Jump to content

ফোরাম ফিড

This stream auto-updates     

  1. Today
  2. নরওয়ের বেকারত্ব হার জুলাই মাসে বেড়েছে! আজকে বুধবার নরওয়ের স্ট্যাটিস্টিকস শ্রমশক্তি জরিপের তথ্য প্রকাশ করেছে যে, জুলাই মাসে নরওয়ের বেকারত্বের হার প্রত্যাশার চেয়ে কম বেড়েছে। বেকারত্বের হার এপ্রিলের ৪.১ শতাংশ থেকে বেড়ে জুলাইয়ে ৫.২ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। অর্থনীতিবিদরা ৫.৩ শতাংশ হার আশা করেছিলেন। জুলাইয়ের বেকারত্বের হার জুন থেকে আগস্টের গড় এবং এপ্রিলের জন্য মার্চ থেকে মে মাসের গড় প্রতিফলিত করে। জুনে বেকারত্বের হার ছিল ৫.২ শতাংশ। জুলাই মাসে বেকার ব্যক্তিদের সংখ্যা বেড়ে বেড়ে ১৪৮০০০ হয়েছে, যা ১১৬০০০ থেকে তিন মাস এপ্রিল পর্যন্ত। বিস্তারিত ইকোনমিক নিউজগুলো পেতে ভিজিট করুন: https://cutt.ly/bsK5l6Z *মার্কেট এর নিউজ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  3. EUR/USD পেয়ারটির টেকনিক্যাল অ্যনালাইসিস, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ এনালাইসিসটি তৈরী করেছেন ইন্সটা ফরেক্স টিমের এনালিটিক্যাল এক্সপার্ট সেবাস্টিয়ান সেলিগ (Sebastian Seliga) টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস: EUR/USD পেয়ারটিতে বিয়ারিশ চাপ আরও তীব্র হয়েছিল কারণ নতুন করে স্থানীয় সর্বনিন্ম দাম ইতিমধ্যে 1.1672 এর লেভেল তৈরি হয়েছে এবং বিয়ার এখনও ডাউন ওয়েভ চালিয়ে যেতে চাচ্ছে। 1.1697 এবং 1.1710 এর লেভেলগুলি এখন দামের জন্য ইন্ট্রাডে টেকনিক্যাল রেজিস্টেন্স হিসাবে কাজ করবে। নিকটতম ইন্ট্রাডে টেকনিক্যাল সাপোর্ট 1.1655 - 1.1648 জোনের লেভেলে দেখা যায়। মুভমেন্ট দুর্বল এবং নেতিবাচক রয়েছে, তাই অন্য ওয়েবগুলোতে ডাউন হবে বলে মনে হয়। সাপ্তাহিক টাইম ফ্রেমের আপ ট্রেন্ডটি এখনও অব্যাহত রয়েছে তবে আপ ট্রেন্ডটি সমাপ্ত হওয়ার খুব কাছাকাছি। সাপ্তাহিক পিভট পয়েন্টসমূহ: ৩য় সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.2077, ২য় সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.1988, ১ম সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.1919, সাপ্তাহিক পিভট: 1.1829, ১ম সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1748, ২য় সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1662, ৩য় সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1583, ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: EUR/USD পেয়ারটির মূল ট্রেন্ডটি আপ রয়েছে, যা সাপ্তাহিক টাইম ফ্রেম চার্টে ১০টি সাপ্তাহিক আপ ক্যান্ডল এবং মাসিকটাইম ফ্রেম চার্টে ৪টি মাসিক আপ ক্যান্ডল দ্বারা নিশ্চিত হওয়া যায়। এর অর্থ ডিপস কিনতে কোনও কারেক্টশন ব্যবহার করা উচিত। মূল দীর্ঘমেয়াদী টেকনিক্যাল সাপোর্টটি 1.1445 এর লেভেলে দেখা যায়। মূল লং টার্ম টেকনিক্যাল রেজিস্টেন্সটি 1.2555 লেভেলে দেখা যায়। ফরেক্স বিশ্লেষন বিস্তারিত দেখুন: https://cutt.ly/LfRWnM6 *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  4. GBP/JPY এর ইলিয়ট ওয়েভ বিশ্লেষণ (২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০) GBP/JPY কারেন্সি পেয়ার অবশেষে আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী 133.51 থেকে 133.08 পর্যন্ত হ্রাস পেয়েছে। এর ফলে ওয়েভ ii/ শেষ হতে পারে, কিন্তু সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে আমরা 134.57 এর দুর্বল রেসিস্ট্যান্স এবং পরবর্তীতে 135.55 এর রেসিস্ট্যান্স ভেদ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবে। তাহলে ওয়েভ ii/ শেষ হবে এবং ওয়েভ iii/ চলমান থাকবে। ওয়েভ iii/ অবশেষে 142.72 এর শীর্ষবিন্দু ভেদ করতে পারে। 133.08 এর লো বা 131.68 এর সাপোর্ট ভেদ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। উক্ত লেভেল ভেদ হলে আমাদের বুলিশ প্রবণতা পরিবর্তিত হবে। R3: 136.00 R2: 135.55 R1: 134.57 পিভট: 133.96 S1: 133.48 S2: 133.08 S3: 132.85 ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: আমরা 133.51 লেভেলে 133.51 ক্রয় করেছিলাম এবং 133.00 লেভেলে স্টপ নির্ধারণ করেছি। *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট
  5. জার্মান GFK ভোক্তা আস্থা সূচক প্রকাশের পর ইউরোর আংশিক পরিবর্তন বুধবার ET সময় 2.00 am, জার্মানির বাজার গবেষণা গ্রুপ জিএফকে ভোক্তা আস্থা সূচক সম্পর্কিত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এই ডাটা প্রকাশের পরে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী মুদ্রাগুলোর বিপরিতে ইউরোর আংশিক পরিবর্তন হয়েছে। ET সময় 2:01 am তে ইউরো ডলারের বিপরীতে 1.1687, ইয়েনের বিপরীতে 122.84, ফ্রাংকের বিপরীতে 1.0762 এবং পাউন্ডের বিপরীতে 0.9189 তে ট্রেডিং হয়েছিল। আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  6. EURUSD পেয়ারটির প্রাইস কমে ১.১৭ প্রাইসের নিচে অবস্থান করছে। ফেডের নীতিনির্ধারকের মন্তব্য পেয়ারটির প্রাইস কমতে সহায়তা করছে। EURUSD আপট্রেন্ডে আসার জন্য ইউরোজোন পিএমআই প্রত্যাশিত লেভেলে উপরে আসা প্রয়োজন। EURUSD পেয়ারটির ডাউনট্রেন্ড পরিবর্তনের জন্য ইউরোজোন পিএমআই প্রত্যাশার তুলনায় ভাল হতে হবে। পেয়ারটি বর্তমানে ১.১৬৭৯ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। EURUSD খুব তাড়াতাড়ি ২৭ জুলাইয়ের সর্বনিন্ম প্রাইস ১.১৬৩৮ এর দিকে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। চলতি সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস কমার পিছনে বেশ কিছু কারণ রয়েছে। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ইউরোজোন জুড়ে করোনাভাইরাস বৃদ্ধির ফলে নতুন বিধিনিষেধ। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ চেয়ারম্যানের পজিটিভ মন্তব্য। জার্মানির জাইট পত্রিকা জানিয়েছে, গত সাত দিনে জার্মানিতে ১২ হাজার ২৬৯ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। শুধু গত শুক্রবার সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ২১৯ জন। গত এপ্রিল মাসে সর্বোচ্চ প্রতিদিন ৬ হাজার মানুষের করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার রেকর্ড ছিল। পরবর্তী সময়ে মে ও জুন মাসে সংক্রমণের হার ৫০০-এর নিচে পৌঁছেছিল। জার্মানির ব্যাভেরিয়া রাজ্যের রাজধানী মিউনিখ শহরে হঠাৎ করে সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে। রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মার্কুস সোয়েডার রাজ্যটিতে নতুন করে সংক্রমণ রোধে রাস্তাঘাটে মাস্ক পরাসহ, জমায়েত ও অনুষ্ঠানাদির বিষয়ে নতুন বিধি জারি করেছেন। মিউনিখের বিখ্যাত অক্টোবর উৎসবসহ আসন্ন ডিসেম্বরের ক্রিসমাস বাজার বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। মধ্য ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশেই নতুন সংক্রমণের হার আবারও সর্বোচ্চ পর্যায়ের দিকে যাচ্ছে। ফ্রান্সে প্রতিদিন ১০ হাজার, হল্যান্ডে প্রতিদিন ২ হাজার মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন। অস্ট্রিয়া, পোল্যান্ড ও চেক প্রজাতন্ত্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার নতুন মাত্রায় পৌঁছেছে। উল্লেখ্য এই সব দেশের সঙ্গে জার্মানির সীমান্ত রয়েছে। এর ফলে জার্মান নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারে। এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের করোনা অবস্থাও বেশ খারাপ। যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ অতিক্রম করেছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভের নীতিনির্ধারকদের পজিটিভ মন্তব্য মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সহায়তা করছে। আগামী কয়েক বছর মার্কিন অর্থনীতিতে সহায়তা অব্যাহত রাখবে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক। করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে বিপর্যস্ত মার্কিন অর্থনীতি। পরিবার ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। তাই সহায়তা অব্যাহত রাখবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। বেশির ভাগ ফেডারেল রিজার্ভ নেতারা বলেছেন, অন্তত আগামী তিন বছরের জন্য সুদের হার শূন্যের কাছাকাছি রাখার বিষয়ে আশাবাদী তারা। ফেড প্রধান জেরোমি পাওয়েল বলেছেন, পুনরুদ্ধার খুব দূরে নয়, এমন অবস্থায় না যাওয়া পর্যন্ত কোনো পরিবর্তনের আশা করছেন না। তিনি সতর্ক করে বলেছেন, সরকারি ব্যয় ছাড়া পুনরুদ্ধার ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে। মূলত মার্কিন অর্থনীতি সহায়তাকে কেন্দ্র করে মার্কিন ডলারের প্রাইস বৃদ্ধি পেতে থাকে। বিনিয়োগকারীদের বর্তমান নজর ইউরোজোন পিএমআই রিপোর্টের দিকে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, জার্মান মেনুফেকচারিং পিএমআই সেপ্টেম্বরে ৫২.২ পয়েন্ট থেকে বেড়ে ৫২.৫ এবং সার্ভিস পিএমআই ৫২.৫ থেকে ৫২.৯ পয়েন্ট আসতে পারে। ইউরোজোন মেনুফেকচারিং পিএমআই ৫১.৭ থেকে ৫১.৯ এবং সার্ভিস পিএমআই ৫০.৫ পয়েন্টে অপরিবর্তনীয় থাকতে পারে। পেয়ারটির আপট্রেন্ডের ক্ষেত্রে ইউরোজোন রিপোর্টগুলো প্রত্যাশার উপরে আসা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে ১.১৭৭০ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। অপরদিকে পেয়ারটি ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রাখলে ১.১৬৩৮ এবং ১.১৫৩০ সাপোর্ট লেভেলে আসতে পারে।
  7. Yesterday
  8. Date : 22nd September 2020.FX Update September 22 – USD, YEN, AUD & GBP all in play.Trading Leveraged Products is riskyAUDJPY, DailyThe Dollar and Yen have remained firm and pushed ahead of Monday’s highs. The Australian Dollar has been the major mover of note out of the main currencies we track, falling to new lows after RBA deputy governor Debelle said that the central bank is watching the currency “carefully” and that forex intervention is a policy option, as is negative interest rates (while stressing that this doesn’t mean it’s on the table). AUDUSD hit a low at 0.7177 to post a new four-week low, while AUDJPY posted a fresh seven-week low at 75.10. Elsewhere, EURUSD moved lower to post a new seven-week low at 1.1724. Cable also remained heavy, pushing to 1.2710, before recovering the 1.2800 handle following Governor Bailey’s defence of the need to use negative interest rates. The governor said that “we have looked very hard” at ways of adding further monetary stimulus, including negative interest rates. Bailey, who was speaking at the British Chambers of Commerce, subsequently said that last week’s note in the minutes from the MPC meeting, that members had been briefed on negative interest rate preparations, “did not imply” that the BoE would adopt negative rates. This seemed to inspire the snap back in the Pound. USDJPY settled in the mid 104.00s after rebounding out of yesterday’s six-month low at 104.00, and what appears to be BOJ intervention. EURJPY also traded above yesterday’s low, though ebbed back under 123.00 after peaking at a rebound high at 123.35. GBPJPY broke below 133.00 briefly, but rallied to hold 134.00, following the Governor’s comments.A risk-off theme has continued in global markets, although price changes in assets and currencies have moderated somewhat today relative to yesterday. This backdrop is supportive for the Dollar and Yen, though some market narratives are pointing to a rise in some inflation-adjusted (aka real) JGB yields as being yen positive. Japanese markets reopened from a long weekend. The Nikkei 225 managed a modest gain, but this was the exception as most Asian markets continued to drop, and some quite sharply (South Korea’s KOPSI, for instance, racking up a loss of over 2.5%). S&P 500 minis have also declined in its overnight session, although only moderately. Most commodity prices have managed to steady, however, and the pace of declines in global stocks has, overall, lessened. Nonetheless, the prevailing bias across markets is one of caution. Many European countries are implementing restrictions in the face of a surging coronavirus case-demic (still no significant correspondence in public health issues, i.e. hospitalisations, mortality), which has clobbered stocks in the airline and hospitality sectors. The US Congress remains deadlocked over the size and shape of a new fiscal support bill, while uncertainty about the upcoming US election (6 calendar weeks but only 31 trading days away) is also causing market participants to tread cautiously.Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business.Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report.Click HERE to access the full HotForex Economic calendar.Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE!Click HERE to READ more Market news. Stuart Cowell Head Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  9. ইনডিকেটর আনাল্যসিস। GBP/USD এর প্রতিদিনের পর্যালোচনা, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ এই পেয়ারটি সোমবার ঐতিহাসিক সাপোর্ট লেভেল 1.2919 (সাদা ড্যাশড লাইন) পরীক্ষা করে অব্যাহত ছিল। আজ, নিম্নগামী গতিবিধি অব্যাহত থাকতে পারে। অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারের ভিত্তিতে, পাউন্ড নিউজটি 07:30 ইউটিসি তে এবং ডলার সংবাদ 14:00 এবং 14:30 ইউটিসি তে প্রত্যাশিত। প্রবণতা বিশ্লেষণ (চিত্র 1)। মার্কেট 1.2721 (গতকালের দৈনিক ক্যান্ডেলস্টিকের সমাপ্তি) থেকে 1.2721 - একটি 61.8% পুলব্যাক লেভেল (লাল বিন্দু লাইন) এর লক্ষ্যমাত্রা থেকে নীচের দিকে অগ্রসর হতে পারে। এই লেভেলে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে, নিম্নমুখী প্রবণতা পরবর্তী টার্গেটের সাথে ঐতিহাসিক সাপোর্ট লেভেল 1.2646 (নীল বিন্দু লাইন) অব্যহত থাকতে পারে। চিত্র ১ (প্রতিদিনের চার্ট) বিস্তারিত বিশ্লেষণ: -সূচক বিশ্লেষণ - ডাউন; - ফিবোনাচি লেভেল - ডাউন; - ভলিউম - ডাউন; -ক্যান্ডেলস্টিক বিশ্লেষণ- ডাউন; - ট্রেড অ্যানালিসিস -ডাউন; -বলিঙ্গার লাইন-ডাউন; - সাপ্তাহিক চার্ট- ডাউন; সাধারণ উপসংহার: আজ, মূল্য 1.2718 (গতকালের দৈনিক ক্যান্ডেলস্টিকের সমাপ্তি) থেকে 1.2721 - একটি 61.8% পুলব্যাক লেভেল (লাল বিন্দু লাইন) টার্গেটে নীচের দিকে অব্যহত থাকতে পারে। এই লেভেলে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে, নিম্নমুখী প্রবণতা পরবর্তী টার্গেটের সাথে ঐতিহাসিক সাপোর্ট লেভেল 1.2646 (নীল বিন্দু লাইন) থেকে অব্যহত থাকতে পারে। আর একটি সম্ভাব্য দৃশ্য হল ঐতিহাসিক সাপোর্ট লেভেল 1.2769 (সাদা ড্যাশড লাইন) লক্ষ্য নিয়ে নিম্নমুখী গতিবিধি। এই লেভেলে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে, মূল্যটি 1.3019 - একটি 76.4% পুলব্যাক লেভেল (নীল বিন্দুযুক্ত রেখা) এর লক্ষ্যমাত্রার সাথে উপরের দিকে অগ্রসর হতে শুরু করবে। *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট
  10. তুরস্কের ভোক্তা আস্থা সেপ্টেম্বরে বৃদ্ধি পেয়েছে আগের মাসে তুলনামূলকভাবে হ্রাস পাওয়ার পরে সেপ্টেম্বরে তুর্কি ভোক্তা আস্থা বৃদ্ধি পেয়েছে, সোমবার তুর্কি পরিসংখ্যান ইনস্টিটিউটের জরিপের এই ফলাফল দেখিয়েছে। ভোক্তা আস্থা ইনডিকেটরটি আগস্টের ৭৯.৪ থেকে বেড়ে সেপ্টেম্বরে ৮২.০ তে দাঁড়িয়েছে। পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতির প্রতিফলিত সূচকটি বিগত ১২ মাসের তুলনায় বর্তমানে সেপ্টেম্বরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১.৮ তে আগের মাসের এটি ছিল ৬৭..৯। পরবর্তী ১২ মাসের জন্য পরিবারের আর্থিক পরিস্থিতির প্রত্যাশার পরিমাপকটি সেপ্টেম্বরে আগের মাসে ৭৭.৮ থেকে বেড়ে ৭৯.১ তে উন্নীত হয়েছে। পরবর্তী ১২ মাসের জন্য সাধারণ অর্থনৈতিক পরিস্থিতি প্রত্যাশার সূচকটি সেপ্টেম্বর মাসে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩.৩ তে পরবর্তী ১২ মাসের টেকসই পণ্যের জন্য অর্থ ব্যয়ের আগ্রহের প্রতিফলিত সূচকটি সেপ্টেম্বরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩.৮-এর আগের মাসে এটি ছিল ৯২.৬। আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  11. EURUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) মার্কেট ডাউনট্রেন্ডে রয়েছে। আমরা সেল পজিশন নেওয়ার জন্য ১.১৭৩০ সাপোর্ট লেভেলে কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি। পেয়ারটি ১.১৭৭৫ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.১৭৩০,১.১৭০৫,১.১৬৬৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১৭৭৫,১.১৮২৫,১.১৮৭২ সেল এন্ট্রি: ১.১৭৩০ স্টপ লস: ১.১৭৭৫ ট্রেডের সম্ভাবনা: সর্বোচ্চ টেক প্রফিট: ১.১৭০৫,১.১৬৬৫ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেটের ১.১৮২৫ সেল এন্ট্রি এবং ১.১৮৭৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল দেওয়া হয়েছে। মার্কেট ১.১৮৭৫ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.১১৭৩০,১.১৬৫৫,১.১৫২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১৮৭০,১.১৯১০,১.২০১০ সেল এন্ট্রি: ১.১৮২৫ স্টপ লস: ১.১৮৭৫ ট্রেডের সম্ভাবনা: মাঝারি টেক প্রফিট: ১.১৬৫৫, ১.১৫২০ GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) পেয়ারটি ১.২৮৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি ঊর্ধ্বমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা বা ১.২৭৭৪ সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক হতে পারে। সেক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৭৭৪,১.২৭৪৫,১.২৬৯৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.২৮৫০,১.২৯১০,১.২৯৭৫ সেল এন্ট্রি: ১.২৭৭৪ স্টপ লস: ১.২৮২৩ ট্রেডের সম্ভাবনা: মাঝারি টেক প্রফিট: ১.২৭৪৫, ১.২৬৯৫ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেটের ১.২৯০০ সেল এন্ট্রি এবং ১.৩০১০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে স্টপ লস দেওয়া হয়েছে। মার্কেট ১.৩০১০ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৭৬০,১.২৬১৫,১.২৩৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০১০,১.৩০৫০,১.৩৩৮০ সেল এন্ট্রি: ১.২৯০০ স্টপ লস: ১.৩০১০ ট্রেডের সম্ভাবনা: সর্বোচ্চ টেক প্রফিট: ১.২৬১৫, ১.২৩৭০
  12. USDJPY পেয়ারটি ধারাবাহিকভাবে গত পাঁচদিন ডাউনট্রেন্ডে থাকলেও গতকাল পেয়ারটির প্রাইস কমে ১০৪.০০ আসলেও পরবর্তীতে প্রাইস বেড়ে ১০৪.৬৩ প্রাইসে ক্লোজ হয়। আজকের সেশনে পেয়ারটির ডাউনট্রেন্ড লক্ষ করা যাচ্ছে। OCBC ব্যাংকের ফরেক্স বিশেষজ্ঞ টারেন্স উই এর মতে, USDJPY পেয়ারটির প্রাইস কমে ১০৪.০০ সাপোর্ট লেভেলে আসতে পারে। অপরদিকে পেয়ারটির বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১০৫.০০।
  13. ফিনল্যান্ডের বেকারত্ব হার বেড়েছে! আজকে মঙ্গলবার ফিনল্যান্ডের পরিসংখ্যান অফিসের একটি পরিসংখ্যান দেখিয়েছে যে, ফিনল্যান্ডের বেকারত্ব হার আগস্টে বেড়েছে। ১৫ থেকে ৭৪ বছর বয়সের বেকারত্ব হার গত বছরের একই মাসে ৬.১ শতাংশ থেকে বেড়ে আগস্টে ৭.৭ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। আগস্টে বেকার মানুষের সংখ্যা গত বছরের তুলনায় ১৭০,০০০ থেকে ৪২,০০০ বৃদ্ধি পেয়ে ২১১,০০০ এ উন্নীত হয়েছে। কর্মসংস্থান গত বছরের একই মাসে ৭১.৫ শতাংশ থেকে আগস্টে ৭৩.৫ শতাংশে নেমেছে। নিয়োগপ্রাপ্ত ব্যক্তির সংখ্যা এক বছর আগের তুলনায় ৬৫০০০ কমে দাঁড়িয়েছে মোট ২.৫৩৩ মিলিয়ন। তুলনামুলকভাবে সমন্বিত বেকারত্ব হার জুলাইয়ের ৭.৪ শতাংশ থেকে আগস্টে ৭.৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। বিস্তারিত ইকোনমিক নিউজগুলো পেতে ভিজিট করুন: https://cutt.ly/bsK5l6Z *মার্কেট এর নিউজ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  14. EUR/USD পেয়ারটির টেকনিক্যাল অ্যনালাইসিস, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ এনালাইসিসটি তৈরী করেছেন ইন্সটা ফরেক্স টিমের এনালিটিক্যাল এক্সপার্ট সেবাস্টিয়ান সেলিগ (Sebastian Seliga) টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস: EUR/USD পেয়ারটি ট্রেন্ড লাইনের উপরে একটি ফলস্ ব্রেকআউট করেছে এবং বিয়ারিশ চাপ আরও তীব্র হয়েছে। নতুন করে একটি স্থানীয় ডাউন লেভেল ইতিমধ্যে 1.1731 তে তৈরি হয়েছে এবং বিয়ার ডাউন ওয়েবটি চলমান রাখতে চাচ্ছে। 1.1790, 1.1803 এবং 1.1813 এর লেভেলগুলি এখন দামের জন্য ইন্ট্রাডে টেকনিক্যাল রেজিস্টেন্স হিসাবে কাজ করবে, একইসাথে 1.1822 এর লেভেলটিও। দুর্বল এবং নেগেটিভ মুভমেন্ট চলবে। সুতরাং 1.1710 বা 1.1696 এর লেভেলগুলোতে পরবর্তী টার্গেটের দিকে আরও একটি ওয়েব প্রত্যাশিত। সাপ্তাহিক টাইমফ্রেম অনুসারে আপট্রেন্ড এখনও আছে। সাপ্তাহিক পিভট পয়েন্টসমূহ: ৩য় সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.2077, ২য় সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.1988, ১ম সাপ্তাহিক রেসিস্টেন্স লেভেল: 1.1919, সাপ্তাহিক পিভট: 1.1829, ১ম সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1748, ২য় সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1662, ৩য় সাপ্তাহিক সাপোর্টিং লেভেল: 1.1583, ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: EUR/USD পেয়ারটির মূল ট্রেন্ডটি আপ রয়েছে, যা সাপ্তাহিক টাইম ফ্রেম চার্টে ১০টি সাপ্তাহিক আপ ক্যান্ডল এবং মাসিকটাইম ফ্রেম চার্টে ৪টি মাসিক আপ ক্যান্ডল দ্বারা নিশ্চিত হওয়া যায়। এর অর্থ ডিপস কিনতে কোনও কারেক্টশন ব্যবহার করা উচিত। মূল দীর্ঘমেয়াদী টেকনিক্যাল সাপোর্টটি 1.1445 এর লেভেলে দেখা যায়। মূল লং টার্ম টেকনিক্যাল রেজিস্টেন্সটি 1.2555 লেভেলে দেখা যায়। ফরেক্স বিশ্লেষন বিস্তারিত দেখুন: https://cutt.ly/LfRWnM6 *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  15. GBPUSD পেয়ারটি তৃতীয় দিনের মতো ডাউনট্রেন্ডে রয়েছে। যা পেয়ারটিকে গত এক সপ্তাহের নিন্ম প্রাইসে নিয়ে যাচ্ছে। পাবস এবং রেস্তোরা রাত ১০:০০ মধ্যে বন্ধের নির্দেশ। ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের সদস্য বেইলি এবং ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনসনের কনফারেন্সের দিকে সকলের নজর। GBPUSD পেয়ারটি তৃতীয় দিনের মতো ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখে ১.২৭৮০ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। যা গত এক সপ্তাহের নিন্ম প্রাইস ১.২৭৬৭ এর কাছাকাছি। ইংল্যান্ডে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে স্থানীয় সময় রাত ১০টায় সব পাব, ও রেস্তোরা বন্ধ করতে হবে। বিবিসির খবরে জানা যায়, আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত আটটায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন পার্লামেন্টে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন। করোনার সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা জানাবেন তিনি। বক্তব্যে বরিস জনসন সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেবেন। তিনি মাস্ক ব্যবহার ও নিয়মিত হাত ধোয়ার নির্দেশনা দেবেন। গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়, বরিস জনসন বাণিজ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে না—এমন জায়গায় ঘরে থেকে কাজ করতে মানুষকে আহ্বান জানাবেন। যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে ৪ মাত্রার সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এর অর্থ হলো করোনার সংক্রমণ দেশটিতে দ্রুত বাড়ছে। ব্রিটিশ সরকারের প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা স্যার প্যাট্রিক ভেলান্স সতর্কতা জারি করে বলেন, অক্টোবরের মাঝামাঝি পর্যন্ত দিনে করোনায় ৫০ হাজার মানুষ সংক্রমিত হতে পারে। ব্যবস্থা না নিলে নভেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত দিনে ২০০ জনের বেশি মৃত্যু হতে পারে। যুক্তরাজ্যে গতকাল সোমবার ৪ হাজার ৩৬৮ জন করোনোয় সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গেছেন ১১ জন। এর আগের দিন রোববার ৩ হাজার ৮৯৯ জন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। আজ স্কটল্যান্ডেও বিধিনিষেধ ঘোষণা করা হবে। নর্দান আয়ারল্যান্ডে সামাজিক ও পারিবারিক মেলামেশার ওপর বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। আজ সন্ধ্যা ছয়টা থেকে সাউথ ওয়েলসের চারটিরও বেশি কাউন্টিতে নতুন নিয়ম জারি করা হবে। পাব ও বারে রাত ১১টা থেকে কারফিউসহ নতুন ব্যবস্থা থাকবে। যুক্তরাজ্যের মন্ত্রিসভার বৈঠক হচ্ছে। বরিস জনসন জরুরি বৈঠকে সভাপতিত্ব করছেন। সেখানে স্কটল্যান্ড, ওয়েলস ও নর্দান আয়ারল্যান্ডের নেতারা অংশ নিয়েছেন। রেস্তোরাঁ বন্ধের নিয়ম নিয়ে সরকারের একজন মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা জানি এটা সহজ হবে না। তবে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ও জাতীয় স্বাস্থ্যের সুরক্ষার জন্য এই পদক্ষেপ নিতে হবে।’ ইংল্যান্ডের উত্তর-পূর্ব, উত্তর-পশ্চিমে এবং ওয়েলসের বেশ কিছু এলাকায় পাব ও রেস্তোরাঁ খোলার সময় নিয়ে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। তবে কতটা বিধিনিষেধ জারি করা প্রয়োজন এবং জনগণ কতটা নিতে পারবে, তা নিয়েও ভাবছেন মন্ত্রী ও উপদেষ্টারা।
  16. GBPJPY পেয়ারটি তৃতীয় দিনের মতো ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখেছে। পেয়ারটি তৃতীয় দিনের মতো ডাউনট্রেন্ড অব্যাহত রেখে লন্ডন সেশন ওপেন হওয়ার পূর্বে ১৩৩.৯৮ প্রাইসে অবস্থান করছে। RSI ইন্ডিকেটর অনুযায়ী পেয়ারটি ওভারসোল্ডে রয়েছে। এর ফলে পেয়ারটি জুলাই মাসের সর্বনিন্ম প্রাইস ১.৩২৯৮ থেকে আপট্রেন্ডে আসতে পারে। পেয়ারটি ১.৩২৯৮ প্রাইস অতিক্রম করতে সক্ষম হলে ডাউনট্রেন্ডের সম্ভাবনা বৃদ্ধি পেতে পারে। সেক্ষেত্রে ১.৩১.৭৫ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। অপরদিকে পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধি পেলে ২৪ জুলাইয়ের সর্বনিন্ম প্রাইস ১৩৫ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করতে পারে। GBPJPY ডেইলি চার্ট
  17. EURUSD পেয়ারটি বর্তমানে ৫০ দিনের SMA অনুযায়ী ১.১৭৭১ প্রাইসের কাছাকাছি অবস্থান করছে। আজকের সেশনে পেয়ারটি ১.১৮৪০ প্রাইসে ওপেন হয়ে সর্বনিন্ম ১.১৭৩২ প্রাইসে এসেছিল। ইউরোপে করোনাভাইরাস বৃদ্ধি, মার্কিন নির্বাচন নিয়ে উত্তেজনা ইত্যাদি বিষয় পেয়ারটির প্রাইস কমাতে সহায়তা করছে। আজকের সেশনে ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সদস্য পানিতার বক্তব্য এবং ইউরোজোনের সেপ্টেম্বর মাসের কনজিউমার কনফিডেন্স পেয়ারটিকে প্রভাবিত করতে পারে।
  18. Last week
  19. Date : 21st September 2020. Events to Look Out for This Week. After an exciting week, the markets continue to digest central bank decisions while waiting for a fresh catalyst. Rising virus infections around the world remain in focus as there is the fear that the equality of hospitalization and deaths will change if the virus spreads from young holiday markets to older generations, and with restrictions ramped up again there is concern that economic activity will be hit again. Meanwhile US-China tensions and no-trade deal Brexit is back in play after BoE was briefed on negative rates. Markets will also be guided by hard economic data. Monday – 21 September 2020 Inflation Report Hearings (GBP, GMT N/A) –The BOE Governor and several MPC members testify on inflation and the economic outlook before Parliament’s Treasury Committee. Tuesday – 22 September 2020 RBA’s Debelle, BoE’s Governor Bailey and Fed Chair’s Powell speech Wednesday – 23 September 2020 Interest Rate Decision & Policy Report (NZD, GMT 02:00) – The Reserve Bank of New Zealand (RBNZ) is widely expected to keep the OCR (Official Cash Rate) at the current record low 0.25%. RBNZ Governor Orr, speaking in the first week of September, stressed again that the central bank is actively preparing a new package of measures to implement if necessary. That could include negative wholesale interest rates, further quantitative easing and direct lending to banks. The RBNZ is in the low-for-longer whatever-it-takes boat with the bulk of the world’s central banks. Markit Services and Composite PMIs (EUR, GMT 07:30-08:00) – The prelim. EU Markit PMI Indices are expected to continue above 50, but slightly decline on Services, which could result in a composite PMI for September at 51.6 from 51.7. Markit Services and Composite PMIs (GBP, GMT 08:30) – The prelim. UK Markit Service PMI Indices is expected to have improved in September to 59.5. The ongoing recovery in the service sector could continue to be the dominant upward driver of the composite figure. The government’s ‘Eat Out to Help Out’ scheme is behind the so far strength in activity. Markit Services and Composite PMIs (USD, GMT 13:45) – The prelim. US Markit Service PMI for September is seen lower at 54.9, after the 55.0 in the final read for August. In August the composite index dipped to 54.6 in the final version versus the 54.7 preliminary, though it’s up from July’s 50.3. Monetary Policy Meeting Minutes (JPY, GMT 23:50) – The BOJ minutes, similar to the ECB Reports, provide a detailed assessment of the bank’s most recent policy-setting meeting, containing in-depth insights into the economic conditions that influenced the rate decision. They are usually a cause for FX turbulence. Thursday – 24 September 2020 Interest Rate Decision & Policy Report (CHF, GMT 07:30) – The influence of the SNB’s intervening hand may have been in play this month. Total Swiss sight deposits of Francs have risen by 130 bln since the pandemic and consequential lockdowns took a grip on global markets back in March. Sight deposits can be viewed as a proxy marker of SNB intervention to sell Francs in forex markets (after buying foreign currencies), which results in the crediting of newly created Francs in commercial banks sight accounts. The rise in sight deposits also reflects SNB operations to boost liquidity via the COVID-19 refinancing facility. The advent of the EU’s recovery fund (a new liquid AAA fund that also reduces Eurozone breakup risks), seen as a milestone by many analysts, has by many accounts caused a re-weighting of the common currency in portfolios, which will help the SNB combat what it sees as a chronically overvalued Franc. The SNB would like to step out of the negative interest rate policy sooner rather than later, but with the world economy still in the grip of Covid-19 and data releases highlighting the fallout from the crisis, there is little the central bank can do if it wants to keep the currency under control. German IFO (EUR, GMT 08:00) – German IFO business confidence is expected to rise to 94 from 92.6 in August. Jobless Claims (USD, GMT 12:30)– US initial jobless claims fell -33k to 860k in the week ended September 12 after a revised 893k print in the September 5 week. This is the fourth reading with claims below 1 mln since the surge in the March 20 week. BoE’s Governor Bailey speech (GBP, GMT 14:00) Friday – 25 September 2020 Durable Goods (USD, GMT 12:30) – Durable goods orders are expected to rise 2.0% in August with a 3.1% climb in transportation orders, after an 11.4% headline orders climb in July that included a 35.7% transportation orders surge. The durable orders rise ex-transportation is pegged at 1.5%. Defense orders are pegged at 0.9%, following a 33.4% July pop. Boeing orders rose to 8 planes from zero orders in July. The vehicle assembly rate should improve to 12.1 mln from 11.9 mln units in July, versus a 0.1 mln trough in April. Durable shipments should rise 2.5%, and inventories should fall -0.6%. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  20. গোল্ড দুসপ্তাহ ধরে সর্বনিন্ম অবস্থানে! আজ সোমবার ডলারের দাম বাড়ার কারণে গোল্ড এর দাম অনেক পতন ঘটে প্রায় দুই সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন। স্পট গোল্ড এর দাম প্রতি আউন্স প্রায় ১ শতাংশ হ্রাস পেয়ে 1931.69 ডলারে দাঁড়িয়েছে, যা ৯ সেপ্টেম্বর থেকে সর্বনিম্নে নেমে আসার পরে এবার আবার একই অবস্থান 1,928.14 ডলারে। মার্কিন গোল্ড ফিউচারগুলি প্রতি আউন্স ১.২ শতাংশ কমে 1,938.40 ডলারে দাঁড়িয়েছে। ডলার ইনডেক্স তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপরীতে বেড়েছে কারণ বিনিয়োগকারীরা আর্থিক নীতি সম্পর্কিত সূত্রের জন্য চেয়ারম্যান জেরোম পাওল সহ ফেডের বেশ কয়েকটি বক্তৃতার অপেক্ষায় রয়েছেন। পাওয়েল এবং ট্রেজারি সেক্রেটারি স্টিভেন মানুচিন মঙ্গলবার কেয়ারস অ্যাক্ট সম্পর্কিত হাউস ফিনান্সিয়াল সার্ভিসেস কমিটির সামনে বক্তব্য রাখবেন। সুদের হারের জন্য অগ্রণী নির্দেশিকায় পাওয়েলকে কুইজ করা হতে পারে, যা প্রস্তাব দেয় যে হারগুলি আরও বেশি সময়ের জন্য কম থাকবে। ফেড সদস্যদের লেয়েল ব্রেনার্ড, চার্লস ইভান্স, রাফেল বোস্টিক, জেমস বুলার্ড, মেরি ডেলি এবং জন উইলিয়ামসের বক্তব্যও এই সপ্তাহে নির্ধারিত হয়েছে। মূল অর্থনৈতিক তথ্যগুলির মধ্যে রয়েছে মঙ্গলবারের বাড়ির বিক্রয় এবং বুধবার বাড়ির দাম। তারপরে বৃহস্পতিবার নতুন বাড়ির বিক্রয় এবং শুক্রবার টেকসই পণ্যের অর্ডারের দিকে মনোযোগ স্থানান্তরিত হবে। করোনাভাইরাস পুনরায় শক্তি অর্জনের সাথে সাথে বিনিয়োগকারীরা সেপ্টেম্বরে অর্থনীতিতে কীভাবে ফলস্বরূপ হয়েছে তার প্রথম ইঙ্গিতের জন্য বুধবার পিএমআইয়ের তথ্য ফ্ল্যাশ করতে অপেক্ষা করবে। বিস্তারিত ইকোনমিক নিউজগুলো পেতে ভিজিট করুন: https://cutt.ly/bsK5l6Z *মার্কেট এর নিউজ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  21. EUR/JPY এর ইলিয়ট ওয়েব অ্যনালাইসিস (২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০) বিশ্লেষণটি করেছেন ইন্সটা ফরেক্স টিম এর বিশেষজ্ঞ টরবেন মেল্টেড Torben Melsted EUR/JPY কারেন্সি পেয়ার প্রত্যাশা অনুযায়ী 124.31 লেভেলে পিক তৈরি করেছে এবং নিম্নমুখী হয়ে 123.05 এর দিকে চলমান রয়েছে। সেখান থেকে অল্প সময়ের জন্য 123.90 পর্যন্ত কারেকশন আশা করা যায়। তারপর নিম্নমুখী প্রবণতা সর্বশেষ 122.16 পর্যন্ত পৌঁছে ওয়েভ 2/ সম্পন্ন করবে এবং ওয়েভ 3/ আকারে নতুন ইম্পালসিভ র্যালি তৈরি হবে। অপেক্ষাকৃত কম সম্ভাবনাময় একটি বিষয় হলো, 122.16 লেভেল পর্যন্ত সাইডওয়েস কনসোলিডেশন হওয়ার পর ওয়েভ 2/ সম্পন্ন করার আগে আরও নিম্নমুখী প্রবণতা তৈরি হতে পারে। R3 রেসিস্টেন্স লেভেল: 124.52 R2 রেসিস্টেন্স লেভেল: 124.30 R1 রেসিস্টেন্স লেভেল: 123.95 পিভট: 123.81 S1 সাপোর্টিং লেভেল: 123.63 S2 সাপোর্টিং লেভেল: 123.44 S3 সাপোর্টিং লেভেল: 123.05 ট্রেডিংয়ের পরামর্শ: আমরা 123.90 লেভেলে ইউরো বিক্রয় করেছি এবং 124.35 লেভেলে স্টপ নির্ধারণ করব। *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। ফরেক্স বিশ্লেষন বিস্তারিত দেখুন: https://cutt.ly/LfRWnM6
  22. গত সপ্তাহে পেয়ারটির মুভমেন্ট ভালো হলেও সপ্তাহের শেষে পূর্বের সপ্তাহের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ক্লোজ হয়েছিল। পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো এ সপ্তাহে পাঁচটি ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং EURUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। আগস্টে ইউরোজোন ইন্ডাস্ট্রীয়াল প্রডাকশন ৯.১% থেকে কমে ৪.১% এসেছিল। জার্মান ZEW ইকোনমিক সেন্টিমেন্ট ৭১.৫ থেকে বেড়ে ৭৭.৪ পয়েন্ট এসেছে। ইউরোজোন সিপিআই ০.৪% থেকে কমে ০.২% এসেছে। কোর সিপিআই ১.২% থেকে কমে ০.৪% এসেছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। আগস্টে মার্কিন রিটেইল সেলস কিছুটা নমনীয় ছিল। রিটেইল সেলস ১.২% থেকে কমে ০.৬% এবং কোর রিটেইল সেলস ১.৯% থেকে ০.৭% এসেছে। ১.Consumer Confidence মঙ্গলবার, রাত ০৮:০০। গত কয়েকমাস সেক্টরটি -১৫ পয়েন্টের কাছাকাছি অবস্থান করছে। বর্তমানে আমরা পরবর্তী রিপোর্টের অপেক্ষা করছি। ২.German Gfk Consumer Climate বুধবার, দুপুর ১২:০০। আগস্টে জার্মান কনজিউমার ক্লাইমেট -০.৩ থেকে কমে -১.৮ পয়েন্ট এসেছে। যা মার্চের পরবর্তীতে কিছুটা ভাল রিপোর্ট । প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরে -১.০ পয়েন্ট আসতে পারে। ৩.PMIs বুধবার, ফ্রান্স ০১:১৫, জার্মান ০১:৩০ ইউরোজোন ০২:২০। আগস্টে জার্মান এবং ইউররোজোন মেনুফেকচারিং পিএমআইস সামান্য বেড়ে ৫২.২ এবং ৫১.৭ পয়েন্ট এসেছে। ফ্রান্স পিএমআই ৫০ পয়েন্ট সামান্য নিচে ৪৮.৯ পয়েন্ট এসেছিল। উল্লেখিত দেশগুলোর সার্ভিস পিএমআই ৫০ পয়েন্টের সামান্য উপরে ছিল। সেপ্টেম্বরে রিপোর্টগুলোর সামন্য পরিবর্তন হতে পারে। ৪.German Ifo Business Climate বৃহস্পতিবার, দুপুর ০২:০০। আগস্টে বিজনেস কনফিডেন্স ৯০.৫ থেকে বেড়ে ৯২.৬ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরে ৯৩.৩ পয়েন্ট আসতে পারে। ৫.Monetary Data বৃহস্পতিবার, দুপুর ০২:০০। মানি সরবরাহ বাৎসরিক ব্যবধানে জুলাই মাসে ৯.২% থেকে বেড়ে ১০.২% এসেছিল। প্রাইভেট লোন ৩.০% কমেছিল। বর্তমানে আমরা পরবর্তী রিপোর্টের অপেক্ষা করছি। EURUSD প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো। EURUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আমরা ১.২১৭৪ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১.২১০৭। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেলগুলো হলো ১.১৯৭৪ এবং ১.১৮৭৭। পেয়ারটির বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ১.১৭৪৪। জুলাই মাসের শেষের দিকে ১.১৬৪৮ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করেছিল। পরবর্তীতে পেয়ারটি ১.১৫৭৩ সাপোর্ট লেভেলের দিকে যেতে পারে। শেষ কথা বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে পেয়ারটি নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকতে পারে।
  23. ইনডিকেটর আনাল্যসিস। GBP/USD এর দৈনিক পর্যালোচনা ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ এই পেয়ারটি রেসিস্ট্যান্স লেভেল 1.3000 (লাল পুরু রেখার) থেকে প্রত্যাবর্তনের পরে শুক্রবার নীচে দিকে লেনদেন করেছে। আজ, মূল্য এর উর্ধ্বমুখী গতিবিধি আবার শুরু করতে পারে। অর্থনৈতিক ক্যালেন্ডারের ভিত্তিতে, ডলার সংবাদ 14:00 ইউটিসি-তে প্রত্যাশিত। ট্রেন্ড আনাল্যসিস (চিত্র 1)। মার্কেট 1.3014 (লাল বোল্ড লাইন) লক্ষ্য নিয়ে 1.2917 (শুক্রবারের দৈনিক ক্যান্ডেল বন্ধ) লেভেল থেকে উপরে উঠতে পারে। যদি এই লাইনটি পরীক্ষা করা হয় তবে উর্ধ্বমুখী ট্রেন্ডটি পরবর্তী লক্ষ্য 1.3209 - 85.4% পুলব্যাক লেভেল (নীল ড্যাশড লাইন) নিয়ে অব্যহত থাকতে পারে। চিত্র ১ (প্রতিদিনের চার্ট) বিস্তারিত বিশ্লেষণ: -সূচক বিশ্লেষণ -আপ; - ফিবোনাচি লেভেল - আপ; - ভলিউম -আপ; -ক্যান্ডেলস্টিক বিশ্লেষণ- আপ; - ট্রেড অ্যানালিসিস -ডাউন; -বলিঙ্গার লাইন-আপ; - সাপ্তাহিকচার্ট- আপ; সাধারণ উপসংহার আজ, মূল্য রেসিস্ট্যান্স লেভেল 1.3014 (রেড বোল্ড লাইন) এ লক্ষ্য নিয়ে উর্ধ্বমুখী হতে পারে। যদি এই লাইনটি পরীক্ষা করা হয় তবে উপরের প্রবণতাটি পরবর্তী লক্ষ্য 1.3209 - 85.4% পুলব্যাক লেভেল (নীল ড্যাশড লাইন) নিয়ে অব্যহত থাকতে পারে। আর একটি সম্ভাব্য পরিস্থিতি: রেসিস্ট্যান্স লেভেল 1.3014 (লাল বোল্ড লাইন) পৌঁছানোর পরে, মূল্যটি 1.2866 - 50% পুলব্যাক লেভেল (লাল ড্যাসড লাইন) এর লক্ষ্যমাত্রার সাথে নীচের দিকে অগ্রসর হতে শুরু করবে। *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট করুন
  24. অগাস্ট মাসে নিউজিল্যান্ডের ক্রেডিট কার্ডের ব্যয় কমেছে অগাস্ট মাসে নিউজিল্যান্ডের ক্রেডিট কার্ডের ব্যয় চার মাসে মধ্যে প্রথমবার হ্রাস পেয়েছে, সোমবার নিউজিল্যান্ডের রিজার্ভ ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত পরিসংখ্যান এটি দেখিয়েছে। জুলাই মাসে ২.২ শতাংশ বৃদ্ধির পরে আগস্টে মাসে ক্রেডিট কার্ডের ব্যয় মাসিক হিসাবে ৫.৮ হ্রাস পেয়েছে। দেশীয় বিলিং মাসিক মাসিক হিসাবে ৫.৫ শতাংশ কমে ৩.২৫০ বিলিয়ন নিউজিল্যান্ড ডলার হয়েছে এবং বিদেশী বিলিং ১০.০ শতাংশ কমে ২৫০ মিলিয়ন নিউজিল্যান্ড ডলার হয়েছে । এক বছরের ভিত্তিতে, সামগ্রিক ক্রেডিট কার্ডের ব্যয় অগাস্ট মাসে ১১.৯ শতাংশে হ্রাস পেয়েছে, আগের মাসে ৫.০ শতাংশ পতন হয়েছিল। এটি ছিল টানা ষষ্ঠ মাসের পতন। আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  25. গত সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস কমেছিল। চলতি সপ্তাহে পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো পাঁচটি ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং GBPUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। গত সপ্তাহে ব্রিটিশ বেকারত্ব ৯৪ হাজার ৪০০ থেকে কমে ৭৩ হাজার ৭০০ এসেছিল। ওয়েজ (বেতন) তৃতীয়বারের মতো ১.০% কমেছে। আগস্টে মুদ্রাস্ফীতি ১.০% থেকে বেড়ে ০.২% এসেছে। কোর মুদ্রাস্ফীতি ১.৮% থেকে কমে ০.৯% এসেছে। ব্যাংক অব ইংল্যান্ড ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। রিটেইল সেলস প্রত্যাশা অনুযায়ী ০.৮% বেড়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। আগস্টে মার্কিন রিটেইল সেলস কিছুটা নমনীয় ছিল। রিটেইল সেলস ১.২% থেকে কমে ০.৬% এবং কোর রিটেইল সেলস ১.৯% থেকে ০.৭% এসেছে। ১.Public Sector Net Borrowing মঙ্গলবার, দুপুর ১২:০০। জুলাই মাসে সেক্টরটির ঘাটতি ৩৪.৮ বিলিয়ন থেকে কমে ২৫.৯ বিলিয়ন এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, আগস্টে ঘাটতি বৃদ্ধি পেয়ে ৪০.০৬ বিলিয়ন আসতে পারে। ২.CBI Industrial Order Expectations মঙ্গলবার, বিকাল ০৪:০০। জুলাই মাসে সেক্টরটি -৪৬ পয়েন্ট থেকে কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে -৪৪ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরে -৩২ পয়েন্ট আসতে পারে। ৩.Flash Manufacturing PMI বুধবার, দুপুর ০২:৩০। গত দুমাস সেক্টরটি ৫৫ পয়েন্টর উপরে ছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এবার ৫৪.৩ পয়েন্ট আসতে পারে। ৪.Flash Services PMI বুধবার, দুপুর ০২:৩০। জুলাই মাসে সার্ভিস পিএমআই রিবাউন্ড করে ৬০.১ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, আগস্টে ৫৭.১ পয়েন্ট আসতে পারে। ৫.CBI Realized Sales বৃহস্পতিবার, বিকাল ০৪:০০। আগস্টে সেক্টরটি ৪ থেকে কমে -৬ পয়েন্ট এসেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বরে -১০ পয়েন্ট আসতে পারে। GBPUSD প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো GBPUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আমরা ১.৩২৩০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১.৩১১৩। পরবর্তীতে পেয়ারটি ১.৩০০৬ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে যেতে পারে। পেয়ারটির বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ১.২৮৩৫। পরবর্তী সাপোর্ট লেভেল হতে পারে ১.২৬৮৯। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে ১.২৫৯০ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করেছিল। শেষ কথা ফরেক্স বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে GBPUSD পেয়ারটির প্রাইস কমতে পারে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এবং যুক্তরাজ্যের মধ্যে ব্রেক্সিট উত্তেজনা বৃদ্ধি পেতে পারে। যার প্রভাব পাউন্ডের উপর পড়তে পারে।
  26. EURUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) মার্কেটের ১.১৮২৫ সেল এন্ট্রি এবং ১.১৮৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল দেওয়া হয়েছে। মার্কেট ১.১৮৭০ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.১৮২৫,১.১৮০০,১.১৭৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১৮৭০,১.১৮৯০,১.১৯১০ সেল এন্ট্রি: ১.১৮২৫ স্টপ লস: ১.১৮৭০ ট্রেডের সম্ভাবনা: সর্বোচ্চ টেক প্রফিট: ১.১৮০০,১.১৭৭০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেটের ১.১৮২৫ সেল এন্ট্রি এবং ১.১৮৭৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল দেওয়া হয়েছে। মার্কেট ১.১৮৭৫ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.১১৭৪০,১.১৬৫৫,১.১৫২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১৮৭০,১.১৯১০,১.২০১০ সেল এন্ট্রি: ১.১৮২৫ স্টপ লস: ১.১৮৭৫ ট্রেডের সম্ভাবনা: মাঝারি টেক প্রফিট: ১.১৬৫৫, ১.১৫২০ GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) মার্কেটে অনিশ্চয়তা বিরাজ করছে। ট্রেন্ডগুলো খুব তাড়াতাড়ি পরিবর্তন হচ্ছে। মার্কেট শান্ত হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করা ভাল হবে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৯০০,১.২৮৫৫,১.২৭৯০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০০০,১.৩০৫০,১.৩০৯৫ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেটের ১.২৯০০ সেল এন্ট্রি এবং ১.৩০১০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে স্টপ লস দেওয়া হয়েছে। মার্কেট ১.৩০১০ প্রাইস ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৭৬০,১.২৬১৫,১.২৩৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০১০,১.৩০৯৫,১.৩২৩৫ সেল এন্ট্রি: ১.২৯০০ স্টপ লস: ১.৩০১০ ট্রেডের সম্ভাবনা: সর্বোচ্চ টেক প্রফিট: ১.২৬১৫, ১.২৩৭০
  27. গত সপ্তাহে মার্কিন ডলারের বিপরীতে জাপানী ইয়েনের প্রাইস বেশ ভালভাবেই বেড়েছিল। যা জুনের পরবর্তীতে সর্বোচ্চ ছিল। এ সপ্তাহে জাপানী ইভেন্টগুলোর মধ্যে রয়েছে সিপিআই এবং মুদ্রাস্ফীতি রিপোর্ট। অপরদিকে মার্কিন ইভেন্টগুলোর মধ্যে রয়েছে মেনুফেকচারিং এবং সার্ভিস পিএমআই রিপোর্ট। এছাড়াও বিনিয়োগকারীদের নিকট ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জেরেমি পাওয়েলের বক্তব্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ । গত সপ্তাহে ব্যাংক অব জাপানের পলিসি মিটিংয়ে, ব্যাংক অব জাপান অতি-সামঞ্জস্যমূলক আর্থিক নীতি বজায় রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। যদিও অর্থনীতি মন্দার কবলে পড়েছে, কেন্দ্রীয় ব্যাংক অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার সম্পর্কে কিছুটা আশাবাদী বলে মনে হয়েছিল। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। আগস্টে মার্কিন রিটেইল সেলস কিছুটা নমনীয় ছিল। রিটেইল সেলস ১.২% থেকে কমে ০.৬% এবং কোর রিটেইল সেলস ১.৯% থেকে ০.৭% এসেছে। USDJPY টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আমরা ১০৭.২৯ রেজিস্ট্যান্স লেভেল থেকে শুরু করছি। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ছিল ১০৬.৪৪। গত সপ্তাহে ১০৫.৪৫ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করেছিল। পেয়ারটির বর্তমান রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১০৪.৫০। মার্চ মাসে ১০৩.৫২ সাপোর্ট হিসেবে কাজ করেছিল। USDJPY এর পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ১০২.১৩। USDJPY ডেইলি চার্ট শেষ কথা বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। গত সপ্তাহে ব্যাংক অব জাপানের নীতির উপর নির্ভর করে ইয়েনেরে প্রাইস বৃদ্ধি পেলেও এ সপ্তাহের কমতে পারে। মার্কিন ইকোনমির সাথে সাথে মার্কিন ডলারও রিকভার হতে শুরু করেছে। সুতরাং এ সপ্তাহে পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।
  28. দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো পেয়ারটি সামান্য মুভমেন্ট করেছিল। পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো এ সপ্তাহে দুটি ইভেন্ট রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের মার্কেট আউটলুক এবং AUDUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আলোচনা করা হলো। কোভিড-১৯ এর শুরু থেকে অস্টেলিয়ার ইকোনমি কিছুটা নমনীয় থাকলেও বর্তমানে রিকভার করছে। আগস্টে অস্টেলিয়ার ইকোনমিতে ১ লক্ষ ১১ হাজার জব যোগ হয়েছে। যা প্রত্যাশিত -৪০ হাজারের বেশি এসেছে। বেকারত্বের হার ৭.৫% থেকে কমে ৬.৮% এসেছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। আগস্টে মার্কিন রিটেইল সেলস কিছুটা নমনীয় ছিল। রিটেইল সেলস ১.২% থেকে কমে ০.৬% এবং কোর রিটেইল সেলস ১.৯% থেকে ০.৭% এসেছে। ১.Manufacturing PMI মঙ্গলবার, ভোর ০৪:০০। গত দুমাস অস্টেলিয়ার মেনুফেকচারিং পিএমআই ৫০ পয়েন্টের উপরে ছিল। আগস্টে পিএমআই ৫৩.৩ থেকে বেড়ে ৫৩.৯ পয়েন্ট এসেছিল। বর্তমানে আমরা সেপ্টেম্বরের ডাটার অপেক্ষা করছি। ২.Services PMI মঙ্গলবার, ভোর ০৪:০০। জুলাই মাসে সার্ভিস পিএমআই ৫৮.৫ পয়েন্ট থেকে কমে ৪৮.১ পয়েন্ট এসেছিল। সেপ্টেম্বরে সেক্টরটি রিকভার করতে পারে কিনা সেটা দেখার বিষয়। AUDUSD প্রতিদিনের সাপোর্ট এবং রেজিস্ট্যান্স লাইনগুলো দেওয়া হলো AUDUSD টেকনিক্যাল অ্যানালাইসিস আমরা ০.৭৫৯৫ রেজিস্ট্যান্স থেকে শুরু করছি। ২০১৮ সালের জুন মাসে ০.৭৫১৩ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করেছিল। পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল ০.৭৩৯২। গত সপ্তাহে ০.৭২৯৪ রেজিস্ট্যান্স হিসেবে কাজ করেছিল। পেয়ারটির বর্তমান সাপোর্ট লেভেল ০.৭২০০। পরবর্তী সাপোর্ট হতে পারে ০.৭০৮৭ এবং ০.৭০০৮। শেষ কথা ফরেক্স বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সপ্তাহে AUDUSD পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, করোনাভাইরাসের আর্থিক প্যাকেজ নিয়ে মার্কিন রাজনৈতিক দলগুলোর উত্তেজনা বৃদ্ধি পেতে পারে। এর ফলে পেয়ারটির প্রাইস বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।
  1. Load more activity

বিডিপিপস চ্যাট রুম

বিডিপিপস চ্যাট রুম

    চ্যাট করতে লগিন বা রেজিস্ট্রেশন করুন।
    ×
    ×
    • Create New...