Jump to content

ফোরাম ফিড

This stream auto-updates     

  1. Yesterday
  2. ২০শে জানুয়ারী ২০২০ এ ট্রেডিং সময়সূচীর পরিবর্তন প্রিয় ট্রেডারবৃন্দ, আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, মার্টিন লুথার কিং দিবসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জাতীয় ছুটি দিনের কারনে ট্রেডিং এর সময়সূচীর পরিবর্তন করা হয়েছে। ২০ শে জানুয়ারী, ২০২০ এ স্পট মেটালস ট্রেডিং (গোল্ড, সিলভার, এক্সএইউএসডি) যথারীতি সময়ের চেয়ে আগে ট্রেডিং প্লাটফর্ম অনুযায়ী রাত ৮ টায়(+৩) বন্ধ হয়ে যাবে। একই পরিবর্তন ট্রেডিং মেটাল এবং এনার্জি ফিউচারের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। ২০ শে জানুয়ারী ২০২০, শেয়ারে সিএফডি, ফিউচার অ্যাগ্রো এবং ফিউচার গুডস এর ট্রেডিং বন্ধ থাকবে। অন্যান্য আর্থিক উপকরণগুলির ট্রেডিং সময় অপরিবর্তিত থাকবে। তবে, এই সময়ের মার্কেটে কম লিকুইডিটি থাকতে পারে। আপনার যদি কোনও প্রশ্ন থাকে তবে আমাদের কাস্টমার সাপোর্ট সার্ভিসে যোগাযোগ করতে দ্বিধা করবেন না। শুভেচ্ছান্তে, ইন্সটাফরেক্স বিস্তারিতঃ http://bit.ly/2tzCHG1
  3. মধ্য প্রাশ্চ্যের উত্তেজনা কিছুটা প্রশমিত হয়েছে।গত সপ্তাহে বানিজ্য আলোচনা এবং যুক্তরাষ্ট্র কনজিউমার রিপোর্ট ডলারকে প্রভাবিত করেছিল।পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো এ সপ্তাহে ইউরোজোন,জাপান এবং কানাডার রেট ডিসিশন রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টগুলো সংক্ষেপে আলোচনা করা হলো। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের GDP পরিসংখ্যান পাউন্ডকে ডাউনট্রেন্ডে রেখেছিল। তবে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড ইন্টারেস্ট রেট বাড়াতে পারে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। ১.Japan Rate Decision মঙ্গলবার, গত মিটিংয়ে ব্যাংক অব জাপান রেট ডিসিশনে ০.১%- এ অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এবারও ব্যাংক অব জাপান ডভিশ অবস্থানে থাকতে পারে। এর ফলে ইয়েনের প্রাইস কমতে পারে। ২.UK Jobs Report মঙ্গলবার, বিকাল ০৩:৩০। ৩০ জানুয়ারি ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের রেট ডিসিশনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বাড়ছে।সেহেতু নভেম্বরে যুক্তরাজ্যের লেবার মার্কেট ভাল করতে পারে। অক্টোবরে যুক্তরাজ্যে বেকারত্বের হার ছিল ৩.৮%।প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ওয়েজ (বেতন) বেড়ে ৩.২% আসতে পারে। জুলাই মাসের ৩.৯% পরবর্তীতে এটা সর্বোচ্চ লেভেল হতে পারে। ৩.German ZEW Economic Sentiment মঙ্গলবার,বিকাল ০৪:০০। গত কয়েক মাস জার্মান ZEW ইকোনমিক সেন্টিমেন্ট খারাপ অবস্থানে রয়েছে। তবে ৩০০ অ্যানালাইসিস্টদের একটি গবেষণা থেকে বলা হয়েছে। এবারের রিপোর্টে এ সেক্টরটি থেকে ১০.৭ স্কোর আসতে পারে। এটা গত চার মাসের সর্বোচ্চ লেভেল হতে পারে। কনজিউমার কনফিডেন্স ইসিবির উপর নির্ভর করে কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। ৪.Canada Rate Decision বুধবার, রাত ০৯:০০। ২০১৯ সালে কানাডা সমস্ত বছর জুড়েই ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। তবে ২০২০ সালের প্রথম রেট ডিসিশনে ব্যাংক অব কানাডার অবস্থান কি হবে সেটা দেখার বিষয়। ৫.Australian Jobs Report বৃহস্পতিবার, ভোর ০৫:৩০।অক্টোবরে অস্টেলিয়ান লেবার মার্কেট খারাপ করার পর, নভেম্বরে রিবাউন্ড করে ইকোনমিতে ৩৯ হাজার ৯০০ জব যোগ হয়েছিল। বেকারত্বের হার ৫.৩% থেকে কমে ৫.২% এসেছে। তবে বেকারত্বের হার ব্যাংক অব ইংল্যান্ড নির্ধারিত ৫% এর ‍উপরে ছিল। এবারের রিপোর্টে কি আসে সেটা দেখার বিষয়। ৬.Eurozone Rate Decision বৃহস্পতিবার,সন্ধ্যা ০৬:৪৫। কনফারেন্স হবে ০৭:৩০।প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ইসিবি ইন্টারেস্ট গতবারের মতো অপরিবর্তনীয় রাখতে পারে। তবে প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লেগার্ডের কনফারেন্স ইউরোকে প্রভাবিত করতে পারে। ৭.Eurozone Falsh PMIs শুক্রবার, ফ্রান্স দুপুর ০২:১৫, জার্মান ০২:৩০ এবং ইউরোজোন ০৩:০০। ইউরোজোন পিএমআই ফরেক্স মার্কেটের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। জার্মান মেনুফেকচারিং সেক্টরটিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। গত রিপোর্টে জার্মান মেনুফেকচারিং পিএমআই থেকে ৪৩.৭ পয়েন্ট এসেছিল। গতবারের থেকে এবার কিছুটা ভাল আসতে পারে।তবে এটা ৫০ পয়েন্টের নিচে হবে। ৮.UK Flash PMIs শুক্রবার,বিকাল ০৩:৩০। গত ‍রিপোর্টে যুক্তরাজ্যের মেনুফেকচারিং সেক্টর ৫০ পয়েন্টের নিচে ছিল এবং সার্ভিস সেক্টর থেকে ৫০ পয়েন্ট এসেছিল। যা সংকোচন এবং সম্প্রসারণের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করছে।
  4. মধ্য প্রাশ্চ্যের উত্তেজনা কিছুটা প্রশমিত হয়েছে।গত সপ্তাহে বানিজ্য আলোচনা এবং যুক্তরাষ্ট্র কনজিউমার রিপোর্ট ডলারকে প্রভাবিত করেছিল।পেয়ারটিকে প্রভাবিত করার মতো এ সপ্তাহে ইউরোজোন,জাপান এবং কানাডার রেট ডিসিশন রয়েছে। এখানে এ সপ্তাহের গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্টগুলো সংক্ষেপে আলোচনা করা হলো। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের GDP পরিসংখ্যান পাউন্ডকে ডাউনট্রেন্ডে রেখেছিল। তবে ব্যাংক অব ইংল্যান্ড ইন্টারেস্ট রেট বাড়াতে পারে এমন ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। ১.Japan Rate Decision মঙ্গলবার, গত মিটিংয়ে ব্যাংক অব জাপান রেট ডিসিশনে ০.১%- এ অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এবারও ব্যাংক অব জাপান ডভিশ অবস্থানে থাকতে পারে। এর ফলে ইয়েনের প্রাইস কমতে পারে। ২.UK Jobs Report মঙ্গলবার, বিকাল ০৩:৩০। ৩০ জানুয়ারি ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের রেট ডিসিশনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বাড়ছে।সেহেতু নভেম্বরে যুক্তরাজ্যের লেবার মার্কেট ভাল করতে পারে। অক্টোবরে যুক্তরাজ্যে বেকারত্বের হার ছিল ৩.৮%।প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ওয়েজ (বেতন) বেড়ে ৩.২% আসতে পারে। জুলাই মাসের ৩.৯% পরবর্তীতে এটা সর্বোচ্চ লেভেল হতে পারে। ৩.German ZEW Economic Sentiment মঙ্গলবার,বিকাল ০৪:০০। গত কয়েক মাস জার্মান ZEW ইকোনমিক সেন্টিমেন্ট খারাপ অবস্থানে রয়েছে। তবে ৩০০ অ্যানালাইসিস্টদের একটি গবেষণা থেকে বলা হয়েছে। এবারের রিপোর্টে এ সেক্টরটি থেকে ১০.৭ স্কোর আসতে পারে। এটা গত চার মাসের সর্বোচ্চ লেভেল হতে পারে। কনজিউমার কনফিডেন্স ইসিবির উপর নির্ভর করে কিছুটা পরিবর্তন হতে পারে। ৪.Canada Rate Decision বুধবার, রাত ০৯:০০। ২০১৯ সালে কানাডা সমস্ত বছর জুড়েই ইন্টারেস্ট রেট অপরিবর্তনীয় রেখেছিল। তবে ২০২০ সালের প্রথম রেট ডিসিশনে ব্যাংক অব কানাডার অবস্থান কি হবে সেটা দেখার বিষয়। ৫.Australian Jobs Report বৃহস্পতিবার, ভোর ০৫:৩০।অক্টোবরে অস্টেলিয়ান লেবার মার্কেট খারাপ করার পর, নভেম্বরে রিবাউন্ড করে ইকোনমিতে ৩৯ হাজার ৯০০ জব যোগ হয়েছিল। বেকারত্বের হার ৫.৩% থেকে কমে ৫.২% এসেছে। তবে বেকারত্বের হার ব্যাংক অব ইংল্যান্ড নির্ধারিত ৫% এর ‍উপরে ছিল। এবারের রিপোর্টে কি আসে সেটা দেখার বিষয়। ৬.Eurozone Rate Decision বৃহস্পতিবার,সন্ধ্যা ০৬:৪৫। কনফারেন্স হবে ০৭:৩০।প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ইসিবি ইন্টারেস্ট গতবারের মতো অপরিবর্তনীয় রাখতে পারে। তবে প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লেগার্ডের কনফারেন্স ইউরোকে প্রভাবিত করতে পারে। ৭.Eurozone Falsh PMIs শুক্রবার, ফ্রান্স দুপুর ০২:১৫, জার্মান ০২:৩০ এবং ইউরোজোন ০৩:০০। ইউরোজোন পিএমআই ফরেক্স মার্কেটের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ। জার্মান মেনুফেকচারিং সেক্টরটিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। গত রিপোর্টে জার্মান মেনুফেকচারিং পিএমআই থেকে ৪৩.৭ পয়েন্ট এসেছিল। গতবারের থেকে এবার কিছুটা ভাল আসতে পারে।তবে এটা ৫০ পয়েন্টের নিচে হবে। ৮.UK Flash PMIs শুক্রবার,বিকাল ০৩:৩০। গত ‍রিপোর্টে যুক্তরাজ্যের মেনুফেকচারিং সেক্টর ৫০ পয়েন্টের নিচে ছিল এবং সার্ভিস সেক্টর থেকে ৫০ পয়েন্ট এসেছিল। যা সংকোচন এবং সম্প্রসারণের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করছে।
  5. may i use skrill to trade forex? how can i buy some skrill dollar? please somebody answer me!
  6. Last week
  7. Market Analysis and News.

    Date : 17th January 2020. Positive bias on the back of US & Chinese Data 17th January 2020. Positive bias on the back of US & Chinese Data – Sentiment was supported by robust US retail sales on Thursday, ongoing good will following the Phase One trade deal and good earnings data, despite the slowdown of Chinese GDP growth to the lowest in 29 years. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  8. পেয়ারটি ১.৩০০০ প্রাইসের উপরে ট্রেডিং করছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য চুক্তির স্বাক্ষরতা নিয়ে নতুন উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে মার্কিন ডলার দুর্বল হচ্ছে, অপরদিকে পাউন্ডের প্রাইস বাড়ছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১.৩০০০ প্রাইসের উপরে ট্রেডিং করছে। ২০০ ঘন্টার SMA অনুযায়ী, পেয়ারটির পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল হতে পারে ১.৩১০০। পেয়ারটির আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে ১.৩১৬৫ থেকে ৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে আসতে পারে। অপরদিকে পেয়ারটির প্রাইস কমতে শুরু হলে ১.২৯৯০ থেকে ৮৫ সাপোর্ট লেভেলে আসতে পারে। পেয়ারটি ১.২৯৯০-৮৫ সাপোর্ট লেভেল অতিক্রম করতে সক্ষম হলে ১.২৯০০ লেভেলে আসতে পারে। সন্ধ্যা ০৭:৩০ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলস রিপোর্টের দিকে নজর রাখা প্রয়োজন। রিপোর্টটিকে কেন্দ্র করে মার্কেটে মুভমেন্ট বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।
  9. আজ সন্ধ্যা ০৬:৩০ মি: ইসিবি ইভেন্ট রয়েছে। মিনিংয়ে ইউরোপিয়ান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গর্ভনর ক্রিস্টিন লেগার্ড আলোচনা করবেন। ইউরোজোনের পরবর্তী ইকোনমিক পদক্ষেপগুলো কি হবে এ সম্পর্কে আলোচনা করা হবে। মিটিংয়ে ডভিশ মন্তব্য করা হলে পেয়ারটির প্রাইস কমার সম্ভাবনা রয়েছে। অপরদিকে পজিটিভ মন্তব্য করা হলে পেয়ারটির প্রাইস বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও আজ সন্ধ্যা ০৭:৩০ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলস রিপোর্ট রয়েছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে,এবার রিটেইল সেলস প্রত্যাশার তুলনায় ভাল আসতে পারে। নভেম্বরে রিটেইল সেলস শতকরা ০.২% বেড়েছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ডিসেম্বরে শতকরা ০.৩% বাড়তে পারে। নভেম্বরে কোর রিটেইলস সেলস শতকরা ০.১% বেড়েছিল। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ডিসেম্বরে বেড়ে ০.৫% আসতে পারে। ইউরো/ডলার পেয়ারটির ক্ষেত্রে আজকের মূল ইভেন্ট যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলস রিপোর্ট। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, ইভেন্টটি ভাল আসতে পারে। যার ফলে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইউরোর প্রাইস বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে মার্কেটে মুভমেন্ট সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পেয়ারটি বর্তমানে ১.১১৫৮ প্রাইসে অবস্থান করছে। ইউরো/ডলার আপট্রেন্ড অব্যাহত থাকলে পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল হতে পারে ১.১১৬৫। পেয়ারটির আপট্রেন্ড দীর্ঘস্থায়ী হলে যথাক্রমে ১.১২০৫,১.১২৩০ এবং ১.১২৪০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে আসতে পারে। অপরদিকে পেয়ারটি ডাউনট্রেন্ডে আসলে ১.১১৪৫ সাপোর্ট লেভেলে আসতে পারে। ১.১১৬৫ সাপোর্ট লেভেলকে অতিক্রম করতে সক্ষম হলে পরবর্তীতে ১.১১২৫ সাপোর্ট লেভেলে আসতে পারে। পেয়ারটির পরবর্তী সাপোর্ট লেভেলগুলো হতে পারে যথাক্রমে ১.১১০৫ এবং ১.১০৮৫ সাপোর্ট লেভেলে।
  10. Market Analysis and News.

    Date : 16th January 2020. Narrow US trade gap in Q4 – Its meaning and what to expect in 2020? 16th January 2020. A drop in the bilateral trade deficit between the US and China in Q4 sharply understates the underlying improvement, thanks to a powerful seasonal pattern in goods trade between the two countries that bloated the Q4 deficit. A plunge is anticipated in the gap to a February trough that should mark the narrowest deficit since 2013. Though the overall US trade gap will widen in 2020 if the economy grows, phase-one agreement will be followed by news over the coming three months of a collapsing US-China trade deficit. The US-China trade deficit for goods narrowed sharply last winter to just $20.7 bln in March of 2019 from a peak of $43.1 bln in October of 2018, with a gyration that was exacerbated by tariff front running. The seasonal widening into Q4 of 2019 failed to occur, while a seasonal narrowing is expected into the Lunar New Year that should prompt a February goods deficit in the $20 bln area — less than half of the peak just 16 months earlier. The seasonal pattern is mostly driven by the US import data from China. The unusually large gyration in 2018 was due to tariff front running, which pulled imports ahead into Q4 from Q1. Goods imports appeared to resume their seasonal climb until they reached a $41.5 bln level in July of 2019, leaving an -11.9% shortfall from July of 2018. From their, the seasonal climb oddly ended, and imports fell to just $36.5 bln in November to leave a y/y drop of an enormous -21.6%. If the seasonal drop now unfolds, imports from China should fall to the $28 bln area by February. The drop will be exacerbated this year by a relatively early Lunar New Year date of January 25. The seasonal pattern for imports has been quite stable over the years, until the big deviation in the pattern in 2019, which suggests that the atypical seasonal behavior this year is due to the “trade war.” The seasonal pattern is less stable, and less pronounced, for US goods exports to China, and the pattern of US exports has been fairly erratic over the last year. The dominant pattern over the past two years has been a drop in US exports to China between the start of the “trade war” in early 2018 to a trough in January of 2019, before largely stabilizing since then.The fact that Chinese policymakers cut all unnecessary trade with the US over this period, leaves little room for further cuts through 2019 and into 2020. Beyond the “trade war,” there have been two other major patterns in the US trade data that will likely have the effect of narrowing the US-China bilateral trade deficit over the coming year. One is the depressing effect on US exports from the 737 MAX grounding since March of 2019, leaving a likely dramatic rebound over the year following the lifting of the FAA ban presumably later this year. The other major pattern is the steep climb in US exports of petroleum products, as the Permian Basin is rapidly transforming into a major export center thanks to ongoing innovations in pressurized and lateral drilling. The seasonal patterns are expected to allow a deficit to return for the last time between December and April, before the US becomes a “permanent” net petroleum exporter. China is dependent on petroleum imports, and hence it is anticipated that US exporters capture more of this market over the coming years, especially given that the phase-one deal involves a shift in Chinese purchases toward US commodities. The combination of a narrowing US-China trade deficit, strength in US exports of petroleum-related products, and an assumed Boeing-led surge in capital goods exports at some point this year, may all suggest a narrowing US trade gap. Hence to be sure, as the trade gap declined to the lowest during Donald Trump presidency, will add to GDP if not in the long term definitely in the near term, possible during February-March with help from the Chinese New Year and Phase-1 deal. Overall however, a US GDP growth out-performance versus other countries in 2020 is anticipated, and a firm Dollar with strong capital account inflows, that should fuel a widening trade deficit through the year despite the narrowing bilateral gap with China. Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Andria Pichidi Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  11. চীন এর ব্যাংক ঋণ ডিসেম্বর মাসে কমেছে! আজ বৃহস্পতিবার চীনের পিপলস ব্যাংক থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে জানা যায় ডিসেম্বর মাসে চীনের ব্যাংক ঋণ প্রত্যাশার চেয়ে অনেক বেশি হ্রাস পেয়েছে। নভেম্বর মাসে সিএনওয়াইয়ের 1.39 ট্রিলিয়ন ঋণ এর তুলনায় ব্যাংকগুলি ডিসেম্বরে সিএনওয়াইকে 1.14 ট্রিলিয়ন ঋণ বাড়িয়েছে। এটি CNY 1.2 ট্রিলিয়ন পূর্বাভাসের নীচে ছিল। ইতিমধ্যে, মোট সামাজিক অর্থায়ন, অর্থনীতির ঋণ এবং লিকুইড্যি অনেক বেশি হয়েছে সিএনওয়াই ২.১ ট্রিলিয়ন হয়ে দাঁড়িয়েছে, যা সিএনওয়াইয়ের 1.7 ট্রিলিয়ন এর প্রত্যাশা ছাড়িয়ে গেছে। ইকোনমিক নিউজগুলো পেতে ভিজিট করুন: tiny.cc/o9o5hz
  12. EUR/USD পেয়ারটির সাপোর্ট উঠানামা করছে, আরো বৃদ্ধি পাবার সম্ভাবনা (১৬ই জানুয়ারী, ২০২০) এনালাইসিসটি তৈরী করেছেন ইন্সটা ফরেক্স টিমের এনালিটিক্যাল এক্সপার্ট ডিন লিও Dean Leo ট্রেডিং এর পরামর্শ এন্ট্রি: 1.10785 অনুভূমিক সুইংয়ের কম সাপোর্টে এন্ট্রি, 61.8% ফাইবোনাকি রিট্রেসমেন্ট টেক প্রফিট: 1.12465 টেক প্রফিট দেবার কারণ: .6 78..6% ফিবোনাচি রিট্রেসমেন্ট, .6 78..6% ফিবোনাচি এক্সটেনশন, অনুভূমিক সুইং উচ্চ প্রতিরোধের স্টপ লস: 1.10700 স্টপ লস দেবার কারণ: অনুভূমিক সুইং কম সাপোর্ট, 78.6% ফিবোনাচি রিট্রেসমেন্ট আরো ফরেক্স বিশ্লেষন দেখুন: tiny.cc/9n8riz মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না।
  13. GBP/USD এর IPDA প্রজেকশন HOD/LOD বৃহস্পতিবার ১৬ জানুয়ারীর ২০২০ দিনের সর্বচ্চো (HOD) এবং দিনের সর্বনিম্ম (LOD) নির্ভর করে IPDA (Interbank Price Delivery Algoryhtm) CBDR (Central Bank Dealer Range) সাধারণত STDV 2-STDV 4 সাধারণ অবস্থায় গঠিত হয় হয় কখনও কখনও STDV 5-STDV 6. তে পৌঁছতে পারে। এখানে আজকের জন্য লেভেল দেওয়া হল: STDV 10 - 1.3280. STDV 9 - 1.3257. STDV 8 - 1.3234. STDV 7 - 1.3211. STDV 6 - 1.3188. STDV 5 - 1.3165. STDV 4 - 1.3142. STDV 3 - 1.3119. STDV 2 - 1.3096. STDV 1 - 1.3073. CBDR - 1.3050. CBDR - 1.3027. STDV 1 - 1.3004. STDV 2 - 1.2981. STDV 3 - 1.2958. STDV 4 - 1.2953. STDV 5 - 1.2912. STDV 6 - 1.2889. STDV 7 - 1.2866. STDV 8 - 1.2843. STDV 9 - 1.2820. STDV 10 - 1.2797. *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট করুন
  14. EURUSD সিগন্যাল পেয়ারটির ১.১১৪০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একটি নিন্মমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে বা ১.১১৬৩ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে ব্রেক হতে পারে। সেক্ষেত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.১১৪০, ১.১১২৫, ১.১১০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১১৬৩, ১.১১৭৫, ১.১১৯৬ টেক প্রফিট: ১.১১৭৫,১.১১৯৬ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ সপ্তাহ) ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। মার্কেটের ১.১১৫০ বাই এন্ট্রি দেওয়া হয়েছে। পেয়ারটি ১.১১০০ প্রাইস লেভেল ভেঙ্গে নিচে নামলে বুলিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। সাপোর্ট লেভেল: ১.১১০০,১.১০৭০,১.১০২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.১১৭০,১.১২১০,১.১২৭০ বাই এন্ট্রি: ১.১১৫০ স্টপ লস: ১.১১০০ ট্রেডের সম্ভাবনা: মাঝারি টেক প্রফিট: ১.১১৭০,১.১২১০ GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) পেয়ারটি ১.৩০২০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একটি নিন্মমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.৩০২০,১.২৯৯০,১.২৯৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০৭০,১.৩১০০,১.৩১৪০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ সপ্তাহ) মার্কেট ১.৩০৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে টেস্টিং করছে। আমরা সেল পজিশন নেওয়ার জন্য কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি বা ১.২৯৫০ সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক হতে পারে। পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১.৩১৪০। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৯৫০,১.২৮৯০,১.২৭৯০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০৭০,১.৩১৪০,১.৩২৭০ টেক প্রফিট: ১.২৮৯০,১.২৭৯০
  15. জার্মান মুদ্রাস্ফীতি ডাটা প্রকাশের পরে ইউরোর আংশিক পরিবর্তন বৃহস্পতিবার ET সময় 2.00 am, ডেস্টাটিস অক্টোবরের জার্মান চূড়ান্ত মুদ্রাস্ফীতি এর রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। এই তথ্য পরে, ইউরো তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী মুদ্রাগুলোর বিপরিতে আংশিক পরিবর্তন হয়েছে। ET সময় 2:03 am, তে ইউরোর বিপরীতে ইয়েনের বিপরীতে 122.63, ফ্রাঙ্কের বিপরীতে 1.0757, পাউন্ডের বিপরীতে 0.8550 এবং ডলারের বিপরীতে ছিল 1.1152 । আরো ফরেক্স সংবাদঃ
  16. AUDUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ ঘন্টার) চার্টের সিগন্যাল (পরবর্তী ৩ দিন) পেয়ারটি ০.৬৮৯০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একটি নিন্মমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে বা ০.৬৯২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে ব্রেক হতে পারবো। সেক্ষত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ০.৬৮৯০,০.৬৮৮০,০.৬৮৬৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ০.৬৯২০,০.৬৯৩০,০.৬৯৪৫ টেক প্রফিট: ০.৬৯৩০,০.৬৯৪৫ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার) চার্টের সিগন্যাল (পরবর্তী ৩ দিন) মার্কেট আপট্রেন্ডে রয়েছে। আমরা বাই পজিশন নেওয়ার জন্য ০.৬৯২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের উপর কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি। পেয়ারটি ০.৬৮৭৫ প্রাইস লেভেল ভেঙ্গে উপরে উঠলে বুলিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে। সেক্ষেত্রে সেল পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ০.৬৮৭৫,০.৬৮৫০,০.৬৮১০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ০.৬৯২০,০.৬৯৪৫,০.৬৯৮৫ বাই এন্ট্রি: ০.৬৯২০ স্টপ লস: ০.৬৯৮৫ ট্রেডের সম্ভাবনা: মাঝারি টেক প্রফিট: ০.৬৯৪৫,০.৬৯৮৫ USDJPY সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ ঘন্টার) চার্টের সিগন্যাল (পরবর্তী ৩ দিন) পেয়ারটি ১১০.০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে টেস্টিং করছে। আমরা সেল পজিশন নেওয়ার জন্য কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি বা ১০৯.৭৮ সাপোর্ট লেভেলে ব্রেক হতে পারে। পরবর্তী গুরুত্বপূর্ণ রেজিস্ট্যান্স লেভেল ১১০.১৫। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১০৯.৭৮,১০৯.৬৫,১০৯.৪৫ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১১০.০০,১১০.১৫,১১০.৩৫ টেক প্রফিট: ১০৯.৬৫,১০৯.৪৫ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার) চার্টের সিগন্যাল (পরবর্তী ৩ দিন) মার্কেট ২য় টেক প্রফিটে পৌঁছেছে। আমরা পরবর্তী সুযোগের অপেক্ষা করছি।পেয়ারটি ১০৯.৫০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একটি ন্ন্মিমূখী প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১০৯.৫০,১০৯.১০,১০৮.৫০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১১০.২০,১১০.৫০,১১১.১০
  17. যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের বানিজ্য আলোচনার আশাবাদকে কেন্দ্র করে USDJPY পেয়ারটির প্রাইস আপট্রেন্ডে রয়েছে। পেয়ারটির বর্তমান ফোকাস যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলস রিপোর্ট। USDJPY গতকাল ডাউনট্রেন্ডে থাকলেও আজ পেয়ারটি আপট্রেন্ডে রয়েছে। বর্তমানে পেয়ারটি ১১০.০০ প্রাইসের নিচে অবস্থান করছে। আজ সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলস রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, গতবারের রিপোর্টের তুলনায় এবার রিটেইল সেলস রিপোর্ট ভাল হতে পারে। এর ফলে USDJPY পেয়ারটির প্রাইস বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে পেয়ারটি ১১০.০০ প্রাইসকে অতিক্রম করতে পারে। পেয়ারটির ক্ষেত্রে বর্তমানে ১০৯.৮২ গুরুত্বপূর্ণ একটি সাপোর্ট লেভেল হিসেবে কাজ করতে পারে। পেয়ারটি ১০৯.৮২ প্রাইসকে অতিক্রম করতে সক্ষম হলে পেয়ারটি প্রাইস আরও কমতে পারে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের রিটেইল সেলসকে কেন্দ্র করে প্রত্যাশা করা হচ্ছে, পেয়ারটির আপটেন্ডে থাকতে পারে। সুতরাং পেয়ারটির ক্ষেত্রে বাই এন্ট্রি নেওয়া যেতে পারে
  18. কমার্জব্যাংক অ্যানালাইসিস্ট কারেন জনের মতে, ইউরো/ডলার সীমিত পরিসরে রিকভারের চেষ্টা করছে। গতকাল ইউরো/ডলার সর্বোচ্চ ১.১১৬২ প্রাইসে উঠলেও পরবর্তীতে পেয়ারটির প্রাইস কমে ১.১১২৫-তে এসেছিল। আজকের সেশনে পেয়ারটি ১.১১২৫ প্রাইসে ওপেন হয়েছে। তবে পেয়ারটির প্রাইস বেড়ে ১.১১৫৪ তে- অবস্থান করছে। সেক্ষেত্রে ১.১১৯০ গুরুত্বপূর্ণ একটি রেজিস্ট্যান্স লেভেল হিসেবে কাজ করেতে পারে। তবে পেয়ারটি ১.১১৯০ প্রাইসকে অতিক্রম করতে সক্ষম হলে পরবর্তী রেজিস্ট্যান্স লেভেল হতে পারে ১.১২৪০। অপরদিকে পেয়ারটির প্রাইস কমলে ১.১১৪০ গুরুত্বপূর্ একটি সাপোর্ট লেভেল হিসেবে কাজ করতে পারে। পেয়ারটি ১.১১৪০ এর নিচে নামলে পেয়ারটির ডাউনট্রেন্ড বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, বর্তমানে পেয়ারটির প্রাইস বাড়তে পারে এবং ১.১১৯০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলে যেতে পারে। সুতরাং ট্রেডারদের ১.১১৯০ রেজিস্ট্যান্স এবং ১.১১৪০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে খেয়াল রাখা প্রয়োজন। কারণ লেভেল দুটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ।
  19. ইন্সটাফরেক্সের নিয়মিত কনটেস্ট এর রেজাল্ট! আপনাদের সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা! 2019 সালটি বেশ ভাল এবং সফল একটি বছর ছিল। যদিও আমরা আশা করি যে নতুন 2020 সালেও এই খুশি বজায় থাকতে পারে এবং আপনি যদি আরও বেশি আকর্ষণীয় ইভেন্টগুলোতে যোগ দিন এবং ভাগ্য ফেরাতে পারেন! আমরা আশা করি যে আপনি আমাদের সাথেই থাকবেন এবং আমাদের আরো চমৎকার সব প্রতিযোগিতা সঙ্গে আপনি খুশি বজায় থাকবে! আজ আমরা ইন্সটাফরেক্স প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের নাম দেব - #সর্বাধিক নির্ভুলতার জন্য ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার , #সর্বাধিক দ্রুততার জন্য এফএক্স ওয়ান র‌্যালি , #সর্বাধিক জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে ওয়ান মিলিয়ন অপশন এবং #সর্বাধিক সক্রিয় ট্রেডারদের জন্য রিয়েল স্কালপিং। এছাড়া আমরা লাকি ট্রেডার , ইন্সটাফরেক্স গ্রেট রেসঃ ও চ্যান্সি ডিপোজিট এর বিজয়ীদের নাম ঘোষনা দিব। আমরা আমাদের বিজয়ীদের অভিনন্দন জানাই, বিজয় হবার জন্য উৎসুকদের স্বাগত জানাই এবং পরবর্তী রাউন্ডে সকল অংশগ্রহণকারীদের সুন্দর একটি ভাগ্য কামনা করছি! চ্যান্সি ডিপোজিটঃ প্রতিমাসেই এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।গত মাসে এলোমেলোভাবে সিস্টেম দ্বারা ভাগ্যবান বিজয়ী নির্ধারিত করা হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে আলজেরিয়া থেকে তোয়াদবেনলাহসিন এই পুরষ্কারটির মালিক হয়েছেন। আমরা বিজয়ীকে অভিনন্দন জানাই এবং তার নতুন নতুন বিজয়ের কামনা করছি! প্রচারের শর্তগুলি পাইয়ের মতো সহজ। আপনার কেবলমাত্র নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়ে ডিপোজিট করা এবং রুটিন মাফিক আপনাদের ট্রেডিং চালিয়ে যাওয়া। যাইহোক, আগামীবারের ভাগ্য আপনার দিকেও হাসতে পারে এবং আপনিও একজন ভাগ্যবান বিজয়ী হয়ে উঠতে পারেন! প্রতি মাসে ড্র এর পরিমাণ পরিবর্তিত হয়, সুতরাং একটি ভাল পরিমাণ অর্থ পাওয়ার জন্য আপনি এই সুযোগটি হাতছাড়া করবেন না। ইন্সটাফরেক্স স্নাইপারঃ সবচেয়ে দ্রুত এবং দক্ষ ট্রেডাররা ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে থাকে। গত মাসে মিশরের ট্রেডার নষ্টকল্থ নাগলা এল্ডাসৌকি মন্সুর রেজকে সবাইকে ছাড়িয়ে সেরা ফলাফল দেখিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আমরা এই বিজয়ীকে অভিনন্দন জানাই। পরবর্তি পর্বে নিবন্ধন করতে দেরী না করে এখনি নিবন্ধন করুন! পরবর্তী ইন্সটাফরেক্স স্নাইপার প্রতিযোগিতাটি ২০শে জানুয়ারী, ২০২০ থেকে শুরু হয়ে ২৪ শে জানুয়ারী ২০২০ পর্যন্ত চলবে। ওয়ান মিলিয়ন অপশনঃ ইন্সটাফরেক্সে ব্রেকারে ওয়ান মিলিয়ন কনটেস্টটি সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। তাই অসংখ্য ট্রেডার এই কনটেস্ট এ অংশগ্রহন করে, যার মধ্যে এবারের পর্বে ইউক্রেনের সের্গেই ওলেগোভিচ লেভিটস্কি প্রত্যেকটি ধাপে অসংখ্য অংশগ্রহণকারীকে পেছেনে ফেলে সেরা অপশন ট্রেডারের মুকুট পেয়েছেন। আমরা তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং তার সৌভাগ্য কামনা করছি। এছাড়াও আপনাদের মনে করে দিতে চাই পরর্বতী ধাপের প্রতিযোগিতাটি ১৩ই জানুয়ারী, ২০২০ থেকে শুরু হয়ে ১৭ই জানুয়ারী ২০২০ পর্যন্ত চলবে। এফএক্স ওয়ান র‌্যালি সম্প্রতি বেলারুশ থেকে ভিক্টর ভাতস্লাভোভিহ আইজমন্ত ও কাজাখস্তান থেকে আন্ড্রেই ভ্লাদিমিরোভিচ স্টারোস্টিন তাদের সেরা পারফরম্যান্স দেখিয় সাম্প্রতিক কনটেস্ট এ জয়লাভ করেছেন। ইন্সটাফরেক্স এই বিজয়ীকে তার চমৎকার নৈপুন্য দেখানোর জন্য অভিনন্দন জানায় এবং FX-1 র‌্যালি পরবর্তী ধাপে জন্য তার সাফল্য আশা করছে। যদি আপনিও এই রোমাঞ্চপূর্ণ রেসেও অংশ নিতে চান, তাহলে FX-1 র‌্যালির নতুন পর্বে অংশগ্রহন করুন! আপনি পরবর্তি FX-1 র‌্যালিতে নিবন্ধন করতে পারেন যা প্রতি শুক্রবার হয়ে থাকে, ফলে আগামী ১৭ই জানুয়ারী ২০২০ ০০:০০ সময় থেকে শুরু করে ২৩:৫৯ সময় পর্যন্ত চলবে। লাকি ট্রেডার আত্মবিশ্বাস, দূরদর্শিতা এবং মনোযোগ হল লাকি ট্রেডার ম্যারাথন জয় করার চাবিকাঠি। যদি আপনি দুই সপ্তাহ ব্যাপী কোন ট্রেড পুরোপুরি নিখুঁতভাবে পরিচালনা করেন তাহলে আপনি পরবর্তী লাকি ট্রেডার বিজয়ী হতে পারবেন, যা সম্প্রতি প্যালেস্তাইন থেকে ইহাব ওমর আলশাওয়া করে দেখিয়েছেন। তিনি তার চমৎকার ট্রেডিং ফর্ম দেখিয়েছেন এবং শত শত প্রতিযোগীদের মধ্যে সেরা ফলাফল অর্জন করেছেন। সেজন্য আমরা তাকে নতুন লাকি ট্রেডার এর বিজয়ী হিসাবে আন্তরিকভাবে অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং পরবর্তি ধাপের প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণের জন্য আমরা অন্যদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। এই লাকি ট্রেডার প্রতিযোগিতাটি ২০শে জানুয়ারী ২০২০ থেকে শুরু করে ৩১শে জানুয়ারী ২০২০ পর্যন্ত চলবে। রিয়েল স্কালপিংঃ রিয়েল স্কালপিং কনটেস্ট এ অংগ্রহনের জন্য তীক্ষ্ণ এবং সতর্ক ট্রেডার হতে যা অল্প সময়ে ট্রেডিং সিদ্ধান্ত নেবার জন্য অনেক বেশি কঠিন এবং বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মনোযোগের সাথে করতে হয়। এতে কোন ভুল করলে বিজয়ী হবার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। এবারের পর্বে রাশিয়া থেকে এনাটোলই আইভানোভিচ ট্রুবিটসিন এই বৈশিষ্ট্যগুলো দেখাতে পেরেছেন এবং উজ্জ্বল স্ক্যাল্পিং দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। ইন্সটাফরেক্স তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছে এবং পরবর্তি পর্বে অংশগ্রহণের জন্য অন্যদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছে। যারা এই চ্যালেঞ্জ গ্রহন করতে চান, অনুগ্রহ করে সাম্প্রতিক রিয়েল স্কালপিং কনটেস্ট এর জন্য নিবন্ধন করুন। পরবর্তী রিয়েল স্কালপিং কনটেস্ট আগামী ২ই ফেব্রুয়ারী ২০২০ থেকে শুরু হয়ে ২৮শে ফেব্রুয়ারী ২০২০ পর্যন্ত হবে।সবারে সৌভাগ্য কামনায় শেষ করছি। ইন্সটাফরেক্স গ্রেট রেসঃ এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে, আপনাকে প্রতিটি পর্যায়ে একটি নতুন ডেমো অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন করতে হবে। আর্থিক পুরষ্কার ছাড়াও, মঞ্চের বিজয়ী বোনাস পয়েন্ট পাবেন যা প্রতিযোগিতার শেষ পর্যায়ে ব্যবহার করতে পারবে। সম্প্রতি রাশিয়া থেকে আলেকজান্ডার ভ্যাসিলিভিচ মাইসিয়েভ ইন্সটাফরেক্স গ্রেট রেস এর বিজয়ী হয়েছেন। আমরা এই পুরস্কারের মালিককে অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং অন্যদের এই প্রতিযোগীয় অংশগ্রহনের জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি, কারণ এই রেস এর পথ অনেক দীর্ঘ, যদিও সবার জন্যই পুরষ্কারটি যথেষ্ট! বিস্তারিত: tiny.cc/q2yriz ইন্সটাফরেক্স এর আরো প্রতিযোগিতায় সম্পর্কে জানুন: tiny.cc/g7yriz বিজয়ীদের ছবি দেখুন: tiny.cc/uazriz
  20. Market Analysis and News.

    Date : 15th January 2020. GOLDMAN SACHS and the 4th Quarter of 2019 15th January 2020. As Earnings season is kicking off again, focus is on the Banks’ reports this week. JP Morgan, City Group and Wells Fargo published their Q4 2019 reports yesterday before the US market open. JP Morgan and City Group beat expectations strongly, whilst Walls Fargo missed and saw its shares falling over 4% right after the report. Today, investors’ attention is on whether Bank of America and GS will follow JP Morgan’s success story. Goldman Sachs is scheduled to release its Q4 and full-year 2019 results before the US market open. In Q3 2019, the bank beat revenue forecasts but missed in earnings, while it posted a decline in Revenue and earnings in comparison with the previous quarter, affected by weakness seen in Investment Banking and Lending. Overall, in the past 2 years it has beaten earning and revenue estimations 88% of the time. GS , in an attempt to improve its profitability and stock performance, has proceeded with several changes and several restructure and expansion plans for the near future and also the next 5 years. One of their latest projects, which was launched in August, was the development of credit cards with Apple, while they also introduced a long-awaited app last week (January 8), which according to Reuters, ” will integrate with the financial giant’s digital bank, Marcus”. Marcus is Goldman Sachs’s consumer banking unit, which was founded by Goldman Sachs in 2016, named after the bank’s founder Marcus Goldman. In the long term meanwhile, GS has focused on its request to the China Securities Regulatory Commission (CSRC). As the China Morning Post stated, GS is one of the US banks which has an official branch in China and has been applying to the China Securities Regulatory Commission (CSRC) since last August to take majority control of its venture known as Goldman Sachs Gao Hua Securities, seeking to raise its stake to 51% from 33%. The hiring push on the mainland is part of the US bank’s new five-year plan in which Chief Executive David Solomon is looking to improve its profitability and share price performance. It will be interesting to see whether all the above expansion plans will affect the bank’s earnings report today, but also how they could expand its wealth management business and broaden its revenue streams in 2020. Zack’s estimates for Q4 Earnings are: EPS Estimate: $5.20 Sales Estimates: Low: 8.70B High: 8.82B Year over Year Growth: 8.37% Earnings Estimates: Low: $4.54 High: $5.42 Year over Year Growth: -13.91% Technical overview: The monthly chart shows the free fall seen on GS shares in 2018 to $151.60 from its all-time high in March 2018 at $275.60. In 2019, shares managed to recover by nearly 78%, as the price moved successfully to $274.64. However, in the Daily chart, momentum indicators suggest that positive bias is starting to lose some ground , with OBV indicator unable to move further to the upside, suggesting nearterm weakness. The asset price is still moving upwards, however it’s moving outside the upper Bollinger Bands area, with RSI crossing above 70, both suggesting that the asset looks overbought. This comes in line with OBV. Hence from a technical perspective a correction could be seen in the medium term as the asset is overbought. From the data perspective, positive bias could theoretically strengthen if the upcoming earnings report beats expectations. Resistance levels: $249, $261, $275 Support levels: $236, $227, $214 Always trade with strict risk management. Your capital is the single most important aspect of your trading business. Please note that times displayed based on local time zone and are from time of writing this report. Click HERE to access the full HotForex Economic calendar. Want to learn to trade and analyse the markets? Join our webinars and get analysis and trading ideas combined with better understanding on how markets work. Click HERE to register for FREE! Click HERE to READ more Market news. Ahura Chalki Regional Market Analyst HotForex Disclaimer: This material is provided as a general marketing communication for information purposes only and does not constitute an independent investment research. Nothing in this communication contains, or should be considered as containing, an investment advice or an investment recommendation or a solicitation for the purpose of buying or selling of any financial instrument. All information provided is gathered from reputable sources and any information containing an indication of past performance is not a guarantee or reliable indicator of future performance. Users acknowledge that any investment in FX and CFDs products is characterized by a certain degree of uncertainty and that any investment of this nature involves a high level of risk for which the users are solely responsible and liable. We assume no liability for any loss arising from any investment made based on the information provided in this communication. This communication must not be reproduced or further distributed without our prior written permission.
  21. Daily Forex News By XtreamForex

    Technical Overview of GBP/USD and EUR/USD Currency Pair. GBP USD GBP traded higher against USD and closed at 1.3017. GBP/USD looks to extend the bounce towards 1.3050 ahead of the UK CPI report, as broad-based US dollar weakness and bullish technical set up underpin the sentiment around the spot. • Flat - closed up 0.2%, as expectations of a Jan BoE cut cooled • Inflation data on today and retail sales Friday will be key for sterling • Despite bounce daily charts are negative, though at low end of recent ranges • Momentum studies, 5, 10 & 21 DMAs head lower and 21 day Bolli bands slip • 1.2900, December low then 1.2887 lower 21 day Bolli band are major support According to the Analysis, pair is expected to find support at 1.2973 and a fall through could take it to the next support level of 1.2954. The pair is expected to find its first resistance at 1.3033, and a rise through could take it to the next resistance level of 1.3052. EUR USD EUR traded higher against USD and closed at 1.1127. • EUR/USD barely moved in Asia trading in a 1.1126/31 range • Most of the action in regionals as USD moved up on Mnuchin comments\ • Resistance at 10-day MA at 1.1140 with option selling ahead of 1.1150 • Large option maturities 1.1100/50 defining recent range • Break above 1.1150 targets 61.8 fibo of 1.1240/1.1085 at 1.1181 • EZ IP later today, but US-China trade deal likely to be main event According to the Analysis, pair is expected to find support at 1.1111 and a fall through could take it to the next support level of 1.1101. The pair is expected to find its first resistance at 1.1141 and a rise through could take it to the next resistance level of 1.1151. Economic events of the Day · USD EIA Crude Oil Stocks Change · USD EIA Cushing Crude Oil Stocks Change · USD FOMC Member Harker Speech More information about the release time of news and its impact visit Economic Calendar Page!
  22. সাপোর্ট থেকে USD/CAD পেয়ার ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় রয়েছে! ট্রেডিংয়ের পরামর্শ এন্ট্রি: 1.30425 এন্ট্রি লেভেল নির্ধারণ করার কারণ: 50% এবং 38.2% ফিবানচি রিট্রাসমেন্ট, গ্রাফিক্যাল সুইং লো টেক প্রফিট : 1.30950 টেক প্রফিট লেভেল নির্ধারণের কারণ: 161.80% ফিবানচি এক্সটেনশন, 61.8% ফিবানচি রিট্রাসমেন্ট, অনুভূমিক সুইং হাই স্টপ লস: 1.30052 স্টপ লস নির্ধারণের কারণ: 78.6% ফিবানচি রিট্রাসমেন্ট *মার্কেট বিশ্লেষণ ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার সচেতনতা বৃদ্ধি করবে, কিন্তু আপনাকে ট্রেডিং সম্পর্কিত নির্দেশ প্রদান করবে না। বিভিন্ন পেয়ারের ফরেক্স আনাল্যসিসগুলো পেতে এই লিঙ্কটি ভিজিট করুন
  23. EURUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট (১ঘন্টার) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন) পেয়ারটি ১.১১২০ রেজিস্ট্যান্স লেভেলের দিকে একটি নিন্মমূখীভাবে প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে।সেক্ষেত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট ঊর্ধ্বভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.১১2০,১.১১০০,১.১০৭০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১১৫০,১.১১৭০,১.১২০০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) ট্রেন্ডের ধরণ : মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। মার্কেট ডাউনট্রেন্ডে রয়েছে।আমরা ১.১০৮০ সাপোর্ট লেভেলে সেল পজিশন নেওয়ার জন্য কিছু সিগন্যালের অপেক্ষা করছি।পেয়ারটি ১.১১৫০ প্রাইস লেভেল ভেঙ্গে উপরে উঠলে বিয়ারিশ ট্রেন্ড পরিবর্তন হতে পারে।সেক্ষেত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। সাপোর্ট লেভেল : ১.১০৮০,১.১০৪৫,১.০৯৯০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.১১৫০,১.১১৭০,১.১২১০ GBPUSD সিগন্যাল ৬০ মিনিট ( ১ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল (পরবর্তী ৩ দিন ) পেয়ারটি ১.৩০০০ সাপোর্ট লেভেলের দিকে একটি নিন্মমূখীভাবে প্রাইস রিট্রেসমেন্টের সম্ভাবনা রয়েছে।সেক্ষেত্রে বাই পজিশন নেওয়া যেতে পারে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট ঊর্ধ্বভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল : ১.৩০০০,১.২৯৬০,১.২৯০০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল : ১.৩০৬০,১.৩১০০,১.৩১৬০ ২৪০ মিনিট (৪ ঘন্টার ) চার্টের সিগনাল ( পরবর্তী ৩ সপ্তাহ ) মার্কেটের পরবর্তী সুযোগের অপেক্ষা করা ভাল হবে। ট্রেন্ডের ধরণ: মার্কেট নিন্মমূখীভাবে শক্তিশালী। সাপোর্ট লেভেল: ১.২৮১০,১.২৯০০,১.২৮১০ রেজিস্ট্যান্স লেভেল: ১.৩০৭০,১.৩১৪০,১.৩২৭০
  1. Load more activity

বিডিপিপস কি এবং কেন?

বিডিপিপস বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অনলাইন ফরেক্স কমিউনিটি এবং বাংলা ফরেক্স স্কুল। প্রথমেই বলে রাখা জরুরি, বিডিপিপস কাউকে ফরেক্স ট্রেডিংয়ে অনুপ্রাণিত করে না। যারা বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, শুধুমাত্র তাদের জন্যই বিডিপিপস একটি আলোচনা এবং অ্যানালাইসিস পোর্টাল। ফরেক্স ট্রেডিং একটি ব্যবসা এবং উচ্চ লিভারেজ নিয়ে ট্রেড করলে তাতে যথেষ্ট ঝুকি রয়েছে। যারা ফরেক্স ট্রেডিংয়ের যাবতীয় ঝুকি সম্পর্কে সচেতন এবং বর্তমানে ফরেক্স ট্রেডিং করছেন, বিডিপিপস শুধুমাত্র তাদের ফরেক্স শেখা এবং উন্নত ট্রেডিংয়ের জন্য সহযোগিতা প্রদান করার চেষ্টা করে।

×