Jump to content

ফোরাম ফিড

This stream auto-updates     

  1. Past hour
  2. ইউরোপ/ডলারের প্রাইস গত ৫ দিন ধরে ধারাবাহিকভাবে কমার পরে, গতকাল পেয়ারটির প্রাইস কিছুটা বেড়েছিল। গত সপ্তাহের শেষ দিন অর্থাৎ শুক্রবারের ট্রেডিং শেষনের দিকে লক্ষ্য করলে আমরা দেখতে পাচ্ছি। শুক্রবার পেয়ারটি ওপেন হয়েছে ১.১১৭২ প্রাইসে এবং ক্লোজ হয়েছে ১.১১৫৬ প্রাইসে। ঐ দিন পেয়ারটির সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল ১.১১৮৩ এবং সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল ১.১১৫৪। ঐ দিন পেয়ারটির প্রাইস ১৬ পিপসের মতো কমেছে। গতকাল পেয়ারটি ওপেন হয়েছে ১.১১৫৯ প্রাইসে এবং ক্লোজ হয়েছে ১.১১৬৪ প্রাইসে। গতকালে পেয়ারটির সর্বোচ্চ ১.১১৭৪ প্রাইসে উঠেছিল এবং সর্বনিন্ম ১.১১৫০ প্রাইসে নেমেছিল। গতকাল ইউরো/ডলারের প্রাইস ৫ পিপসের মতো বেড়েছে। বর্তমানে পেয়ারটি ট্রেডিং করছে ১.১১৫৭ প্রাইসে। আজকের ট্রেডিং সেশনে পেয়ারটি ওপেন হয়েছে ১.১১৬৪ প্রাইসে। এখন পর্যন্তত পেয়ারটির সর্বোচ্চ প্রাইসে এসেছে ১.১১৭১ এবং সর্বনিন্ম প্রাইস এসেছে ১.১১৫৬। ৫৫ দিনের মুভিং এভারেজ অনুযায়ী, আজকে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে পারে। এছাড়াও পোড়াবলিক ইনডিকেটর অনুযায়ী, আজকে পেয়ারটির প্রাইস বাড়বে। সুতরাং আমরা ধারণা করছি ইউরো/ডলারের প্রাইস আজকে বাড়বে।
  3. Yesterday
  4. Jara trade korte parena tarai train korai income er jonno. ar jaara trade korte pare tara trading career niye busy thake.
  5. ক্রিপ্টোকারেন্সী এর উপর থেকে স্প্রেডস কমানো হয়েছে! আমরা একটি ঘোষণা করে গর্বিত হতে চাই যে, আমাদের কোম্পানির সকল গ্রাহক বা ট্রেডাররা আরো অনেক কম স্প্রেড এর সাথে ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং/বাণিজ্য করতে পারবেন। এখন থেকে ক্রিপ্টোকারেন্সির জন্য স্প্রেড এর হার নিম্নরুপ: BCHUSD প্রায় 12 থেকে 2 হয়েছে। Litecoin প্রায় 2 থেকে 0.7 হয়েছে। Ethereum প্রায় 8 থেকে 2 হয়েছে। Ripple প্রায় 0.01 থেকে 0.005 হয়েছে। ক্রিপ্টোকারেন্সির উপর থেকে স্প্রেডস কমার ফলে আমাদের সকল গ্রাহক বা ট্রেডারদের ডিজিটাল অর্থ নিয়ে কার্যকলাপের সময় তাদের ট্রেডিং খরচ কমাতে পারবে। বিস্তারিত: tiny.cc/ngcz6y
  6. হংকং এর বেকারত্বের হার বৃদ্ধি! হংকংয়ের আদমশুমারি ও পরিসংখ্যান বিভাগের তথ্য অনুযায়ী আজ সোমবার জানা যায় ফেব্রুয়ারী থেকে এপ্রিলের সময়ের মধ্যে বেকারত্বের হার স্থিতিশীল ছিল। বেকারত্বের হার ফেব্রুয়ারী থেকে এপ্রিল পর্যায় পর্যন্ত 2.8 শতাংশ স্থায়ী ছিল, যা আগের তিন মাসের সময়ের মতো ছিল। আরো ফরেক্স নিউজ দেখুন: https://goo.gl/FmCiZG
  7. টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস- EUR/USD পেয়ারের ইন্ট্রাডে লেভেল, ২০শে মে-২০১৯ বিশ্লেষণ করেছেন বিশেষজ্ঞ Arief Makmur (ইন্সটা ফরেক্স টিম) আজকের EUR/USD পেয়ারের টেকনিক্যাল লেভেলঃ ব্রেকআউন্ট বাই লেভেলঃ 1.1207. স্ট্রং রেসিস্ট্যান্সঃ 1.1201. অরিজিনাল রেসিস্ট্যান্সঃ 1.1192. ইনার সেল এরিয়াঃ 1.1183. টার্গেট ইনার এরিয়াঃ 1.1160. ইনার বাই এরিয়াঃ 1.1137. ওরিজিনাল সাপোর্ট: 1.1128. স্ট্রং সাপোর্ট: 1.1119. ব্রেকআউট সেল লেভেল:1.1113. মন্তব্য: আজ ইউরোপিয়ান মার্কেটে ট্রেডিং শুরু হলে কারেন্ট অ্যাকাউন্ট এবং জার্মান পিপিআই এম/এম রিলিজ করবে। এছাড়াও আমেরিকান মার্কেটে ট্রেডিং শুরু হলে কোন ইকোনমিক ডাটা রিলিজ করবে না। ফলে ফান্ডামেন্টাল বিশ্লেষন থেকে আশা করা যায় মার্কেটে EUR/USD পেয়ারটিতে নিন্ম থেকে মধ্যম মাত্রার ভোলাটিলিটি থাকতে পারে। আরো ফরেক্স বিশ্লেষন দেখুন: tiny.cc/cg5y6y *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  8. গত সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস অনেক কমেছিল। এ সপ্তাহে পেয়ারটির জন্য তিনটি ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং অস্টেলিয়ান ডলার/মার্কিন ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। গত সপ্তাহে অস্টেলিয়ান ইমপ্লোইমেন্ট ডাটা মিশ্র অবস্থায় ছিল। অস্টেলিয়ার ইকোনমিতে এপ্রিল মাসে ২৪ হাজার ৪ শত জব সৃষ্টি হয়েছে। এটা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ লেভেল, তবে ধারণা করা হয়েছিল ১৫ হাজার ২ শত জব সৃষ্টি হবে। এবারের রিপোর্ট ধারণকৃত লেভেলের তুলনায় বেশ ভাল এসেছে। ইমপ্লোইমেন্ট রেট শতকরা ৫.২% বেড়েছে, তবে ধারণা করা হয়েছিল ৫.০% আসবে। আগস্টের পর থেকে এটা সর্বোচ্চ প্রাইস। ওয়েস্টপ্যাক কনজিউমার সেন্টিমেন্ট শতকরা ০.৬% এসেছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য উত্তেজনা বেড়েছে, তারপরেও মার্কিন ডলারকে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে দেখা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন এক অপরের পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছেন। তবে উভয় দেশের মধ্যে কোন বানিজ্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি। যার ফলে পেয়ারটি কিছুটা ঝুঁকির দিকে থাকবে। তারপরেও বিনিয়োগকারীরা মার্কিন ডলার এবং জাপানী ইয়েনকে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে বিবেচনা করছেন। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র ২০০ বিলিয়ন পণ্যের উপর ১০ % থেকে ২৫% শুল্ক আরোপ করেছেন। এদিকে চীনও ৬০ বিলিয়ন ডলার পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছেন। সুতরাং যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য আলোচনা চলছে। পরবর্তীতে এ আলোচনা কতদূর যাবে সেটা দেখার বিষয়। অস্টেলিয়ান ডলার /মার্কিন ডলারের প্রতিদিনের সাপোর্টে এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো: ১.RBA Monetary Policy Minutes মঙ্গলবার সকাল ০৭:৩০। এ মাসের শুরুর দিকে রিজার্ভ ব্যাংক অফ অস্টেলিয়া ইন্টারেস্ট রেট শতকরা ১.৫০% নির্ধারণ করেছেন। তবে অস্টেলিয়ার ইকোনমি তেমন ভাল অবস্থানে নেই। ২.CB Leading Index মঙ্গলবার রাত ০৮:৩০। মার্চ মাসে এ সেক্টর থেকে ০.৫% এসেছে। তবে আমরা কি এপ্রিল মাসে আরেকটি রিবাউন্ড দেখতে পারবো? ৩.Construction Work Done বুধবার সকাল ০৭:৩০। ইনডিকেটর অনুযায়ী কনস্ট্রাকশন সেক্টর গত দুইবারের মতো এবারেও খারাপ আসতে পারে। ১ম প্রান্তীকে আনুমানিক এটা ০.১% বাড়তে পারে। অস্টেলিয়ান ডলার/ মার্কিন ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো: সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবরের মাঝামাঝি ০.৭২৪০ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেঞ্জ লেভেল ছিল। পরবর্তী লেভেল ছিল ০.৭১৯০। নভেম্বরের মাঝামাঝি এবং এ সপ্তাহের শেষের দিকে ০.৭১৬৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ লেভেল ছিল। সেপ্টেম্বরে ০.৭০৮৫ সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল। এপ্রিল মাসের সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল ০.৬৯৮৮। ২০১৬ সালের শেষের দিকে এবং ২০১৭ সালের শুরুর দিকে ০.৬৮২৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট লেভেল ছিল। জানুয়ারিতে ০.৬৭৪৪ সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল। ২০০ সালের জানুয়ারিতে ০.৬৬৮৬ একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাইস ছিল। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে ০.৬৫৭ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লাইন ছিল। সমাপনী মন্তব্য আমরা ধারণা করছি অস্টেলিয়ান ডলার/ মার্কিন ডলার পেয়ারটির প্রাইস কমবে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য যুদ্ধ অস্টেলিয়ার ইকোনমিতে আঘাত করেছে। চীনের পণ্যের ‍উপর শুল্ক বাড়ানোর নেতিবাচক প্রভাব অস্টেলিয়ান ডলারের উপরও পড়বে। যার ফলে পেয়ারটির প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে।
  9. শাইন স্কিন বিডি বাংলাদেশে একটি সম্মানজনক ই-কমার্স সাইট। শাইন স্কিন বিডি আপনার ত্বকের যত্নের জন্য A to Z উচ্চ মানের প্রসাধনী সামগ্রী প্রদান করে । শাইন স্কিন বিডি ১৩ জানুয়ারী ২০১৬ তারিখে চালু করা হয়েছিল। ব্রণ চামড়া বিডি চামড়া যত্ন, ত্বক টোনার, সূর্যের যত্ন, চোখের যত্ন, মুখোশ, ময়শ্চারাইজার এবং সমস্ত সৌন্দর্যের পণ্যগুলির মতো সমস্ত সৌন্দর্য বিভাগগুলির পণ্যগুলি প্রদর্শন করে। আমাদের সংগ্রহে জীবনধারা প্রবণতা পাশাপাশি সব সময় ফেভারিটে সর্বশেষ একত্রিত করে।শাইন স্কিন বাংলাদেশ একটি ভিত্তিক খুচরা প্রসাধনী বিক্রেতা । আমাদের দক্ষতা বিশেষ স্কিন কেয়ার সেবা এবং চিকিত্সা পাশাপাশি বিশ্ব বর্গ কে সৌন্দর্য পণ্য প্রদান করা।
  10. টেকনিক্যাল আনাল্যসিসঃ USD/JPY এর জন্য ইনট্রাডে লেভেল, ২০ মে ২০১৯ এশিয়ায়, জাপান আজ সংশোধিত শিল্প উৎপাদন m/m, প্রিমিয়াম GDP q/q, এবং প্রেলিম GDP q/q, মূল্য সূচক y/y এর অর্থনৈতিক ডাটা প্রকাশ করবে। অন্যদিকে আমেরিকা আজ কোন অর্থনৈতিক তথ্য প্রকাশ করবে না। সুতরাং, প্রতিবেদনগুলো থেকে দেখা যায়, আজ USD/JPY এর ভোলাটিলিটি নিম্ম থেকে মধ্যম মানের হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আজকের দিনের টেকনিক্যাল লেভেলঃ রেসিস্ট্যান্স. 3 : 110.85. রেসিস্ট্যান্স. 2: 110.63. রেসিস্ট্যান্স.1: 110.41. সাপোর্ট1: 110.15. সাপোর্ট 2: 109.94. সাপোর্ট. 3: 109.72.’ সতর্কতাঃ ফরেক্স ট্রেডিং (বৈদেশিক বিনিময়) এর ক্ষেত্রে মার্জিন উচ্চ ঝুঁকি বহন করে এবং সকল বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত নাও হতে পারে। অধিক লিভারেজ আপনার জন্য অধিক ঝুঁকি বহন করবে আবার অধিক লাভের উৎস হিসাবেও কাজ করবে। ফরেক্সে লেনদেন করার পূর্বে আপনি অবশ্যই আপনার বিনিয়োগের লক্ষ্য, অভিজ্ঞতার স্তর এবং ঝুঁকির প্রবন নির্ধারণ করবেন। এর ফলে লোকসান এবং প্রাথমিক বিনিয়োগ হারানোর সম্ভাবনা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে পারবেন এবং এমন জায়গায় বিনিয়োগ করবেন না যেখানে সম্পূর্ণ মূলধন হারানোর সম্ভাবনা রয়েছে। আপনি বিনিয়োগ সম্পর্কিত সকল ঝুঁকি সম্পর্কে সচেতন থাকবেন এবং আপনার যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে একজন অর্থ বিষয়ক পরামর্শকের কাছে পরামর্শ চাইতে দ্বিধা করবেন না। ফরেক্স বিশ্লেষকঃ Arief Makmur, *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট করুন
  11. EURUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) মার্কেট ১ম টেক প্রফিটে পৌঁছেছে। আমরা ট্রেডের ৫০% পজিশন ক্লোজ করবো এবং ১.১১৯৬ প্রফিট লেভেলে স্টপ লস নেব। মার্কেট খুব তাড়াতাড়ি ২য় টেক প্রফিটে পৌঁছাবে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.১১৫০, ১.১১৩০, ১.১১০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১১৯৬, ১.১২২৫, ১.১২৫০ সেল এন্ট্রি : ১.১১৯৬ স্টপ লস : ১.১১৯৬ ট্রেডের সম্ভাবনা : নিন্ম টেক প্রফিট : ১.১১৫০, ১.১১০০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেট ১.১১৫০ সাপোর্ট লেভেলে টেস্টিং করছে। আমরা বাই পজিশন নেওয়ার জন্য কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি । পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট লেভেল ১.১১০০। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.১১৫০, ১.১১০০, ১.১০৪০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১২৪০, ১.১২৬৫, ১.১৩১০ বাই এন্ট্রি : GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) পেয়ারটি ১.২৭৪৭ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টর সম্ভাবনা রয়েছে বা ১.২৭১২ সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক হতে পারে। সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.২৭১২, ১.২৬৯৪, ১.২৬৬৬ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.২৭৪৭, ১.২৭৬৬, ১.২৭৯৮ সেল এন্ট্রি : টেক প্রফিট : ১.২৬৯৪, ১.১৬৬৬ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) পেয়ারটি ১.২৭৫৭ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টর সম্ভাবনা রয়েছে । সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.২৬১০, ১.২২৮৭, ১.১৮১৮ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.২৭৫৭, ১.২৮৬৭, ১.৩১০০ সেল এন্ট্রি :
  12. জার্মান পিপিআই প্রকাশের পরে ইউরোর আংশিক পরিবর্তন ET সময় সোমবার 2:00 am, এপ্রিল মাসের জার্মান পাইকারি মুল্য এর তথ্য প্রকাশ করেছে। এই নিউজ প্রকাশের পর, প্রধান বিরোধী মুদ্রাগুলোর বিপরীতে ইউরোর কিছুটা পতন হয়েছে। ET সময় ভোর 2:02 am -তে ইউরো মূল্য ইয়েনের বিপরীতে ছিল 122.85, ডলারের এর বিপরীতে 1.1154 ফ্রাঙ্কের বিপরীতে 1.1284 এবং পাউন্ডের বিপরীতে ছিল 0.8757 । আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  13. Market Analysis and News.

    Date : 20th May 2019. MACRO EVENTS & NEWS OF 20th May 2019. Just as optimism on US growth was returning, while worries over a global slowing were easing, the spectre of a trade war is back on the table to heighten uncertainties once again. Trade will remain a focal point along with the European Parliament elections. Thursday is the most data-heavy day with European PMI releases and the the German IFO survey. Tuesday – 21 May 2019 Monetary Policy Meeting Minutes (AUD, GMT 01:30) – The RBA minutes will provide more insight on the views the Australian Central Bank has about the economy. In the past policy review earlier this month, RBA highlighted downside risks to the economy, but disappointed markets by leaving the cash rate on hold ahead of the federal elections. Inflation Report Hearings (GBP, GMT N/A) – The BOE Governor and several MPC members testify on inflation and the economic outlook before the Parliament Treasury Committee. Retail Sales (NZD, GMT 22:45) – Retail Sales are expected to have slipped to 0.0% for the first Quarter of 2019, from around 1.7% q/q. Wednesday – 22 May 2019 Consumer Price Index (GBP, GMT 08:30) – Prices are expected to rise in April, with overall inflation expected to stand at 2.1%y/y, compared to 1.9% y/y last month. Retail Sales and Core (CAD, GMT 12:30) –Canadian sales are expected to have eased by 0.4% m/m in March, compared to 0.8% m/m in February. FOMC Meeting Minutes (USD, GMT 18:00) FOMC minutes, detailing the view of each of the Fed Governors and FOMC Members, shed light on their perspectives regarding the future of the US economy. FOMC left policy on hold earlier this month, and it cited solid growth, low headline and core inflation, though Powell said in his presser that the weakness was likely “transitory”. Thursday – 23 May 2019 Gross Domestic Product (EUR, GMT 06:00) – German Preliminary Q1 results are expected to remain unchanged, at an annualised rate of 0.6%, and at 0.4% compared to 1.1% last quarter. Services and Manufacturing PMI (EUR, GMT 08:00) – Preliminary Manufacturing and Composite PMIs are expected to increase in May, to 48.2 and 51.8 respectively while the Services PMI is forecast at 53. German IFO (EUR, GMT 08:00) – German IFO business confidence is expected to hold steady at 99.2, after it unexpectedly declined to 99.2 in the April reading from 99.7 in March. European Parliamentary Elections – DAY 1 Friday – 24 May 2019 Retail Sales and Core (GBP, GMT 08:30) – Following a correction in March, Retail Sales are expected to slip this month by -0.4% m/m from 1.1% m/m. Durable Goods (USD, GMT 12:30) – Durable goods orders are pegged at -1.8% in April, after a 2.7% figure in March. Transportation orders should be -7.2%. Boeing orders should fall to the lean 28 area from an already-low 44 in March, with a likely hit via problems with the Boeing 737 Max that may have prompted buyers to delay new purchase commitments, while vehicle assemblies are seen steady from a 10.8 mln pace in March. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  14. পাউন্ড/ডলার পেয়ারটি দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো নিন্মগামী অব্যাহত রেখেছে। জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়েরে পর থেকে এটা সর্বনিন্ম লেভেলে রয়েছে। এ সপ্তাহের মূল ইভেন্টগুলো হলো মুদ্রাস্ফীতি (Inflation) এবং রিটেইলস সেলস। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং পাউন্ড/ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। যুক্তরাজ্যের জিডিপি তেমন ভাল অবস্থানে নেই। মার্চ মাসে যুক্তরাজ্যের জিডিপি শতকরা ০.১% কমেছে। তবে ধারণা করা হয়েছিল এবারের জিডিপি ০.০% থাকবে। তবে কোয়াটারলি ইনডিকেটর অনুযায়ী, ১ম প্রান্তীকের প্রিলিমিনারি জিডিপি শতকরা ০.৫% এসেছে। এটা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছে। ৪র্থ প্রান্তীকে ফাইনাল জিডিপি শতকরা ০.২ পার্সেন্ট এসেছিল। মার্চ মাসে মেনুফেকচারিং প্রডাকশন শতকরা ০.৯% বেড়েছে। এটা ধারণকৃত লেভেল ০.১% এর অনেক উপরে। এদিকে ব্রেক্সিট নিয়ে উত্তেজনা বাড়ছে। প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে পার্লামেন্টে উইড্রো চুক্তি পাশ করাতে ব্যর্থ হন। সুতরাং কোন চুক্তিতে পৌঁছানো যায়নি। যার ফলে ব্রিটিশ ইকোনমিতে খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি কারবিনের সাথে মীমাংহীনভাবে আলোচনা করে যাচ্ছে। তবে ভাল কোন দিক পরিলক্ষিত হচ্ছে না। এদিকে ব্রিটিশ ইমপ্লোইমেন্ট ডাটা প্রত্যাশার তুলনায় কিছুটা খারাপ অবস্থানে রয়েছে। ওয়েজ এ মাসের শুরুর দিকে ৩.৪% বেড়েছিল। তবে বর্তমানে ৩.২% বেড়েছে। বেকারত্বের হার ২৪.৭ হাজার কমেছে। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ২৪.৪ হাজারের বেশি এসেছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য উত্তেজনা বেড়েছে, তারপরেও মার্কিন ডলারকে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে দেখা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন এক অপরের পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছেন। তবে উভয় দেশের মধ্যে কোন বানিজ্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়নি। যার ফলে পেয়ারটি কিছুটা ঝুঁকির দিকে থাকবে। তারপরেও বিনিয়োগকারীরা মার্কিন ডলার এবং জাপানী ইয়েনকে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে বিবেচনা করছেন। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র ২০০ বিলিয়ন পণ্যের উপর ১০ % থেকে ২৫% শুল্ক আরোপ করেছেন। এদিকে চীনও ৬০ বিলিয়ন ডলার পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছেন। সুতরাং যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য আলোচনা চলছে। পরবর্তীতে এ আলোচনা কতদূর যাবে সেটা দেখার বিষয়। পাউন্ড/ডলারের প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো: ১.CB Leanding Index সোমবার ভোর ০৫:৩০। কনফারেন্স বোর্ডের ইনডেক্স অনুযায়ী বলা হচ্ছে, ফেব্রুয়ারীতে এ সেক্টরে শতকরা ০.৪% কমেছে। ২.Inflation Report Hearings মঙ্গলবার দুপুর ০২:৩০। ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের গভর্নর যুক্তরাজ্যের মুদ্রাস্ফীতি এবং ইকোনমিক আউটলুক নিয়ে কথা বলবেন। কার্নির মন্তব্যে যদি প্রত্যাশার তুলনায় হকিশ মন্তব্য আসে তাহলে পাউন্ডের প্রাইস খুব দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে। ৩.CBI Industrial Order Expectations মঙ্গলবার বিকাল ০৪:০০। এপ্রিল মাসে মেনুফেকচারিং অর্ডার কমেছে, এ সেক্টর থেকে এপ্রিল মাসে ৫ পয়েন্ট এসেছে। প্রত্যাশা করা হয়েছিল ৩ পয়েন্ট কমবে। মে মাসের রিপোর্টেও আরেকটি দুর্বল ফলাফল প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এটা আনুমানিক ৬ পয়েন্ট আসতে পারে। ৪.Inflation Data বুধবার বিকাল, ০৮:৩০। গত দুইবারের রিপোর্টে সিপিআই শতকরা ১.৯% বেড়েছে, তবে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ডের টার্গেট ছিল ২.০% আসতে পারে। তবে এপ্রিল মাসের রিপোর্টে শতকরা ২.২% বাড়তে পারে। ৫.Retails Sales শুক্রবার, বিকাল ০৪:০০। ফেব্রুয়ারী মাসে এ সেক্টর থেকে ০.৪% আসতে পারে এবং মার্চ মাসে এ সেক্টরে শতকরা ১.১% বেড়েছে। তবে এপ্রিলের রিপোর্টে কি হবে আমরা তার জন্য অপেক্ষা করছি। ৬.CBI Realized Sales শুক্রবার বিকাল ০৪:০০। এপ্রিল মাসে সেলস ভলিউম ১৩ পয়েন্ট এসেছে। এটা নভেম্বরের পর থেকে সর্বোচ্চ লেভেল । তবে কি আমরা মে মাসে আরেকটি পজিটিভ দিক দেখতে পারবো? পাউন্ড/ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো: নভেম্বরের শুরুর দিকে ১.৩১৭০ সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল। নভেম্বরের মাঝামাঝিতে ১.৩০৭০ সর্বোচ্চ পয়েন্ট ছিল। ১.৩০ একটি রাউন্ড নাম্বার ছিল । গত সপ্তাহে ১.২৯১০ একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাইস ছিল। নভেম্বরের শেষের দিকে ১.২৮৫০ একটি রিকভারি লেভেল ছিল। জানুয়ারির প্রথমার্ধে ১.২৭২৮ একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাইস ছিল। পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ১.২৬৬০। ২০১৭ সালের সেপ্টম্বরে ১.২৫৯০ একটি সুইং লো লেভেল ছিল। ২০১৭ সালের শুরুর দিকে ১.২৫ গুরুত্বপূর্ণ রাউন্ড নাম্বার ছিল। পরবর্তী ডাউন লেভেল ছিল ১.২৪২০ এবং ১.২৩৩০। শেষ কথা আমরা ধারণা করছি পাউন্ড/ডলার পেয়ারটির প্রাইস কমতে পারে। মে মাসে পাউন্ডের প্রাইস অনেক কমেছে এবং বিনিয়োগকারীরা বাই নেওয়ার জন্য ভাল কোন নিউজের আশা করছে। তবে ব্রেক্সিটকে নিয়ে বেশ অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হচ্ছে, তাই আমরা ধারণা করছি পাউন্ডের প্রাইস আরও কমতে পারে। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইকোনমি বেশ ভাল অবস্থানে রয়েছ, যার ফরে বিনিয়োগকারীরা মার্কিন ডলারকে নিরাপদ হিসেবে মনে করছেন।
  15. Daily Forex News By XtreamForex

    Technical Overview of CHF/JPY and EUR/AUD Currency Pair CHF JPY The CHF traded higher against the JPY and closed at 108.824. The followed the following actions. 1 - It broke he Monthly support upwards 2 - It broke the Quarterly support upwards 3 - Formed A Resistance Trend Line and broke it to the upside 4 - The Daily 9 ema is to the upside 5 - If the pair breaks the Up 127 extension then we may see an extended move or 6 - If the pair breaks the down 127 extension then this may be a double top. According to the Analysis, The pair is expected to find support at 108.467, and a fall through could take it to the next support level of 108.111. The pair is expected to find its first resistance at 109.076, and a rise through could take it to the next resistance level of 109.329. CHF JPY Previous Day range was 6090 and Current Day Range is 2530. EUR AUD The EUR traded higher against the AUD and closed at 1.6245. The followed the following actions. 1- It broke the Quarterly Pivot upwards. 2 - Making a series of HH and HL. 3 - Formed A Support Trend Line. 4 - The Daily 9 ema is to the upside. 5 - If the pair breaks the Up 127 extension then we may see an extended move. or 6 - If the pair breaks the down 127 extension then this may be a double top. 7 - The up 127 Extension is in confluence with Quarter and Year Resistance. According to the Analysis, The pair is expected to find support at 1.62134, and a fall through could take it to the next support level of 1.61818. The pair is expected to find its first resistance at 1.62689, and a rise through could take it to the next resistance level of 1.62928. EUR AUD Previous Day range was 55.5 and Current Day Range is 89.4. Fundamental Overview Inflation in the euro area is not at the level of 2% the ECB wants it to be, the ECB policy maker Klaas Knot says. Japan: GDP shows strong fundamentals are supporting demand US Pres. Trump: “Starting Monday, our great Farmers can begin doing business again with Mexico and Canada.
  16. ইউরো/ডলার পেয়ারটির প্রাইস গত সপ্তাহে কমেছিল। এ সপ্তাহের মূল ইভেন্টগুলো হলো এপ্রিল মাসের সার্ভিস এবং মেনুফেকচারিং পিএমআই। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং ইউরো/ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। এপ্রিল মাসে ইউরোজোনে ভোক্তাদের ব্যয় ( Consumer Spending ) ভাল এসেছে, সিপিআই ( CPI ) শতকরা ১.৭% বেড়েছে, যা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছে। মার্চ মাসে এ সেক্টরে শতকরা ০.৮% বেড়েছিল। এপ্রিল মাসে কোর সিপিআই ( Core CPI ) শতকরা ১.৩% বেড়েছে। যা আমাদের অনুমানকৃত লেভেল ১.২% এর উপরে এসেছে। ২০১৩ সালের মার্চ মাসের পরে এটা একটি শক্তিশালী লেভেল। ১ম প্রান্তীকে জার্মানের প্রিমিলিনারি জিডিপি (GDP) শতকরা ০.৪% বেড়েছে। এটা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ স্তর। সামগ্রিকভাবে জার্মান ইকোনমি তেমন ভাল অবস্থানে নেই। এমনটি ইউরোজোনের বৃহত্তম দেশ জার্মানের ইকোনমিতে দুর্বল অবস্থা বিরাজ করছে। বৈশ্বিক বানিজ্য যুদ্ধের কারণে ইউরোজোন এবং জার্মানী পণ্যের চাহিদা কমেছে। যার ফলে ইউরোজোন এবং জার্মানের মেনুফেকচারিং সেক্টর তেমন ভাল অবস্থানে নেই। যুক্তরাষ্ট্র্য এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য নিয়ে আলোচনা চলছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল ট্রাম্প চীনা পণ্যের উপর নতুন করে শুল্ক আরোপ করেছেন। তবে চীনও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তার জবাব দেওয়া চেষ্টা করবেন। বানিজ্য যুদ্ধ সম্পর্কে বিনিয়োগকারীরা বেশ চিন্তিত, কারণ চীনের উপর শল্ক আরোপের পর যুক্তরাষ্ট্র জার্মানের অটো সেক্টরের দিকে নজর দিতে পারেন। ইউরো/ডলারের প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্টেন্স লাইনগুলো দেওয়া হলো: ১.German PPI মঙ্গলবার, দুপুর ১২:০০। প্রডাউসার প্রাইস ইনডেক্স গত দুইবারে শতকরা ০.১% কমেছে। তবে এপ্রিল মাসের রিলিজে মোটামুটি ভাল নিউজ আশা করা হচ্ছে। এটা আনুমানিক ০.৪% হতে পারে। ২.Current Account সোমবার দুপুর ০২:০০। ফেব্রুয়ারিতে অ্যাকাউন্ট সংকীর্ণ পরিসরে ২৬.৮ বিলিয়ন ইউরো বেড়েছে। তবে ধারণা করা হয়েছে ৩৩.২ বিলিয়ন ইউরো বাড়বে। তবে আশা করা হচ্ছে, মার্চ মাসেও ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত থাকবে। এটা আনুমানিক ২৪.২ বিলিয়ন ইউরো হতে পারে। ৩.Consumer Confidence মঙ্গলবার রাত ০৮:০০। ইকোনমিক আউটলুক পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে, ইউরোজোনের কনজিউমার বেশ হতাশাজনক অবস্থানে রয়েছে। এপ্রিল মাসে কনজিউমার কনফিডেন্স থেকে ৮ পয়েন্ট এসেছে। আশা করা হচ্ছে, মার্চ মাসের রিপোর্টেও এর কোন পরিবর্তন হবে না। ৪.German Final GDP বৃহস্পতিবার দুপুর ১২:০০। আশা করা হচ্ছে, জার্মান ফানাল জিডিপি শতকরা ০.৪% বাড়বে। এটা এ মাসের শুরুর রিপোর্ট অনুযায়ী হবে । ৫.PMIs বৃহস্পতিবার, ফ্রান্স দুপুর ০১:১৫, জার্মান ০১:৩০, ইউরোজোন ০২:০০। এপ্রিল মাসে ফ্রান্স পিএমআই ৫০.৫ পয়েন্ট এসেছে। আশা করা হচ্ছে, মে মাসে ৫০.৭ পয়েন্ট আসতে পারে। মেনুফেকচারিং পিএমআই গত দুইবার ৫০ পয়েন্টের নিচে থাকার পরে এবারে ৫০.১ পয়েন্ট এসেছে। তারপরেও এটা তেমন ভাল অবস্থান নয়। জার্মান সার্ভিস পিএমআই কিছুটা ভাল আসতে পারে, এ সেক্টর থেকে আনুমানিক ৫৫.২ পয়েন্ট আসতে পারে। মেনুফেকচারিং সেক্টর তেমন ভাল অবস্থানে নেই, এটা আনুমানিক ৪৫.৯ পয়েন্ট আসতে পারে। ইউরোজোনের ক্ষেত্রেও একই অবস্থা পরিলক্ষিত হচ্ছে, ইউরোজোনের মেনুফেকাচারিং পিএমআই ৪৮.২ পয়েন্ট আসতে পারে। তবে সার্ভিস পিএমআই ৫৩.০ পয়েন্ট আসতে পারে। ৬.German Ifo Business Climate বৃহস্পতিবার, দুপুর ০২:০০। এপ্রিল মাসে এ সেক্টরে ধারণাকৃত লেভেল ৯৯.৭ থেকে ৯৯.২ পয়েন্ট এসেছে। তারপরেও এটা ভাল অবস্থানে রয়েছে। তবে আশা করা হচ্ছে, মার্চ মাসেও এ রিপোর্টের কোন পরিবর্তন হবে না। ৭.ECB Monetary Policy Meeting Accounts বৃহস্পতিবার, বিকাল ০৫:৩০। এপ্রিল মাসের মিনিট মিটিং থেকে কি পলিসি আসতে পারে, সেটা দেখার বিষয়। তবে ইসিবি ২০২০ সালের আগে ইন্টারেস্ট রেট বাড়াবেন কিনা। এ মিটিংয়ের মাধ্যমে বিস্তারিত জানা যাবে। ইউরো/ডলারের প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্টেন্স লাইনগুলো দেওয়া হলো: EUR/USD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো: অক্টোবরের মাঝামাঝিতে ১.১৫৭০ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল। জানুয়ারির শেষের দিকে ১.১৫১৫ সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল। ফেব্রুয়ারীর শুরুর দিকে ১.১৪৩৫ সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল। জানুয়ারির শেষের দিকে ১.১৩৯০ একটি গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট লেভেল ছিল। পরবর্তী লেভেল ছিল ১.১৩৪৫। ১.১২৯০ রেজিস্ট্যান্স লাইন ছিল। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ১.১২৭০ একটি ডাবল বটোম লেভেল ছিল। ১.১২১৫ একটি দুর্বল সাপোর্ট লেভেল ছিল। পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ছিল ১.১১১৯ গত সপ্তাহের সাথে সম্পর্কিত। ২০১৭ সালের মে মাসে ১.১০২৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট লেভেল ছিল। পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল ছিল ১.০৯৫০। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল ১.০৮৭০। বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ১.০৮২০। শেষ কথা আমরা ধারণা করছি ইউরো/ডলার পেয়ারটি নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে বানিজ্য যুদ্ধের কারণে ইউরোর প্রাইস কিছুটা বেড়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ইকোনমিও মোটামুটি ভাল অবস্থানে রয়েছে। যার কারণে ইউরো/ডলার পেয়ারটি নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকতে পারে।
  17. Dhaka te ki kono training centre ache jekhane Forex basic-to-advanced shekhano hoy? Ami akta offline course chachi jekhane Forex hate dhore shekhano hobe. Please help!
  18. Last week
  19. 300/5000 দেশী শিক্ষক বাংলাদেশী টিউশন মিডিয়া ও শিক্ষা কেন্দ্র। যদি আপনি এই শিক্ষা মিডিয়া সেন্টারের মাধ্যমে হোম টিউটর বা টিউশন চান। আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট না করেই যোগ্য হোম ট্যুরির ভাড়া নিতে টিউশন পেতে বা টিউশন সার্কুলার প্রকাশের জন্য হোম টিউটর হিসাবে নিবন্ধন করুন / লগইন করুন।
  20. গত সপ্তাহের পাউন্ড/ডলার পেয়ারটির ট্রেডিং সেশনের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে, গত সপ্তাহের প্রথমদিন অর্থাৎ সোমবার পেয়ারটি ওপেন হয়েছিল ১.২৭১৯৬ প্রাইসে এবং ক্লোজ হয়েছিল ১.২৭২০৩ প্রাইসে। সুতরাং ঐদিন পেয়ারটি বেশ ভালভাবেই কমেছে। তারপর মঙ্গলবার থেকে পেয়ারটির প্রাইস ক্রমাগত কমতে শুরু করে এবং সর্বশেষ বৃহস্পতিবার পেয়ারটির প্রাইস ১.২৭১৩০ তে ক্লোজ হয়। আমরা গত সপ্তাহের ট্রেডিং সেশনের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পারছি। পেয়ারটির ১.২৭১৩০ প্রাইস থেকে কমে ১.২৭১৩০ তে ক্লোজ হয়। সুতরাং গত সপ্তাহে পেয়ারটি ডাউনট্রেন্ডে ছিল। তাই আমরা পেয়ারটির নিরপেক্ষ অবস্থানকে সমর্থন করছি। কারণ যেহেতু পেয়ারটি গত সপ্তাহের ৬ দিন ধরে কমছে। তাই পেয়ারটির প্রাইস বাড়তেও পারে। এছাড়াও যেহেতু যুক্তরাজ্যে ব্রেক্সিট নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে। তবে এটা নিয়ে কোন সমোঝতায় পৌঁছাবে কিনা, সেটা নিশ্চিত ভাবে বলা যাচ্ছে না। আর যদি এ অনিশ্চয়তা বিরাজ করে তাহলে পেয়ারটির প্রাইস আরও কমতে পারে। তাই আমরা পেয়ারটি সম্পর্কে নিরপেক্ষ অবস্থানকে সমর্থন করছি। তবে ব্রেক্সিট আলোচনার যদি কোন উন্নতি হয়, তাহেল পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে পারে। পাউন্ড/ডলারের ফান্ডামেন্টাল এবং টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস নিয়ে, আগামীকাল চলতি সপ্তাহের GBP/USD ফরেক্স মার্কেট আপডেট ( ২০ থেকে ২৪ মে) নামে একটি আর্টিকেল প্রকাশ করা হবে। এ আর্টিকেলটিতে বিস্তারিত বর্ণনা করা হবে।
  21. আমরা গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে অর্থাৎ ৬ তারিখের ট্রেডিং সেশনের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পাচ্ছি, ঐ সপ্তাহের প্রথম দিকে পেয়ারটির প্রাইস ক্রমাগত কমছিল। ঐ সপ্তাহের প্রথমদিন অর্থাৎ সোমবার পেয়ারটি ক্লোজ হয়েছিল ১.১১৫৯৩ প্রাইসে। তারপরে ঐ সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস ক্রমাগত কমতে থাকে এবং বুধবার ১.১১৫৬১ প্রাইসে ক্লোজ হয়েছিল। ঐ সপ্তাহে পেয়ারটি ৩২ পিপসের মতো কমেছিল। বৃহস্পতিবার পেয়ারটি ১.১১৫৫০ প্রাইসে ওপেন হয় এবং তারপর থেকে পেয়ারটির প্রাইস ক্রমাগত বাড়তে থাকে। গত সপ্তাহের বুধবার পর্যন্ত পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে। বুধবার পেয়ারটি ওপেন হয়েছিল ১.১১৫৬৮ প্রাইসে এবং ক্লোজ হয়েছিল ১.১১৫৭৭ প্রাইসে। ঐ দিনের ট্রেডিং শেসন পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে, ঐ দিন পেয়ারটি ৯ পিপসের মতো বেড়েছিল। তারপর থেকে পেয়ারটির প্রাইস ক্রমাগত কমতে থাকে। বৃহস্পতিবার পেয়ারটির প্রাইস কমে ১.১১৫৭৫ তে এসেছে এবং শুক্রবার পেয়ারটির প্রাইস কমে ১.১১৫৬২ প্রাইসে এসে ক্লোজ হয়। আমরা যদি লক্ষ্য করি তাহলে দেখতে পারবো, পেয়ারটি ৬ থেকে ৮ তারিখ পর্যন্ত ক্রমাগত কমছিল। তার পর ৯ তারিখ থেকে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে শুরু করে এবং ১৫ তারিখ পর্যন্ত পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধি অব্যাহত ছিল। তারপরে ১৬ তারিখ পেয়ারটির প্রাইস কমতে শুরু করে এবং ১৭ তারিখ অর্থাৎ গত সপ্তাহের শেষের দিন বৃহস্পতিবারও পেয়ারটির প্রাইস কমা অব্যাহত ছিল। তাই আমরা ধারণা করছি, পেয়ারটি আগামী সপ্তাহের প্রথম দিকেও কিছু কমতে পারে। হয়তবা পরবর্তীতে পেয়ারটি বৃদ্ধি পেতে পারে। তাছাড়াও আমরা যদি ইউরোপের দিকে লক্ষ্য করি, তাহলে দেখতে পারবো ইউরোপের ইকোনমিও তেমন ভাল অবস্থানে নেই। যার ফলে ইউরোর প্রাইস কমতে পারে। ইউরো/ডলারের পরবর্তী অবস্থান জানার জন্য, চলতি সপ্তাহের ইউরো/ডলার ফরেক্স মার্কেট আপডেট আর্টিকেলটি অনুসরণ করতে পারেন। আর কিছু ক্ষণের মধ্যে এই আর্টিকেলটি প্রকাশ করা হবে।
  22. গত সপ্তাহে মার্কিন ডলার/কানাডিয়ান ডলারের প্রাইস কিছুটা বেড়েছিল। এ সপ্তাহে মার্কিন ডলার/কানাডিয়ান ডলারের উপর প্রভাব বিস্তার করার মতো তেমন কোন ইভেন্ট নেই। তবে রিটেইলস সেলস কিছুটা প্রভাব ফেলতে পারে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং মার্কিন ডলার/কনাডিয়ান ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। কানাডিয়ান সিপিআই গত দুইবার বৃদ্ধি পাওয়ার পরে, এবারে ০.৪% এসেছে। গত ৪ মাসে কোর সিপিআই অপরিবর্তনীয় ০.০% তে রয়েছে। তবে মেনুফেকচারিং সেক্টর মোটামুটি ভাল অবস্থানে রয়েছে, মেনুফেকচারিং সেক্টর শতকরা ২.১% বেড়েছে। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ১.৫% এর উপরে এসেছে। এ রিপোর্টটি ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসের শক্তিশালী রিপোর্টকে নির্দেশ করছে। কানাডিয়ান ইকোনমিতে যেহেতু ৬৭.৭ হাজার জবের সৃষ্টি হয়েছে। তাই আশা করা হচ্ছে, এপ্রিল মাসে ননফার্ম পে-রোলস ভাল আসতে পারে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য উত্তেজনাকের কেন্দ্র করে বৈশ্বিক মার্কেট বেশ উত্তেজনার মধ্যে রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন একে অপরের পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছে। যার ফলে বানিজ্য ‍চুক্তি নিয়ে যে সমঝোতার কথা ছিল তা নিরাস হয়ে গেল। এর ফলে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এদিকে বিনিয়োগকারীরা মার্কিন ডলার এবং জাপানী ইয়েনক কিছুটা নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে মনে করছে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র ২০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্যের ‍উপর ১০% থেকে ২৫% শুল্ক আরোপ করেছে। এটা গত এক সপ্তাহে আগের ঘটনা, যার ফলে মার্কেটে বেশ উত্তেজনাপূর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে চীন যুক্তরাষ্ট্রের ৬০ বিলিয়ন পণ্যের উপর শুল্ক আরোপ করেছেন। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে পাল্টাপাল্টি আলোচনা চলছে, বিনিয়োগকারীরা এখন পরবর্তী শুল্ক যুদ্ধের দিকে নজর রাখবেন। মার্কিন ডলার/ কানাডিয়ান ডলারের প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো ১.Retail Sales Data বুধবার সন্ধ্যা ০৬:৩০। গত তিন মাস রিটেইলস সেরস রিপোর্ট খারাপ আসার পরে ,ফেব্রুয়ারীতে রিটেইলস সেলস শতকরা ০.৪% বেড়েছে। ফেব্রুয়ারিতে কোর রিটেইলস সেলস শতকরা ০.৬% বেড়েছে। এটা ধারণাকৃত লেভেল ০.২% এর ‍উপরে এসেছে। তবে মার্চ মাসের রিপোর্টে কি আমরা আরেকটি ভাল ফলাফল দেখতে পারবো ? ২.Wholesale Sale বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ০৬:৩০। ফেব্রুয়ারীতে হোল সেলস রিপোর্ট তেমন ভাল আসেনি, এ মাসেএই সেক্টর থেকে ০.৩% এসেছে। এটা প্রত্যাশিত লেভেল ০.১% কে খুব সহজেই অতিক্রম করেছে। ৩.Corporate Profits বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ০৭:৩০। প্রথম প্রান্তীকে কর্পোরেট প্রফিট শতকরা ৩.৯% কমেছে। গত তিননবার ভাল অবস্থানে থাকার পরে পেয়ারটি এ বারের রিপোর্টে খারাপ এসেছে। মার্কিন ডলার/কানাডিয়ান ডলারের টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস টেকনিক্যাল লাইনগুলো উপর থেকে নিচে দেওয়া হলো: ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে ১.৩৯১৫ একটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল। ২০১৭ সালের মে মাসে ১.৩৭৫৭ আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল। ডিসেম্বরে মার্কিন ডলার/কানাডিয়ান ডলারের সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল ১.৩৬৬০। ২০১৭ সালের জুন মাসে ১.৩৫৪৭ আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাইস ছিল। (গত সপ্তাহে উল্লেখিত ) এটা এ সপ্তাহের দুর্বল সাপোর্ট লেভেল হতে পারে। পরবর্তী লেভেল ১.৩৩৮৫ এবং ক্লোজ হয়েছিল ১.১৩৩৫০ লেভেলে। নভেম্বরের মাঝামাঝিতে ১.৩২৬৫ সর্বোচ্চ প্রাইস ছিল। মার্চে এটা সাপোর্ট লেভেল ছিল। নভেম্বরের শেষের দিকে ১.৩১৭৫ সর্বনিন্ম প্রাইস ছিল। বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ১.৩১২৫। শেষ কথা আমরা ধারণা করছি মার্কিন ডলার/কানাডিয়ান ডলার পেয়ারটির প্রাইস বাড়বে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য উত্তেজনা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর ফলে মার্কিন ডলারের ঝুঁকিও বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে কানাডার ইকোনমিক অবস্থা তেমন ভাল নেই। যার ফলে মার্কিন ডলারের প্রাইস বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
  23. যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য যুদ্ধের মন্দা অবস্থার পরে এখন মার্কেট কোন দিকে যাবে সেটা দেখার বিষয়। এ সপ্তাহে মার্কেটে যে ইভেন্টগুলো প্রভাব ফেলবে তার মধ্যে রয়েছে। এফওএমসি (FOMC) মিনিটস, যুক্তরাষ্ট্রের টেকসই পণ্যের ( Durable goods) অর্ডার এবং এছাড়াও আরও কিছু ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট ওভারভিউ আলোচনা করা হলো। যুক্তরাষ্ট্রের শুল্ক আরোপের পরে চীনের পাল্টা জবাব। যার ফলে স্টক মার্কেট খারাপ অবস্থানে রয়েছে এবং বিনিয়োগকারীরা ইয়েনকে নিরাপদ কারেন্সি হিসেবে দেখছেন। বেক্সিট সম্পর্কে ক্রস-পার্টির আলোচনা পাউন্ডের উপর বেশ প্রভাব ফেলছে এবং মার্কেটে উত্তেজনা বাড়াচ্ছে। যার ফলে পাউন্ডের প্রাইস ক্রমাগত কমছে। ১.Australian elections শনিবার। অস্টেলিয়ার নির্বাচনে লিবারেল ন্যাশনাল পাটি জয় লাভ করেছেন এবং তারা স্কট মরিসনকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচন করেছেন। তবে তার শাসনকে কেন্দ্র করে মার্কেট কোন দিকে পরিচালিত হবে সেটা দেখার বিষয়। আশা করা হচ্ছে, মার্কে স্থিতিশীল অবস্থায় থাকবে। ২.UK Inflation বুধবার দুপুর ০২:৩০। বর্তমানে কনজিউমার প্রাইস তেমন ভাল অবস্থানে নেই, যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রাস্ফীতি বাৎসরিক শতকরা ১.৯ পার্সেন্ট কমেছে। মার্চ মাসে কোর সিপিআই ( Core CPI ) ১.৮% এসেছে। যে কোন ধরণের মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধির ফলে ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড ইন্টারেস্ট রেট বাড়াতে পারে। তবে এখন মুল উত্তেজনা হলো ব্রেক্সিট নিয়ে পূর্ণ সামাধান। ৩.FOMC Meeting minutes বুধবার রাত ১২:০০। ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক মে মাসে ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছে। তবে বিনিয়োগকারীরা প্রত্যাশা করেছিল, ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট কমাবে কিন্তু এর বিপরীত হয়েছে। ফেড চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েল ইকোনমিক ভাল দিকগুলো তুলে ধরে জোর দিয়ে বলেছেন, লো মুদ্রাস্ফীতি অস্থায়ী। জব রিপোর্ট তুলনামূলকভাবে ভাল অবস্থানে রয়েছে। ৪.Euro-zone PMIs বৃহস্পতিবার ফ্রান্স দুপুর ০১:১৫, জার্মান ০১:৩০ এবং ইউরোজোন ০২:০০ প্রকাশ করা হয়েছে। মার্কিটের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ইউরোজোনের পিএমআই মোটামুটি ভাল অবস্থানে রয়েছে। তবে জার্মানের মেনুফেকচারিং সেক্টর মিশ্র অবস্থানে রয়েছে। এ সেক্টর থেকে মার্চ মাসে ৪৪.৪ পয়েন্ট এসেছে। তবে ইউরোজোনের ইকোনমিক যন্ত্র হিসেবে পরিচিত জার্মানের জন্য এটা তেমন ভাল পয়েন্ট নয়। ৫০ পয়েন্টের নিচে থাকলেই এটা খারাপ অবস্থান হিসেবে বিবেচিত হয়। তবে সার্ভিস সেক্টর ভাল অবস্থানে রয়েছে। এ সেক্টর থেকে ৫২.৮ পয়েন্ট এসেছে। এটা প্রত্যাশিত লেভেল অনুযায়ী এসেছে। ৫.ECB Meeting minutes বৃহস্পতিবার বিকাল ০৫:৩০। ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছেন। এটা মার্কেটকে নিন্মমূখী অবস্থানের ইঙ্গিত দিচ্ছে। তবে কিছু ইকোনমিক ইনডিকেটর মার্কেটের ভাল অবস্থানের ইঙ্গিত দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য যুদ্ধে, ব্রেক্সিট এবং অন্যান্য বিষয়গুলো কারণে মার্কেটে অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে। ৬.European elections রবি থেকে বৃহস্পতিবার। যুক্তরাজ্যসহ ইউরোজোনের ২৮ টি দেশ ইউরোপিয়ান নতুন পার্লামেন্ট গঠন করার জন্য ভোট দিবেন। এট মার্কেটের ‍উপর বেশ প্রভাব ফেলবে। তবে নির্বাচনের আগে ইউরোপে বেশ উত্তেজনা বিরাজ করতে পারে। এটি ইউরোর উপর প্রভাব ফেলতে পারে। তাই আমরা পরবর্তী অবস্থানের দিকে নজর রাখবো। ৭.UK retail Sales শুক্রবা দুপুর ০২:৩০। যুক্তরাজ্যে মার্চ মাসে রিটেইলস সেলস শতকরা ১.১ পার্সেন্ট বেড়েছে। এপ্রিল মাসে এই অবস্থার কিছু পরিবর্তন হতে পারে। তবে ব্রেক্সিটের আলোচনার কারণে মার্কেটে যে কোন পরিবর্তন আসতে পারে। ৮.US Durable goods orders শুক্রবার সন্ধ্যা ০৬:৩০। যুক্তরাষ্ট্রের ডিউরেবল পণ্যের অর্ডার বেশ পিছিয়ে পরেছে। তবে আমরা আশা করছি, এ বছরের দ্বিতীয় কোয়াটারের এপ্রিল মাসের রিপোর্ট কিছুটা বৃদ্ধি পাবে। মার্চ মাসে কোর অর্ডার এসেছে শতকরা ২.৭% । এটা গত বারের তুলনায় মাত্র ০.৪% বৃদ্ধি পেয়েছে।
  24. EURUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) মার্কেটের ১.১২২৫ তে একটি রেজিস্ট্যান্স লেভেল দেওয়া হয়েছে এবং ১.১১৯৬ তে একটি সেল সিগন্যাল দেওয়া হয়েছে। ১.১২২৫ প্রোইস লেভেল ভেঙ্গে নিচে নামলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.১১৫০,১.১১৩০,১.১১০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১২২৫, ১.১২৪৫,১.১২৭০ বাই এন্ট্রি : ১.১১৯৮ স্টপ লস : ১.১২২৫ ট্রেডের সম্ভাবনা: নিন্মমানের টেক প্রফিট: ১.১১৫০,১.১২৭০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেট ১.১১৫০ সাপোর্ট লেভেলে টেস্টিং করছে। আমরা বাই পজিশন নেওয়ার জন্য কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি। পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ সাপোর্ট লেভেল ১.১১০০। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.১১৫০, ১.১১০০,১.১০৪০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১২৪০,১.১২৮৫,১.১৩১০ বাই এন্ট্রি : GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) মার্কেট ১ম টেক প্রফিটে পৌঁছেছে। আমরা ৫০% পজিশন ক্লোজ করবো এবং ১.২৮২৫ প্রফিট লেভেলে স্টপ লস নেব। মার্কেট খুব তাড়াতাড়ি ২য় টেক প্রফিটে পৌঁছাবে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.২৭৩৮, ১.২৭০০, ১.২৬৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.২৮২৫, ১.২৮৬০, ১.২৯৩০ সেল এন্ট্রি: ১.২৮২৫, স্টপ লস : ১.২৮২৫ ট্রেডের সম্ভাবনা : সর্বোচ্চ টেক প্রফিট : ১.২৭৯২, ১.২৭৩৮ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) পেয়ারটি ১.২৮৮০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে । সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.২৭২০, ১.২৬৯০, ১.২৬৬০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.২৮৮০, ১.২৯৩০, ১.৩০৩০ সেল এন্ট্রি :
  25. Market Analysis and News.

    Date : 17th May 2019. MACRO EVENTS & NEWS OF 17th May 2019. FX News Today Treasuries sold off as risk appetite soured. Wall Street posted broadbased and solid intraday gains of over 1% Thursday. There was good news on the data front, as well as stellar earnings news from Walmart to add to the bullish tone in equities. Bank of Japan governor Kuroda said the ultra-low rates may be maintained for a further period of well over a year. However, Kuroda warned against the idea of propping up the economy through unlimited money printing saying that “when a central bank monetises debt unlimitedly, it will most certainly trigger hyper-inflation and cause huge demand to the economy”. There were comments in China state media saying China may have no interest in continuing trade talks with the US for now. The Yuan fell past the psychologically important 6.9 per dollar level, something that previously had been speculated to eventually lead to the selling of Chinese Treasury holdings to prop up the currency. The WTI future is trading at $62.98 per barrel. Geopolitical tensions in the Mideast continue to provide support, with the latest rally coming as Saudi Arabia blamed Iran and its proxies for attacks on Saudi oil infrastructure this week. Charts of the Day Technician’s Corner EURUSD fell to 8-session lows of 1.1172 at mid-morning, slipping from opening highs near 1.1210. The early round of Dollar friendly US data saw the pairing start its decent, with selling pick up some pace on the break under the 20-day MA of 1.1197. The May 7 low of 1.1167 Support was reached , however the asset manage to hold above it so far today. A break there could open the door for a test of the May 3 low of 1.1135. GBPUSD’s low is 1.2787 in what is now the 5th consecutive daily decline and the eighth down day out of the last nine trading days. Resistance comes in at 1.2875-78. Next Support holds at 1.2700. Main Macro Events Today Consumer Price Index (EUR, GMT 09:00) – The Euro Area CPI for April is expected to slow down slightly, at 0.7% from 1% last month. However, the overall picture remains largely unchanged, with headline inflation remaining modest, but underlying inflation starting to firm. No reason then for the ECB to add additional stimulus measures to an already very accommodative policy stance, and “low for longer” remains the message not just from the ECB. Michigan Consumer Sentiment Index (USD, GMT 14:00) – The preliminary May Michigan sentiment reading is forecast at 97.7, up from the final April sentiment at 97.2. Support and Resistance levels Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  26. Introducing Broker Advantages of BullsEye Markets In Forex Market there are a lot of opportunities offered to traders so that they can take more advantage of Forex Market Top Online Forex Broker Companies has created an enormous opportunity for aggressive individuals who want to offer their customers online and / or efficiently managed accounts in diversity. BullsEye Markets Partnership Program offers clients an exclusive package of resources that will be used as an important benefit on the Forex trading partnership. Divided into an innovative hybrid referrer , The system covers a collection of partner types including Introducing Broker, Affiliates, Regional Partner and White Label Partnership. Here we briefly describe role of Introducing Broker: - · An experienced introducing broker can recommend the new traders on the technical or fundamental market analysis. Introducing Broker will increase the knowledge faster and simpler. · The introducing broker's role is to make relationships · Introducing Brokers can make some profit. · Introducing Broker is the difference between making a profit and losing dirua. Advantages to Become an Introducing Broker: - · Introducing Brokers can generate direct cash flow from their client's trading. · Can give their customers access to leading MT4 online forex trading platform. · Can expand in the forex trading business which is a unique speed and earns potentially large cash flows while providing a great value-added service with their clients. · BullsEye Markets IB's can earn up to $ 15 / per lot Become an Introducing Broker with BullsEye Market and enjoy many of these benefits today. The first step to become an Introducing Broker is to create a partner account with BullsEye Market. https://bullseyemarkets.com/IntroducingBroker
  27. ইন্সটাফরেক্সের অন্তর্বর্তী পাঁচটি প্রতিযোগিতার ফলাফলের সারসংক্ষেপ ইন্সটাফরেক্সের প্রতিযোগিতার প্রশাসন সাম্প্রতিক ৫টি সিরিজের প্রতিযোগিতার ফলাফলের সারসংক্ষেপ করছে। আমরা ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার, রিয়েল স্কেপিং, ফক্স-১ রেলি, লাকি ট্রেডার এবং এক মিলিয়ন অপশন এর প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করার জন্য প্রস্তুত। আমরা এই প্রতিযোগিতাগুলোর বিজয়ীদের অভিনন্দন জানাছি এবং অন্যান্য অংশগ্রহণকারীদের পরবর্তী পর্যায়ের প্রতিযোগিতাগুলো চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার জন্য আহব্বান করছি। শীঘ্রই বা পরিবর্তিতে, ভাগ্য আপনার পাশে থাকবে! ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে দ্রুত এবং সবচেয়ে নির্ভুল ট্রেডারগণ প্রতিযোগিতা করে। ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার এর সর্বশেষ পর্যায়ে সর্বোচ্চ স্কোর অর্জন করেছেন আর্মেনিয়া থেকে Arpiar Aikazovich । পরবর্তী পর্যায়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে ২০শে মে ২০১৯ থেকে ২৪শে মে ২০১৯ পর্যন্ত চলবে। রিয়েল স্কালপিং স্বল্পমেয়াদী ট্রেডিং খুবই কঠিন তাই অনেক বেশি সতর্ক এবং গভীর মনোযোগ দেবার প্রয়োজন হয়। সাবাই এই ধরণের ট্রেডিংয়ের জন্য সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে মনোনিবেশিক, যথেষ্ট দ্রুত এবং দৃষ্টি নিবদ্ধ হয়ে থাকতে পারেনা, কিন্তু এই গুণাবলী স্কালপিংয়ে সফল হওয়ার জন্য একান্ত প্রয়োজন। এই বার, ইউক্রেন থেকে Mikhail Vladimirovich Kurpas রিয়েল স্কালপিং প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থানটি নেন। ইন্সটাফরেক্স এই বিজয়ীকে অভিনন্দন জানাচ্ছে এবং এই প্রতিযোগিতায় অন্যান্য সফল ট্রেডারদের অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছে। প্রত্যেকেরই তাদের দক্ষতা প্রমান করার রিয়েল স্কালপিং প্রতিযোগিতার জন্য নিবন্ধন করতে পারেন যা পরবর্তী পর্যায়ের প্রতিযোগিতা ০৩ জুন ২০১৯ থেকে শুরু হয়ে ২৮ জুন ২০১৯ পর্যন্ত চলবে। এফএক্স-১ রেলি এফএক্স-১ রেলি সাম্প্রতিক পর্যায়ে দূরত্বের সঙ্গে মোকাবেলা করার জন্য কাজাখস্তানের Zhenis Alikovich Zalinbaev সেরা নৈপুণ্য দেখিয়েছেন। তিনি সেরা ট্রেডিং এবং রেসিং দক্ষতা প্রদর্শন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। আমরা তার অসামান্য পারফরম্যান্স এর জন্য অভিনন্দন জানাই এবং পরবর্তী প্রতিযোগিতায় তার সেরা ড্রাইভিংয়ের সন্মান ধরে রাখতে পারবেন বলে আশা করছি! যদি আপনিও আর একটি কঠিন যুদ্ধের রোমাঞ্চকর অনুভুতি উপলদ্ধি করতে চান এবং এর প্রকৃত রোমাঞ্চ অনুভব করার জন্য প্রস্তুত হন, পরবর্তী এফএক্স-১ রেলি সফরের শুরুতে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। আপনি পরবর্তী এফএক্স-১ রেলি নিবন্ধন করতে পারেন যা ১৭ মে ২০১৯ এর ০০:০০ ঘটিকা থেকে শুরু হয়ে ১৭ মে ২০১৯ এর ২৩:৫৯ ঘটিকা পর্যন্ত চলবে। লাকি ট্রেডার আত্মবিশ্বাস, দূরদর্শিতা এবং মনোযোগ দ্বারা জয়লাভ এবং চমৎকার ফলাফলের সাফল্য অর্জনের জন্য মূল হল দুই সপ্তাহের ব্যাপি চলমান লাকি ট্রেডার। যদি আপনি দুই সপ্তাহ ব্যাপী কোন ট্রেড পুরোপুরি নিখুঁতভাবে পরিচালনা করেন, তাহলে আপনিও Alexander Nikolaevich Grinev মতো বিজয়ী ছিনিয়ে আনতে পারবেন। কে জানে? আপনিও হতে পারেন পরবর্তী অন্তর্বর্তী টুর্নামেন্ট বিজয়ী। নিশ্চিন্তে পরবর্তী লাকি ট্রেডার প্রতিযোগিতার নিবন্ধন করুন যা ১৩ মে ২০১৯ থেকে শুরু হয়ে ২৪শে মে ২০১৯ পর্যন্ত চালু থাকবে। ওয়ান মিলিয়ন অপশন ওয়ান মিলিয়ন অপশন ইন্সটাফরেক্স প্রতিযোগিতাগুলোর মধ্যে জনপ্রিয়তা সবচেয়ে বেশী। প্রতিটি পর্যায়ে বিপুল সংখ্যক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছে এবং তারা সেরা অপশন ট্রেডার শিরোনামের মুকুটের জন্য যুদ্ধ করছে। সর্বশেষ পর্যায়ের, চূড়ান্ত বিজয়ী অর্জন করেছেন বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা থেকে SenadNeradin। “ওয়ান মিলিয়ন অপশন প্রতিযোগিতা” প্রতি সপ্তাহের সোমবার ০০.১০ থেকে শুরু হয়ে শুক্রবার ২৩.৫০ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতা সম্পর্কে আরও জানুন ছবি এবং বিজয়ীদের মন্তব্য
  28. AUDUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) পেয়ারটি ০.৬৯৩৮ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ০.৬৮৯৫, ০.৬৮৬০, ০.৬৮০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ০.৬৯৩৮, ০.৬৯৬০, ০.৬৯৯৯ সেল এন্ট্রি : ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) পেয়ারটি ০.৬৯৬০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ০.৬৮৯০, ০.৬৮৪৬, ০.৬৭২৪ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ০.৬৯৬০, ০.৭০১৮, ০.৭০৯০ সেল এন্ট্রি : USDJPY সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) পেয়ারটি ১০৯.১৪ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একট ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে। ১০৯.৬৯ প্রাইস লেভেল ভেঙ্গে নিচে নামলে বিয়ারিশ অবস্থান পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১০৯.০৩, ১০৮.৫৪, ১০৭.৮০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১০৯.৭৭, ১১০.৪১, ১১১.২৭ সেল এন্ট্রি : ১০৯.১৪ স্টপ লস : ১০৯.৬৯ ট্রেডের সম্ভাবনা : মাঝারি টেক প্রফিট : ১০৮.৪১, ১০৮.২৭ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) পেয়ারটি ১০৯.৮৮রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একট ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে বা ১০৯.০৩ সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক করতে পারে। সে ক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১০৯.০৩, ১০৮.৫৪, ১০৭.৮০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১০৯.৭৭, ১১০.৪১, ১১১.২৭ সেল এন্ট্রি : ১০৯.০৩ স্টপ লস : ১০৯.৭৭ ট্রেডের সম্ভাবনা : মাঝারি টেক প্রফিট : ১০৮.৫৪, ১০৭.৮০
  1. Load more activity

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×