টর আপনাকে সফল হতে সাহায্য করবে না। প্রতিটি ট্রেড আলাদা এবং আপনাকেই তো ট্রেড করতে হবে, সিদ্ধান্তগুলো নিতে হবে। আমার অনুরোধ থাকবে শিখুন, সবার সাহায্য নিন, বড় ধরনের বিনিয়োগ করার আগে নিজে বুঝে শুনে সব করুন। আর ফেসবুক, ফোরাম, ইউটিউবে ফরেক্স প্রতারকে সয়লাব। সতর্ক না থাকলে ধাপে ধাপে ধরা খাবেন। সিগন্যাল, রোবট, ফান্ড ম্যানেজমেন্ট এসবের প্রলোভন থেকে সতর্ক থাকবেন। সাবধান থাকার অনুরোধ রইল এবং শুভ কামনা।
  10. 1 point
    Forex এখন 7days আমরা জানি ফরেক্স সপ্তাহে ৫ দিন সোম- শুক্রবার। তাই বলে অনেকে মন খারাপ করে।বলে ট্রেড যদি 7 দিনই হত।তাহলে ভালো হতো। কিন্তু আপনি কি জানেন শনি রবি দুই দিন ও ট্রেড হয়। হ্যাঁ এই দুইদিন শুধু ট্রেড করতে পারবেন BTCUSD তে।
  11. 1 point
    All idiot gambler who try to profit 100% per month. Of course you will burn your account every time.
  12. 1 point
    forex is a ocean. there are many trader who gain more then 100% per month by a sophisticated strategy. i am in forex market from 2009 and gain more then 100% per month by a simple strategy
  13. 1 point
    Only beginner could dream to 100% profit per month. When I was beginner I dream to do that. Now I have eight years plus experience and happy to profit 30-40% per year.
  14. 1 point
    contact to me for a simple stretegy which give you 100% profit per month contact:01718306480 https://www.facebook.com/ilias.uddin.562
  15. 1 point
    গ্রামের একটা প্রবাদ আছে, যে ...... আকাইম্মা নাপিতের ধামা ভরা *খুড় -কাঁচি* থাকে ......। পিপ্সের হিসাবে ট্রেড করলে ততধিক পেয়ার ঠিক আছে কিন্তু পারসেন্টের হিসাবে ট্রেড করলে আমার মতে একটা বা দুইটা পেয়ারই যথেষ্ট ...... কারণ কারেন্সি পেয়ার গুলোর ধর্ম বেড় করা অনেক প্যারার কাজ এবং সময় সাপেক্ষও । সব চাইতে বড় কথা সেম স্ট্রেটেজি সব / একাধিক পেয়ারে কাজ করে না বা নাও করতে পারে ------- ফলাফল মাস শেষে লব ড ংগা। যাই হোক নতুন হিসাবে অনেক কথা লিখে ফেললাম , এর জন্য *সরি * ...... ধন্যবাদ
  16. 1 point
    প্রিয় ফরেক্স ট্রেডার বন্ধুগণ, আশা করি ভালো আছেন। আজকে আপনাদের জন্য দুটি ইন্ডিকেটর নিয়ে এলাম। এই ইন্ডিকেটর দুটি আমার নিজের তৈরি। ইন্ডিকেটর দুটির নাম হচ্ছে (1) High-Low Break এবং (2) Short Information. (1) High-Low Break: প্রথমেই বলে নিই, High-Low Break ইন্ডিকেটরটির স্ট্রাটেজিদাতা হচ্ছেন আমাদের অতি পরিচিত, ভালোবাসার পাত্র, XM Bengali Webinar এর শ্রদ্ধেয় ট্রেইনার শ্রী সঞ্জয় সরকার। সঞ্জয় সরকার এর প্রদত্ত স্ট্র্যাটেজি অনুযায়ী আমি ইন্ডিকেটরটি তৈরি করেছিলাম বেশ কিছুদিন পূর্বে। স্ট্র্যাটেজিটি এমন জটিল কিছু না, খুবই সিম্পল। কিন্তু আমি এটার কার্যকারিতায় ভীষণ মুগ্ধ। আশা করি আপনারাও মুগ্ধ হবেন। মূলতঃ Monthly, Weekly এবং Daily ক্যান্ডেল এর High-Low তে হরাইজন্টাল সাপোর্ট ও রেসিসট্যান্স অাঁকা হয়েছে এবং একটি রিয়েল বডির ক্যান্ডেল দিয়ে উক্ত হরাইজন্টাল সাপোর্ট-রেসিসট্যান্স ব্রেক করলে এলার্ট এর মাধ্যমে সিগন্যাল প্রদান করবে। ই-মেইল সেট করে দিলে ইমেইলেও একটি সিগন্যাল পাঠাবে। এটি মূলতঃ সুনির্দিষ্ট বাই-সেল এর সিগন্যাল না। তবে এটি আপনার মার্কেট এনালাইসিসের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ হিসেবে নিঃসন্দেহে ব্যাপক ভূমিকা পালন করতে পারবে। Monthly টাইমফ্রেম এর সর্বশেষ ক্যান্ডেল এর High-Low শুধুমাত্র Monthly টাইমফ্রেম ছাড়া নিচের টাইমফ্রেমগুলোতে হরাইজন্টাল সাপোর্ট এবং রেসিসট্যান্স হিসেবে প্রদর্শিত হবে। আবার Weekly টাইমফ্রেম এর সর্বশেষ ক্যান্ডেল এর High-Low, Weekly টাইমফ্রেম ও হায়ার টাইমফ্রেম ছাড়া নিচের টাইমফ্রেমগুলোতে হরাইজন্টাল সাপোর্ট এবং রেসিসট্যান্স হিসেবে প্রদর্শিত হবে। একইভাবে Daily টাইমফ্রেম এর সর্বশেষ ক্যান্ডেল এর High-Low, Daily টাইমফ্রেম ও হায়ার টাইমফ্রেম ছাড়া নিচের টাইমফ্রেমগুলোতে হরাইজন্টাল সাপোর্ট এবং রেসিসট্যান্স হিসেবে প্রদর্শিত হবে। (2) Short Information: এটি একটি ইনফরমেশনাল ইন্ডিকেটর। কেনো স্ট্র্যাটেজিক ইন্ডিকেটর নয়। ক্যান্ডেল ক্লোজ টাইম, ভলিউয়ুম, লোকাল টাইম, ব্রোকার টাইম এবং ০৮টি গুরুত্বপূর্ণ পেয়ারের Daily Range প্রদর্শন করবে। আমরা সাধারণতঃ ট্রেড করার সময় রিসেন্ট ক্যান্ডেল এর ভলিয়ুমের প্রতি কোনো লক্ষ্য করি না। কারণ ভলিয়ুম হিডেন থাকে। কিন্তু অনেক বড় বড় ট্রেডার শর্ট টাইমফ্রেমে এন্ট্রি নেয়ার ক্ষেত্রে ভলিয়ূমের প্রতি বিশেষ লক্ষ্য রাখে। এই ক্যান্ডেল এর মাধ্যমে আপনি সার্বক্ষণিক রিয়েল টাইম ভলিয়ুমের প্রতি লক্ষ্য রাখতে পারবেন। ডাউনলোড করুন এখান থেকে: Custom Indicator.rar বন্ধুগণ, একজন ট্রেডার হিসেবে আমি নগণ্য। আর কোডার হিসেবে আরো নগণ্য। তারপরেও আমার উপহার আপনারা সাদরে গ্রহণ করবেন এই আশা রাখি। আপনারা দোয়া করলে এবং আল্লাহ চাইলে হয়তো ভবিষ্যতে আপনাদের জন্য আরো ভালো কিছু করতে পারব। আমার জন্য দোয়া করবেন। আপনাদের প্রফিটেবল ট্রেডিং লাইফ কামনা করি। ফেসবুকে আমি: https://www.facebook.com/bd.tanvirahmed
  17. 1 point
    ঠিক আছে ততটুকুই PDF করে Upload করে দেন Please
  18. 1 point
  19. 1 point
    বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে। ফরেক্স সম্পর্কে কোন লোভনীয় বিজ্ঞাপনে প্রতারিত হবেন না। বিডিপিপস কাউকে ১০০% লাভের মিথ্যা স্বপ্ন দেখায় না, বরং ফরেক্স ট্রেডিংয়ের পথে যাবতীয় সম্ভাব্য ঝুঁকিগুলো তুলে ধরে আপনাকে যোগ্য ট্রেডার হিসেবে তৈরি হতে সাহায্য করার চেস্টা করে। প্রতিটি ইনভেস্টমেন্ট ব্যাবসাই ঝুঁকিপূর্ণ। আপনার লস করার সামর্থ্য না থাকলে বিনিয়োগ করা উচিত নয়।
  20. 0 points
    bhaiya keo achen???? nasim bhai>????? amar Fibonacci সমাচার 12 পর্ব pdf ta dorkar....kintu kono bhabei download korte parchina......jodi paren keo amake mail korle khushi hobo.... aashakiliiuc@gmail.com
  21. 0 points
    Jara trade korte parena tarai train korai income er jonno. ar jaara trade korte pare tara trading career niye busy thake.

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×